আর্টিকেল লিখে টাকা আয় – আজ সময় হলো ইন্টারনেটের, এবং এই ইন্টারনেটের যুগে আপনি এর দ্বারা কেবল অনলাইন ভিডিও দেখা, সোশ্যাল মিডিয়াতে চ্যাটিং করা বা অন্য অপ্রয়োজনীয় কাজ গুলি করা ছাড়া এর দ্বারা আপনি অনলাইন টাকা আয় করার সুযোগ নিতে পারবেন। হে, এইটা অবশই সত্যি এবং হাজার হাজার লোকেরা বিভিন্ন দেশ বিদেশে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ঘরে বসেই মিনিমাম $১০০ থেকে $৫০০ অব্দি টাকা আয় করে নিচ্ছেন। এবং, কিছু ক্ষেত্রে এর থেকেও  অনেক অনেক বেশি টাকা লোকেরা ইনকাম করছেন। (Earn money from online article writing).

Earn money online from home by writing.

এমনিতে, ইন্টারনেট থেকে অনলাইন ইনকামের অনেক উপায় বা নিয়ম রয়েছে। সেই নিয়ম গুলির মধ্যে ব্লগ এবং ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে online income এর মাধ্যম সেরা। আমি, কিভাবে ইউটিউবের থেকে টাকা আয় করা যায়, সেই বিষয়ে আপনাদের আগেই ডিটেলস এ বলেছি। তাই, আজ আমি আপনাদের একটি নতুন বিষয়ে অল্প জ্ঞান দিতে চাই। সেটা হলো, অনলাইন বিভিন্ন রকমে আর্টিকেল লিখে আয় করার।

Also read

আজ, ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রভাব বা চাহিদা এতো বেড়েগেছে যে এর ব্যবহার এবং লাভ অনেক বেশি। ইন্টারনেটের মাধ্যমে আর্টিকেল লিখে তাকে publish বা প্রচার করাকে আমরা digital marketing এরি একটা ভাগ বলে বলতে পারি। এবং, আপনি যদি English ভালো করে লিখতে জানেন এবং আপনার যদি আর্টিকেল লেখার ভালো knowledge বা জ্ঞান আছে, তাহলে এই article writing এর উপায়ের মাধ্যমে ঘরে বসেই হাজার হাজার টাকা মাসে কামিয়ে নিতে পারবেন।

তাহলে চলুন, বেশি সময় না নিয়ে আমরা সোজা জেনেনেই যে আজকে আমরা কি কি শিখবো। আজকে আমরা জানবো –

  1. আর্টিকেল রাইটিং কি ?
  2. কিভাবে আর্টিকেল লিখতে হয় ? সাধারণ জ্ঞান
  3. অনলাইনে আর্টিকেল লিখে টাকা আয় করার মাধ্যম গুলো কি কি ?
  4. আর্টিকেল লিখে আয় করার কিছু ওয়েবসাইট

আমি আপনাদের অনুরোধ করবো, যাতে আপনারা এই আর্টিকেল টি পুরো পড়ুন। এতে আপনারা সবটাই ভালোকরে বুঝতে পারবেন। চলুন এখন এক এক করে সবটাই জেনেনেই।

আর্টিকেল রাইটিং কি ? কাকে  বলে

আর্টিকেল বা আর্টিকেল রাইটিং সাধারণ ভাবে একটি লেখার টুকরা, ভাগ বা অংশ যেটা আমরা মিনিমাম ৩০০ শব্দের ভেতরে লিখতে হয়। এবং, যেকোনো আর্টিকেল আমরা কোনো একটা নির্দিষ্ট বিষয়, সাবজেক্ট বা টপিক এর ওপর লিখি। এমন একটি টপিক বা বিষয়, জেবেপারে আপনার ভালো জ্ঞান আছে এবং সেই বিষয়ে আপনি আর্টিকেলের মাধ্যমে লোকেদের অনেক তথ্য দিতে পারবেন।

আগে, আর্টিকেল সাধারণ ভাবে newspaper এবং বই বা মেগাজিনে লেখা বা প্রকাশ করা হতো। কিন্তু, এখনকার যুগে আপনি আর্টিকেল অনলাইন ব্লগ, ফোরাম, ওয়েবসাইট বা ডিজিটাল মার্কেটিং এর যেকোনো মাধ্যমে প্রকাশ বা publish করতে পারবেন। এখন, সময় বদলে গেছে এবং সবটাই ডিজিটাল।

আর্টিকেল কিভাবে লিখতে হয় ? কিছু সাধারণ নিয়ম

আপনি, আর্টিকেল একটি ব্লগে লিখছেন কিংবা কোনো মেগাজিনে, আর্টিকেল লেখার কিছু সাধারণ নিয়ম আছে যেগুলি আপনি মেনে না চললে আপনার লেখা টপিক বা বিষয় পোড়ে লোকেরা ভালো পাবেননা। আপনি অবশই, এইটা চেষ্টা করতে হবে যাতে আপনার কনটেন্ট পোড়ে লোকেরা ইন্টারেস্ট বা রুচি পান। তারা যাতে, আপনার লেখা প্রত্যেক শব্দ পরে আনন্দ পান এবং যেই বিষয় নিয়ে আপনি লিখছেন, সেই বিষয় যাতে তারা ভালোকরে বুঝতে পারেন।কেবল তখন আপনি একজন সফল কনটেন্ট রাইটার (content writer) হিসেবে নিজের নাম তৈরি করতে পারবেন।

আপনি কি বিষিয়ে আর্টিকেল লিখছেন বা কত ভালো ভাবে কোনো বিষয় বা টপিক শব্দৰ মাধ্যমে আর্টিকেলে প্রকাশ করছেন সেটা শিখানো আমার হাথে নেই। সেটা পুরোটাই, যেকোনো টপিক বা বিষয়ে আপনার থাকা knowledge এবং experience এর ওপর নির্ভর করে। যত বেশি আপনার knowledge এবং experience থাকবে ততটাই ভালোকরে ডিটেলস এ আপনি কোনো বিষয়ে আর্টিকেল লিখতে পারবেন। কেবল তখনি লোকেরা আপনার আর্টিকেলে রুচি রাখবেন। এবং তাই, সব সময় মনে রাখবেন “আর্টিকেল লেখার আগে, যেই বিষয় বা টপিকে লিখবেন ভাবছেন তার বিষয়ে A to Z সবটাই যাতে আপনি জেনেনিন।

এর বাইরে, আমি আপনাদের আর্টিকেল লেখার কিছু সাধারণ নিয়মের বেপারে বলতে চাই, যেগুলি ব্যবহার করে আপনারা নিজের লেখা কনটেন্ট অনেক আকর্ষণীয় করতে পারবেন এবং সহজ ভাবে লোকেদের বুঝাতে পারবেন।

কিভাবে আকর্ষণীয় (Attractive) আর্টিকেল লিখবেন ? (৫ টি টিপস)

আপনি যদি নিজেকে একজন সফল কনটেন্ট রাইটার (successful content writer) হিসেবে দেখতে চান বা একজন content writer হিসেবে নিজের career বানাতে চান, তাহলে কিছু সাধারণ content writing rules ফলো করতে হবে। এগুলি বেসিক নিয়ম (basic rules) এবং এই নিয়ম গুলির ব্যবহার অনেক জরুরি যদি আপনি আকর্ষণীয়, ব্যবহারকারী বন্ধুত্বপূর্ণ (use friendly), নিপুন এবং নির্ভুল (perfect) আর্টিকেল লিখতে চান। তাহলে আর্টিকেল লেখার সেই নিয়ম গুলি কি ?

ভালো আর্টিকেল লেখার কিছু লাভকনক নিয়ম

  1. স্পষ্ট, আকর্ষণীয় এবং ছোট্ট টাইটেল (TITLE) এর প্রয়োগ করতে হবে। এতে টাইটেল পড়েই ভিসিটর্স রা আপনার আর্টিকেল পড়ার জন্য রুচি রাখবেন। এবং, ছোট্ট টাইটেল লেখার ফলে, আপনার আর্টিকেলের বিষয় সহজে স্পষ্ট হয়ে যাবে।
  2. মনে রাখবেন, ছোট ছোট প্যারাগ্রাফ করে লিখতে হবে। একটি স্পষ্ট, পরিষ্কার এবং user friendly কনটেন্ট লেখার এইটা অনেক অনেক কার্যকর নিয়ম। আপনি অনলাইন ইন্টারনেটে যতসব বড়ো বড়ো ব্লগ দেখলেই বুঝবেন। তারা যখনি আর্টিকেল লিখেন তার মধ্যে ছোট ছোট ৩ থেকে ৪ লাইনের প্যারাগ্রাফ করে লিখেন। এরম ছোট ছোট্ট প্যারাগ্রাফ লোকেরা পরে অনেক ভালো পান এবং এর ফলে অনেক বেশি সময় লোকেরা আপনার লেখন পড়েন।
  3. হেডিং (heading) অবশই ব্যবহার করবেন। হেডিং যেমন (H১, H২, H৩ এবং H৪ ব্যবহার করা অনেক জরুরি। এতে, পুরো আর্টিকেলের অনেক ভাগ তৈরি করা যায় এবং আপনার রিডার (reader) দেড় লেখন পড়তে প্রচুর সুবিধে হয়। মনে রাখবেন, Heading এর ব্যবহার কিন্তু অনেক জরুরি।
  4. মিনিমাম ৫০০ থেকে ১৫০০ র মধ্যে আর্টিকেল লিখুন। হে আপনি চাইলে ১৫০০ থেকেও অনেক বেশি শব্দের আর্টিকেল লিখতে পারবেন। কিন্তু, ৫০০ থেকে কম শব্দের আর্টিকেল লিখবেননা। যত বেশি শব্দ ব্যবহার করে কোনো বিষয়ে নিজের কনটেন্ট বা লেখন তৈরি করবেন ততই বেশি সেই লেখন পোড়ে সেই বিষয়ে জ্ঞান পাওয়া যাবে। এবং, আপনার রিডার (reader) রা জ্ঞান পাওয়ার জন্যই আপনার লেখন বা কনটেন্ট পড়তে আসেন।
  5. ছবি ব্যবহার করবেন। হে, একটি ভালো এবং আকর্ষণীয় লেখন ছবি ছাড়া বানানো যায়না। আপনি নিজের টপিক বা বিষয়ের সাথে জড়িত ছবি আর্টিকেলে ব্যবহার করতে পারেন। এতে, আর্টিকেল আরো বেশি আকর্ষণীয় হবে এবং দেখতে ভালো লাগবে।

তাহলে বন্ধুরা, ওপরে আমি বলা নিয়ম গুলি ব্যবহার করে যদি আপনি আর্টিকেল লিখেন তাহলে সে অবশই সম্পূর্ণ রূপে আকর্ষণীয় এবং স্পষ্ট হয়ে উঠবে এবং এর সাথেই লোকেরা আপনার লেখন পরে রুচি পাবেন। এই নিয়ম গুলি ব্যবহার কোরে আমি আমার ব্লগে কনটেন্ট লিখি এবং লোকেরা সেগুলি পোড়ে অনেক আনন্দিত হন।

তবে, আর্টিকেল কি ? কিভাবে লিখবেন ? এর উত্তর হয়তো আপনারা ভালো করেই পেয়েগেছেন। তাহলে চলুন, এখন আমরা ইন্টারনেটে অনলাইন আর্টিকলে লিখে কিভাবে আয় করতে পারবো, এর সেরা নিয়ম বা উপায় গুলি জেনেনেই।

কিভাবে আর্টিকেল লিখে অনলাইন টাকা আয় করা যাবে ? (সেরা মাধ্যম)

ওপরে শিরোনামে আমি লিখেছি কনটেন্ট লিখে আপনি $১০০ থেকে $৫০০ মধ্যে সহজে কামিয়ে নিতে পারবেন, এবং এইটা কেবল মিনিমাম একটি আয়ের সংখ্যা। লোকেরা online content writing এর মাধ্যমে এর থেকে বেশি টাকা আয় করছেন প্রত্যেক মাসে। তবে হে, সেটা নির্ভর করে, আপনার writing skills, যোগ্যতার এবং কর্মক্ষমতার ওপর আর তার সাথেই, আপনি কোন মাদ্ধম ব্যবহার করে আয় করছেন সেটার ওপরে। কনটেন্ট রাইটিং একটি বিসনেস হিসেবেই নিয়ে আপনি কাজ করতে পারবেন।

১. Blogging এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখুন

যখনি আর্টিকেল লেখনের মাধ্যমে আয়ের কথা আসবে,আমি blogging কেই সেরা এবং শ্রেষ্ঠ মাধ্যম হিসেবে বাছাই করবো। একটি ব্লগ বানিয়ে তাতে আপনি নিজের মতো করে আর্টিকেল লিখতে পারবেন। আপনার যা লিখে ভালো লাগে ঠিক ওগুলোই লিখতে পারবেন। উদাহরণ স্বরূপে, আপনি যদি ইংরেজি জানেননা তাহলে হিন্দি বা বাংলা কনটেন্ট লিখে আয় করতে পারবেন। যেরকম আমিকরছি।

ব্লগ বানিয়ে টাকা আয় করার প্রক্রিয়া অনেক সোজা। এবং, আপনি চাইলে নিজেই একটি ব্লগ বানিয়ে তাতে আর্টিকেল লিখে তারপর ব্লগে গুগল এডসেন্সের বিজ্ঞাপন দেখিয়ে বা এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। পুরোটাই একটি সহজ এবং লাভজনক মাধ্যম যার দ্বারা আপনারা রেগুলার টাকা আয় করতে পারবেন। এই blogging এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখে দেশ বিদেশের হাজার হাজার লোকেরা মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন।

আপনি যদি, রেগুলার ভালো ভালো আর্টিকেল লিখেন তাহলে কেবল ৩ থেকে ৪ মাসের মধ্যেই মাসে প্রায় $১০০ থেকে $২০০ মধ্যে আয় করা স্টার্ট করতে পারবেন। এবং, তারপর আপনার আপনার কাজের ওপর নির্ভর কোরে এই আয়ের সংখ্যা আস্তে আস্তে বাড়তে থাকবে। কিন্তু, ইনকামের সংখ্যা আপনার কাজের ওপর এবং কনটেন্ট এর কোয়ালিটির ওপর পুরো নির্ভর করবে।

তাহলে, আপনিও যদি blogging এবং কনটেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম করতে চান, তাহলে নিচে এই বিষয় গুলি পড়ুন।

ওপরে যা যা লিংক আমি দিয়েছি, সেগুলিতে গিয়ে আর্টিকেল গুলি পড়লেই আপনারা ব্লগ চালু করার থেকে টাকা আয় করা অব্দি পুরোটাই বুঝে যাবেন।

শেষে, আমি একটা কথা আপনাদের বলে দিতে চাই। অন্য মাধ্যম ব্যবহার করে আপনি কত আয় করবেন সেটার কোনো আইডিয়া আমার নেই। কিন্তু, যদি আপনি ব্লোগ্গিং কে মন দিয়ে এবং আগ্রহ দিয়ে শিখে তারপর তাকে চালু করেন, তাহলে এ আপনাকে এত্ত টাকা কামিয়ে দিয়ে পারবে, সেটার ধারণাও আপনি করতে পারবেননা।

এখানে পুরোটাই ভালো ভালো আর্টিকেল লিখার ওপর নির্ভর। আমি নিজেই, কেবল আমার এই বাংলা ব্লগে বাংলাতে আর্টিকেল লিখে মাসে ভালো সংখ্যাই টাকা আয় করছি। এবং, এখন এই ব্লগ আমার একটি পার্ট টাইম বিসনেস হিসেবে আমি চলাছি।

২. অন্যদের ব্লগে পেইড গেস্ট পোস্টিং (guest posting) করে

Paid guest posting এমন একটি সার্ভিস যার মাধ্যমে আপনি অন্যদের ব্লগে guest posting এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখে টাকা আয় করতে পারবেন। আজ, অনেক ব্লগ বা ওয়েবসাইট owner রয়েছেন যারা নিজেদের ব্লগের জন্য আর্টিকেল লেখার সময় পাননা। এবং, তাই তারা তাদের ব্লগে আর্টিকেল লেখার জন্য অন্য লোকেদের আগ্রহ করেন paid guest posting এর মাধ্যমে।

এবং, আপনি যদি তাদের ব্লগে paid guest post এর মাধ্যমে ব্লগের টপিক বা বিষয়ের সাথে জড়িত কনটেন্ট লিখেন তাহলে তারা আপনাকে কিছু টাকা সেই আর্টিকেল লেখার জন্য দেন। কিন্তু, আপনাকে original, ভালো এবং তাদের ব্লগের সাথে রিলেটেড (related) কনটেন্ট লিখতে হবে। তাহলেই, তারা আপনাকে সেই লেখনের জন্য টাকা দিবে।

আপনি, এরকম paid guest posting সাইট বা ব্লগের বিষয়ে গুগল বা সোশ্যাল মিডিয়া যেমন Facebook বা twitter আদিতে খুঁজতে পারবেন। Facebook এ অনেক digital marketing পেজ বা guest page রয়েছে যেগুলিতে এরকম ধরণের guest posting এর কাজ বা guest posting ব্লগ এর ব্যাপারে লোকেরা শেয়ার করেন।

আপনি যদি কয়েকটি ভালো ভালো paid guest posting এর জন্য ব্লগ পেয়েযান, তাহলে তাদের জন্য রেগুলার লিখেই আপনি ভালো টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। অনেকেই করছেন।

আমি, অনেক বাংলা ব্লগ দেখেছি যেগুলিতে আপনারা directly রেজিস্টার করে সেখানে আর্টিকেল লিখে সেগুলির মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। গুগলে সার্চ করলে আপনারা এরম অনেক ব্লগ পেয়েযাবেন।

Also read ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? এর প্রকার এবং লাভ

৩. Article revenue sharing websites এর মাধ্যমে

আপনারা কি জানেন, আর্টিকেল লিখে টাকা ইনকাম করার অনেক ওয়েব সাইট রয়েছে যেগুলি ব্যবহার কোরে আপনারা ঘরে বসেই অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। এগুলু কে “Article revenue sharing site” বলে। কিন্তু হে, এগুলি সাইটে আপনারা যা তা লিখলে হবেনা। আমি ওপরে বলা আর্টিকেল লেখার নিয়ম গুলি ব্যবহার কোরে কনটেন্ট লিখতে হবে এবং original নিজে লেখা কনটেন্ট হোতে হবে।

তাছাড়া, আর্টিকেলের সংখ্যা ১৫০০ থেকে বেশি হলেই ভালো। শেষে, যদি সেই ওয়েবসাইট গুলি যদি আপনার লেখা কনটেন্ট গ্রহণ (accept) করেন তাহলে তারা তারপর আপনাকে সেই আর্টিকেলের জন্য টাকা দিবেন। এগুলি সাইট ব্যবহার করে রেগুলার আর্টিকেল লিখলে আপনারা ঘরে বসেই  ২০০$ থেকে ৫০০$ কামিয়ে নিতে পারবেন। চলেন, সেই ওয়েবসাইট গুলির বেপারে জেনেনেই।

Also readফেসবুক একাউন্ট থেকে কিভাবে টাকা আয় করবেন ?

আর্টিকেল লিখে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট

এই ওয়েবসাইট গুলি আমি নিজেই ব্যবহার করে দেখিনাই। কিন্তু হে, অনেক অনলাইন রিভিউ পোড়ে এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমি এই ওয়েবসাইট গুলির ব্যাপারে খোঁজ পেয়েছি। তাই, আপনারা এই সাইট গুলো ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

১. Kalaage – কনটেন্ট লিখুন ইনকাম করুন

Kalaage.com – এখানে আপনারা যেকোনো ধরণের আর্টিকেল লিখতে পারবেন। এবং, আর্টিকেল লিখে তাকে সোশ্যাল মিডিয়া বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আপনার শেয়ার করতে হবে। আর্টিকেল শেয়ার করার পর যখন আপনার আর্টিকেলে ২০০ views এবং ১০ টি nice read বা like হয়ে যাবে তখন আপনাকে সেই লেখা আর্টিকেলের জন্য টাকা দেয়া হবে।

Write articles and earn money online .

আপনার কেবল Kalaage register পেজে গিয়ে একাউন্ট বানাতে হবে এবং “start writing” লিংকে ক্লিক করে কনটেন্ট (article) লিখতে হবে। তারপর Facebook বা অন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজের আর্টিকেল শেয়ার করুন এবং টাকা ইনকাম করুন। আপনি একটি আর্টিকেলের দ্বারা Rs.৩০০ অব্দি আয় করতে পারবেন।

২. Author.oyewiki.com – Earn with each view

কনটেন্ট লিখে আয় করার ওয়েবসাইট গুলির মধ্যে, Author.oyewiki.com ওয়েবসাইটের ব্যাপারে জেনে আমার অনেক ভালো লেগেছে। কারণ, এখানে আপনাকে দুই রকমে অনলাইন ইনকামের (online income) সুযোগ দেয়া হয়।

Earn online with each article view.

প্রথম, আর্টিকেল লিখে তাতে হওয়া প্রত্যেক view এর ওপরে আয়। এবং, দ্বিতীয়তে আপনি এই ওয়েবসাইটের যেকোনো আর্টিকেল সোশ্যাল মিডিয়াতে (Facebook, Twitter etc.) শেয়ার করতে পারবেন আর শেয়ার করা আর্টিকেল গুলিতে যত ভিউ হবে আপনি টাকা ইনকাম করবেন। আপনাকে একটা Dashboard দিয়ে দেয়া হবে। Dashboard এ আপনি নিজের income report এবং অন্য ডিটেলস পেয়েযাবেন।

৩. OpinionsWall- write and earn

এখানে আপনার সোজা একটি opinionswall একাউন্ট বানিয়ে নিতে হবে। মনে রাখবেন, যাতে আপনি নিজের একাউন্ট ডিটেলস ভালো করে দেন। তারপর এখানে ভালো ভালো আর্টিকেল লিখতে হবে। আপনি যেকোনো টপিকে লিখতে পারবেন। কিন্তু, আপনার লেখন যাতে অরিজিনাল হয় এবং কোনোখান থেকে যাতে কপি করা চুরি করা না হয়।

কনটেন্ট লিখে অনলাইন আয়

আমি এই ওয়েবসাইটের ব্যাপারে অনেক ভালো ভালো রিভিউ পড়েছি। লোকেরা বলছেন যে, এখানে তারা নিজের মতো করে কনটেন্ট লিখছেন এবং তার থেকে ঘরে বসে অনলাইন আয় করছেন। এখানে আপনারা আর্টিকেল লিখে, শেয়ার করে, কমেন্ট করে বা লাইক করে আয় করতে পারবেন।

শেষে, আপনার এখানে কনটেন্ট লেখার জন্য এক্সপার্ট (expert) হতে হবেনা। আপনার লেখনে যদি কোনো ভুল হয়, সেগুলি content editor team তাদের তরফ থেকে ঠিক করে দিবে। আপনি খালি ভালো ভালো বিষয়ে লিখুন আর ইনকাম করতে থাকুন।

এখানে আয় করা টাকা আপনারা Google pay এবং Bank transfer এর মাধ্যমে তুলে নিতে পারবেন।

Some other websites

এগুলি ছাড়া আরো অনেক সাইট রয়েছে আর্টিকেল লেখনের দ্বারা ইনকাম করার জন্য। যেমন

তাহলে, ওপরে বলা নিয়ম বা ওয়েবসাইট গুলি ব্যবহার করে আপনারা নিজের আর্টিকেল লিখে আয় করার সুযোগ উঠিয়ে নিতে পারবেন। মনে রাখবেন, এই ওয়েবসাইট গুলি আমি নিজেই ব্যবহার করে দেখিনাই। ইন্টারনেটের বিভিন্ন মাধ্যম এবং রিভিউ পোড়ে আমি এই সাইট গুলির বেপারে আমি আপনাদের বললাম।

আমাদের শেষ কথা

আশা করি বন্ধুরা আমি আপনাদের, আর্টিকেল কি, কিভাবে আর্টিকেল লিখবেন এবং আর্টিকেল লিখে অনলাইন ঘরে বসে টাকা আয় করার কিছু ভালো মাধ্যম এবং সাইট এর ব্যাপারে ভালো করে বুঝিয়ে বলতে পারলাম। আমার আজকের এই আর্টিকেল যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে শেয়ার অবশই করবেন। ধন্যবাদ।