ওয়ার্ডপ্রেস এর সেরা সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিন : (10+ Free plugin)

যখন আমরা একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করি, তখন সেখানে বিভিন্ন ধরনের প্লাগিন অবশ্যই ব্যবহার করা হয়।

সে, ওয়েবসাইট ডিজাইন করার উদ্দেশ্যে হোক বা ওয়ার্ডপ্রেস এ কিছু বিশেষ features যোগ করার জন্য।

আমরা প্রত্যেকেই, বিভিন্ন প্লাগিন নিজের ওয়েবসাইটে ব্যবহার করে থাকি।

এবং তাদের মধ্যেই, সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিন এর ব্যবহার অনেক জরুরি ও গুরুত্বপূর্ণ বলে ধরা হয়।

কারণ,

সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিনের মাধ্যমে, আমাদের ভিজিটররা অনেক সহজেই আর্টিকেল গুলো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম যেমন ফেসবুক, টুইটার ও গুগল প্লাস ইত্যাদিতে শেয়ার করতে পারেন।

এভাবে, নিজে নিজেই আপনার ব্লগের আর্টিকেল গুলো বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে শেয়ার হতে থাকবে।

এবং এর বিপরীতে, 

আমাদের ব্লগে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলোর মাধ্যমে আসা ট্রাফিক এর পরিমাণ প্রচুর বেড়ে যাবে।

তাছাড়া, সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম গুলোর থেকে ট্রাফিক আসলে সেটা ওয়েবসাইটের SEO র ক্ষেত্রেও প্রচুর ভালো।

আবার, এভাবে সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর মাধ্যমে আমাদের ওয়েবসাইটের branding ও marketing অবশই হয়ে যায়।

তাই, নিজের ব্লগে সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিন এর ব্যবিহার অবশই করবেন।

এতে, 

আপনার ওয়েবসাইটে পাবলিশ করা প্রত্যেক আর্টিকেলের শেষে বা আর্টিকেলের শুরুতে, কিছু social media sharing button দেখানো হবে।

এবং, 

যখন সেই sharing button গুলোতে click করা হবে, তখন আপনার আর্টিকেলটি নিজে নিজে social media platform গুলোতে share হয়ে যাবে।

তবে, সেটা visitor এর দ্বারা নির্ধারিত করা হবে যে তারা কোন social platform এ আপনার আর্টিকেল share করছেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিং এর ব্যবহার ও কাজের বিষয়ে এমনিতে আমরা প্রত্যেকেই জানি।

তাই, সেই বিষয় নিয়ে আমরা বেশি আলোচনা করবোনা।

আজকের আলোচনার বিষয় গুলোর সংক্ষেপ উল্লেখ

social media sharing plugin for WordPress
Top 10 social media sharing plugin for WordPress

আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় হলো, “ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের জন্য সেরা সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন প্লাগিন কোন গুলো ও কি কি“.

হে, আজকে আমরা জেনেনিব “best WordPress social media sharing plugin” গুলোর বিষয়ে।

আমি যেগুলো প্লাগিন এর বিষয়ে বলবো, সেগুলো সম্পূর্ণ ফ্রী।

তাহলে চলুন, সেরা ওয়ার্ডপ্রেস সোশ্যাল শেয়ারিং প্লাগিন গুলো কি কি জেনেনেই।

Social media plugin ব্যবহার করে কি লাভ হবে ?

একটি ওয়েবসাইটের আর্টিকেলের শেষে বা ওপরে “social sharing button” ব্যবহার করলে, সেটা আমাদের ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে প্রচুর লাভজনক হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। 

কিভাবে জানতে চান ?

  1. ওয়েবসাইটটি দেখতে সুন্দর, আধুনিক ও আকর্ষণীয় লাগবে। 
  2. আপনার ওয়েবসাইটের মার্কেটিং হবে। 
  3. আর্টিকেল পেজে প্রচুর সোশ্যাল মিডিয়া ট্রাফিক পাবেন।
  4. ওয়েবসাইটের ব্র্যান্ডিং (branding) এর ক্ষেত্রে কাজে আসবে। 
  5. গুগল সার্চ ইঞ্জিন অর্গানিক ট্রাফিক বৃদ্ধি পাবে।

ক. Attractive website design

একটি আকর্ষণীয় ও মডার্ন ওয়েবসাইট আমরা সবাই ভালো পায়।

এবং, যখন আপনি নিজের ব্লগের আর্টিকেল পেজ গুলোতে কিছু social sharing button ব্যবহার করবেন, তখন পেজটি দেখতে অনেক আধুনিক ও আকর্ষণীয় লাগবে। 

এতে, ভিসিটর দের নজরে আপনার ওয়েবসাইটের ভ্যালু (value) বারবে। 

খ. Free website marketing & promotion

আপনার ব্লগ সাইট নতুন হোক কি পুরোনো, যেকোনো সময় ব্লগের মার্কেটিং বা প্রচার করাটা অনেক জরুরি। 

ব্লগ এর মার্কেটিং এর ফলে আমরা আমাদের ব্লগের বিষয়ে সাধারণ লোকেদের জানিয়ে দিতে পারি। 

ফলে, গুগল সার্চ ইঞ্জিন ছাড়াও আমাদের ব্লগে ভালো পরিমানে direct traffic চলে আসার সুযোগ থাকে।

আর এই ক্ষেত্রে,

যখন আমাদের ব্লগের visitors বা reader রা, ওয়েবসাইটের সোশ্যাল মিডিয়া বাটন ব্যবহার করে আমাদের আর্টিকেল গুলো শেয়ার করেন, তখন ফ্রীতেই আমাদের ওয়েবসাইটের মার্কেটিং ও প্রচার হয়ে যায়। 

এতে, শেয়ার করা ব্যক্তির social media account এর মধ্যে থাকা নানান ইউসার রা আমাদের ওয়েবসাইটটির বিষয়ে জানেন। 

তাই, একটি ওয়েবসাইটের প্রচার (marketing) এর ক্ষেত্রে, এই ধরণের সোশ্যাল শেয়ারিং করাটা অনেক প্রয়োজন। 

এবং, সেটা আপনি কিছু সাধারণ ও সেরা ওয়ার্ডপ্রেস সোশ্যাল শেয়ারিং প্লাগিন ব্যবহার করে করতে পারবেন। 

গ. Free social media traffic

যখন আপনার ব্লগের আর্টিকেল গুলো সোশ্যাল প্লাটফর্ম গুলোতে প্রচুর শেয়ার করা হবে, তখন আপনার ব্লগে সেই সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর থেকে প্রচুর social traffic আসার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।  

ফলে আপনার ব্লগের আর্টিকেল পেজ গুলোতে আসা মোট ট্রাফিক এর পরিমান সাংঘাতিক ভাবে বৃদ্ধি পাবে। 

ঘ. Free website branding

যখন আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ গুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচুর শেয়ার করা হবে, তখন প্রচুর লোকেরা আপনার ব্লগের বিষয়ে অনলাইনে জেনেনিতে পারেন। 

এতে কিছু সময় পর, লোকেদের মধ্যে আপনার ওয়েবসাইটের একটি ভালো ছবি তৈরি হয়। 

তাছাড়া, লোকেরা আপনার ওয়েবসাইটের নাম বা ডোমেইন নাম সহজেই মনে রাখতে পারেন এবং আপনার ওয়েবসাইটে তারা কি ধরণের কনটেন্ট পেতে পারেন সেটাও তাদের জ্ঞান হয়ে যায়। 

আর এভাবেই, যখন হাজার হাজার লোকেরা আপনার ব্লগটি ডাইরেক্ট ডোমেইন নাম এর মাধ্যমে চেনেন এবং ভিসিট করেন, তখন সেটার মানে হলো, “আপনার ওয়েবসাইটটি একটি ভালো ব্র্যান্ড (brand) হিসেবে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে”.

ঙ. Increased google organic traffic

একটি ভালো ব্র্যান্ড হিসেবে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুগল অনেক পছন্দ করে। 

তাই, যখন আপনার ওয়েবসাইটের একটি ভালো ছবি ও ব্র্যান্ড তৈরি হয়ে আসবে, তখন গুগল সার্চ থেকে আসা অর্গানিক ট্রাফিক এর পরিমান অবশই বৃদ্ধি পাবে। 

তাছাড়া, এটা দেখা গেছে যে, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে অধিক শেয়ার হওয়া আর্টিকেল গুলো, গুগল তার সার্চ ইঞ্জিন রেজাল্ট পেজে (SERP) ভালো করে র্যাংক করে। 

কারণ, যখন একটি আর্টিকেল সোশ্যাল মিডিয়াতে অধিক পরিমানে শেয়ার করা হয়, তখন গুগলের কাছে একটি positive ranking signal যায়। 

গুগল মনে করে যে, যেহেতু আর্টিকেলটি অধিক বেশি শেয়ার করা হচ্ছে তাই নিশ্চই সেখানে প্রচুর কাজের তথ্য রয়েছে। 

আর, ওয়েবসাইটে আসা ইউসাররা কারণ ছাড়া কিন্তু কোনো ধরণের আচরণ করেনা।  

 তাহলে বুঝলেন তো, একটি নতুন ওয়েবসাইট হোক কি পুরোনো প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই কিন্তু সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন এর ব্যবহার করাটা অনেক জরুরি। 

এতে, ইউসাররা অনেক সহজেই ব্লগের আর্টিকেল গুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার ও প্রচার করতে পারেন। 

তবে, আপনি যদি WordPress ব্যবহার করে নিজের ব্লগ তৈরি করেছেন, তাহলে অনেক সহজেই কিছু ফ্রি প্লাগিন এর মাধ্যমে নিজের ওয়েবসাইটে সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন দেখাতে পারবেন। 

ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং বাটন প্লাগিন (১০+)

নিচে আমি, WordPress এর জন্য যেগুলো social share button plugin গুলোর কথা বলবো, প্রত্যেকটাই আপনারা ফ্রীতে ব্যবহার করতে পারবেন। 

এমনিতে অনেক সোশ্যাল শেয়ার প্লাগিন রয়েছে, যেগুলো আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট স্লো করে দিতে পারে। 

তাই, কেবল এমন প্লাগিন ব্যবহার করুন যেগুলো আকর্ষণীয় শেয়ার বাটন এর সাথে সাথে ওয়েবসাইটের performance এর ওপরেও ধ্যান দেয়। 

এবং, নিচে আমি এরকম কিছু best social plugin গুলোর বিষয়েই আপনাদের বলে দিচ্ছি। 

AddToAny Share Button Plugin 

AddToAny social plugin for WordPress

WordPress এর ক্ষেত্রে AddToAny share button plugin অনেক জনপ্রিয় এবং প্রায় লক্ষ লক্ষ ওয়ার্ডপ্রেস ইউসাররা এই প্লাগিন ব্যবহার করছেন। 

এই প্লাগিন ব্যবহার করে, ওয়েবসাইটে অনেক সহজ ভাবে শেয়ার বাটন যোগ করা যেতে পারে। 

আমি নিজেই এই প্লাগিন প্রায় কিছু বছর ব্যবহার করেছি। 

এর মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন জনপ্রিয় social media যেমন,

  • Facebook 
  • Twitter 
  • Pinterest
  • Google
  • Whatsapp
  • LinkedIn
  • Reddit

এবং, প্রায় আরো ১০০ থেকেও অধিক সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম গুলোতে নিজের আর্টিকেল শেয়ার করার ক্ষেত্রে শেয়ার বাটন যোগ করতে পারবেন। 

এমনিতে এই সেরা প্লাগিন এর মাধ্যমে, আমরা আমাদের আর্টিকেলের ওপরে/শেষে বা দুটোই জায়গায় social share button যোগ করতে পারি। 

তাছাড়া, যদি আপনারা “Floating share button” ব্যবহার করতে চান, তাহলে সেটাও যোগ করতে পারবেন।

ডিজাইন এর কথা বললে, এর শেয়ার বাটন গুলো আপনার ওয়েবসাইটের থিম এর সাথে ম্যাচ হয়ে খুব আকর্ষণীয় দেখায়।

এবং, সম্পূর্ণ responsive হওয়ার কারণে এই বাটন গুলো যেকোনো সাইজ এর স্ক্রিনে এডজাস্ট হয়ে পরে। 

এই প্লাগিন এর কিছু features হলো,

  1. হালকা ও লোড হতে অধিক সময় নেয়না। 
  2. ওয়েবসাইট এর লোডিং স্পিড স্লো করেনা। 
  3. আর্টিকেলে বিভিন্ন জায়গায় যোগ করার অপসন রয়েছে। 
  4. Responsive design.
  5. Attractive design & style.
  6. Floating button support.

