ওয়েবসাইট কি ? ইন্টারনেটে কত প্রকারের ওয়েবসাইট আছে

আপনারা কি জানেন, “ওয়েবসাইট কি” (What Is Website In Bangla) বা “ওয়েবসাইট কাকে বলে” এবং “ওয়েবসাইট কত প্রকারের রয়েছে“? যদি আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, এবং অনলাইন টেকনলজি নিয়ে আপনার রুচি রয়েছে, তাহলে এরকম অনেক প্রশ্নই আপনার মনে আসতে পারে।

ওয়েবসাইট মানে কি ?

তাই, আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের বুঝিয়ে বলবো যে “একটি ওয়েবসাইট মানে কি” এবং ওয়েবসাইট কত প্রকারের হতে পারে।

তাছাড়া, এই বিষয় নিয়ে আরো অনেক ধরণের তথ্য আপনারা এই আর্টিকেলে পড়তে পারবেন।

এমনিতে, আজ প্রত্যেকের কাছেই একটি smartphone, laptop বা desktop computer রয়েছে।

তাই, আমরা আমাদের মোবাইলে বা ল্যাপটপে বিভিন্ন কাজ করার সাথে সাথে, ইন্টারনেটের ব্যবহার অবশই করি।

এই ইন্টারনেটের ব্যবহার বেশির ভাগ সময় করা হয়, “অনলাইন বিভিন্ন তথ্য খোঁজার জন্য“.

অনেক ক্ষেত্রে, “অনলাইন ফটো এডিটিং“, “অনলাইন গেম খেলা“,  “অনলাইন গান শোনা“, “ডাউনলোড করা” এবং আরো অনেক ধরণের কাজ আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে করি।

এবং, ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই ধরণের অনলাইন কাজ করার জন্য আমাদের আলাদা আলাদা রকমের ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে হয়।

মনে রাখবেন, ইন্টারনেটে অনলাইন বিভিন্ন তথ্য খোঁজার জন্য আমরা আমাদের মোবাইলে বা কম্পিউটার বা ল্যাপটপে কিছু জনপ্রিয় “search engine” যেমন, “Google search” এবং “Yahoo search” ব্যবহার করি।

আর, এই ধরণের সার্চ ইঞ্জিন গুলিও কিন্তু এক প্রকারের ওয়েবসাইট (website).

তাছাড়া, আমাদের খোঁজা তথ্যর সমাধান বা উত্তর হিসেবে, সার্চ ইঞ্জিন গুলি তাদের সার্চ রেজাল্টে (search result) যেগুলি সমাধান দেয়, সেই প্রত্যেকটি সমাধান আলাদা আলাদা ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত।

তাই, ইন্টারনেট এর কথা বললেই, অনলাইন বিভিন্ন ধরণের ওয়েবসাইট গুলির ভূমিকা প্রায় প্রচুর।

এবং, পুরো ইন্টারনেটটাই আলাদা আলাদা ওয়েবসাইটের একটি সংগঠন বললে আমি ভুল হবোনা।

তবে, প্রকৃত ভাবে একটি “ওয়েবসাইট কাকে বলে” এবং ওয়েবসাই এর প্রকারভেদ গুলি কি কি, সেগুলি স্পষ্ট করে জেনে রাখাটা আপনার দরকার।

তাহলে চলুন, বেশি সময় না নিয়ে নিচে আমরা “website কাকে বলে” বা “website কি“, এই বিষয়টি ভালো করে জেনে নেই।

ওয়েবসাইট মানে কি (What Is Website In Bangla)

আমি আপনাদের অনেক সহজ ভাষাতে বলবো, যাতে আপনারা ওয়েবসাইটের অর্থ ভালো করে বুঝতে পারেন।

একটি website, ইন্টারনেটে প্রকাশ্যে (publicly) সহজলভ্য (available) অনেক গুলি web page এর একটি মিশ্রণ বা collection.

প্রত্যেকটি ওয়েবপেজে কিছু না কিছু তথ্য (information) বা কনটেন্ট থাকে।

তাই, একটি ওয়েবসাইট তৈরি হয়, এক থেকে অধিক web page এর সংগঠন এর ফলে।

এই web page গুলি একসাথে সংগঠন হয়ে, একটি ওয়েবসাইটের আকার বা রূপ নেয়।

তবে, সংক্ষেপে বললে, ওয়েবসাইট এমন একটি জায়গা, যেখানে অনেক web pages গুলিকে একসাথে রাখা হয়।

উদাহরণ স্বরূপে, আপনি যে আমার এই আর্টিকেল “website কাকে বলে” পড়ছেন এটাও কিন্তু একটি ওয়েব পেজ।

এই web page টি, আমার ব্লগ ওয়েবসাইট “https://banglatech.info” র একটি অংশ।

এবং, আমার ব্লগ ওয়েবসাইটে লিখা প্রত্যেকটি আলাদা আলাদা আর্টিকেল নিজেরাই স্বতন্ত্রভাবে আলাদা আলাদা একটি ওয়েব পেজ।

এই ধরণের অনেক web page এর সংগঠন বা মিশ্রনে হয়েই আমার ওয়েবসাইট “banglatech” এর গঠন হয়েছে।

যেকোনো ওয়েবসাইটের প্রথম পেজ বা পাতা, যাকে আমরা “home page” বলি সেটা একটি ওয়েবসাইটের প্রধান (main) ওয়েবপেজ।

এবং, ওয়েবসাইটের হোমপেজ থেকে “hyperlink” এর মাধ্যমে বা “hyperlink” গুলিতে ক্লিক করে, ওয়েবসাইটের ভেতরে থাকা অন্যান্য web page গুলিতে আমরা যেতে পারি।

তবে, ওয়েবসাইটের যেকোনো অন্য ওয়েবপেজে যাওয়ার জন্য, এইধরণের hyperlink, হোমপেজ ছাড়াও প্রায় সব ওয়েবপেজ গুলিতে আপনারা দেখতে পাবেন।

আপনারা আমার ব্লগে আর্টিকেল পড়ার সময়, বিভিন্ন অন্য অন্য আর্টিকেল পোস্টের লিংকে ক্লিক অবশই করেন।

এবং, এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই আপনারা আমার ওয়েবসাইটের বিভিন্ন আলাদা আলাদা ওয়েবপেজ গুলিতে চলে যেতে পারছেন।

তাহলে, Website মানে কি, বেপারটা হয়তো আপনারা এখন বুঝতেই পারছেন।

তবে হতে পারে এই আর্টিকেলে অনেক বার উল্লেখ করা শব্দ “ওয়েবপেজ (web page)” এর বিষয়টি আপনাদের ভালো করে বোঝা হয়নি।

তাহলে চলুন, “web page কি” এই বেপারেও আমরা সংক্ষেপে জেনেনেই।

Web page কি (What Is Webpage) ?

যেকোনো ওয়েবসাইটের একটি single page কেই বলা হয় web page বা webpage.

যেমন, যখন আপনারা আমার ব্লগের এই আর্টিকেলটি পড়ছেন তখন আপনারা আমার ওয়েবসাইটের একটি single page খুলে রেখেছেন।

এবং, এই single page টিকেই বলা হয় ওয়েবপেজ।

Webpage বা Web page হলো এমন একটি document, যেটা সাধারণে  HTML (Hyper text markup language) এর মাধ্যমে কোডিং (coding) করে লিখা বা তৈরি করা হয়।

এবং প্রত্যেকটি webpage একটি ওয়েবসাইটের অংশ যেটাকে “internet” ব্যবহার করে “internet browser“এর মাধ্যমে খোলা যেতে পারে।

যেকোনো ওয়েবপেজে (webpage) প্রবেশ (access) করার জন্যে, সেই ওয়েবপেজের নির্দিষ্ট “URL ADDRESS” আমাদের মোবাইল বা কম্পিউটারের “WEB BROWSER” এ লিখে সার্চ করতে হবে।

তাছাড়া, অন্যান্য ওয়েবসাইটের ভেতরে থাকা বিভিন্ন “Hyperlink“, “Image link” বা “text links” গুলিতে ক্লিক করেও আমরা আলাদা আলাদা web page গুলিতে চলে যেতে পারি।

একটি ওয়েবপেজে অনেক রকমের তথ্য যেমন, text, graphics, audio, video এবং hyper links থাকতে পারে।

তাহলে, web page কি, বিষয়টা এখন হয়তো আপনার পরিষ্কার হয়েই গেছে।

Web page কত প্রকারের ? কি কি 

Web page দুই প্রকারের হতে পারে।

  • Static web page.
  • Dynamic web page.

Static web page কি ?

একটি static webpage কে  flat বা stationary web page বলেও বলা হয়। এই ধরণের ওয়েবপেজ user এর browser ঠিক একি ভাবে লোড হয় যেভাবে তাকে web server এ রাখা হয়েছে।

এই ধরণের ওয়েবপেজ কেবল কিছু স্থির তথ্য (static information) দেয়ার জন্য তৈরি করা হয়।

Static webpage গুলি কেবল HTML ব্যবহার করে তৈরি করা হয়।

এবং, এই ধরণের ওয়েবপেজ কেবল তখন তৈরি করা হয় যখন, পেজের যেকোনো তথ্য ভবিষ্যতে পরবর্তন (change) করার কোনো প্রয়োজন হয়না।

Dynamic web page কি ?

এই ধরণের ওয়েবপেজ আলাদা আলাদা সময় কালে আলাদা আলাদা তথ্য দেখাতে পারে।

মানে, এই dynamic ওয়েবপেজ গুলিতে কনটেন্ট সব সময় বদলাতে থাকে।

উদাহরণ স্বরূপে, আপনি এবং আমি দুজনেই Facebook লগইন করার পর, আমাদের দুজনেরি ফেসবুকের হোম পেজে যা কনটেন্ট থাকবে তা সম্পূর্ণই আলাদা আলাদা থাকবে।

তাই, ওয়েবপেজ (webpage) একটাই, তবে আমাদের দুজনের ক্ষেত্রে কনটেন্ট আলাদা।

Dynamic webpage গুলি, এক ধরণের application এর দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে যাকে বলা হয় “server processing server side script“.

Website কিভাবে কাজ করে ?

ওয়েবসাইট কিভাবে কাজ করে, এই প্রশ্নের উত্তর অনেক সোজা।

যেভাবে আমার এবং আপনার থাকার জন্য একটি ঘর রয়েছে, ঠিক সেভাবেই একটি ওয়েবসাইট, ইন্টারনেটে অনলাইন সক্রিয় থাকার জন্য একটি “web server” এর প্রয়োজন।

Web server এ, ওয়েবসাইটটির সম্পূর্ণ file, data এবং content একসাথেই রাখা হয়।

এবং, যখন আমরা আমাদের কম্পিউটার বা মোবাইলের web browser যেমন “Google chrome“, “opera mini” বা অন্যান্য browser গুলিতে যেকোনো “Domain name” লিখে সার্চ করি, তখন internet connection এর সাহায্যে , সেই ডোমেইন নামের সাথে জড়িত web server বা ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ ডাটা বা ফাইল আমরা আমাদের “web browser” এ দেখতে পাই।

কারণ, একটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম (domain name) সোজা ওয়েবসাইটের server এর সাথে সংযুক্ত হয়ে থাকে।

তাই, যেকোনো ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম এবং একটি internet browser এর মাধ্যমে আমরা যেকোনো ওয়েবসাইটের content নিজের মোবাইল বা কম্পিউটারে দেখতে পাই।

এবং আজকাল মডার্ন technology, css এবং JavaScript গুলির ব্যবহারের ফলে, আমাদের ওয়েবসাইট অনেক আকর্ষণীয় এবং আধুনিক ভাবে লোকেদের কাছে প্রকাশ পায়।

ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত কিছু বিষয় ও শব্দ 

নিচে ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত কিছু অন্যান্য বিষয় নিয়ে আমি আপনাদের তথ্য প্রদান করবো।

Home Page : যেকোনো ওয়েবসাইটের প্রথম পেজ বা মুখ্য পেজটিকে বলা হয় home page.

যেকোনো ওয়েবসাইটের Domain URL address টাইপ করার পর যেই প্রথম পেজ খুলবে, সেটাই homepage.

Domain name / URL address : ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম তার নাম হয়। মানে, যেভাবে “rahul das” বললে আমার নাম বোঝায়, ঠিক সেভাবেই, “banglatech.info” বললে, আমার ওয়েবসাইটের নাম বোঝাবে।

একটি ওয়েবসাইট, web browser এ লোড (load) করিয়ে দেখার জন্য একটি domain name এর প্রয়োজন।

Domain name আসলে, ওয়েবসাইটের web server এর সাথে সংযুক্ত হয়ে থাকে।

এর ফলে, domain name যেকোনো web browser এ টাইপ করলে, আমরা সেই ডোমেইন এর সাথে সংযুক্ত file, data বা content আমাদের browser এ দেখতে পাই।

Web server : যেকোনো ওয়েবসাইটের একটি web server থাকতেই হবে।

Web server এমন একটি program যেটাতে একটি ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ file, data এবং content থাকে।

HTTP (Hypertext Transfer Protocol) এর মাধ্যমে web server তার মধ্যে থাকা file গুলি web pages এর রূপে ইউসার দেড় প্রদান করে।

ওয়েবসাইট কত প্রকারের (Types Of Website)

ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট কাকে বলে, এই ব্যাপারে তো আপনারা জানলেন।

তবে, কত প্রকারের ওয়েবসাইট আমরা প্রত্যেকদিন ব্যবহার করছি, সেটা জানেন তো ?

প্রায় প্রত্যেক দিন আপনি কিছু না কিছু তথ্য সংগ্রহ করার জন্য ইন্টারনেটের ব্যবহার অবশই করেন এবং বিভিন্ন ধরণের blogs বা ওয়েবসাইটের ব্যবহার করেন।

এমনিতে, ইন্টারনেটে কেবল blog website বা search engine website অনেক জনপ্রিয়।

তবে, এগুলির বাইরেও অনেক প্রকারের ওয়েবসাইট ইন্টারনেটে রয়েছে এবং প্রায় প্রত্যেক দিন, আমরা তাদের ব্যবহার করছি।

Search Engine Websites

সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট গুলি ব্যবহার করা হয় ইন্টারনেটে যেকোনো তথ্য খোঁজার জন্য।

যেভাবে, আপনারা আমার এই আর্টিকেল পড়ার আগেই হয়তো Google search এ গিয়ে সার্চ করেছিলেন যে “website মানে কি“.

তারপর হয়তো, Google আপনাদের আমার এই ওয়েবসাইটের পরামর্শ দিয়েছে।

এই ধরণের search engine website প্রত্যেক দিন প্রায় 1 billion থেকেও বেশি লোকেরা ব্যবহার করেন।

এমন কিছু search website হলো, “Google search“, “Yahoo” এবং “bing search engine“.

হতে পারে, আপনিও এদের মধ্যে বেশিরভাগ সার্চ ইঞ্জিন প্রত্যেক দিন ব্যবহার করেন।

পৃথিবীতে যেকোনো জিনিসের ব্যাপারে যেকোনো তথ্য খোঁজার জন্য আপনারা এই ধরণের সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে পারবেন।

এবং, এই সার্চ ইঞ্জিন গুলির মধ্যে Google search, সব থেকে বেশি জনপ্রিয় ও প্রচলিত।

মনে রাখবেন, search engine website গুলিতে, আপনারা তাদের নিজের তৈরি করা কোনো রকমের কনটেন্ট বা তথ্য পাবেননা।

Search engine গুলি কেবল আপনার সার্চ করা শব্দ বা প্রশ্নের সাথে জড়িত অন্যান্য ওয়েবসাইট গুলির ব্যাপারে আপনাকে বলবে।

যাতে, আপনি আপনার প্রশ্নের সঠিক উত্তর পেয়েযান।

Personal/Blog websites 

প্রায় কিছু বছর আগের থেকেই blogs বা blog website গুলির জনপ্রিয়তা অনেক বেড়ে এসেছে।

কারণ, এই ধরণের ব্লগ ওয়েবসাইটে কেবল কনটেন্ট এবং প্রয়োজনীয় তথ্য থাকে।

যেমন, text, images, videos এবং graphics.

উদাহরণ স্বরূপে, আমার এই ওয়েবসাইটটি একটি personal blog website.

এখানে আমি, আমার প্রিয় বিষয় গুলি নিয়ে আর্টিকেল লিখি এবং আমার ব্লগে আশা ভিসিটর্স দেড় সাহায্য করি।

সব কিছুই আমি নিজেই করছি এবং তাই এটা আমার একটি personal blog বা website বলা যেতে পারে।

একটি personal blog জেকেও অনেক সহজে “blogger.com” থেকে তৈরি করে নিতে পারেন।

এবং, নিজের পছন্দের যেকোনো বিষয় যেমন, “internet”, “technology”, “blogging”, “education” বা অন্য যেকোনো বিষয় নিয়ে তথ্য নিজের ব্লগে পাবলিশ করতে পারবেন।

কিভাবে একটি ফ্রি ব্লগ তৈরি করবেন, এবেপারেও আমি আপনাদের আগেই বলেছি।

Image gallery websites 

আপনারা ইন্টারনেটে অনেক সময় ছবি বা wallpapers অবশই সার্চ করেই দেখেছেন।

যদি করেছেন, তাহলে হয়তো অনেক ধরণের image বা wallpaper websites ও আপনাদের চোখে অবশই পড়েছে।

এই ধরণের ওয়েবসাইট গুলিতে কোনো ধরণের তথ্য আপনারা পাবেননা।

তবে, হাজার হাজার অন্য অন্য ছবি দেখতে পাবেন, যেগুলি নিজের কম্পিউটার বা মোবাইল ফোনে ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই ধরণের ওয়েবসাইট গুলিকে image gallery sites বা stock image ওয়েবসাইট বলা হয়।

উদাহরণ স্বরূপে, pixabey, pexels, unsplash এবং আরো অন্যান্য ওয়েবসাইট হয়েছে।

Social networking websites

এই ধরণের ওয়েবসাইট এখনকার দিনে অনেক প্রচলিত ও জনপ্রিয়।

যেমন, Facebook, Twitter বা Instagram.

এই ধরণের সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট, লোকেরা ব্যবহার করেন, ইন্টারনেটে বিভিন্ন লোকেদের সাথে কথা বলার জন্যে, একজনের সাথে আরেকজন ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ করার জন্যে এবং দেশ বিদেশের নতুন নতুন লোকেদের সাথে ইন্টারনেটের মাধ্যমে বন্ধুত্ব করার জন্যে।

তবে, একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট তৈরি করাটা সবের পক্ষ্যে সম্ভব না।

বিশ্বের সব থেকে জনপ্রিয় social networking website হলো “Facebook“.

Online shopping websites 

অনেক বছর আগে, এই ধরণের online shopping website গুলির চাহিদা বা ব্যবহার তেমন বেশি পরিমানে হতোনা যদিও, এখনকার দিনে এর চাহিদা প্রচুর।

প্রায় লক্ষ লক্ষ লোকেরা প্রত্যেকদিন কোননা কোনো অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট ব্যবহার অবশই করছেন।

Online shopping website গুলির কাজ হলো, “ইন্টারনেটের মাধ্যমে পণ্য (product) বিক্রি করা।

হে, আজ আপনারা নিজের আসে পাশে থাকা দোকানেও যেটা পাবেননা, সেটা অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট গুলিতে পেয়ে যাবেন।

এরকম কিছু জনপ্রিয় শপিং ওয়েবসাইট কিছু হলো, amazon.com, flipkart.com, amazon.in, snapdeal.com এবং আরো অনেক।

Online directory websites 

একটি directory website হলো এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে অনেক ধরণের ওয়েবসাইটের তালিকা বা সূচি থাকে।

এই ওয়েবসাইট গুলির তালিকা গুলি বিভিন্ন বিষয়ের ওপরে তৈরি করা থাকে।

Question answer Forums

এই ধরণের ওয়েবসাইট গুলি ব্যবহার করা হয় একটি অনলাইন প্রশ্ন উত্তর এর মাধ্যম হিসেবে।

মানে, এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে লোকেরা অনলাইন একজন আরেকজনের সাথে text messages এর মাধ্যমে কথা বলতে পারেন, যেকোনো বিষয় নিয়ে তাদের পরামর্শ, রায় বা সমাধান দিতে পারেন।

এই ধরণের forum websites গুলি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় কোনো সমস্যার সমাধান বা প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্যে।

এমন কিছু জনপ্রিয় forum website এর নাম হলো – “Quora” এবং “Yahoo answers“.

Company websites

একটি কোম্পানি ওয়েবসাইট সাধারণ একটি ওয়েবসাইট যেখানে যেকোনো কোম্পানির ব্যাপারে তথ্য প্রদান করা হয়।

এই ধরণের company website ২ থেকে ১০ টি পেজের ভেতরেই বানানো থাকে।

কেননা, বেশিরভাগ কোম্পানি ওয়েবসাইট গুলিতে আপনারা home page, about us, CONTACT US, PRIVACY & POLICY, Services এবং এই ধরণের কিছু তথ্য পাবেন।

তাই, company website গুলি কেবল কিছু page দিয়ে তৈরি অনেক সাধারণ ওয়েবসাইট থাকে যেখানে সেই কোম্পানির কিছু সাধারণ তথ্য দেয়া থাকে।

আমাদের শেষ কথা 

তাহলে বন্ধুরা, কেমন লাগলো আজকের এই আর্টিকেল পোড়ে ? আশা করছি ভালোই লেগেছে এবং ওয়েবসাইট কি এই বিষয় নিয়ে সম্পূর্ণ জ্ঞান আপনাদের হয়ে গেছে।

তাছাড়া, web page কি, ওয়েবসাইটের প্রকারভেদ এবং ওয়েবসাইট নিয়ে আরো অন্যান্য তথ্য আমি আপনাদের এই আর্টিকেলে দেয়ার চেষ্টা করেছি।

তাই, যদি আপনাদের আমার এই আর্টিকেল ভালো লেগে থাকে, তাহলে কমেন্ট করে অবশই জানিয়ে দিবেন।

তাছাড়া, আপনার যদি অন্য কোনো সমস্যা বা পরামর্শ রয়েছে, সেটাও কমেন্টের মাধ্যমে অবশই জানাবেন।

শেষে, আমি অনুরোধ করবো, আপনি আমাদের YouTube channel এবং Facebook group ফলো অবশই করুন।

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

7 thoughts on “ওয়েবসাইট কি ? ইন্টারনেটে কত প্রকারের ওয়েবসাইট আছে”

  1. তথ্যবহুল লেখনী, খুবই ডিটেইলইড ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে; নতুনদের জন্য রিকোমেন্ডেড।

  2. Tasnuva Farabi Ranu

    অনেক সুন্দর ভাবে বুঝানোর জন্য ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap