গেম খেলে টাকা ইনকাম করার আসল এবং কার্যকর উপায় – ৮টি

অনলাইনে গেম খেলে টাকা ইনকাম করার শখ এবং স্বপ্ন আজ অনেকেরই রয়েছে (earn money by playing games)।

বিশেষ করে, YouTube-এর মতো প্লাটফর্ম এর মধ্যে নিয়মিত Game streaming করে এবং নানান Gameplay Videos গুলি আপলোড করে, নানান ইউটিউব ক্রিয়েটররা তাদের ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করার বিষয়টা আজ আর লুকিয়ে নেই।

একজন গেমার হিসেবে গেম খেলে টাকা আয় করাটা এখনের সময়ে কোনো নতুন ব্যাপার না। তাই আপনিও চাইলে, গেম খেলে অনলাইনে নানান মাধ্যমে টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

অবশই, তার জন্য আপনাকে জেনেনিতে হবে যে, গেমাররা কি কি উপায়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন সেই সম্পূর্ণ উপায় গুলির বিষয়ে।

গেম রিলেটেড সার্ভে গুলি সম্পূর্ণ করা, স্ট্রিমিং, গেমিং ব্লগ, গেমপ্লে রেকর্ডিং, গেম খেলে ইনকাম করার অ্যাপস, অনলাইন গেম টুর্নামেন্ট, ইত্যাদি নানান উপায় গুলি রয়েছে যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে একজন গেমার অনলাইন থেকে টাকা আয় করার সুযোগ পেয়ে থাকেন।

তাহলে, যদি আপনিও মোবাইল বা পিসি গেমিং করেন এবং অনলাইন গেম খেলে টাকা ইনকাম করার কথা ভাবছেন, সেক্ষেত্রে নিচে বলে দেওয়া এই প্রত্যেকটি উপায় গুলির বিষয়ে একে একে জেনেনিন।

অনলাইনে গেম খেলে টাকা ইনকাম করুন:

অনলাইন গেম খেলে টাকা ইনকাম
How to earn money online as a Gamer?

আজ প্রায় প্রত্যেকটি দেশেই, গেমিং ইন্ডাস্ট্রিটি কিন্তু ব্যাপক সফলতার পথে এগিয়ে চলেছে। আজ, বেশিরভাগ ঘরে ঘরেই একটি গেমিং পিসি (Gaming PC) বা ps4, ps5, Xbox, এর মতো একটি গেমিং কনসোল রয়েছে।

তাই, দেশে এতো বড় সংখ্যায় যখন গেমারদের কোম্পানিটি রয়েছে, তাই গেম খেলে ইনকাম করার সুযোগও প্রচুর তৈরি হচ্ছে। আর বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই, গেম খেলে আয় করার উপায় গুলি কিন্তু মূলত অনলাইন উপায়।

Google-এর মধ্যে খানিকটা সার্চ করলেই বুঝতে পারবেন যে, এমন অনেক Professional esports players-রা আছেন যারা prize money এবং gaming sponsorships-এর জন্যে নানান গেমিং টুর্নামেন্ট গুলিতে অংশগ্রহণ করে।

তবে বর্তমান সময়ে streamers-রা প্রচুর জনপ্রিয়তা লাভ করছেন যেখানে তারা নিজের গেমপ্লে সেসন গুলিকে স্ট্রিম করেন এবং, বিজ্ঞাপন, ডোনেশন এবং স্পনসরশিপ এর মতো উপায় গুলির দ্বারা টাকা ইনকাম করেন।

এগুলি ছাড়াও, বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটে এমন নানান ওয়েবসাইট/প্লাটফর্ম গুলি পাবেন, যেগুলিতে নানান ধরণের গেমিং প্রতিযোগিতা গুলির আয়োজন করা হয়, যেগুলিতে অংশগ্রহণ করে প্রতিযোগিতা জিততে পারলে, অনেক ভারী রকমের রিওয়ার্ড (reward) ইনকাম করা যেতে পারে।

আবার, এমন নানান অ্যাপস এবং ওয়েবসাইট গুলি পাবেন যেগুলিতে গিয়ে নানান অনলাইন গেম গুলি খেলার জন্য টাকা দেওয়ার কথা বলা হয়। এই ধরণের অ্যাপস/ওয়েবসাইট গুলির থেকে আবার অনেক সামান্য পরিমানের ইনকাম আপনি করতে পারবেন।

আসল কথাটি এটাই যে, একজন গেমার হিসেবে আপনিও গেম খেলে প্রচুর টাকা ইনকাম করার সুযোগ অবশই পেতে পারেন। তবে, এর জন্য আপনাকে ইনকামের একটি সঠিক পথ/উপায় বেছেনিতে হবে।

চিন্তা করতে হবেনা, অনলাইনে গেম খেলে অর্থ উপার্জনের নানান উপায় গুলির বিষয়ে নিচে একে একে বলে দেওয়া হয়েছে।

রিলেটেড: মোবাইল অ্যাপ তৈরি করে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?

গেম খেলে টাকা ইনকাম করার আসল উপায় গুলি – ৮টি নতুন উপায়

নিচে আমি সরাসরি সেই প্রত্যেকটি উপায় গুলির বিষয়ে বলে দিয়েছি যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে একজন গেমার হিসেবে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন (How to earn money by playing games)।

ইনকামের উপায়:কি করতে হবে:
১. গেমিং ব্লগ তৈরি করে ইনকাম,গেম রিলেটেড তথ্য এবং টিউটোরিয়াল শেয়ার।
২. গেমিং ইউটিউব চ্যানেল তৈরি,গেমিং রিলেটেড ভিডিও, টিউটোরিয়াল ভিডিও।
৩. Twitch Streamer হিসেবে ইনকাম,স্ট্রিমিং (streaming) করতে হবে।
৪. গেম টেস্টার হিসেবে ইনকাম,নতুন গেম গুলি টেস্ট করতে হয়।
৫. Online Gaming tournaments,গেমিং প্রতিযোগিতা গুলিতে অংশগ্রহণ করা।
৬. গেম খেলে ইনকাম করার অ্যাপস,মোবাইলে গেম খেলতে হয়।
৭. সোশ্যাল মিডিয়াতে গেমিং পেজ,গেম রিলেটেড কনটেন্ট এবং ভিডিও শেয়ার।
৮. গেম খেলার ওয়েবসাইট,ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে গেম খেলা।

গেম খেলে অনলাইনে কি কি মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যাবে, সেই বিষয়ে উপরে একটি সিম্পল তালিকা সহ আপনাদের বলে দিয়েছি।

এবার, আপনারা যদি ইনকামের এই উপায় গুলি ভালো ভাবে জেনে ও বুঝে নিতে চাইছেন, সেক্ষেত্রে নিচে দেখে নিতে পারেন।

১. গেমিং ব্লগ তৈরি করে ইনকাম:

সরাসরি ভিডিও গেম খেলে গেমপ্লে ভিডিও গুলি কোনো ইউটিউব চ্যানেলে বা সোশ্যাল মিডিয়া পেজে আপলোড করা ছাড়াও, একজন video game blogger হিসেবেও আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে, তৈরি করা নিজের ব্লগ সাইট এর মধ্যে আপনি, নানান গেম গুলির বিষয়ে তথ্য এবং টিউটোরিয়াল গুলি শেয়ার করার পাশাপাশি, গেম গুলি নিজে খেলে সেগুলির রিভিউও নিজের ব্লগে শেয়ার করতে পারবেন।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে,

কিভাবে নিজের গেমিং ব্লগ থেকে ইনকাম করা যাবে?

দেখুন, একটি গেমিং ব্লগ শুরু করার আগে, সবচেয়ে আগেই আপনাকে একটি বিষয় (niche) বেঁছে নিতে হবে যেটার উপর আপনি বেশিরভাগ আর্টিকেল গুলি লিখবেন।

ব্লগ সাইট এর বিষয় যেকোনো হতে পারে, তবে সেটা গেমিং এর সাথে জড়িত থাকতে হবে।

যেমন ধরুন, PC Gaming, Mobile Games, Android Games, PUBG, Mobile Multiplayer Games, PC Multiplayer Games বা যেকোনো একটি বিশেষ ধরণের গেম নিয়ে।

ব্লগের বিষয় ঠিক করার পর, এবার আপার প্রয়োজন হবে একটি ওয়েব হোস্টিং এবং ডমেইন নাম এর। একটি ব্লগ সাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে মূলত এই ৩টি জিনিসের প্রয়োজন।

এছাড়া, আমি আমার নিজের অভিজ্ঞতার থেকে আপনাকে এটাই পরামর্শ দিবো যাতে আপনি আপনার ব্লগ সাইটটি “WordPress” ব্যবহার করে চালু করেন। এতে আপনি সম্পূর্ণ ফ্রীতে কোনো ধরণের কোডিং ছাড়া সম্পূর্ণ প্রফেশনাল লুকিং সাইট তৈরি করতে পারবেন।

এবার, নিয়মিত নতুন নতুন গেম রিলেটেড রিভিউ এবং টিউটোরিয়াল গুলির বিষয়ে লিখে নিজের ব্লগে পাবলিশ করার পর, ধীরে ধীরে আপনার ব্লগ সাইট এর জনপ্রিয়তা বাড়বে এবং ব্লগে নতুন নতুন ভিসিটর্স/ট্রাফিক আসতে শুরু হবে।

এবার, গেমিং রিলেটেড নানান প্রোডাক্ট এবং ডিজিটাল গেম গুলির এফিলিয়েট লিংক নিজের ব্লগে শেয়ার করে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর দ্বারা আপনি নিজের ব্লগ থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়া, ব্লগে Google AdSense-এর বিজ্ঞাপন দেখিয়ে, স্পনসরশিপ এবং পেইড প্রোমোশন করেও নিজের গেমিং ব্লগ থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এমনিতে, একটি ব্লগ সাইট শুরু করে নিয়মিত ইনকাম করার প্রক্রিয়াটি খানিকটা স্লো। তবে, নিয়মিত কাজ করতে পারলে, বছর খানিকের মধ্যে আপনার ব্লগ থেকে ভালো প্রনয়মান ইনকামের সুযোগ অবশই হয়ে দাঁড়াতে পারে।

বিশ্বজুড়ে এমন হাজার হাজার গেমার আছেন, যারা নিজের গেমিং ব্লগ থেকে প্রতি মাসে ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা আরামে ইনকাম করছেন।

২. গেমিং ইউটিউব চ্যানেল তৈরি:

যদি আপনি একজন জবরদস্ত (hard-core) গেমার যে নিয়মিত নানান High Graphics AAA titles (Games) গুলি খেলেন, সেক্ষেত্রে আপনি নিজের একটি YouTube gaming channel তৈরি করে সেখান থেকেও নিয়মিত ইনকাম অবশই করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে, নিজের চ্যানেলে আপনি নানান গেমস গুলি স্ট্রিম করতে পারেন, নতুন গেমের রিভিউ, গেমিং টিউটোরিয়াল বা সোজা সরল ভাবে নিজের গেমপ্লে রেকর্ডিং গুলি আপনি চ্যানেলে শেয়ার করতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে একটি গেমিং ইউটিউব চ্যানেলের চাহিদা অনেক বেশি এবং অনেকেই নিজের গেমপ্লে রেকর্ডিং ভিডিও গুলি নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করে মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করে নিচ্ছেন।

How to earn money from YouTube by playing games?

একটি ইউটিউব চ্যানেল আপনি সম্পূর্ণ ফ্রীতে তৈরি করে নিতে পারবেন। আর সত্যি বলতে, গেমিং চ্যানেল এর জন্য আপনাকে এক টাকাও খরচ করতে হবেনা।

তবে, আপনার কাছে একটি Smartphone বা Gaming PC বা Gaming laptop অবশই থাকতে হবে। অবশই, ps4 এবং ps5 এর মতো গেমিং কনসোল গুলি থাকলেও কাজ হয়ে যাবে। এগুলির দ্বারা আপনি আপনার গেমপ্লে গুলি রেকর্ড ও স্ট্রিম করতে পারবেন।

এবার শুরুতেই, আপনাকে নিয়মিত নানান গেমিং ভিডিও (Gameplay) গুলিকে রেকর্ড করে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করতে হবে। চিন্তা করবেননা, চ্যানেলে views এবং subscribers বাড়তে খানিকটা সময় লাগলেও, নিয়মিত এই কাজ করে যেতেই হবে।

শুরুতে প্রায় বছর খানিক, নিজের গেমিং চ্যানেল থেকে টাকা ইনকাম করার বিষয়টা ভুলে গিয়ে শুধুমাত্র ভালো ভালো কনটেন্ট বানানোর মধ্যে আপনাকে ফোকাস করতে হবে।

এভাবে ধীরে ধীরে, আপনি সঠিক সাউন্ড এফেক্ট, কোয়ালিটি এবং এডিটিং সহ ভালো ভালো এবং আকর্ষণীয় গেমপ্লে ভিডিও গুলি কিভাবে তৈরি করতে হয় সেটা অবশই বুঝে যাবেন।

এবার, যখন আপনার চ্যানেলে subscribers এবং views বাড়তে শুরু করবে, আপনি নানান Gaming brands/companies গুলির সাথে যুক্ত হয়ে নানান paid promotions গুলি করার পাশাপাশি এফিলিয়েট মার্কেটিং থেকেও টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়া, একবার আপনার চ্যানেলে ১০০০ subscribers এবং ৪০০০ ঘন্টার ওয়াচটাইম সম্পূর্ণ হয়ে গেলে, আপনি YouTube Partner Program-এর জন্যে এপ্লাই করতে পারবেন।

এতে, আপনার গেমিং ভিডিও গুলিতে গুগল দ্বারা বিজ্ঞাপন দেখানো হবে যার জন্যে আপনি আপনার প্রতিটি ভিডিওর থেকে টাকা আয় করার সুযোগ পাবেন।

অবশই পড়ুন: জেনেনিন ছাত্রদের টাকা আয় করার ১০টি উপায়

৩. Twitch Streamer হিসেবে ইনকাম:

কিছুটা YouTube এবং Facebook এর মতোই, Twitch হলো একটি অনেক বিখ্যাত online streaming platform, যেখানে মূলত ভিডিও গেম রিলেটেড স্ট্রিম গুলি করা হয়।

Twitch-এর platform-টিতে গেম রিলেটেড স্ট্রিম গুলি করে প্রতি বছর একটি অনেক ভালো প্রমানের ইনকাম আপনি করতে পারবেন বললে আমি ভুল হবোনা।

তবে মনে রাখা দরকার যে, Twitch-থেকে ইনকাম করার জন্য আপনাকে Twitch partner program-এর সাথে যুক্ত হতে হবে।

Twitch partner program-এর মাধ্যমে আপনি Channel Subscriptions, Bits এবং, বিজ্ঞাপন (Ads) এর দ্বারা টাকা আয় করার সুযোগ পাবেন। আমার হিসেবে, Twitch-এর মধ্যে গেম খেলে টাকা ইনকাম করার সব থেকে সহজ এবং সুবিধাজনক উপায়টি হলো Ads।

How to earn money by streaming on Twitch?

YouTube-এর partner program-এর সাথে যুক্ত হতে কমেও ১০০০ জব subscribers থাকতে হবে। তবে, Twitch-এর ক্ষেত্রে এই পরিমান যথেষ্ট কম। এখানে আপনার ৫০ জন ফলোয়ার্স থাকলেই যথেষ্ট।

তবে Twitch-এর ক্ষেত্রে আপনার, এক মাসের মধ্যে কমেও ৫০০ মিনিটের স্ট্রিমিং আপলোড করতেই হবে।

এছাড়া, অন্যান্য বেসিক শর্তাবলী গুলিও রয়েছে, যেমন, মিনিমাম ৫০ জন ফলোয়ার্স, মিনিমাম ৮ ঘন্টার স্ট্রিম করতে হবে, আলাদা আলাদা দিনে কমেও ৭দিন পর্যন্ত স্ট্রিম করতে হবে, এভারেজ ৩টি ভিউ থাকতে হবে।

এই মিনিমাম রিকোয়ারমেন্ট গুলি সম্পূর্ণ হয়ে গেলে, আপনি Twitch partner program-এর জন্যে এপ্লাই করতে পারবেন। আর যা আমি উপরে বলেছি, Twitch partner program-এর অন্তর্গত, Ads, Channel Subscriptions এবং Bits-এর দ্বারা ইনকাম করা যাবে।

YouTube-এর মতোই এখানেও বিজ্ঞাপন দেখিয়ে (Display Ads) এবং স্পনসরশিপ (sponsorship) দ্বারা ক্রিয়েটররা টাকা ইনকামের সুযোগ পেতে পাবেন।

তবে যেকোনো অন্য অনলাইন প্লাটফর্ম এর মতোই, টুইচ থেকে টাকা আয় করার জন্য এখানে আপনার একটি বড় সংখ্যায় ফলোয়ার্স (followers) অবশই থাকতে হবে।

রিলেটেড: ঘরে বসে লেখালেখি করে আয় করুন ৫টি মাধ্যমে

৪. গেম টেস্টার হিসেবে ইনকাম:

একজন গেম টেস্টার হিসেবে কাজ করেও নিজের গেমিং দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করার একটি দারুন ও কার্যকর উপায়। এছাড়া, বর্তমান সময়ে একজন Game tester হিসেবে কাজ পাওয়াটা তেমন কঠিন কাজ মোটেও না।

একজন গেম টেস্টার হিসেবে আপনাকে নানান গেম গুলিকে খেলে দেখতে হয়, মানে গেম গেম গুলিতে কোনো ধরণের সমস্যা বা বাগ (bug) থাকলে, সেগুলিতে নজর দিয়ে সেই বিষয়ে রিপোর্ট করতে হয়।

এমনিতে এই কাজে, শুরুতে তুলনামূলক ভাবে অনেক কম টাকা পে করা হয় যদিও, ধীরে ধীরে যখন আপনার কাজের অভিজ্ঞতা বাড়বে, আপনার পেমেন্ট এর পরিমাণও সেই হিসেবে বাড়তে থাকবে।

মনে রাখবেন, গেম টেস্ট করে টাকা ইনকাম করার কাজটাকে এতটা সোজা বলে ভাবলে কিন্তু চলবেনা। এটা প্রায় একটি full-time job-এর মতোই যেখানে আপনাকে ঘন্টার পর ঘন্টা একই জায়গাতে বসে গেম গুলিকে খেলতে হবে (টেস্ট করতে হবে)।

ইন্টারনেটে এমন নানান ওয়েবসাইট গুলি আছে, যেগুলিতে গিয়ে এই ধরণের গেম টেস্টার এর কাজ গুলি পাওয়া যাবে। যেমন, Testspin, uTest, AppCoiner, TestFreaks, ইত্যাদি।

৫. Online Gaming tournaments:

Gamechampion play tournaments and earn money

ইন্টারনেটে এমন নানান ওয়েবসাইট বা অনলাইন গেমিং প্লাটফর্ম গুলি আপনারা পাবেন, যেগুলিতে নিয়মিত নানান গেমিং চ্যালেঞ্জ এবং টুর্নামেন্ট গুলি হয়ে থাকে।

এই top-level video game টুর্নামেন্ট গুলিতে নানান দেশ-বিদেশ থেকে গেমাররা অংশগ্রহণ করেন যেখানে পুরস্কারও কিন্তু সাংঘাতিক (big prize money) অফার করা হয়।

Gamechampions.com হলো এমনই একটি অনলাইন প্লাটফর্ম যেখানে নানান esports tournaments গুলির দ্বারা গেমারদের গেম খেলে বড় বড় প্রাইজ মানি (Prize Money) জেতার সুযোগ দিয়ে থাকে।

এই ওয়েবসাইটটি সহ এই ধরণের বেশিরভাগ ওয়েবসাইট গুলিতেই, Fair Play Guarantee দিয়ে দেওয়া হয়। মানে, আপনার গেমিং স্কিলস এর সাথে ম্যাচ করা প্লেয়ারদের সাথেই আপনাকে খেলানো হয়।

এছাড়া, Gamechampions.com-এর মধ্যে আপনারা Fifa, Fortnite, Call of duty, NBA, ইত্যাদি এই ধরণের গেম গুলি সহ নানান cash prize tournaments গুলি আপনারা পাবেন।

৬. গেম খেলে ইনকাম করার অ্যাপস:

যদি আপনি একজন স্টুডেন্ট বা কোথাও জব করছেন এবং পাশাপাশি গেমিং সম্পর্কে ইন্টারেস্ট রাখেন, সেক্ষেত্রে নিজের মোবাইল দিয়ে গেম খেলেও কিন্তু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

এবার, এক্ষেত্রে আপনারা ব্যবহার করতে পারবেন গেম খেলে অর্থ উপার্জন করা যাবে এমন নানান অ্যাপস গুলির। Google Play Store সহ ইন্টারনেটে এই ধরণের নানান অ্যাপস আপনারা পেয়ে যাবেন।

তবে মনে রাখবেন, মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয়ের অ্যাপস গুলি ব্যবহার করার আগে, সেগুলির বিষয়ে খানিকটা রিসার্চ অবশই করে নিবেন। কেননা, এই ধরণের নানান টাকা ইনকাম করার অ্যাপস গুলি অনেক সময় জাল (fake) হতে পারে।

এছাড়া, টাকা ইনকাম করা যায় এমন বেশিরভাগ গেমিং অ্যাপস গুলির থেকে এমনিতে সেই পরিমানে ইনকাম করা যায়না। আমি, এই ধরণের যত ইনকাম করার অ্যাপস গুলি দেখেছি, সেগুলির বেশিরভাগ থেকেই শুধুমাত্র কয়েক ডলারই ইনকাম করা যায়।

অনলাইনে উপলব্ধ এই ধরণের কিছু গেম খেলে ইনকাম করার অ্যাপস গুলি হলো,

  • MPL,
  • Hago,
  • Mistplay,
  • Freecash,
  • Rewarded Play,
  • AppStation: Games & Rewards,
  • Money Well – Games for rewards, এবং আরো আছে।

৭. সোশ্যাল মিডিয়াতে গেমিং পেজ:

যদি আপনি একজন দক্ষ গেমার যে নাকি গেম খেলতে অনেক পছন্দ করেন এবং পাশাপাশি অনলাইনে নানান সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম গুলিতে সময় কাটাতে ভালো লাগে, সেক্ষেত্রে আপনার এই দুটো ইন্টারেস্টকে একসাথে কাজে লাগিয়ে একজন gaming influencer হিসেবেও টাকা ইনকাম করার কথা ভাবতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে, আপনাকে নানান বিখ্যাত সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম (Facebook, Instagram, TikTok, Twitter) গুলিতে নিয়মিত কনটেন্ট আপলোড করতে থাকতে হবে এবং নিজের একটি শক্তিশালী ফলোয়ার বেস তৈরি করতে হবে।

আপনার কি মনে আছে, একজন গেমার হিসেবে আপনি Twitch নামের অনলাইন প্লাটফর্মটির থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন, সেই বিষয়ে আমি উপরে কি বলেছিলাম। এক্ষেত্রেও, মোটামোটি সেই একই ভাবেই আপনাকে কাজ করতে হবে।

অনলাইন, নিজের ভিডিও গেম রিলেটেড রেকর্ডিং/গেমপ্লে গুলি শেয়ার করে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে, Twitch, TikTok, Instagram, YouTube, প্রত্যেকটাই কিন্তু দারুন অপসন।