Social Warfare

Social warfare plugin for WordPress

Social Warfare plugin আমার হিসেবে অনেক ভালো ও জনপ্রিয় একটি WordPress social media plugin.

এমনিতে, অনেক professional blogger রা এই plugin ব্যবহার করেন।

এখানে আপনারা নানান customization options পাবেন, যেগুলো আপনার sharing button গুলো আকর্ষণীয় করে তুলবে।

তাছাড়া, এই প্লাগিন প্রচুর lightweight এবং আপনার ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড স্লো করেনা।

হে, এই প্লাগিন এর মাধ্যমে আপনারা ওয়েবসাইটে responsive share button দেখাতে পারবেন।

মানে, যেকোনো screen size এর মোবাইলে button গুলোর size adjust হয়ে যাবে।

আমি আমার প্রায় প্রত্যেক ব্লগ গুলোতে এই প্লাগিন ব্যবহার করে সোশ্যাল বাটন শো করি।

এখানে, প্রায় প্রত্যেক জনপ্রিয় social media button গুলো যেমন,

  • Facebook
  • Twitter
  • Pinterest
  • LinkedIn

ইত্যাদি আরো অন্যান্য বাটন রয়েছে, যেগুলো নিজের ওয়েবসাইট গুলোতে দেখাতে পারবেন।

Features of Social Warfare,

  • Share count দেখতে পারবেন।
  • ওয়েবসাইট স্লো করবেনা।
  • Responsive design.
  • Stylish sharing buttons.
  • Manual placement options.
  • Floating share buttons.

Scriptless Social Sharing

Scriptless Social Sharing

একটি অনেক আকর্ষণীয় এবং অনেক হালকা সোশ্যাল প্লাগিন যেকোনো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের জন্য।

অনেক সহজে, এই Scriptless Social Sharing এর মাধ্যমে নিজের ওয়েবসাইটের page এবং posts গুলোর শেষে একটি অনেক আকর্ষণীয় শেয়ার বাটন যোগ করতে পারবেন।

এই প্লাগিন টিতে কোনো ধরণের JavaScript ব্যবহার করা হয়নি, তাই অনেক simple এবং অনেক lightweight এই প্লাগিন।

যদি আপনি নিজের ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড এর ওপরে প্রভাব না ফেলেই শেয়ার বাটন যোগ করতে চাচ্ছেন, তাহলে এই প্লাগিন সেরা।

এখানে, আপনারা বিভিন্ন রকমের “icon style” এবং “button design” বেছে নিতে পারবেন।

সেটিংস পেজে গিয়ে, আপনারা নিজের প্রয়োজন ও সুবিধে হিসেবে বাটন সেটিং করতে পারবেন।

Features of Scriptless Social Sharing,

  • No JavaScript
  • Simple & attractive
  • Button style setting options
  • Responsive
  • Stylish button design

Kiwi Social Share

Kiwi social share plugin

আমার হিসেবে, সব থেকে সহজ এবং সরল ওয়ার্ডপ্রেস সোশ্যাল প্লাগিন হলো “kiwi social share” প্লাগিন।

এর মাধ্যমে, আপনারা বিভিন্ন design এবং style এর social share icon নিজের ব্লগে যোগ করতে পারবেন।

আর্টিকেলের ওপরে হোক বা আর্টিকেলের শেষে অথবা দুটোই ক্ষেত্রেই এই প্লাগিন এর মাধ্যমে social icon bar শো করতে পারবেন।

এমনিতে, অন্যান্য সোশ্যাল প্লাগিন গুলোর তুলনায় এর social icon bar অনেক আকর্ষণীয়।

তাছাড়া, কতটা ইউসার এর মাধ্যমে আপনার আর্টিকেল শেয়ার করা হয়েছে, সেই share count এর তথ্য দেখানো হবে।

এই প্লাগিন সম্পূর্ণ Responsive এবং যেকোনো মোবাইল বা কম্পিউটার স্ক্রিনে সঠিক ভাবে ডিসপ্লে হয়ে যায়।

আর, এর ফলে আপনার ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিডে কোনো ধরণের খারাপ প্রভাব পড়বেনা।

 Facebook, Twitter, LinkedIn, Pinterest ইত্যাদি প্রত্যেক জনপ্রিয় সোশ্যাল বাটন এখানে রয়েছে।

Features of kiwi social Share,

  • সহজ এবং সরল প্লাগিন অপসন
  • 4 Different skin design
  • Fast loading speed
  • Responsive
  • Google Analytics tracking
  • Change the shape of the floating bar
  • Display the number of share counts

Grow by Mediavine

সেরা সোশ্যাল শেয়ার বাটন প্লাগিন

ওপরে ছবিতে দেখেই আপনারা বুঝতে পারছেন যে Grow by mediavine নামের প্লাগিন ব্যবহার করলে আপনারা কিরকম ধরণের share button icon ব্লগে দেখাতে পারবেন।

এমনিতে, এই প্লাগিন অনেক ভালো পরিমানে “5 star rating” পেয়েছে এবং ব্যবহার করা প্রত্যেক ব্লগার দের প্রতিক্রিয়া ভালোই।

সোশ্যাল শেয়ারিং আইকন গুলোকে অনেক সুন্দর করে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন নিজের ব্লগের ডিজাইনের হিসেবে।

তাছাড়া, প্লাগিনটি অনেক হালকা এবং ওয়েবসাইটের লোডিং এর ওপরে প্রভাব ফেলতে দেখা জাইনেই।

এর ফ্রি ভার্সন ব্যবহার করে আপনারা  “Facebook, Twitter, Google+, Pinterest এবং LinkedIn“, এই জনপ্রিয় সোশ্যাল শেয়ার বাটন গুলো ওয়েবসাইটে দেখাতে পারবেন।

আপনি, ব্লগের আর্টিকেলের শেষে এবং আর্টিকেলের ওপরে সোশ্যাল শেয়ার বাটন যোগ করতে পারবেন।

Floating Sidebar Social Buttons এই প্লাগিন এর মাধ্যমে যোগ করতে পারবেন।

Retina Ready Sharp Share Icons এর ফলে দেখতে প্রচুর স্পষ্ট ও আকর্ষণীয় লাগবে আপনার আইকন গুলো।

Grow by Mediavine features,

  • Floating Sidebar
  • Social Share Counts
  • Retina Ready Sharp Icons
  • Stylish button
  • Mobile Sticky Footer Share Buttons
  • Google Analytics tracking

Shared Counts

ব্লগের আর্টিকেলে শেয়ার বাটন

Shared counts, ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্য অনেক দ্রুত ও সরল একটি সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ার প্লাগিন।

এখানে আমাদের কিছু সেরা সোশ্যাল মিডিয়া বাটন বা আইকন দেওয়া হয়।

যেমন,

  • Facebook Share
  • Pinterest Pin Button
  • Twitter Tweet Button 
  • Email Sharing
  • LinkedIn Share

তাছাড়া, প্লাগিন এর user interface অনেক user friendly.

মানে, icon ও button settings করার ক্ষেত্রে আপনাদের কোনো ধরণের সমস্যা হবেনা।

বিভিন্ন রকমের stylish buttons আপনাকে দেওয়া হবে।

আপনার যেই বাটন স্টাইল ভালো লাগে, সেটাই সিলেক্ট করতে পারবেন।

আর্টিকেলের ওপরে না আর্টিকেলের শেষে, কোথায় সোশ্যাল শেয়ার বাটন গুলো দেখাতে চান, সেটা সেট করে নেওয়াটা অনেক সহজ।

তাছাড়া, total কতটা share হয়েছে সেই total share count ডিসপ্লে করাটা সম্ভব।

Responsive এবং stylish social button গুলো অনেক আকর্ষণীয় এবং অনেক স্পষ্ট।

Features of shared counts,

  • All major share buttons
  • Simple settings
  • Website performance এর ওপর খারাপ প্রভাব ফেলবেনা।
  • Responsive
  • Attractive share icons

Easy Social Sharing

কিভাবে আর্টিকেলে শেয়ার বাটন দেখাবো

এই ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন এর মাধ্যমে আপনারা অনেক সহজেই নিজের আর্টিকেল পেজ গুলোতে সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন যোগ করতে পারবেন।

অন্যান্য প্লাগিন গুলোর মতোই এখানেও আপনারা মোট শেয়ার এর সংখ্যা দেখাতে পারবেন।

১৮ টি আলাদা আলাদা রকমের সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন আপনারা নিজের পোস্ট বা পেজে দেখাতে পারবেন।

সব থেকে বড় কথা, এই প্লাগিন অনেক জনপ্রিয় ও বিখ্যাত একটি ওয়ার্ডপ্রেস প্রিমিয়াম থিম কোম্পানির দ্বারা তৈরি করা হয়েছে।

সেই কোম্পানিটি হলো “themegrill“.

Features of easy social sharing,

  • Simple Beautiful Buttons
  • Responsive Design
  • Button Designs
  • 18 Popular Social Buttons
  • Social Share Count
  • Floating Social Buttons
  • Easy Settings
  • 7 Design Layouts

Social media feather

Social media feather social plugin

Social media feather, অনেক হালকা এবং অনেক stylish একটি প্লাগিন যে আপনার প্রত্যেকটি আর্টিকেল পেজে আকর্ষণীয় সোশ্যাল শেয়ার আইকন শো করবে।

আমার পরামর্শ হলো, আপনারা এমন একটি সোশ্যাল প্লাগিন ব্যবহার করুন, যেটা আপনার ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড নিয়ে কোনো সমস্যার সৃষ্টি না করুক।

এবং, এই social media feather প্লাগিনটি ব্যবহার করলে, আপনার ওয়েবসাইটের performance এর ওপর কোনো ধরণের খারাপ প্রভাব পড়বেনা।

তাছাড়া, Retina এবং high resolution display থাকার ফলে, আইকন গুলো প্রচুর আকর্ষণীয় এবং আধুনিক দেখা যায়।

হে, যেকোনো device যেমন mobile, tablet বা কম্পিউটর এর screen এর হিসেবে এই বাটন গুলো এডজাস্ট হয়ে যায়।

কিছু বিখ্যাত ও জনপ্রিয় সোশ্যাল প্রোফাইল যেমন “Facebook, Twitter, Google+, reddit, Pinterest, tumblr, Linkedin এবং e-mail এর মাধ্যমে শেয়ার করার বাটন আপনারা দেখাতে পারবেন।

Features of Social media feather,

  • ব্লগের প্রত্যেক পোস্টে সহজেই শেয়ার বাটন যোগ করতে পারবেন।
  • Retina and high resolution displays
  • Full customization & editing options
  • Default modern icon set
  • Attractive design
  • Fast and responsive

Mash share

ওয়ার্ডপ্রেস এর সোশ্যাল প্লাগিন

ওপরে ছবিতে আপনারা দেখতেই অপরছেন যে কিরকম সোশ্যাল শেয়ার বাটন আপনারা এই প্লাগিন এর মাধ্যমে পাবেন।

তবে, আমি কেবল default ও সাধারণ একটি আইকন ব্যবহার করেছি।

আপনারা আর্টিকেলের নিচে বা ওপরে যেকোনো জায়গায় শেয়ার বাটন দেখাতে পারবেন।

তাছাড়া, যদি চান তাহলে দুটো জায়গায় শেয়ার বাটন অবশই যোগ করতে পারবেন।

Share button এর সাথে “share count” আপনারা দেখতে পারবেন।

মানে, মোট কতটা শেয়ার হয়েছে, সেটাও ডিসপ্লে করা হবে।

শেয়ার আইকন বা বাটন গুলোকে নিজের হিসেপে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন।

ছোট শেয়ার আইকন বা বড়, সব রকমের আইকন দেখানোর অপসন আপনার কাছে রয়েছে।

তাছাড়া, এই প্লাগিন ব্যবহার করলে আপনার ওয়েবসাইট স্লো কখনোই হবেনা।

তাই, যদি আপনারা একটি ভালো সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিন খুঁজছেন, তাহলে “mash share” ব্যবহার করে দেখুন।

Features of mash share,

  • High Resolution share button icons
  • Total Social Media Share count
  • Responsive
  • Never slow down your website
  • Highly customizable

Social snap

Social snap WordPress share plugin

যদি আপনারা নিজের ব্লগের আর্টিকেলে শেয়ার বাটন দেখাতে চাচ্ছেন, তাহলে আমার হিসেবে “Social snap” অনেক ভালো একটি WordPress plugin.

এর মাধ্যমে আপনারা অনেক সুন্দর ও আকর্ষণীয় share icon নিজের ব্লগে দেখাতে পারবেন।

Facebook, Twitter, LinkedIn, Email ইত্যাদি বিভিন্ন আলাদা আলাদা social network গুলো যোগ করতে পারবেন।

তাছাড়া, mobile screen এবং computer screen এর ক্ষেত্রে, আলাদা আলাদা share icon বা button দেখাতে পারবেন।

Button customization এর মাধ্যমে, শেয়ার আইকন গুলোকে আরো আকর্ষণীয় করে নেওয়ার অপসন রয়েছে।

কনটেন্ট এর শেষে বা কনটেন্ট এর আগেই, যেখানে খুশি এই শেয়ার বাটন গুলো যোগ করতে পারবেন।

Super-lightweight SVG (vector) icons” ব্যবহার করার ফলে, icon গুলো প্রচুর তাড়াতাড়ি লোড হয়ে যায় এবং ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড নিয়ে কোনো সমস্যার সৃষ্টি হয়না।

শেষে, এই প্লাগিন এর মাধ্যমে দেখানো icon বা button গুলো দেখতে অনেক স্পষ্ট এবং আকর্ষণীয়।

Features of social snap,

  • Floating Sidebar Share Buttons 
  • Lightweight & fast
  • Responsive
  • Different icon on mobile and computer
  • 6 Beautifully Designed Styles
  • Retina ready
  • Stylish & attractive icons

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, যদি আপনারাও নিজের ব্লগের আর্টিকেলের ওপরে বা শেষে একটি আকর্ষণীয় সোশ্যাল শেয়ার বাটন লাগাতে চান, তাহলে ওপরে দেওয়া ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন গুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

ওপরে বলা প্রত্যেকটি প্লাগিন সম্পূর্ণ ফ্রি এবং সেগুলোর মাধ্যমে অনেক আধুনিক এবং আকর্ষণীয় শেয়ার বাটন নিজের আর্টিকেল গুলোতে যোগ করতে পারবেন।

আমার এটাই চেষ্টা থাকে যাতে আমি আপনাদের কিছু কাজের তথ্য প্রদান করতে পারি।

তাই, আর্টিকেলের সাথে জড়িত কত প্রশ্ন ও সমস্যা থাকলে, নিচে কমেন্ট অবশই করবেন।

তাছাড়া, আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকলে শেয়ার (share) অবশই করবেন।

Also read –

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

6 thoughts on “ওয়ার্ডপ্রেস এর সেরা সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং প্লাগিন : (10+ Free plugin)”

  1. ভাইয়া আপনার লেখাগুলো আমার খুব ভালো লাগে। আপনি এত বড় পোষ্ট কীভাবে লেখেন ভাই, আমাকে কৌশল টা শিখিয়ে একটু হেল্প করেন। আপনার প্রতিটা আর্টিকেল ই অনেক সুন্দর এবং তথ্যবহুল।

    1. অনেক ধন্যবাদ ভাই। বড় পোস্ট বলে কথা নেই। আমি আর্টিকেল লেখার আগেই সেই আর্টিকেলে কি কি বিষয়ে কথা বলবো সবটাই খাতা কলমে লিখে নেই। তারপর, সেই বিষয় গুলোর ওপরে তথ্য যোগ করি। এই ক্ষেত্রে, আর্টিকেল কতটা বড় বা ছোট হচ্ছে সেটা নিয়ে আমি ভাবিনা। কেবল, যতটা সম্ভব সম্পূর্ণ তথ্য দেওয়ার চেষ্টা আমার থাকে।

      1. আমার একটা ব্লগ আছে। আপনি একটু দেখে বলবেন যে আমার ব্লগের সবকিছু ঠিকঠাক আছে কিনা এ্যাডসেন্স এপ্লাই এর জন্য।
        আর ভাই আপনি কি কম্পিউটার দিয়ে লিখেন নাকি অ্যান্ড্রয়েড দিয়ে।

        1. আপনার ব্লগ ঠিক আছে তবে আর্টিকেল গুলো প্রচুর ছোট ও সংক্ষেপে লিখেছেন। একটুত থ্যবহুল কনটেন্ট লিখুন আর তারপর এডসেন্সের জন্য এপলাই করুন।
          আমি ব্লগিং এর ক্ষেত্রে desktop PC ব্যবহার করি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap