ইউটিউব মার্কেটিং কি ? কিভাবে করবেন এবং কি লাভ হবে

ইউটিউব মার্কেটিং (YouTube Marketing) হলো, বর্তমানে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেকোন পণ্য (product) বা সার্ভিস (service) প্রচার ও মার্কেটিং করার সবথেকে জনপ্রিয় এবং সেরা উপায়। 

ইউটিউব মার্কেটিং কি
ইউটিউব ভিডিও মার্কেটিং কাকে বলে ?

আসলে, ইউটিউব এর মাধ্যমে মার্কেটিং করা মানে, ভিডিওর মাধ্যমে অনলাইনে মার্কেটিং করা। 

তাই, ইউটিউব মার্কেটিং কে ভিডিও মার্কেটিং বলেও বলা যেতে পারে।

বর্তমানে, গুগল সার্চ ইঞ্জিন এর পর “ইউটিউব সার্চ ইঞ্জিন“, ইন্টারনেটে যেকোনো তথ্য গ্রহণ বা যেকোনো বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে সবথেকে বেশি পরিমাণে ব্যবহার করা হয়। 

তাই আপনি বুঝতেই পারছেন যে, ইউটিউবে আপলোড করা ভিডিও গুলি কতটা বেশি পরিমাণে ইন্টারনেটে দেখা হয়। 

এবং, এই সুযোগের লাভ নিয়েই, বর্তমানে বিভিন্ন কোম্পানি, ব্যবসার মালিক বা ব্যক্তিগত ভাবে লোকেরা, ব্যবসার সাথে জড়িত ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করে, ইউটিউবে আপলোড দিয়ে দেয়।  

এতে, তারা তাদের বিভিন্ন প্রডাক্ট, সার্ভিস এবং নিজেদের ব্র্যান্ড গুলি, ইন্টারনেটে ভিডিওর মাধ্যমে ভাইরাল (viral), প্রচার বা মার্কেটিং (marketing) করে দিচ্ছেন।  

এবং, ভিডিওর মাধ্যমে অনলাইনে করা মার্কেটিং এর এই প্রক্রিয়াটিকেই বলা হয় ভিডিও মার্কেট

যেহেতু, এই ভিডিও মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি, ইউটিউব (YouTube) এর মাধ্যমে করা হচ্ছে, তাই একে ইউটিউব মার্কেটিং বলা হয়। 

বা, বলতে পারেন যে, “YouTube এর মাধ্যমে marketing”.

তাহলে চলুন,  ইউটিউব মার্কেটিং কি, এই ব্যাপারে অধিক ভালোভাবে জেনে নেওয়া যাক। (About YouTube Marketing in Bangla).

ইউটিউব মার্কেটিং কি ? (What Is YouTube Marketing in Bangla)

আজ যেকোনো একটি কোম্পানি হোক, যে কোন ব্লগ বা ওয়েবসাইট বা ব্যবসা (business) প্রত্যেকেই তাদের কনটেন্ট, পণ্য (product), সার্ভিস বা ব্র্যান্ড (brand), ইউটিউব ভিডিও মার্কেটিং এর মাধ্যমে  লক্ষ্যবস্ত গ্রাহক এবং ইউজার এর মধ্যে প্রচার করতে পারছেন।

আর তাই, এই অনলাইন মার্কেটিং (online marketing) এর প্রক্রিয়াটি, আধুনিক মার্কেটিং এর সব থেকে লাভজনক  এবং জনপ্রিয় উপায় হিসেবে প্রকাশ পেয়েছে। 

সোজা ভাবে বললে, ইউটিউব মার্কেটিং হল ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি  অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভাগ, যেখানে ব্যবসার সাথে জড়িত ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করে, YouTube এবং ইন্টারনেটের সাহায্যে লোকেদের ভিডিও গুলি দেখানো হয়। 

এবং, ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকা যেসব user বা ব্যাক্তিরা আপনার প্রচার করা ভিডিও গুলি দেখবেন, তারা ঘরে বসেই আপনার product বা business এর ব্যাপারে জেনেনিতে পারবেন।

এবং, ভিডিওর মাধ্যমে করা এই সম্পূর্ণ মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটিকেই বলা হয়, “YouTube video marketing” বা সংক্ষেপে “YouTube marketing“.

বর্তমান সময়ে, ইউটিউব এর মাধ্যমে এই ধরনের অনলাইন মার্কেটিং যেকেউ অনেক সহজে করে নিতে পারেন।

হে, আপনি চাইলে আপনিও ইউটিউবে নিজের ব্যবসা, ব্লগ, ওয়েবসাইট বা যেকোনো পণ্যের (product)  সাথে জড়িত বিষয় গুলি নিয়ে ভিডিও আপলোড করে, ইন্টারনেটে সেগুলিকে প্রচার ও মার্কেটিং করতে পারবেন।

তবে মনে রাখবেন ভিডিও মার্কেটিং কেবল একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে তাতে ভিডিও আপলোড করাটাকেই বলেনা। 

ভিডিওর মাধ্যমে মার্কেটিং করার জন্য আপনার প্রচুর ক্রিয়েটিভ (creative) হতে হবে। 

কারণ, লোকেরা সব ধরণের ভিডিও দেখতে পছন্দ করেননা। 

আমি বা আপনি, এমন ভিডিও দেখে পছন্দ করি যেগুলি আমাদের মনোরঞ্জন দেয় বা কোন ধরনের পরামর্শ, জ্ঞান বা উপদেশ দেয়।

তাই, আপনার ব্যবসা যেটাই হোক না কেন, ভিডিওর মাধ্যমে তাকে অনলাইনে মার্কেটিং করার জন্য একটি ভালো ভিডিও স্ক্রিপ্ট (video script) আগেই তৈরি করে নিতে হবে। 

শেষে, যদি আমরা আবার প্রশ্ন করি যে, “ইউটিউব ভিডিও মার্কেটিং কি“, তাহলে এর সোজা এবং সঠিক উত্তর হবে

“ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করে YouTube Platform এর মাধ্যমে, ভিডিও গুলি আপলোড করে ইন্টারনেটে প্রচার করার প্রক্রিয়াটিকে বলা হয় ইউটিউব মার্কেটিং”।

কিভাবে করবেন ইউটিউব মার্কেটিং ?

YouTube এর মাধ্যমে marketing করার নিয়ম এমনিতে অনেক সহজ এবং সোজা।

কিছু সহজ স্টেপ (steps) গুলি পুরো করে আপনারা এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি ব্যবহার করতে পারবেন এবং এর থেকে প্রচুর লাভ নিয়ে নিতে পারবেন।

১. নিজের ইউটিউবের চ্যানেল তৈরি করুন

সবচে, আগেই আপনার একটি ইউটিউবের চ্যানেল তৈরি করতে হবে।

এমনিতে, চ্যানেল তৈরি করাটা অনেক সহজ।

এতে, আপনার একটি Google account বা Gmail ID র প্রয়োজন হবে।

Gmail ID র মাধ্যমে, YouTube account এ লগইন করার পর, Create channel অপসন ব্যবহার করে, নিজের একটি video channel তৈরি করে নিতে পারবেন।

আপনি, এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জেনেযাবেন “কিভাবে একটি ইউটিউবের চ্যানেল তৈরি করবেন“.

ওপরে দেওয়া লিংক গুলি আপনার অবশই কাজে আসবে।

চলুন, আমরা দ্বিতীয় স্টেপ কি, সেটা জেনেনেই।

২. Setup Your Channel 

এখন ইউটিউবে যেই চ্যানেলটি আপনি তৈরি করলেন, সেটাতে নিজের business বা product এর ওপরে ভিক্তি করে একটি নাম দিন।

মনে, রাখবেন, channel name এমন দিতে হবে, যেটা দেখেই লোকেরা বুঝে যেতে পারে যে, আপনি কি বিষয়ে ভিডিও গুলিতে কথা বলবেন।

তাছাড়া, channel এর নামটি নিজের business brand হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন।

এতে, লোকেরা সহজেই আপনার ব্যবসা বা সার্ভিস এর ব্যাপারে, চ্যানেল এর নাম দেখেই ধরে নিতে পারবে।

এর বাইরেও, channel art, social profile links, channel profile picture এবং channel description এর বিষয়গুলি ভালো করে সেটআপ (setup) করে নিতে হবে।

এতে, আপনার চ্যানেল অনেক focused এবং আকর্ষণীয় দেখাবে।

৩. Create videos related to your business 

এখন, নিজের একটি YouTube channel তৈরি করে, channel setup করার পর, আপনার তৈরি করতে হবে videos.

তবে, আপনি কি ভিডিও তৈরি করবেন, সেটা আপনার ওপরে।

ধরুন, আপনার একটি application রয়েছে, যেটার মাধ্যমে online cab booking করা যাবে।

এখন এই ক্ষেত্রে, আপনার এমন একটি ভিডিও তৈরি করতে হবে, যেখানে আপনি আপনার application টির ব্যাপারে বুঝিয়ে বলতে পারেন।

আপনার এমন video তৈরি করতে হবে যেটা দেখে লোকেরা স্পষ্ট ভাবে আপনার ব্যবসা, পণ্য বা সার্ভিস এর বেপারে সম্পূর্ণটা বুঝে যেতে পারবেন।

মনে রাখবেন, আপনার ভিডিও দেখে লোকেরা বিরক্তি যাতে না পায়, সেরকম একটি video content তৈরি করাটা জরুরি।

এখন, আপনি এরকম একটি ভিডিও কিভাবে তৈরি করবেন, সেটা আপনার সৃজনশীলতার (creativity) ওপরে নির্ভর করবে।

তাছাড়া, আপনার বানানো ভিডিও কত ছোট বা বড় হবে সেটা আপনার ওপরে নির্ভর করবে।

এমনিতে, কম সময়ের ছোট ভিডিও গুলি ইউটিউব মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে অধিক লাভজনক।

৪. Video গুলি SEO র জন্য optimize করুন

আপনার আপলোড করা ভিডিও গুলিতে, Google search এবং YouTube search থেকে ফ্রীতেই organic traffic পাওয়ার প্রচুর সুযোগ থাকবে।

তাই, এই ধরণের ওয়েব সার্চ ইঞ্জিন (web search engine) গুলির থেকে যতটা বেশি সম্ভব traffic ও visitors পাওয়ার চেষ্টা রাখবেন।

কারণ, এভাবে আপনি নতুন নতুন video viewer নিজের ভিডিও গুলির মাধ্যমে পাবেন।

তাছাড়া, এভাবেই আপনি আপনার business বা product গুলির অনলাইন প্রচারের জন্য নতুন নতুন মানুষ পেতে থাকবেন।

তবে মনে রাখবেন, search engine গুলোর থেকে প্রচুর পরিমানে organic video views পাওয়ার জন্য, আপনার “YouTube SEO” র বিষয়ে প্রচুর জ্ঞান রাখতেই হবে।

YouTube SEO techniques গুলো ব্যবহার করে, আপনারা video গুলি Google search এবং YouTube search engine এর জন্য optimize করতে পারবেন।

ওপরে দেওয়া লিংক (link) টিতে গিয়ে, আপনারা YouTube SEO কি, ব্যাপারটা সম্পূর্ণ ভাবে বুঝতে পারবেন।

৫. ভিডিও গুলি ইন্টারনেটে প্রোমোট (promote) করুন 

এমনিতে, আপনার তৈরি করা ভিডিও গুলিতে search engine গুলির থেকে প্রচুর view বা traffic আসার প্রচুর সুযোগ থাকবে, যদি আপনি সঠিক ভাবে video SEO optimization করছে।

তবে, search engine ছাড়াও আমরা আপলোড করা ভিডিও গুলি অন্যান্য অনেক জায়গায় প্রোমোট (promote) করতে পারি।

যেমন, social media platforms যেমন, Facebook বা twitter এ।

এই সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলিতে, যেকোনো বিষয়ে রুচি রাখা লক্ষ লক্ষ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা (user) রয়েছেন।

তাই, আপনি নিজের business বা brand এর একটি social media profile তৈরি করে, ভিডিও গুলির লিংক সেখানে শেয়ার করতে পারবেন।

এছাড়াও, ইন্টারনেটে থাকা অন্যান্য ওয়েবসাইট যেমন, forum website, question & answer websites (Quora), blog তৈরি করে, আপনারা নিজের ভিডিও গুলিকে promote ও প্রচার করতে পারবেন।

ফলে, এভাবে আপনি আপনার ব্যবসা বা সার্ভিস গুলিকে ভিডিওর মাধ্যমে দ্রুত গতিতে অনলাইনে মার্কেটিং করতে পারবেন।

৬. YouTube ads এর ব্যবহার করুন 

এখন, যদি আপনি অনেক কম সময়ের ভেতরে নিজের, brand, business, product বা service গুলিকে অনলাইনে ইউটিউবের মাধ্যমে মার্কেট (market) করতে চাচ্ছেন, তাহলে “YouTube Ads” বা “Google Ads” ব্যবহার করতে পারবেন।

Google এবং YouTube ads সার্ভিস ব্যবহার করে, আপনারা অনেক কম টাকা খরচ করেই, লক্ষ্যবস্তু ভিডিও ভিউ (targeted video views) পেয়ে যাবেন।

এই মাধ্যমে, আপনার ভিডিও গুলিকে, ভিডিওর বিষয়ের সাথে জড়িত অন্যান্য ইউটিউব ভিডিও গুলিতে বিজ্ঞাপন হিসেবে দেখানো হয়।

ভিডিওর বিজ্ঞাপনে দেখানো আপনার ভিডিও গুলি, ভিউয়ার দ্বারা ৩০ সেকেন্ড দেখা হলেই আপনার থেকে টাকা নেওয়া হবে।

অন্যান্য ইউটিউবের ভিডিও গুলি যখন লোকেরা দেখেন, তখন এই ধরণের video ads গুলি, ভিডিও শুরু হওয়ার আগেই বা কিছু সময় পর দেখানো হয়।

তাহলে, এভাবেও নিজের video গুলোর জন্য অনেক দ্রুত ভাবে targeted views পেতে পারবেন।

এতে, আপনার promote করা video গুলি অনলাইনে প্রচুর লোকেরা দেখার সুযোগ পাবে।

তাছাড়া, YouTube ads ব্যবহার করে, ভিডিও বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সোজা ভাবে targeted customers পাওয়ার সুযোগ প্রচুর।

এবং, YouTube marketing এর ক্ষেত্রে এই প্রক্রিয়া অনেকটাই জরুরি ও লাভজনক।

YouTube marketing করে কি লাভ হবে ?

ইউটিউব মার্কেটিং কি এবং কিভাবে ইউটিউব ভিডিও মার্কেটিং করবেন, এই বিষয়ে সম্পূর্ণটা আমি আপনাদের বললাম।

YouTube হলো বিশ্বের সব থেকে বড় এবং অনেক জনপ্রিয় একটি video sharing platform.

এবং, গুগলের পরেই দ্বিতীয় সব থেকে বড় search engine বলা হয় YouTube কে।

তাই, এখানে যেকোনো বিষয়ে রুচি রাখা, যেকোনো বয়েসের এবং বিভিন্ন দেশ বিদেশ থেকে ইন্টারনেট ইউসাররা, ভিডিও দেখার উদ্দেশ্যে আসছেন।

এতে, আপনার business বা brand গুলিকে, YouTube channel ও video র মাধ্যমে মার্কেটিং ও প্রচার করে, নিমিষের মধ্যে অধিক গ্রাহক পেয়ে যেতে পারবেন।

তাছাড়া, এভাবে YouTube channel এর মাধ্যমে নিজের business, product, service, app বা website গুলির সাথে জড়িত আপডেট বা তথ্য গুলি, সময়ে সময়ে ভিডিও হিসেবে পাবলিশ করে, নিজের গ্রাহক বা viewers দের সাথে সংযুক্ত থাকতে পারবেন।

এবং, এটাও কিন্তু মার্কেটিং এর এক অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপায়।

তবে, এখন চলুন আমরা ইউটিউব মার্কেটিং এর লাভ এবং সুবিধা গুলোর বিষয়ে জেনেনেই।

7 Benefits of YouTube marketing 

  • চিরকাল নতুন নতুন গ্রাহক (customers) বা viewers পাওয়ার সুযোগ রয়েছে।
  • YouTube এ আপলোড করা ভিডিও গুলিতে Google search থেকেও organic users আসবে।
  • এর মাধ্যমে, আপনি আন্তর্জাতিকভাবে (internationally) নিজের businesses বা brand এর মার্কেটিং করতে পারবেন।
  • YouTube Ads এবং Google Ads এর মাধ্যমে, লক্ষ্যবস্তু শ্রোতা (targeted audience) পেয়ে যাবেন।
  • ভিডিওর মাধ্যমে মার্কেটিং করাটা বর্তমানে অধিক লাভজনক। কারণ, ইন্টারনেটে এখনের সময়ে video content অধিক জনপ্রিয়।
  • YouTube এর মাধ্যমে marketing, অনেক সহজে নিজেই করতে পারবেন।
  • নিজের চ্যানেলে “স্থায়ী subscribers” অর্জন করতে পারলে, ভবিষ্যতেও তারা আপনার চ্যানেল এর সাথে সংযুক্ত হয়ে থাকবে। এভাবে, আপনার একটি ভালো এবং বড় audience base তৈরি হয়ে যাবে।

তবে, এগুলি হলো ইউটিউব মার্কেটিং এর কিছু সেরা ও গুরুত্বপূর্ণ লাভ ও সুবিধা।

এছাড়াও আরো অনেক লাভ রয়েছে এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রক্রিয়ার।

তবে, নিজে এই অনলাইন ভিডিও মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটি ব্যবহার করার পর, এর প্রত্যেক লাভ ও সুবিধা গুলি বুঝতে পারবেন।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, আজকে আমরা জানলাম যে “ইউটিউব মার্কেটিং কি” (What Is YouTube Marketing in Bangla), এর লাভ এবং সুবিধা কি কি।

এমনিতে, digital marketing এর যেকোনো মাধ্যম বা সাধন গুলি ব্যবহার করে, আমরা অনেক সহজে নিজের ব্যবসা বা সার্ভিস গুলি ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনলাইনে সক্রিয় থাকা লোকেদের কাছে প্রচার করতে পারি।

যেহেতু video content, বর্তমানে ইন্টারনেটে সক্রিয় অধিকাংশ লোকেরা অনেক পছন্দ করেন, তাই ভিডিওর মাধ্যমে মার্কেটিং করাটা আজ অনেক লাভজনক একটি ব্যাপার।

তাছাড়া, আপনারা যদি এই বিষয়ে কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ দিতে চাচ্ছেন, তাহলে অবশই আমাকে কমেন্ট করতে পারবেন।

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

1 thought on “ইউটিউব মার্কেটিং কি ? কিভাবে করবেন এবং কি লাভ হবে”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap