0

কিভাবে জিমেইল একাউন্ট খোলা যায় ? Gmail account খোলার নিয়ম

কিভাবে একটি জিমেইল একাউন্ট খোলা হয় – আজ অনলাইন হোক বা অফলাইন যেকোনো কাজে আমাদের একটি ইমেইল আইডির প্রয়োজন হয়। আপনি অনলাইন টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, অনলাইন শপিং করার কথা, facebook একাউন্ট খোলা বা চাকরির জন্য বায়োডাটা দেয়ার কথা। সবখানেই, আপনার একটি ইমেইল একাউন্ট দেবাটা দরকার হবে। আর সত্যিটাই বলতে গেলে আজ একটি হলেও email account সবের কাছেই আছে বা থাকে। কিন্তু, যদি আপনি এখনো নিজের একটি ইমেইল আইডি বানাননি, তাহলে চিন্তা করবেননা। আজ এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের, gmail এ একটি ফ্রি ইমেইল আইডি কিভাবে খুলতে হয় তা বলবো। Gmail account খোলার নিয়ম অনেক সোজা। আর তাই, নিচে আমি যেরকম করে আপনাদের একাউন্ট বানানোর নিয়ম বলবো, সেরকম করে আপনি এক এক করে নিজের জিমেইল আইডি বানিয়ে নিতে পারবেন।

How to create a gmail account !

এইটা অবশই মনে রাখবেন, gmail account এবং google account দুটো একটাই জিনিস। তাই, অনেকে যারা google account কিভাবে বানাবো এর বিষয়ে খোঁজ করছেন, তারা এইটা মনে রাখবেন যে আপনি একটি জিমেইল আইডি বানানো মানেই গুগল আইডি বানানো। জিমেইল গুগলের একটি product আর তাই গুগল বা জিমেইল একাউন্ট দুটো একেই জিনিস।

এমনিতে, একটি ফ্রি ইমেইল আইডি বানানোর জন্য জিমেইল ছাড়া hotmail বা yahoo অনেক বোরো রকমে ব্যবহার করা হয়। Hotmail বা yahoo দ্বারা আপনি একটি ফ্রি email id বানিয়ে নিতে পারবেন। কিন্তু, যিহেতু Gmail ID গুগলের একটি product তাই আমাদের android মোবাইলে gmail আইডি অনেকরকমে প্রয়োজন। তাই, আমি আপনাদের এই আর্টিকেলে জিমেইল একাউন্ট বানানোর নিয়ম শিখাবো। Gmail এর দ্বারা বানানো ইমেইল আইডি আপনি সব রকমের কাজে সব সময় ব্যবহার করতে পারবেন।

অবশ্যই পড়বেন –

তাই চলেন, শুরু করি আমরা আজকের tutorial .

একটি জিমেইল একাউন্ট (gmail account) কিভাবে বানাবো ?

জিমেইলে একটি ইমেইল আইডি বানানোর যা নিয়ম আমি নিচে বলবো তা করার জন্য আপনার একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ, মোবাইল নম্বর এবং ইন্টারনেট কানেক্শনের দরকার হবে। এমনিতে, আপনি মোবাইল নাম্বার ছাড়া জিমেইলে একাউন্ট বানাতে পারবেন। কিন্তু, মোবাইল নাম্বার ছাড়া আইডি বানালে একটি সমস্যা হতে পারে। যদি, আপনি কোনসময় নিজের জিমেইল password ভুলে যান, তখন নতুন পাসওয়ার্ড পাওয়াতে আপনার জন্য অনেক কষ্ট হতে পারে। তাই নতুন ইমেইল আইডি বানানোর সময় নিজের মোবাইল নাম্বার দেওয়াটা অনেক জরুরি।

Gmail আইডি কিভাবে খুলবো ? একাউন্ট তৈরির সরাসরি নিয়ম

সবচেয়ে আগে, আপনি নিজের কম্পিউটার বা ল্যাপটপের web browser এ গিয়ে জিমেইলের ওয়েবসাইটে যান। জিমেইলের ওয়েবসাইটে গিয়ে তারপর নিচে দেওয়া steps গুলো এক এক কোরে করুন।

স্টেপ ১:

গুগল জিমেইলের ওয়েবসাইটে যাওয়ার পর আপনি একটি বাক্স দেখবেন, যেখানে আপনাকে আপনার জিমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করতে বলা হবে। কিন্তু, যিহেতু আপনার কাছে কোনো আইডি বা পাসওয়ার্ড নেই তাই আপনাকে একটি নতুন ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড বানাতে হবে। নতুন ইমেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড বানানোর জন্য সবচে আগে বক্সের নিচে থাকা “Create account” লিংকে ক্লিক কোরতে হবে।

স্টেপ ২:

Create account লিংকে ক্লিক করার পর আপনি একটি পেজ (form) দেখবেন যেখানে আপনার কিছু details দিতে হবে।

যেরকম আপনি ওপরে ছবিতে দেখতে পারছেন, আপনার ফর্মে (form) তিনটি জিনিস ভরতে হবে। সেগুলি হলো,

  • আপনার নাম
  • নতুন ইমেইল আইডি
  • পাসওয়ার্ড।

সবচে প্রথমে, “First name” এবং “last name” এর জায়গায় আপনি নিজের প্রথম এবং শেষ নাম লিখুন।

তারপর, “Username” এর জায়গায় নিজের নতুন জিমেইল আইডি লিখুন। আপনি username (নতুন ইমেইলের আইডির নাম) যা ভালো বুঝেন তাই দিতে পারবেন। মনে রাখবেন, আপনি এখানে যা নাম দিবেন সেটাই আপনার গুগল বা জিমেইল আইডি হবে এবং ভবিষতে জিমেইলে লগইন করার জন্য এবং কাওকে ইমেইল পাঠানোর জন্য আপনাকে এই username বা মেইল আইডি টি ব্যবহার করতে হবে। আমাদের জিমেইল username বা আইডি হলো – “[email protected]“.

এখন শেষে, “password” এবং “confirm password” এর জায়গায় একটি পাসওয়ার্ড লিখুন। যা পাসওর্ড দিবেন সেটা দুটো জায়গায় একেই হতে হবে। আর মনে রাখবেন ওপরে বানানো ইমেইল username এবং এখন বানানো পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনি নিজের মেইল একাউন্টে লগইন করতে পারবেন। তাই পাসওয়ার্ড যা দিবেন সেটা ভালোকোরে মনে রেখেনিবেন।

এখন ফর্মে সব ভরার পর এখন নিচে “next” এর লিংকে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৩:

প্রথম ফর্মটা ভালোকরে ভরার পর এখন আপনি আরেকটা ফর্ম দেখবেন। এই ফর্মে আপনাকে নিজের মোবাইল নম্বর, জন্মের তারিখ এমন লিংগ (male বা female) সেটা জানাতে হবে।

যা আপনি ওপরে ছবিতে দেখতে পারছেন, আপনাকে প্রথমে নিজের মোবাইল নাম্বার “phone number” অপশনে দিতে হবে। কিন্তু, আমি যা আগে বলেছি আপনি যদি মোবাইল নাম্বার ছাড়া জিমেইল আইডি বানাতে চান তাহলে মোবাইল নম্বর না দিলেও চলবে।

এখন, আপনি “recovery email address” option এ যদি কোনো অন্য ইমেইল আইডি  আপনার কাছে আছে তাহলে তা এখানে দিন। যদি, আপনার কাছে কোনো অন্য ইমেইল আইডি বানানো নেই তাহলে কিছু লিখতে হবেনা। এই option এ কিছু নাদিলেও চলবে। Recovery email address এর মাধ্যমে আপনি ভবিষ্যতে ভুলেযাবা একাউন্ট পাসওয়ার্ড আরোগ্য (recover) করতে পারবেন।

এখন নিচে “your birthday” অপশনে গিয়ে নিজের জন্মৰ দিন ও তারিখ দেন।

এখন নিচে, “Gender” (লিংগ) অপশনে গিয়ে নিজের লিংগ বাছুন। আপনি পুরুষ হলে “male” এবং মহিলা হলে “female” অপশনের বাছাই করুন।

সবকাছু লিখার এবং দেওয়ার পর নিচে “next” লিংকে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৪:

যদি আপনি আগের ফর্মে নিজের মোবাইল নাম্বার দিয়েছিলেন তাহলে এখন আপনার দেবা মোবাইল নাম্বারটি verify কোরতে হবে। নম্বর verify করার জন্য আপনি “verify your phone number” নামের একটি পেজ দেখবেন।

এখন, verify phone number পেজে নিচে “send” অপশনে ক্লিক করুন। এতে আপনার দেওয়া মোবাইল নাম্বারে গুগলের থেকে একটি কোড নাম্বার যাবে।

স্টেপ ৫:

এখন নিজের মোবাইলে যাওয়া কোড নম্বরটি আপনি “enter verification code” বক্সে লিখুন এবং নিচে “verify” লিংকে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৬:

এখন মোবাইল নাম্বার verify করার পর, পরের স্টেপ হবে google terms & conditions পেজটি accept (গ্রহণ) করতে হবে। Terms এবং conditions গ্রহণ করার জন্য যেই privacy & terms পেজ আপনি দেখছেন তাতে নিচে “I agree” লিংকে ক্লিক করুন। I agree তে ক্লিক করলে গুগল privacy এবং terms আপনার দ্বারা গ্রহণ হয়ে যাবে।

স্টেপ ৭:

Google privacy and terms গ্রহণ করার পর আপনি “Get more from your number” বলে একটি পেজ দেখতে পারেন। এখানে, গুগল অথবা জিমেইল আপনাকে গুগলের অন্য সেবা গুলির জন্য আপনার মোবাইল নম্বর ব্যবহার করার কথা জিগাবে। যেমন, গুগলের ভিডিও কল সেবা। তো, যিহেতু আপনি নিজের ইমেইল আইডি বানাতে চান তাই, নিচে “skip” লিংকে ক্লিক করুন।

স্টেপ ৮:

অভিনন্দন, এখন আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট তৈরি হয়ে গেছে। এখন আপনি নিজের বানানো ইমেইল আইডি দিয়ে অন্য মেইল আইডিতে ইমেইল পাঠাতে পারবেন এবং অন্যকেও আপনার জিমেইল আইডিতে মেইল পাঠাতে পারবে।

আপনি অবশই নিজের বানানো ইমেইল একাউন্টের username (ইমেইল আইডি) এবং পাসওয়ার্ড মনে রাখবেন। মেইল আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনি যেকোনো মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে নিজের জিমেইল একাউন্ট খুলতে, মেইল পড়তে বা মেইল পাঠাতে পারবেন।

 

আমাদের শেষ কথা,

তো friends, জিমেইলে একটি ফ্রি ইমেইল একাউন্ট কিভাবে বানাবো বা খুলবো তা আমি উপরে আপনাদের ভালোকরে বুঝিয়ে বলেছি। কেবল ২ মিনিটে নিজের মোবাইল নম্বর দিয়ে বা নাদিয়ে আমরা একটি গুগল একাউন্ট বানিয়ে নিতে পারি। আমি, এরপর আরেকটা আর্টিকলে আপনাদের জিমেইল থেকে মেইল কিভাবে পাঠাতে হয় এবং মেইল কিভাবে লিখবো তা বুঝিয়ে বলবো।

এখন এতটুকু জেনে রাখুন, জিমেইল থেকে কাওকে ইমেইল পাঠাতে হলে “Compose” অপশনে ক্লিক করুন আর তারপর মেইল লিখে জেক পাঠাবেন তার email address লিখে মেইল পাঠাতে পারবেন।

আর, আপনার মেইল আইডিতে যদি কোনো মেইল আসে তাহলে আপনি তা “Inbox” গিয়ে দেখতে পারবেন। জিমেইল ব্যবহার করা অনেক সোজা।  আপনি কয়দিন ব্যবহার করলেই বুঝাযাবেন।

আশাকরি, আজকের এই পোস্ট আপনাদের ভালো লেগেছে। যদি তাই হয় তাহলে আর্টিকেল টি শেয়ার অবশই করবেন। এবং, নিচে comment করতে ভুলবেননা।

BanglaTech

BanglaTech

Hello , আমি RAHUL DAS India থেকে। আমি ব্লোগ্গিং করে অনেক ভালো বেশি আর তাই আমি এই ব্লগটা বানিয়েছি। আমি একটা গ্রাজুয়েট commerce background থেকে যে ৯ থেকে ৬ office এ job করি । এই ব্লগটিতে আমি আমার নলেজ আপনার সাথে শেয়ার করবো। এখানে , ব্লোগ্গিং,ইন্টারনেট ট্রিকস, অনলাইন আর্নিং এর মতো জিনিস আপনারা পরতে পাবেন। ধন্যবাদ। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *