ফেসবুক মার্কেটিং কি ? এর লাভ এবং সুবিধা গুলি জেনেনিন

হেলো বন্ধুরা, আমাদের আজকের আর্টিকেলের বিষয় হলো, “ফেসবুক মার্কেটিং কি” (What is Facebook marketing in Bangla).

About Facebook marketing in Bengali.

তাছাড়া, ফেসবুক মার্কেটিং এর কিছু টিপস এবং এর লাভ ও সুবিধা নিয়েও আমরা আজকে কথা বলবো।

এখনের সময়ে, online marketing বা digital marketing এর প্রক্রিয়া গুলি ব্যবহার করে, যেকোনো business প্রচার করাটা অনেক সহজ হয়ে পড়েছে।

এবং, এই ফেসবুক মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি, “ডিজিটাল মার্কেটিং” এর একটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভাগ।

হতে পারে আপনার একটি product based business রয়েছে বা আপনি একজন blogger, YouTuber, social media influencer বা কিছু বিশেষ সার্ভিস প্রদান করে টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, প্রত্যেক ক্ষেত্রেই আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং ও ফেসবুক মার্কেটিং এর ব্যবহার করতে পারবেন।

বর্তমানে, social media platform যেমন, “Facebook”, “Instagram”, ” YouTube” বা “Twitter”, অভিনেতা-অভিনেত্রী এবং জনপ্রিয় লোকেদের থেকে শুরু করে, সাধারণ লোকেরাও ব্যবহার করছেন।

এবং, এই social media platform গুলি ব্যবহার করে, তারা নিজেদের ব্যক্তিগত জীবনের কিছু অংশ অনলাইনে সক্রিয় থাকা হাজার লক্ষ বা কোটি কোটি লোকেদের সাথে শেয়ার করছেন।

এখন, যারা নাকি ব্যবসায়ী (businessman) বা যাদের একটি ব্যবসা রয়েছে, তারা এই Facebook, Twitter বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গুলি ব্যবহার করে, নিজেদের পণ্য (products) বা সার্ভিস (service) গুলি অনলাইনে প্রচার বা মার্কেটিং করতে পারবেন।

আর, এটাকেই বলা হয় সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

তবে, যদি আপনি কেবল ফেসবুক ব্যবহার করে অনলাইনে মার্কেটিং করছেন, তাহলে সেটাকে “ফেসবুক মার্কেটিং” (Facebook marketing) বলেও বলা যেতে পারে।

এভাবেই, যদি আপনি ইমেইল এর মাধ্যমে ব্যবসার প্রচার ও মার্কেটিং করছেন, তাহলে সেটাকে “ইমেইল মার্কেটিং” বলা হবে।

তাছাড়া, যদি ইউটিউবের মাধ্যমে ভিডিও প্রযুক্তির সাহায্যে মার্কেটিং করছেন তাহলে সেটাকে, “ইউটিউব মার্কেটিং” বলা হবে।

তাহলে চলুন, নিচে আমরা অল্প স্পষ্ট করে জেনেনেই “ফেসবুক মার্কেটিং কি” বা “ফেসবুক মার্কেটিং কাকে বলে“.

ফেসবুক মার্কেটিং মানে কি ? (What Is Facebook Marketing)

ফেসবুক মার্কেটিং কাকে বলে, বিষয়টি আপনি সম্পূর্ণ ভাবে বুঝবেন, যখন “মার্কেটিং মানে কি” সেটা স্পষ্ট করে জানা থাকবে।

আসলে মার্কেটিং মানে হলো, এমন কিছু ক্রিয়াকলাপ (activities) যেগুলির মাধ্যমে একটি business, service বা product এর প্রচার বা মার্কেটিং করা হয়।

মার্কেটিং এর মাধ্যমে, যেকোনো product বা business জনসাধারণের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

এবং তারপর, তাদের সেই product বা service কেনার জন্য বা ব্যবহার করার জন্য উৎসাহিত করা হয়।

মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াতে বিশেষ করে, advertising এবং selling of products & services সংযুক্ত থাকে।

এখন, যদি আমরা Facebook marketing এর কথা বলি, তাহলে এটাও সম্পূর্ণ সাধারণ মার্কেটিং এর প্রক্রিয়ার মতোই একি।

তবে, এখানে আমরা মার্কেটিং এর মাধ্যম হিসেবে “Internet” এবং “Facebook” ব্যবহার করি।

ব্যবসার সাথে জড়িত একটি Facebook account বা page তৈরি করে, নিজের ব্যবসা বা পণ্যের বিষয়ে তথ্য পাবলিশ করে, সেগুলি ফেসবুকের মাধ্যমে ঘরে বসে থাকা হাজার লক্ষ লোকেদের কাছে একসাথেই প্রচার ও মার্কেটিং করে দিতে পারবেন।

এবং এটাই হলো, ফেসবুক মার্কেটিং এর শক্তি।

ফেসবুক বর্তমানে ব্যবহার হওয়া সব থেকে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট।

এখানে প্রত্তেকদিন কোটি কোটি ইউসার (user) নিজেদের Facebook account এ সক্রিয় থাকেন।

তাই, এই অনলাইন প্লাটফর্মে বিভিন্ন বয়েসের ও বিভিন্ন চাহিদা থাকা গ্রাহকের কোনো অভাব নেই।

এবং, এই সুযোগের লাভ নিয়েই বর্তমানে যেকোনো ছোট ও বড় ব্যবসা (business) গুলি, ফেসবুকে সক্রিয় থাকা ইউসার দের টার্গেট করে তাদের product ও services গুলির মার্কেটিং করছেন।

এতে, কোনো কষ্ট না করেই ঘরে বসে বসে যেকোনো জায়গা, যেকোনো চাহিদা রাখা বা যেকোনো বয়েসের লোকেদের কাছে নিজের business এর প্রচার ও মার্কেটিং করাটা সম্ভব।

কেবল কিছু সময়ের মধ্যেই, লক্ষ লক্ষ ও অসংখক লোকেদের কাছে ব্যবসার মার্কেটিং করা যেতে পারে।

তাই, ফেসবুক মার্কেটিং এর মাধ্যমে, অনেক সহজেই লক্ষ্যবস্ত গ্রাহক পেয়ে যাওয়ার সুযোগ প্রচুর।

তাহলে, ফেসবুক মার্কেটিং কাকে বলে (What Is Facebook Marketing in Bengali), বিষয়টি বুঝলেন তো ?

ফেসবুক পেইড মার্কেটিং কি ? (Paid Facebook Marketing)

Facebook paid marketing এর মাধ্যমে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন চালিয়ে, দ্রুত গতিতে product ও business এর মার্কেটিং করাটা অধিক লাভজনক হওয়া দেখা গেছে।

তবে, কি এই “Facebook paid marketing ?

পেইড মার্কেটিং (paid marketing) হলো, ফেসবুকের এমন একটি program বা service, যেখানে আপনি ফেসবুককে কিছু টাকা দিয়ে নিজের ব্যবসার পেইড বিজ্ঞাপন চলাতে পারবেন।

মানে, আপনি ফেসবুকে একটি business page তৈরি করে, সেখানে নিজের ব্যবসা বা পণ্যের বিষয়ে দেওয়া তথ্য, ছবি, ওয়েবসাইট লিংক বা ভিডিও গুলিকে, অধিক লক্ষ্যবস্ত ফেইসবুক ইউসার দের কাছে প্রচার ও মার্কেটিং করার জন্য ফেসবুককে কিছু টাকা দিতে হবে।

এবং তারপর, paid promotion করা কন্টেন্টটিকে, আপনার দেওয়া নির্দেশ হিসেবে ফেসবুক দ্বারা ফেসবুকের মধ্যেই targeted users দের দেখানো হবে।

তবে, কতজন লোকেদের আপনার কনটেন্ট বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দেখানো হবে, সেটা নির্ভর করবে আপনার খরচ করা টাকার ওপর।

যতটা বেশি টাকা আপনি ফেসবুককে দিবেন, ততটাই অধিক ইউসার দের কাছে আপনার বিজ্ঞাপন দেখানো হবে।

সে সম্পূর্ণটাই আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

এভাবে, আপনি ফেসবুককে কিছু টাকা দিয়ে ফেসবুক বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে, যেকোনো business বা product এর বিষয়ে লোকেদের অনেক দ্রুত ভাবে মার্কেটিং করতে পারবেন।

এবং ফেসবুককে টাকা দিয়ে নিজের Facebook page এর content গুলিকে এভাবে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রোমোট করার ফেসবুকের এই সার্ভিস টিকেই বলা হয় “Facebook paid ads“.

তাছাড়া, টাকা দিয়ে করা এই সম্পূর্ণ ফেসবুক মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটিকেই বলা হয় “Facebook paid marketing“.

ফেসবুক মার্কেটিং কোর্স কিভাবে করবেন ?

দেখুন, ফেসবুক মার্কেটিং কোর্স করাটা তেমন কোনো কঠিন কাজ নয়।

তবে, আপনি আপনার আসে পাশে থাকা যেকোনো digital marketing institute এ গিয়ে, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর কোর্স করে নিতে পারবেন।

তাছাড়া, কিছু কিছু institution গুলিতে কেবল ফেসবুক মার্কেটিং এর কোর্স করানো হয়।

কিন্তু, আমার হিসেবে আপনি অনেক সহজে YouTube এ ভিডিও দেখে social media marketing বা Facebook marketing এর course সহজে করে নিতে পারবেন।

এমন, অনেক YouTube channel ও video রয়েছে, যেগুলি দেখে কিছু সময়ের ভেতরেই ফেসবুক মার্কেটিং এর সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া শিখে নিতে পারবেন।

তাই, যেকোনো digital marketing institution এ এই কোর্স করার আগে, একবার ইউটিউবে এর বিষয়ে জেনেনিন।

হতে পারে, আপনি সম্পূর্ণটা সেখানেই বুঝে যাবেন।

কিভাবে করবেন ফেসবুক মার্কেটিং ?

এমনিতে ফেসবুকের মাধ্যমে অনলাইন মার্কেটিং করাটা অনেক সহজ এবং প্রায় প্রত্যেকেই এই বিষয়ে জানেন।

তবে, ফেসবুক মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়, এবিষয়ে যদি আপনি কিছুই না জেনে থাকেন, তাহলে নিচে দেওয়া পয়েন্ট গুলি দেখে নিন।

  • সবচে আগেই মার্কেটিং করার জন্য আপনার একটি brand, product, website বা business থাকতে হবে।
  • এই প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য, ব্যবসার নামের একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে।
  • এর পর, আপনার ব্যবসার বা ব্র্যান্ড এর পেজের একটি profile picture এবং cover image দিয়ে সেটা আকর্ষণীয় করে নিতে হবে।
  • আপনার Facebook page এর description box এ, ব্যবসা ও ব্র্যান্ড বিষয়ে কিছু লিখুন।
  • এখন, আপনার নতুন Facebook business page এ, কোনো followers নেই। তাই, নিজের বন্ধুদের এবং অন্যান্য Facebook users দের, আপনার পেজটি লাইক করার জন্য অনুরোধ ও ইনভাইট করুন।
  • আপনার business page এ, কিছু সংখ্যক followers বা like বৃদ্ধি পেলে, আপনি তারপর নিজের ব্যবসা বা ব্রান্ডের সাথে জড়িত তথ্য, ছবি, ভিডিও বা ব্লগের আর্টিকেল গুলি সেখানে শেয়ার করুন।
  • আপনি, আপনার বিভিন্ন products এবং services গুলি নিজের পেজে পোস্ট ও শেয়ার করতে পারবেন।
  • এতে, আপনার পেজ লাইক ও ফলো করা ইউসার রা, আপনার নতুন নতুন products এবং services গুলির বিষয়ে জেনে নিতে পারবেন।
  • শেষে, আপনি চাইলে Facebook Paid Ads এর মাধ্যমে, ফেসবুককে কিছু টাকা দিয়ে নিজের পেজে শেয়ার করা কনটেন্ট গুলিকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দ্রুত গতিতে প্রচার করতে পারবেন।
  • তাছাড়া, যদি আপনি নিজের নতুন ফেসবুক পেজটিতে লাইক ও ফলোয়ার্স দের সংখ্যা বাড়িয়ে নিতে চান, তাহলে সেটাও Facebook কে কিছু টাকা দিয়ে, দ্রুত গতিতে করিয়ে নিতে পারবেন।

তাহলে, এটাই হলো ফেসবুকে মার্কেটিং করার প্রক্রিয়া।

উদাহরণ স্বরূপে,

যদি আপনি শাড়ির ব্যবসা করছেন তাহলে কিভাবে করবেন ফেসবুকে নিজের ব্যবসার মার্কেটিং।

এই ক্ষেত্রে, আপনার একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে যেটা শাড়ির বিষয়ের সাথে জড়িত থাকবে।

নিজের পেজের profile এবং cover image এ শাড়ির সাথে জড়িত ছবি দিতে হবে।

এতে আপনার Facebook business page টি, শাড়ির বিষয়টি নিয়েই টার্গেট করা বলে মনে হবে।

এখন, আপনি নিজের কাছে থাকা নতুন নতুন শাড়ির ডিজাইন এবং কালেকশন গুলির ছবি নিয়ে পেজে পাবলিশ করতে পারবেন।

এভাবে, আপনার আপলোড বা পাবলিশ করা ছবি গুলি লোকেরা ফেসবুকের মাধ্যমে অনলাইনে দেখতে পারবেন।

এবং, যদি কারো আপনার শাড়ি গুলি পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে তারা আপনাকে যোগাযোগ করে শাড়ির অর্ডার (order) দিতে পারবেন।

তাছাড়া, আপনি চাইলে Facebook paid ads এর মাধ্যমে, কিছু টাকা খরচ করে ফেসবুক বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অধিক গ্রাহক অনেক কম সময়ের মধ্যেই পেয়ে যেতে পারবেন।

তাহলে বুঝলেন তো, কিভাবে করতে হয় ফেসবুক এর মাধ্যমে মার্কেটিং ?

আশা করছি বুঝেছেন।

ফেসবুক মার্কেটিং এর কিছু লাভ ও সুবিধা

এমনিতে ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যবসার মার্কেটিং করার প্রচুর লাভ ও সুবিধা রয়েছে।

তবে, আমার হিসেবে এগুলির মধ্যে ৭ টি সব থেকে সেরা লাভ যেগুলি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

  1. অনেক সহজে লক্ষ্যবস্ত (targeted) গ্রাহক (customers) পাওয়াটা সম্ভব।
  2. আপনি যেকোনো জায়গা, শহর, দেশ বা লোকাল এরিয়া টার্গেট করে নিজের ব্যবসার বিজ্ঞাপন চালাতে পারবেন।
  3. Facebook এ লক্ষ লক্ষ ইউসার রয়েছে। তাই, এখানে মার্কেটিং করে প্রচুর গ্রাহক পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক।
  4. Manual মার্কেটিং এর তুলনায়, এই ধরণে করা ফেসবুক পেইড মার্কেটিং এ আপনার অনেক কম টাকা খরচ করতে হয়।
  5. নিজের ব্লগ, ওয়েবসাইট বা ইউটিউবের ভিডিও গুলিতে প্রচুর সোশ্যাল মিডিয়া ট্রাফিক পেতে পারবেন।
  6. নিজের একটি অনলাইন ব্র্যান্ড (online brand) তৈরি করার জন্য ফেসবুক মার্কেটিং অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  7. অধিক পেজ লাইক এবং ফলোয়ার্স দের ফলে, আপনার ব্যবসার সাথে অধিক লোকেরা সংযুক্ত হয়ে থাকবেন। ফলে, এদের মধ্যে অনেকেই গ্রাহকে পরিণত হওয়ার সুযোগ সব সময় থাকবে।

তাহলে, ফেসবুক মার্কেটিং এর লাভ গুলি কি, বুঝলেন তো ?

আশা করছি বুঝেছেন।

তাহলে, এটাই হলো ফেসবুক মার্কেটিং এবং এর সাথে জড়িত কিছু তথ্য।

 

আমাদের শেষ কথা,

বর্তমান সময়ে, নিজের ব্যবসা, ব্র্যান্ড বা পণ্য গুলি মার্কেটিং ও প্রচার করার সব থেকে লাভ জনক মাধ্যম হলো “ডিজিটাল মার্কেটিং”.

এবং, ফেসবুকের মাধ্যমে করা এই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং এর এক অনেক জরুরি এবং গুরুত্বপূর্ণ ভাগ।

তাই, আশা করছি “ফেসবুক মার্কেটিং মানে কি” এবং কেন ব্যবহার করা হয় তাছাড়া এর লাভ গুলি কি কি, সবটাই আপনারা বুঝতে পেরেছেন।

তবে, এই বিষয়ে কোনো প্রশ্ন বা সমস্যা থাকলে, আমাকে কমেন্টের মাধ্যমে জিগেশ করতে পারবেন।

Related Contents:

3 thoughts on “ফেসবুক মার্কেটিং কি ? এর লাভ এবং সুবিধা গুলি জেনেনিন”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top