Domain কি ? (what is domain name in Bangla) : যদি আপনি একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট (website) বানানোর কথা ভাবছেন, তাহলে সবচে আগেই আপনার যে বিষয়টির ব্যাপারে জেনেনিতে হবে, সেটা হলো “ডোমেইন নেম“. তাই, একটি ডোমেইন নেম কি বা ডোমেইন কাকে বলে, সেটা আপনার সবচে আগেই ধ্যান দিয়ে বুঝে নিতে হবে।

ডোমেইন নাম কি
All About Domain Name In Bangla.

মনে রাখবেন, যখনি আমরা ইন্টানেটে অনলাইন কোনো ওয়েবসাইটে যাই, তখনি আমরা ডোমেইনের সাথে সংঘাত বা দেখা পাই। আসলে, domain এর মাধ্যমে, আমরা ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরণের ওয়েবসাইট খুঁজে পেতে পারি। এবং, ইচ্ছে করলে সেই ওয়েবসাইট গুলিতে ভিসিট (visit) করতে পারি।

যেভাবে, আপনার এবং আমার নামের মাধ্যমে আমাদের খুঁজে পাওয়া যাবে, ঠিক সেভাবেই ইন্টারনেটের দুনিয়াতেও, অন্য অন্য ওয়েবসাইট গুলিকে তাদের ডোমেইন নামের মাধ্যমে খুঁজে পাওয়া যাবে।

উদাহরণ স্বরূপে, আপনি যদি ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকা আমার এই বাংলা ওয়েবসাইটে আসতে চান, তাহলে আপনারও আমার ওয়েবসাইটের ডোমেইন “banglatech.info” ব্যবহার করেই আমার সাইটে আসতে হবে।

সোজা ভাবে বললে, আমার ওয়েবসাইটের নাম, পরিচয় এবং ঠিকানা (address) সবটাই হলো আমার এই “ডোমেইন নাম“।

এবং, একটি domain name ছাড়া কখনোই আপনি বা জেকেও আপনার তৈরি করা ব্লগ বা ওয়েবসাইট ইন্টারনেটে খুঁজে পাবেননা।

এমনিতে আমি জানি, ডোমেইন নাম কি, এর ব্যাপারে অল্প জ্ঞান আপনার অবশই রয়েছে। কিন্তু, এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের, ডোমেইনের ব্যাপারে পুরোটাই জানিয়ে দিতে চাই।


অবশই পড়ুন :


তাই, ডোমেইন নেম কাকে বলে, ডোমেইন কত প্রকারের, কিভাবে একটি ভালো ডোমেইন বেঁচে নিবেন এবং কিভাবে ডোমেইন কিনতে হয়। সবটাই, আপনাদের আর্টিকেলে এক এক করে ভেংগে বলবো।

ডোমেইন নেম কি ? (What Is Domain Name In Bangla)

Domain name বা DNS (Domain naming system) এমন একটি নামকরণ যার দ্বারা আমরা ইন্টারনেটের এই বিশাল দুনিয়াতে যেকোনো একটি ওয়েবসাইটকে সনাক্ত (identify) করতে পারি। ইন্টারনেটে থাকা সব ধরণের ওয়েবসাইট, একটি IP Address এর সাথে সংযুক্ত (connected) থাকে।

এবং, এই IP address (Internet Protocol Address) এমন একটি সাংখ্যিক ঠিকানা, যে আপনার ব্যবহার করা ইন্টারনেট ব্রউজারকে (Internet browser) বলেন যে ওয়েবসাইটটি ইন্টারনেটের কোন সার্ভার (server) এবং জায়গায় (location) হোস্ট করা আছে।

এখন, যখনি আমরা আমাদের ওয়েব ব্রাউজারে (web browser) কোনো ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম লিখে সার্চ (search) করি, তখন সেই ডোমেইন নেম ওয়েবসাইটের সার্ভারের (server) আসল IP address কে পয়েন্ট (point) করেন।

এবং, ওয়েবসাইটের আসল IP address দাড়াই আমাদের ইন্টারনেট ব্রাউজার (Chrome, Firefox, Opera, Internet Explorer) সেই ওয়েবসাইটের আসল ঠিকানা খুঁজে পান যেখানে ওয়েবসাইটটি হোস্ট করা আছে।

ফলে, আমরা আমাদের ওয়েব ব্রাউজারে সার্চ করা ডোমেইন নামের সাথে সংযুক্ত (connected) ওয়েবসাইটটিকে দেখতে পাই এবং তাকে ব্যবহার করতে পারি।

এমনিতে, আমরা ডোমেইন নেম ব্যবহার না কোরে, যেকোনো ওয়েবসাইটের direct Ip address ওয়েব ব্রাউজারের URL বক্সে লিখে সার্চ করলেও সেই ওয়েবসাইট ভিসিট (visit) করতে পারবো। সব ওয়েবসাইটের একটি IP address অবশই রয়েছে।

উদাহরণ স্বরূপে : Google.com ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম হলো “Google.com” এবং এর IP address “172.217.168.238

ডোমেইন নাম এবং IP address, দুটোই ব্যবহার করে আপনারা গুগলের ওয়েবসাইটে যেতে পারবেন।

কিন্তু, আপনার এবং আমার জন্য কি সম্ভব, এতো এতো ওয়েবসাইটের নাম কেবল কিছু সংখ্যার মাধ্যমে মনে রাখা ? সাধারণ লোকেদের জন্য এইটা কখনোই সম্ভব না।

Ip address বা সাংখ্যিক এড্ড্রেসের দ্বারা ওয়েবসাইটের নাম মনে রাখার এই জটিল প্রক্রিয়াকে সরল করার জন্যই, শব্দ এবং বাক্যর দ্বারা গঠিত “ডোমেইন নেম” ব্যবহার করা হয়।

এতে, অনেক সহজেই আমরা যেকোনো ওয়েবসাইটের নাম মনে রাখতে পারি।

সোজা ভাবে, ডোমেইন নেম কাকে বলে ?

ডোমেইন নেম কিভাবে কাজ করে
What is domain ? how it works.

প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট একটি web server এ হোস্ট (host) বা স্টোর (store) করা থাকে। এবং, একটি Domain সেই ওয়েবসাইটের সার্ভারের IP address বা স্যংখ্যিক ঠিকানাকে পয়েন্ট (point) করতে থাকে।

এতে, যখনি আমরা ওয়েবসাইটের নাম আমাদের ওয়েব ব্রাউজারে টাইপ করে সার্চ করি, তখন ডোমেইন নামের মাধ্যমে ওয়েবসাইটটি তার server এর IP address কে পয়েন্ট করে। এবং ফলে, ওয়েব ব্রাউজারে, ডোমেইনের দ্বারা সার্চ করা ওয়েবসাইটটি খুঁজে পাওয়া যায়।

শেষে, একটি ডোমেইন নেম হলো, Ip address বা সাংখ্যিক ঠিকানার তুলনায়, যেকোনো ওয়েবসাইটকে ইন্টারনেটে খুঁজে পাওয়ার অনেক সহজ এবং সরল নাম।

এবং, এই নাম কিছু বাক্য বা শব্দ ব্যবহার করে রাখা হয় যাতে সহজেই মনে রাখা যায়।

তাহলে, ডোমেইন নেম কাকে বলে, ডোমেইনের কাজ কি এবং ডোমেইন কিভাবে কাজ করে, সেটা হয়তো আপনারা ভালো করেই বুঝে গেছেন।

ডোমেইনের প্রকার (Types of Domain)

দেখতেগেলে ডোমেইন নামের প্রকার অনেক রয়েছে। নিচে, আমি আপনাদের সেই অনেক গুরুত্বপূর্ণ কিছু ডোমেইনের প্রকারের ব্যাপারে বলবো। এতে, যখনি আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য domain কেনার কথা ভাববেন, তখন একটি সঠিক ডোমেইনের বাছাই করতে পারবেন।

১. TLD – Top Level Domains

Top level domain (TLD) বা internet domain extension এর মধ্যে সব থেকে বেশি মান (value) থাকা domain extension. এই ডোমেইন নেম গুলি সব থেকে বেশি ব্যবহার করা হয়। একটি সম্পূর্ণ ডোমেইন নামের একেবারে শেষের অংশটি হলো এইটা। ডট (dot) লেখার পরের ভাগ।

উদাহরণ স্বরূপে : যদি আমি আমার ব্লগের ডোমেইন নামের কথা বলি তাহলে, BanglaTech.Info আমার ডোমেইন নাম এবং ডটের (.) পরের “Info” শব্দটি হলো আমার top level domain extension.

একটি, ওয়েবসাইট বা ব্লগে, আপনি যদি এই top level domain গুলি ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার ওয়েবসাইটের রেপুটেশন (reputation) ভিসিটর্স এবং গুগল দুজনের নজরেই ভালো হয়ে দাঁড়াবে। এবং, এতে আপনার লাভ হবে।

TLD বা টপ লেভেল ডোমেইন গুলিকে, SEO Friendly domain বলা হয়। কারণ, এই ক্যাটেগরির (category) domain extension থাকা ওয়েবসাইটকে google search engine অনেক গুরুত্ব দেন।

তাই, আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগ বানানোর কথা ভাবছেন, তাহলে এই ধরণের Top Level Domain ব্যবহার করাটাই ভালো এবং লাভজনক হবে।

কিছু TLD বা Top Level Domain extension এর উদাহরণ (Example)

  •  .Com  (commercial)
  •  .Org   (Orgenization)
  •  .Net    (Network)
  •  .gov    (Government)
  •  .edu    (Education)
  •  .biz     (Business)
  •  .info   (Information)

এই ধরণের domain extension জেকেও কিছু টাকা দিয়ে বিভিন্ন domain কেনার website থেকে কিনে নিতে পারবেন।

২. CcTLD – Country Code Top Level Domain

আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ যদি কোনো বিশেষ দেশ (country) কে টার্গেট (target) করে বানানো হয়েছে, তাহলে এই ধরণের CcTLD domain extensions ব্যবহার করতে পারেন। এই ধরণের ডোমেইন এক্সটেনশন কোনো দেশের Two letter ISO code এর ওপরে নামকরণ করা হয়।

Country code top level ডোমেইনের কিছু উদাহরণ 

  • .Us (United States)
  • .In  (India)
  • .Bd (Bangladesh)
  • .Cn  (China)
  • .Us  (United states of America)
  • .Ro  (Romania)

এবং, আরো অনেক এমন ডোমেইন এক্সটেনশন রয়েছে, যেগুলি কেবল একটি দেশকে টার্গেট করে নামকরণ করা হয়েছে।

Top level domain কোনখান থেকে কিনবো ? (Domain providers)

যদি আপনি নিজের ব্যবসা বা পার্সোনাল ব্যবহারের জন্য নিজেই একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানানোর কথা ভাবছেন, তাহলে আপনার একটি Top level domain অবশই কিনে নিতে হবে।

একটি ডোমেইন নাম প্রায় Rs.৫০০ থেকে Rs.১৫০০ ভেতরে পেয়ে যাবেন। প্রত্যেকটি ডোমেইন যেটা আপনি কিনবেন, সেগুলিকে বছরে বছরে আবার পুনরারম্ভ (renew) করাটা জরুরি। 

আপনি চাইলে, ডোমেইন কেনার সময় ২, ৩, ৪ বা ৫ বছরের জন্য একেবারেই সেই ডোমেইন কিনে নিতে পারবেন। সেটা আপনার ওপরে।

একটি ডোমেইন নেম কিনার জন্য, আপনার ইন্টারনেটে থাকা “Domain Name Service Provider” গুলির কাছে যেতে হবে। এবং, তাতে নিজের একটি একাউন্ট বানিয়ে আপনি একটি ডোমেইন কিনে নিতে পারবেন।

ইন্টারনেটে, কিছু সেরা Domain name service provider হলো :

  • www.bigrock.in/domain-registration
  • https://www.namecheap.com
  • https://www.crazydomains.in
  • https://godaddy.com/domains
  • https://www.hostgator.in/

তাই, এখন আপনি যদি একটি ডোমেইন কিনে নিতে  চান, তাহলে ওপরে বলা ওয়েবসাইট গুলিতে গিয়ে অনেক কম দামেই একটি টপ লেভেল ডোমেইন কিনতে পারবেন।

ডোমেইন নেম কেনার আগে ধ্যান রাখবেন 

আপনি যদি প্রথম বারের জন্য একটি ডোমেইন কিনে নিতে যাচ্ছেন, তাহলে কিছু সাধারণ (basic) জিনিসের ধ্যান রেখে ডোমেইনটি কিনতে হবে। তা না হলে, ভবিষ্যতে আপনার কিছু বিশেষ অসুবিধা হতে পারে।

  1. সব সময় একটি short domain name বেঁচে নিবেন। এতে, আপনার ওয়েবসাইটের নাম সহজে লোকেরা মনে রাখতে পারবেন।
  2. বেঁচে নেয়া ডোমেইন নাম ছোট হওয়ার সাথে সাথে, বলতে এবং লিখতেও সহজ হওয়া দরকার।
  3. কখনো কোনো অন্য সাথে মেল্ থাকা ডোমেইন নেমের বাছাই করবেননা। আপনার বেঁচে নেয়া domain name সব সময় অনন্য (unique) হতে হবে। এতে, নিজের ব্র্যান্ড (brand) তৈরি করাটা অনেক সহজ হয়ে যায়।
  4. চেষ্টা করবেন যাতে আপনার বেঁচে নেয়া ডোমেইন নামে কোনো ধরণের special character যেমন hyphen বা number না থাকে।
  5. চেষ্টা করবেন, যাতে আপনি অবশই একটি “top level domain” নিজের জন্য কিনে নিচ্ছেন।
  6. আপনার বেঁচে নেয়া ডোমেইনের নাম, আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের বিষয়ের সাথে জড়িত (related) থাকাটা অনেক ভালো।

কিভাবে একটি ডোমেইন কিনতে হয় ? (How to buy a domain)

একটি ডোমেইন কেনার উপায় অনেক সহজ এবং সোজা। আপনি চাই মোবাইল ব্যবহার করেই কিনুন বা কম্পিউটার, দুটো ক্ষেত্রেই আপনার একি রকমের কিছু স্টেপস ফলো করেই ডোমেইনটি কিনতে হবে।

স্টেপ ১.

সবচে আগেই, আমি ওপরে বলা “Domain Name Service Provider” বা ডোমেইন কেনার ওয়েবসাইট গুলির মধ্যে যেকোনো একটিতে যেতে হবে।

মনে রাখবেন, সব ধরণের ওয়েবসাইট থেকে ডোমেইন কেনার নিয়ম প্রায় একি।

এই ক্ষেত্রে, আপনি Godaddy থেকে ডোমেইন কিনতে পারেন। Godaddy সব থেকে বেশি নামকরা ওয়েবসাইট যেখান থেকে প্রায় ৭০% লোকেরা ডোমেইন কিনেন।

স্টেপ ২.

Godaddy র ওয়েবসাইটে যাওয়ার পর, প্রথম পেজেই আমরা একটি বাক্স (box) দেখবো যেখানে “Find your domain” বলে লেখা থাকবে।

ডোমেইন কিভাবে কিনবো
How to buy a domain name ?

এখন, find your domain বক্সে নিজের মন মতো নাম লিখে ডানদিকে থাকা “Search Domain” বাটনে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৩.

Search button এ ক্লিক করার পর, আপনার সার্চ করা domain name যদি সহজলভ্য (available) থাকে, তাহলে পরের পেজে সেটা আপনাকে দেখিয়ে দেয়া হবে।

search your domain

আপনি ওপরে ছবিতে দেখতেই পারছেন, আমরা সার্চ করা ডোমেইন নামটি available বলে লিখে দেয়া হয়েছে।

মানে, সার্চ করা ডোমেইনটি কেনার জন্য available আছে।

এখন, যদি আপনার সার্চ করা available ডোমেইনটি আপনি কিনতে চান, তাহলে “Add to cart” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

স্টেপ ৪.

Cart এ ডোমেইনটি add করার পর এখন আপনার নিজের একটি একাউন্ট বানাতে হবে।

create godaddy account

নিজের একটি Godaddy account বানানোর জন্য বামদিকে থাকা “Create an account” অপশনে গিয়ে নিচে একে একে আপনার email ID, Username এবং password দিয়ে “Create account” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

স্টেপ ৫.

নিজের ডোমেইন নেম বেঁচে তারপর একাউন্ট তৈরি করার পর, এখন আপনার পেমেন্ট (payment) পেজ থেকে আপনার মন মতো payment option ব্যবহার করে পেমেন্ট করতে হবে।

godaddy payment option

যেভাবে আপনি ওপরে ছবিতে দেখছেন, আপনাকে payment করার জন্য net banking, debit card, mobile wallet, UPI এগুলির মতো অনেক সহজ অপশন দেয়া হয়েছে।

তাই, আপনার মন এবং সুবিধা মতো payment option বেঁচে নিয়ে আপনি payment করে ডোমেইনটি কিনে নিতে পারবেন।

তাহলে, এভাবে আপনারা নিজের মোবাইল বা কম্পিউটার ব্যবহার করে Godaddy থেকে অনেক সহজেই একটি ডোমেইন নেম কিনে নিতে পারবেন।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, ডোমেইন কি (what is domain in Bangla), ডোমেইন কত প্রকারের, ডোমেইন কেনার আগে কি দেখতে হয় এবং কিভাবে ডোমেইন কিনতে হয়, এই ব্যাপারে আমি আপনাদের ভালো করে বুঝিয়ে বলতে পেরেছি।

শেষে, যদি আপনাদের আমার এই আর্টিকেল ভালো লেগে থাকে, তাহলে নিজের বন্ধু, relatives এবং আসে পাশের লোকেদের সাথে অবশই শেয়ার করবেন। এতে, যারা যারা এই ব্যাপারে জানতে চান তাদের অনেক লাভ হতে পারে।

এবং, টপিক বা আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো প্রশ্ন থাকলে, নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাকে জিগেশ করুন। আমি অবশই আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিবো।

Related Contents: