0

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন ? ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

আজ, অনলাইন ইন্টারনেটে টাকা আয় করার সবচেয়ে সহজ এবং লাভজনক উপায় হলো ইউটিউব (YouTube)। হে, ইউটিউবে চ্যানেল বানিয়ে তাতে ভিডিও আপলোড দিয়ে টাকা আয় করাটা অবশই অনেক সহজ কথা। আজ অনেকেই এই YouTube business করে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন। এবং,আপনি যদি এই অনলাইন ব্যবসা ঘরে বসে করতে চান তাহলে আগে YouTube চ্যানেল কি এবং কিভাবে চ্যানেল তৈরি করবেন সেটা জেনেনিতে হবে। অবশই আপনি এই আর্টিকেলে YouTube চ্যানেল কি এবং ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম কি সেটা জেনেনিতে পারবেন।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

How to create a YouTube channel ?

ইউটিউব চ্যানেল কি এবং কিভাবে চ্যানেল তৈরি করবেন ?

কিভাবে চ্যানেল খোলা যায় সেটা আমি আপনাদের অবশই বলবো। কিন্তু, চলেন আগে YouTube এর চ্যানেল কি সেটা জেনেনেই।

আসলে YouTube গুগলের একটি সার্ভিস (service) বা ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইট আমাদের ফ্রীতে কোনো টাকা না নিয়ে অনেক রকমের ভিডিও অনলাইন মোবাইল বা কম্পিউটারে দেখতে দেয়। এখানে আপনি সবরকমের ভিডিও, গান, সিনেমা, সিরিয়েল, টিউটোরিয়াল ভিডিও এবং অনেক অনেক রকমের ভিডিও আপনি দেখতে পারবেন।

আর, সোজাসোজি ভাবে বলতেগেলে YouTube হলো এমন একটি ওয়েবসাইট যে পুরো দুনিয়াতে সবাইকে ফ্রীতে অনেক রকমের ভিডিও বা সিনেমা অনলাইন লাইভ দেখতে দেয়।

এখন, ইউটিউবে যেই ভিডিওগুলি আপ্নে দেখেন সেগুলি সেখানে কিভাবে আসে ? কে YouTube এ সেই ভিডিওগুলি আপলোড করে ?

এই প্রশ্নোর উত্তর হলো, “আমার আর আপনার মতো লোকেরা”. হে, আমার এবং আপনার মতো লোকেরা ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করেন YouTube চ্যানেলের মাধ্যমে।

YouTube এর একটি চ্যানেল একটি ইউটিউব প্রোফাইলের মতন। যেরকম আমরা ফেসবুক বা টুইটারে প্রোফাইল তৈরি করি সেরকম ইউটিউবে চ্যানেল খোলা মানে একটি ইউটিউব প্রোফাইল বানানো।

একটি ইউটিউবের চ্যানেল বানানোর পর আপনার একটি চ্যানেলের নাম থাকবে এবং সেই চ্যানেলের নামের বা প্রোফাইলের মাধ্যমে আপনি ইউটিউবে নিজের বানানো ভিডিও আপলোড দিতে পারবেন এবং লোকেদের সেই ভিডিও দেখাতে পারবেন। লোকেরা আপনার চ্যানেলে গিয়ে আপনার আপলোড করা সবকয়টা ভিডিও দেখেনিতে পারবে।

তাহলে সোজাসোজি ভাবে বললে, একটি YouTube channel হলো আপনার একটি YouTube প্রোফাইলের মতো যার দ্বারা আপনি নিজের বানানো ভিডিও YouTube এ আপলোড করতে পারবেন এবং আপনার সেই চ্যানেলের মাধ্যমে লোকেরা আপনার আপলোড করা ভিডিও দেখতেও পারবেন।

Also read –

আশাকরি আপনি YouTube channel কি সেটা অবশই বুঝেগেছেন। তাহলে চলেন, এখন আমরা নিচে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম কি সেটা জেনেনেই।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন ? জানেন চ্যানেল খোলার স্টেপ বই স্টেপ নিয়ম

ইউটিউবে একটি চ্যানেল বানানোর জন্য সবচে আগে আপনার প্রয়োজন হবে একটি গুগল  জিমেইল একাউন্টের। হে, YouTube গুগলের একটি service বা product আর তাই ইউটিউবে signin বা লগইন করার জন্য আপনার একটি জিমেইল আইডি প্রয়োজন হবে।

আপনার যদি জিমেইল আইডি নেই, তাহলে জিমেইলে একটি ফ্রি ইমেইল একাউন্ট কিভাবে বানাবেন এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জেনেনিন।

তাহলে চলেন এখন আমরা নিচে ইউটিউবে চ্যানেল বানানোর প্রক্রিয়া স্টেপ বাই স্টেপ জেনেনেই।

১. ইউটিউবে লগইন বা signin করুন

সবচে আগেই আপনাকে যেতে হবে ইউটিউবের ওয়েবসাইটে। ইউটিউবের ওয়েবসাইটে গিয়ে একদম ওপরে ডানদিকে আপনি “sign in” বলে একটি লিংক দেখবেন। আপনি সেই signin button এ ক্লিক করুন।

২. নিজের gmail account দিয়ে লগইন করুন

এখন YouTube এ গিয়ে Sign in এ ক্লিক করার পর আপনি একটি web page দেখবেন যেখানে আপনাকে নিজের Google বা Gmail একাউন্টের Id এবং password দিয়ে লগইন করতে বলা হবে। আমি আগেই বলেছি যে, YouTube google company র একটি সার্ভিস এবং তাই YouTube এ লগইন করতে আপনার নিজের জিমেইল একাউন্টের ব্যবহার করতে হবে।

যেরকম আপনি ওপরে ছবিটি দেখছেন ঠিক তেমন আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ স্ক্রিনে আসবে এবং আপনাকে সরাসরি নিজের Gmail আইডি এবং পাসওয়ার্ড টাইপ করে “Next” button এ ক্লিক করতে হবে।

 ৩. YouTube চ্যানেল তৈরি করুন

নিজের জিমেইল একাউন্টের আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে ইউটিউবে লগইন করার পর আপনি YouTube dashboard এ লগইন হয়ে যাবেন।

এখন আপনাকে চ্যানেল খোলার জন্য সবচে আগেই YouTube dashboard এর সবচে ওপরে ডানদিকে শেষে থাকা ছোট্ট “profile Icon” টিতে ক্লিক করতে হবে। ভালোকরে জানার জন্য আপনি নিচে দেয়া ছবিটি দেখুন।

এখন, YouTube profile icon এ ক্লিক করার পর আপনি কিছু options দেখবেন। এই option গুলির মধ্যে সোজাসোজি “My channel” অপশনে ক্লিক করুন।

 

ইউটিউবে চ্যানেল অপশনে যান

Go YouTube profile icon and My channel.

এখন, My channel অপশনে ক্লিক করার পর আপনি দেখবেন আপনাকে YouTube একটি পেজ দেখাবে যেখানে লেখা থাকবে “Use YouTube as” লেখা থাকবে এবং তার নিচে দুটো ছোট ছোট বাক্স দেয়া থাকবে। সেই ছোট্ট বাক্স গুলিতে আপনাকে নিজের চ্যানেলের জন্য নাম লিখে দিতে হবে।

Select Channel name .

মানে, যেরকম ওপরে ছবিটিতে আপনি দেখছেন আমরা বাক্সটিতে “বাংলা টেকনোলজি” লিখেছি। কারণ আমরা আমাদের ইউটিউবের চ্যানেলের নাম বাংলা টেকনোলজি রাখতে চেয়েছি।

তাই, ঠিক তেমন কোরে আপনি নিজের চ্যানেলের নাম সেই দুটো বাক্সতে লিখুন যা আপনি দিতে চান এবং নিচে “Create Channel” এ ক্লিক করুন।

Congratulations, দেখো সোজাসোজি বলতে গেলে আপনার চ্যানেল তৈরি হয়েগেছে এবং আপনি এখন নিজের চ্যানেল edit, design বা তাতে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন।

Create channel এ ক্লিক করার পর আপনি পরের পেজে দুটো অপশন দেখবেন। একটি হলো “Creator studio” এবং আরেকটি “Customize channel“.

ইউটিউব চ্যানেল বানানো হয়েগেছে

Customize channel অপশনে গিয়ে আপনি নিজের ইউটিউব চ্যানেল customize করতে পারবেন। মানে, আপনি নিজের চ্যানেলে প্রোফাইল পিকচার, background ছবি (Channel art), description, About এরকম ধরণের জিনিস লাগাতে এবং আপডেট করতে পারবেন।

Creator studio অপশনে গিয়ে আপনি নিজের চ্যানেলের জন্য অনেক রকমের সেটিংস (settings) করতে পারবেন। যেমন channel settings, video manager, আপনার চ্যানেলে কয়টা subscribers হলো, ভিডিওতে কতটা views (দেখা) হয়েছে।

আপনি এই দুটো অপশনে নিজে গেলেই বুঝতে পারবেন যে অপশন গুলি দিয়ে  আপনি কি কি করতে পারবেন। Customize channel এবং Creator studio এই দুটো অপশনে পরেদিয়ে যাওয়ার জন্য আপনি YouTube dashboard এর একদম ওপরে ডানদিকে থাকা profile icon এ ক্লিক করুন। এতে আপনি creator studio অপসন দেখবেন।

যদি আপনি Customize channel অপশনে যেতে চান, তাহলে creator studio তে গিয়ে “View channel” এ ক্লিক করুন।

৪. ইউটিউবে ভিডিও কিভাবে আপলোড করবেন ?

ইউটিউবে নিজের একটি চ্যানেল বানানোর পর আপনার অশোক কাজটা হলো “নিজের চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করা”. কারণ, যখন আপনি ভিডিও আপলোড করবেন তখন লোকেরা আপনার চ্যানেলে আসবে এবং আপনার আপলোড করা ভিডিও দেখবেন। আসলে কেবল তখনই আপনি নিজের ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা আয় করা আরম্ভ করতে পারবেন।

তাই, চ্যানেল বানিয়ে নেয়ার পর ভালো ভালো ভিডিও যেগুলি নাকি লোকেরা দেখে ভালো পাবেন এবং লোকেরা দেখতে চান সেরকম ভিডিও নিজের চ্যানেলে আপলোড করবেন। আর, চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করাটা অনেকটাই সোজা।

YouTube চ্যানেল বানানোর পর তাতে ভিডিও আপলোড করার জন্য আপনি প্রথমে YouTube এর একদম ওপরে থাকা “Video icon”  এ আপনার ক্লিক করতে হবে।

Video icon এ ক্লিক করার পর আপনি দুটো অপশন দেখবেন “Upload a video” এবং “Go live” . এখন আপনাকে সোজাসোজি “Upload a video” তে ক্লিক করে নিন।

Upload a video তে ক্লিক করার পর এখন পরের পেজে আপনি ভিডিও আপলোড করার জন্য অপসন দেখবেন। আপনি “select file to upload” বলে একটি জায়গা বা লেখা দেখবেন।

select video to upload

বাস, সোজাসোজি সেখানে ক্লিক করুন এবং নিজের কম্পিউটার বা ল্যাপটপের থেকে ভিডিও সিলেক্ট করে তাকে আপলোড করুন।

Also read YouTube থেকে ভিডিও কিভাবে ডাউনলোড করবেন ?

তাহলে friends, আশাকরি আপনারা ইউটিউবে ভিডিও কিভাবে আপলোড করবেন সেটাও ভালোকরে বুঝে গেছেন। আমি আপনাদের ইউটিউবে চ্যানেল বানানোর নিয়ম এবং চ্যানেলে ভিডিও কিভাবে আপলোড করবেন দুটো জিনিস বুঝিয়ে বলেছি। যদি আপনাদের কোনোরকমের অসুবিধা হয়ে থাকে তাহলে আমাকে নিচে কমেন্ট করুন বা আমাদের facebook পেজ নিজের প্রশ্ন লিখে পোস্ট করুন।

৫. নিজের ইউটিউবের চ্যানেল verify করুন

এখন, আমাদের আরো একটি অনেক জরুরি কাজ বাকি রয়েছে। সেটা হলো, channel verification. আপনি অবশই খেয়াল রাখবেন যে, কেবল চ্যানেল বানিয়ে তাতে ভিডিও আপলোড করলেই হবেনা। নিজের চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার জন্য এবং আরো অনেক রকমের সুবিধা এবং অপশনের জন্য আপনাকে নিজের বানানো চ্যানেল verify অবশই করতে হবে।

YouTube চ্যানেল ভেরিফাই করার জন্য আপনি নিচে দেয়া স্টেপ গুলো ভালো করে বুঝে নিন।

স্টেপ ১.

সবচে আগে আপনার যেতে হবে creator studio অপশনে আর তার জন্য আপনি নিজের YouTube dashboard থেকে ওপরে ডানদিকে থাকা “profile icon” এ ক্লিক করুন। প্রোফাইল আইকনে ক্লিক করার পর আপনি creator studio অপসন দেখতে পাবেন।

স্টেপ ২.

এখন creator studio পেজ যাওয়ার পর আপনি বামদিকে অনেকগুলো options দেখবেন। আপনাকে সোজাসোজি বামদিকের থেকে “Channel” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

স্টেপ ৩.

এখন চ্যানেলে ক্লিক করার পর সেই পেজে আপনি নিজের ইউটিউবের চ্যানেলের নাম দেখবেন এবং তার নিচে “Verify” বলে একটি লিংক বা লেখা দেখবেন। আপনি সোজাসোজি সেই “verify” লিংকে ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করুন

স্টেপ ৪.

এখন verify লিংকে ক্লিক করার পর আপনি পরে “account verification” পেজ দেখবেন।

একাউন্ট ভেরিফিকেশন পেজে আপনি প্রথমে নিজের দেশ (country) সিলেক্ট করে তারপর “text me the verification code” অপশনে ক্লিক করুন। এরপর নিচে মোবাইল নম্বর বক্সে নিজের মোবাইল নম্বর দিয়ে “submit” অপশনে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৫.

এখন, submit অপশনে ক্লিক করার পর আপনার দেয়া মোবাইল নম্বরে একটি verification code sms এর মাধ্যমে আপনার মোবাইলে যাবে। আপনাকে সেই verification code ভালোকরে দেখে YouTube মোবাইল নম্বর verification বক্সে দিতে হবে। এই বাক্সটি আপনি ওপরে স্টেপ ৪ এ submit ক্লিক করার পর দেখতে পাবেন।

নিজের মোবাইলে আশা ভেরিফিকেশন কোড ভালোকরে নম্বর ভেরিফিকেশন বক্সে দিয়ে ok/verify করার পর আপনার ইউটিউব চ্যানেল পুরোপুরি ভাবে active এবং ভেরিফাই হয়ে যাবে।

এখন আপনি “continue” অপশনে ক্লিক করে নিজের চ্যানেল ব্যবহার করতে পারবেন, চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন এবং চ্যানেল ও ভিডিও থেকে টাকা আয় করার জন্য এপলাই (apply) করতে পারবেন।

তাহলে বন্ধুরা, আশাকরি আপনারা ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম, চ্যানেলে ভিডিও কিভাবে আপলোড করবেন এবং চ্যানেল verify কিভাবে করবেন সবটাই আপনারা ভালো করে বুঝে গেছেন। কোনো প্রশ্ন থাকলে অবশই নিচে কমেন্ট করবেন।

BanglaTech

BanglaTech

Hello , আমি RAHUL DAS India থেকে। আমি ব্লোগ্গিং করে অনেক ভালো বেশি আর তাই আমি এই ব্লগটা বানিয়েছি। আমি একটা গ্রাজুয়েট commerce background থেকে যে ৯ থেকে ৬ office এ job করি । এই ব্লগটিতে আমি আমার নলেজ আপনার সাথে শেয়ার করবো। এখানে , ব্লোগ্গিং,ইন্টারনেট ট্রিকস, অনলাইন আর্নিং এর মতো জিনিস আপনারা পরতে পাবেন। ধন্যবাদ। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *