ঘরে বসে লেখালেখি করে আয় করুন ৫টি মাধ্যমে – (ঘরে বসে ইনকাম)

যদি আপনি ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাইছেন তাহলে ঘরে বসে ইনকাম করার একটি দারুন উপায় নিয়ে আজ আমি আপনাদের বলবো। আর ঘরে বসে আয় করার সেই উপায়টি হলো, “ঘরে বসে হাতে লিখে আয় করা” বা “লেখালেখি করে আয় বা ইনকাম করা“.

আজকের এই আধুনিক ও ইন্টারনেটের সময়ে লোকেরা অনলাইনে বিভিন্ন মাধ্যমে ইনকাম করছেন। ইন্টারনেট থেকে প্রতিদিন ১০০০ টাকা ইনকাম করাটাও আজ অনেকের জন্যে অনেক সোজা ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

অনলাইনে ইনকাম করার এই বিভিন্ন মাধ্যম গুলোর মধ্যে লেখালেখি করে ইনকাম করাটাও কিন্তু একটি সাংঘাতিক জনপ্রিয় মাধ্যম। আর, আমি নিচে বাড়িতে বসে কাজ করার যেই উপায় গুলোর বিষয়ে বলবো, সেগুলো সম্পূর্ণ অনলাইন কাজ। 

মানে, যদি আপনার কাছে একটি computer, smartphone বা laptop যেকোনো একটি রয়েছে, তাহলে অবশই, ঘরে বসে হাতে লিখে আয় করার রাস্তা আপনার জন্যে খোলা রয়েছে। 

অনলাইনে লেখালেখি করে আয় করার জন্য আপনাকে কনটেন্ট রাইটিং (content writing) এর বিষয়ে ভালো করে জেনেনিতে হবে। মানে, কিভাবে একটি সেরা আর্টিকেল লিখতে হয়, সেটা জানা দরকার।

চিন্তা করবেননা, আপনি YouTube বা Google এর মধ্যে search করে content writing skills কিছু সময়ের মধ্যেই শিখতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে, কেবল কনটেন্ট রাইটিং এর কাজ করেই হাজার হাজার লোকেরা ঘরে বসেই প্রত্যেক মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছেন। সত্যি বলতে, আমি নিজেই প্রায় ২ বছর ধরে কেবল লেখালেখি করেই ইনকাম করে চলেছি। 

তাই, আপনারাও যদি ঘরে বসে ইনকাম করার এই দারুন সুযোগের লাভ নিতে চাইছেন, তাহলে নিচে সম্পূর্ণ স্পষ্ট করে জেনেনিন যে কিভাবে আপনি কেবল হাতে লিখে টাকা আয় করতে পারবেন। 

ঘরে বসে হাতে লিখে আয় কিভাবে করতে পারবেন ?

অনলাইনে লেখালেখি করে আয়
Earn money online by writing content from home.

দেখুন বন্ধুরা, আপনারা যদি ভাবছেন যে আমি ঘরে বসে অনলাইনে আয় করার এমন একটি উপায় এর বিষয়ে বলবো যেটার মাধ্যমে আপনারা এখনি টাকা আয় করা শুরু করে দিবেন, তাহলে আপনারা ভুল ভাবছেন।

কেননা, যেকোনো একটি কাজ করে টাকা ইনকাম করার জন্য কিছুটা সময়ের প্রয়োজন।

এবং, যদি আপনারা সঠিক ভাবে কিছুটা সময় দিয়ে বাড়িতে বসে কাজ গুলো করতে পারেন, তাহলে অবশই কিছু সময় পর ভালো পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

কেননা, বাড়িতে বসে কাজ করে ইনকাম করার এই উপায় গুলো আজ বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার লোকেরা ব্যবহার করছেন। এবং, প্রায় বেশিরভাগ লোকেরাই ভালো পরিমানের ইনকাম করছেন।  

১. লেখালেখি করে আয় করার ওয়েবসাইট:

বর্তমান সময়ে, অনলাইনে লেখালেখি করে আয় করার সব থেকে সেরা উপায় গুলির মধ্যে একটি হলো, নানান কনটেন্ট রাইটিং ওয়েবসাইট গুলি।

ইন্টারনেটে এমন প্রচুর blogs/website গুলি আপনারা পাবেন, যেগুলিতে আর্টিকেল লেখার জন্য আমাদের টাকা দেওয়া হয়।

এমনিতে, ওয়েবসাইট গুলির থেকে তুলনামূলকভাবে অনেক কম টাকা পাওয়া যায় যদিও, একজন মহিলা বা ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ঘরে বসে হাতে লিখে আয় করার সেরা অনলাইন উপায় হিসেবে অনেকেই এই সাইটগুলি ব্যবহার করছেন।

আর্টিকেল লেখার এই সাইট গুলিতে নিজের একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে আপনারা বাংলাতে আর্টিকেল লিখেও ইনকাম করতে পারবেন।

এমনিতে এই ধরণের আলাদা আলাদা ওয়েবসাইট গুলি আপনাকে আলাদা আলাদা হিসেবে পেমেন্ট ওরে থাকে। তবে সেই বিষয়ে আপনারা ওয়েবসাইটে গিয়েই ভালো ভাবে বুঝে নিতে পারবেন।

Best Bangla Article Writing Sites To Earn Money:

১. Studykoro.com/bangla-article-writing-job: bKash দ্বারা পেমেন্ট তুলা যায়।

২. Probangla.com/article-writing-income: ১০০০ শব্দের জন্য ৮০-১০০ টাকা দিয়ে থাকে। এছাড়া, প্রতি ১৫০০ শব্দের জন্য ১২০-১৫০ টাকা এবং প্রতি ২০০০ শব্দের লেখার জন্য ১৭০-২১০ টাকা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এখানেও bKash দ্বারা পেমেন্ট প্রদান করা হয়।

৩. Techtunes: Bangla Content Writing Site

৪.Techinfoai.com/p/techinfoai.html: ১০০ থেকে ৫০০ টাকা প্রতি আর্টিকেল দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

এছাড়া, ইন্টারনেটে গিয়ে খানিকটা ঘাটাঘাটি করলে লেখালেখি করে আয় করার অনেক ওয়েবসাইট গুলি আপনারা পেয়ে যাবেন।

২. লেখালেখি করে আয় করার জনপ্রিয় উপায় হলো ব্লগিং:

হে, আমি আপনাদের বার বার করে বলেছি যে ব্লগিং (blogging) করে আমরা ঘরে বসে একটি চাকরির তুলনায় প্রচুর বেশি টাকা ইনকাম করতে পারি।

এছাড়া, ব্লগিং করার ক্ষেত্রে আপনার কাছে একটি computer এবং internet connection থাকলেই আর অন্য কিছুর প্রয়োজন হয়না। এক্ষত্রে আপনি ঘরে বসে সম্পূর্ণ কাজ করতে পারবেন।

Blog হলো আপনার একটি online diary মতোই যেটাকে মুজত discussion বা informational website হিসেবে ধরা হয়।

আমরা আমাদের ব্লগে (blog) মূলত বিভিন্ন তথ্যবহুল (informational), টিউটোরিয়াল (tutorial), জ্ঞান (knowledge) ইত্যাদি টেক্সট (text) এর মাধ্যমে লিখে পাবলিশ করে থাকি।

তাই, আপনাকেও নিজের ব্লগে নিয়মিত কিছু বিশেষ বিষয় গুলোর ওপরে আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করতে হয়। আপনাকে এমন একটি বিষয় নিয়ে আর্টিকেল লিখতে হবে যেই বিষয়ে আপনার রুচি, জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা রয়েছে।

মনে রাখবেন, আমরা আমাদের blog site টিকে World Wide Web (ইন্টারনেটে) এর মধ্যে পাবলিশ করে থাকি।

আর তাই, ইন্টারনেটে সক্রিয় বিভিন্ন উপাদান গুলো যেমন, search engine, directory, direct URL address ইত্যাদির মাধ্যমে লোকেরা আমাদের ব্লগ সাইট ইন্টারনেটে খুঁজে পেতে পারেন।

লোকেরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমাদের ব্লগে প্রবেশ করেন এবং তাদের রুচি হিসেবে আমাদের লেখা আর্টিকেল গুলোকে পড়েন।

কিভাবে ব্লগ লিখে টাকা আয় করবেন ? (How to earn writing blogs)

বন্ধুরা যদি আপনারা ঘরে বসে ব্লগ লিখে টাকা ইনকাম করার কথা ভাবছেন, তাহলে এর থেকে ইনকাম করার সঠিক প্রক্রিয়া আপনার জেনে রাখতে হবে।

যখন আপনি একটি ব্লগ সাইট তৈরি করবেন তখন সেটা একেবারেই নতুন থাকবে।

যখন আপনি নিয়মিত (regular) নিজের ব্লগে আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করবেন (সপ্তাহে ৩ টি বা ৪ টি), তখন, ধীরে ধীরে আপনার ব্লগের আর্টিকেল গুলো পড়ার উদ্দেশ্যে ভিসিটর্স (visitors) রা আসতে শুরু করবেন।

এই visitors গুলো আপনার ব্লগে ইন্টারনেটের বিভিন্ন উপাদান গুলোর সাহায্যে আসতে পারে। যেমন, search engine, blog directory, social media বা direct URL address এর মাধ্যমে।

এবার, যখন আপনার blog site এর মধ্যে প্রত্যেক দিন কমেও প্রায় ৩০০ থেকে ৫০০ ভিসিটর্স আসতে শুরু করবেন, তখন আপনি নিজের ব্লগে Google AdSense এর বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

Google এডসেন্স বিজ্ঞাপন লাগিয়ে আমরা অনেক সহজে এবং ভালো পরিমানের ইনকাম নিজের ব্লগ থেকে করতে পারি। প্রায় ৮৫% লোকেদের ক্ষেত্রে Google AdSense ব্লগ থেকে ইনকাম করার লাভজনক একটি উপায়।

গুগল এডসেন্স বিজ্ঞাপন ছাড়াও আপনারা নিজের ব্লগ থেকে অন্যান্য বিভিন্ন মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন।

যেমন

  1. Affiliate marketing করে ইনকাম। 
  2. নিজের কোর্স বিক্রি করে। 
  3. e-book বিক্রি করে ইনকাম। 
  4. Paid review লিখে ইনকাম। 
  5. অন্যান্য advertisement network ব্যবহার করে। 

বর্তমানে ব্লগিং কিভাবে শুরু করবেন ?

যদি আপনি ব্লগিং এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখে টাকা আয় করার মন বানিয়ে নিয়েছেন, তাহলে এখন আপনার মনে একটি প্রশ্ন অবশই খুঁড়ছে যে, “বর্তমানে ব্লগিং কিভাবে শুরু করবো”.

চিন্তা করবেননা, বর্তমান সময়ে ব্লগিং শুরু করার বিভিন্ন গাইড এবং টিউটোরিয়াল আপনারা ইন্টারনেটে পাবেন। এছাড়া, নিচে আমিও আপনাদের স্টেপ বাই স্টেপ বলে দিচ্ছি যে কিভাবে ব্লগিং শুরু করা যাবে।

  1. সরচেয়ে প্রথমে আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে যে আপনি কোন বিষয়ে ব্লগ তৈরি করবেন। মানে, কোন বিষয় নিয়ে আপনি নিজের ব্লগে আর্টিকেল লিখবেন।
  2. ব্লগ সাইটের জন্য একটি domain name এবং web hosting কিনতে হবে।
  3. নিজের hosting server এর মধ্যে WordPress install করতে হবে।
  4. নিজের WordPress এর মধ্যে একটি ভালো Blogging Theme install করুন।
  5. WordPress এর মধ্যে জরুরি ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন গুলো ইনস্টল করুন।
  6. এবার, নিয়মিত প্রায় প্রত্যেক ২ দিন পর পর নিজের ব্লগে আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করুন। ব্লগের জন্য কিভাবে একটি সেরা আর্টিকেল লিখতে হবে সেই বিষয়ে আপনার জ্ঞান থাকাটা জরুরি।
  7. ব্লগ পোস্ট লেখার জন্য নতুন আর্টিকেল আইডিয়া কিভাবে পাবেন, সেবিষয়ে জ্ঞান রাখুন।
  8. Google search engine থেকে নিজের ব্লগে traffic / visitors পাওয়ার জন্যে, নিজের ব্লগ টিকে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে জমা দিতে হবে
  9. এবার, ধীরে ধীরে যখন আপনার ব্লগে কিছুটা traffic / visitors আসতে শুরু হবে, আপনি বিভিন্ন মাধ্যমে নিজের ব্লগ থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

বন্ধুরা, বর্তমানে অনেক সহজে কিভাবে ব্লগিং শুরু করতে পারবেন, আমি এই বিষয়ে আগেই সম্পূর্ণ বিস্তারিত আর্টিকেল লিখে রেখেছি।

তাই, আপনারা সম্পূর্ণ বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য এই আর্টিকেল পড়ুন – ব্লগিং কিভাবে শুরু করবেন ? (Full guide).

ব্লগিং শুরু করার আগে কোন বিষয়ে জানা দরকার ?

দেখুন, ব্লগিং করে আপনারা নিজের ঘরে বসেই লেখালেখি করে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। আমি নিজেই এই মাধ্যমে প্রত্যেক মাসে ভালো পরিমানে ইনকাম করছি।

তবে, ব্লগিং এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখে ইনকাম করার জন্য আপনাকে আগে কিছু বিশেষ বিষয়ে জ্ঞান অবশই নিয়ে রাখতে হবে।

১. SEO (Search engine optimization)  

মনে রাখবেন, আমাদের blog website এর মধ্যে যত বেশি traffic / visitors চলে আসবে ততটাই বেশি ইনকাম করার সুযোগ হয়ে দাঁড়াবে। আর, যেকোনো ওয়েবসাইটে প্রচুর traffic পাওয়ার সহজ উপায় হলো search engine.

Google, yahoo বা Bing ইত্যাদি search engine গুলোর মাধ্যমে আমরা নিজের blog / website এর মধ্যে প্রচুর organic traffic পেতে পারি।

এখন SEO হলো সেই প্রক্রিয়া যেটার মাধ্যমে আপনারা নিজের ব্লগের আর্টিকেল পেজ গুলোকে সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে প্রথম পাতায় র্যাংক (rank) করাতে পারবেন।

যখন আপনার ব্লগের আর্টিকেল পেজ গুলো সার্চ ইঞ্জিন এর প্রথম পাতায় র্যাংক করবে, তখন প্রচুর লোকেরা আপনার আর্টিকেল পেজে ক্লিক করে আপনার ব্লগে প্রবেশ করবেন।

SEO মূলত দুই প্রকারের হতে পারে।

  1. On-page SEO 
  2. Off-page SEO 

আপনার, দুটোর বিষয়েই জেনে রাখা দরকার।

২. Article / content writing এর skills  

যিহেতু, সম্পূর্ণ লেখালেখির ওপরেই আপনার কাজ এবং আপনার লেখা আর্টিকেল কতটা দারুন হয়েছে সেটার ওপরেই সবটা নির্ভর করছে, তাই আপনাকে নিজের content writing skills নিয়ে কাজ করতে হবে।

ব্লগে কিভাবে আর্টিকেল লিখতে হয়, সেই বিষয়ে আপনার জ্ঞান থাকতে হবে। এছাড়া, ব্লগের আর্টিকেলে SEO র ব্যবহার কিভাবে করবেন, এই প্রত্যেক বিষয়ে আপনার জ্ঞান থাকাটা জরুরি।

আপনি এই প্রত্যেক বিষয়ে ইন্টারনেটে প্রচুর information ও tutorial অবশই পেয়ে যাবেন।

৩. WordPress / blogger 

একটি ব্লগ তৈরি করার জন্যে সব থেকে জনপ্রিয় দুটি প্লাটফর্ম হলো “blogger” এবং “WordPress“। এবার, আপনি যেই platform এর মাধ্যমেই ব্লগ তৈরি করার কথা ভাবছেন, সেই বিষয়ে কিছুটা অবশই জেনে রাখুন।

এমনিতে, ব্লগার এর মাধ্যমে ফ্রীতে ব্লগ তৈরি করতে পারবেন যদিও আমি আপনাদের ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করার পরামর্শ দিবো।

YouTube এর মাধ্যমে videos দেখে আপনারা দুটো platform এর বিষয়েই জ্ঞান নিয়ে নিতে পারবেন।

৩. Freelance writer হিসেবে কাজ করুন

আপনার মধ্যে যদি কনটেন্ট রাইটিং এর দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা রয়েছে তাহলে অবশই আপনি একজন freelance writer হিসেবে কাজ করতে পারবেন।

ইন্টারনেটে প্রচুর freelance marketplace / website রয়েছে যেগুলোতে গিয়ে আপনারা লেখালেখি সম্বন্ধিত কাজ খুঁজতে পারবেন।

বিভিন্ন website, blog, online portal, media ইত্যাদি রয়েছেন যারা এই freelancing platform গুলোতে content writer খুঁজে থাকেন।

এরকম কিছু freelance marketplace কিছুর নাম হলো – freelancer.com, guru.com, fiverr.com, Upwork ইত্যাদি।

আপনি একেবারে ফ্রীতে এই ওয়েবসাইট গুলো নিজের একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন এবং content writing এর কাজ খুঁজতে পারবেন।

আপনি ঘরে বসে কেবল একটি laptop বা computer এর মাধ্যমে কাজ গুলো করতে পারবেন।

৪. সরাসরি online news portal এবং blogs এর জন্য লিখুন

আজ ইন্টারনেটে হাজার হাজার blogs, online news portal এবং social media page রয়েছে।

আর বর্তমান সময়ে লোকেরা নিজেদের এই অনলাইন পোর্টাল গুলোতে কনটেন্ট পাবলিশ করানোর উদ্দেশ্যে বিভিন্ন content writer দের দিয়ে আর্টিকেল লিখিয়ে থাকেন।

আর্টিকলে লেখানোর বিপরীতে content writers দের অবশই টাকা দেওয়া হয়।

তাই, যদি আপনিও লেখালেখি করে পছন্দ করেন তাহলে ঘরে বসে এই ধরণের অনলাইন পোর্টাল গুলোর জন্য আর্টিকেল লিখে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

লেখালেখির কাজ খোঁজার জন্য আপনারা বিভিন্ন freelancing website, blogging এর সাথে জড়িত social media group ইত্যাদি ভিসিট করতে হবে।

প্রায় অনেক blog site রয়েছে যেখানে ব্লগের মালিক দের যোগাযোগ করার কোনো না কোনো উপায় দেওয়া থাকে। তাই, আপনি ব্লগের মালিক দের সরাসরি যোগাযোগ করে আর্টিকেল লিখার কাজ খুঁজতে পারবেন।

৫. ফেসবুকে লেখালেখি করে ইনকাম করুন:

আপনি চাইলে ফেসবুকের দ্বারাও বিভিন্ন মাধ্যমে নিজের ঘরে বসে হাতে লিখে টাকা আয় করে নিতে পারবেন। তবে, এক্ষেত্রে আপনার কাছে থাকতে হবে একটি Facebook Page বা Group।

এছাড়া, আপনার FB Page বা Group-এর মধ্যে মোটামোটি কয়েক হাজার followers-ও অবশই থাকতে হবে।

এবার আপনি চাইলে, নিজের ফেসবুক পেজ এর মধ্যে নানান পেইড কনটেন্ট গুলি লিখে পাবলিশ করতে পারেন, এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন বা নিজের ওয়েবসাইটে ফেসবুক পেজ থেকে ট্রাফিক নিয়ে এডসেন্স এর মতো প্লাটফর্ম গুলিকে কাজে লাগিয়েও ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়া, এমন প্রচুর brands এবং company গুলি আছে যারা social media marketing-এর উদ্দেশ্যে টাকা দিয়ে নানান ফেসবুক পেজ/গ্রুপ গুলিতে তাদের ব্র্যান্ড/ব্যবসা/পণ্যের প্রচার চালিয়ে থাকেন।

এক্ষেত্রে আপনিও এমন কোম্পানি গুলির সাথে যুক্ত হয়ে তাদের পণ্য এবং ব্র্যান্ড রিলেটেড কনটেন্ট গুলি লিখে নিজের ফেসবুক পেজ বা গ্রুপে পাবলিশ করে ফেসবুক থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুকে লেখালেখি করে টাকা আয় করার উপায় নিয়ে আমি আলাদা ভাবে একটি আর্টিকেল লিখেছি। আপনারা চাইলে এই আর্টিকেলটি পড়ে সবটা বিস্তারিত জেনেনিতে পারেন।

FAQ:

১. ঘরে বসে অনলাইনে লেখালেখি করে কত টাকা আয় করা যাবে?

অনলাইন মাধ্যমে ঘরে বসে হাতে লিখে কত টাকা আয় করতে পারবেন, সেটা সম্পূর্ণভাবে ৩টি উপাদানের উপর নির্ভর করে। আপনি কোন উপায় বা প্লাটফর্ম এর সাথে কাজ করছেন, কি পরিমানে সময় লাগিয়ে কাজ করছেন, এবং সঠিক ভাবে কাজ করছেন কি না। এমনিতে, blogging এবং freelance content writing-এর মতো কাজ গুলি করে দৈনিক ৪০০-৫০০ টাকা ইনকাম করাটা বর্তমান সময়ে অবশই সম্ভব।

২. অনলাইনে কি সত্যি টাকা ইনকাম করা যাবে?

অবশই, বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ ব্যক্তিরা নিজের ঘরে বসে শুধুমাত্র একটি ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেটের সাহায্যে অনলাইনে নানান মাধ্যমে ইনকাম করে নিচ্ছেন। Blogging, affiliate marketing, YouTube, Social Media Influencing, Online Selling, Podcast, Online Tutoring, ইত্যাদি নানান উপায় গুলি আছে যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে অনলাইন থেকে সত্যি ইনকাম করা সম্ভব।

৩. কোথায় লেখা লেখি করে ইনকাম করার কাজ পাবো?

Freelancing.com, Guru.com, Fiverr, ইত্যাদির মতো নানান freelancing marketplace গুলি ইন্টারনেটে পেয়ে যাবেন যেগুলিতে কনটেন্ট লেখা, ট্রান্সলেশন, এবং ডাটা এন্ট্রির মতো কাজ গুলি উপলব্ধ থাকে। এছাড়া, LinkedIn যদিও একটি social media site, তবে এখানেও লেখালেখির সাথে জড়িত নানান কাজের অফার গুলি পাওয়া যায়।

আমাদের শেষ কথা

তাহলে বন্ধুরা, যদি আপনারা ঘরে বসে হাতে লিখে অনলাইনে আয় করার উপায় খুঁজছেন, তাহলে ওপরে বলা উপায় গুলো আপনার অনেক কাজে আসবে।

লেখালেখি করে ঘরে বসে ইনকাম করার জন্য blogging এবং freelance content writing হলো সব থেকে সেরা উপায়। অবশই, আপনিও এই মাধ্যম গুলো ব্যবহার করে ঘরে বসে আয় করতে পারবেন। 

তবে, কিছুটা সময় দিয়ে সঠিক জ্ঞান এর সাথে কাজ শুরু করতে হবে। ঘরে বসে কনটেন্ট লিখে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার আমাদের এই আর্টিকেল যদি আপনাদের পছন্দ হয়ে থাকে,

তাহলে আর্টিকেলটি অবশই শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top