আপনি, নানান শর্ট গেমপ্লে ভিডিও গুলি শেয়ার করতে পারেন, লং গেমপ্লে ভিডিও, গেমিং টিউটোরিয়াল ভিডিও, রিভিউ, ইত্যাদি সব ধরণের কন্টেন্টই লোকেরা অনলাইনে দেখেন।

এবং একবার আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজ গুলিতে কয়েক হাজার subscribers/followers হয়ে গেলেই, আপনার সামনে চলে আসবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার দারুন সুযোগ গুলি।

একজন micro-influencer হিসেবে, আপনি চাইলে শুধুমাত্র ১০০০ জন Instagram followers সহ অনলাইন ইনকামের নিজের যাত্রা শুরু করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে সঠিক কৌশল গুলি অবশই জানতে হবে।

অবশই, এক্ষেত্রে আপনার Instagram profile-এর মধ্যে যত অধিক followers থাকবে, আপনার কাছে ততটাই অধিক টাকা ইনকাম করার সুযোগও হয়ে দাঁড়াবে।

একবার আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজে হাজার হাজার subscribers হয়ে গেলে, আপনি নিজের চ্যানেলে/পেজে গেমিং রিলেটেড পণ্য এবং পরিষেবা গুলির প্রচার করে, স্পনসরশিপ করে, এফিলিয়েট মার্কেটিং করে, ব্র্যান্ড প্রমোশন করে, টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

অবশই পড়ুন: এড দেখে টাকা ইনকাম করার সেরা ৯টি ওয়েবসাইট

৮. গেম খেলে ইনকাম করার ওয়েবসাইট:

Swagbucks website to earn money online

বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটে গিয়ে, গেম খেলে ইনকাম করার ওয়েবসাইট লিখে সার্চ দিলেই আপনারা এমন প্রচুর ওয়েবসাইট গুলি পেয়ে যাবেন, যেগুলিতে নানান ছোট বড় টুর্নামেন্ট খেলে বা অনলাইন গেম গুলি খেলে ছোট মোট রিওয়ার্ড ইয়ার্ন করা যায়।

এই ধরণেরই একটি ওয়েবসাইট হলো, Swagbucks, যেখানে playing games, answering paid surveys, watching videos, ইত্যাদি এই ধরণের উপায় গুলির দ্বারা রিওয়ার্ড ইনকাম করা যায়।

এখানে আপনি, নানান ছোট ছোট কাজ গুলি যত অধিক পরিমানে করতে পারবেন, ততটাই অধিক SB points-ও আপনার একাউন্টে জমা হবে।

এবার, আপনার একাউন্টে জমা হয়ে থাকা এই SB Points গুলিকে আপনি free gift cards এবং PayPal money-র দ্বারা তুলে নিতে পারবেন।

Swagbucks-এর মধ্যে গেম খেলার জন্য আপনাকে কোনো ধরণের টাকা দিতে হয়না। আসলে, উপলব্ধ গেম গুলিকে আপনার একটি টাস্ক বা কাজের মতোই খেলতে হয়।

FAQ:

১. গেমাররা কিভাবে টাকা ইনকাম করেন?

একজন Professional Gamer অবশই নানান মাধ্যমে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সুযোগ পেতে পারেন। এগুলির মধ্যে সব অধিক চর্চায় থাকা উপায়টি হলো, sponsorship এবং brand promotion, যেখানে নানান কোম্পানি গুলি তাদের গেমিং রিলেটেড products গুলি প্রচার ও বিক্রি করানোর জন্য নানান gaming influencers-দের সাহায্য নেন এবং তাদেরকে অর্থ প্রদান করেন। এছাড়া, বিজ্ঞাপনের (ads) মাধমেও গেমাররা তাদের অনলাইন চ্যানেল এবং প্লাটফর্ম গুলির থেকে অনেক টাকা ইনকাম করছেন।

২. একজন গেমার কি ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে পারবেন?

অবশই পারবেন, কেননা ইউটিউবের মধ্যে gaming এবং non-gaming দুধরণেরই কনটেন্ট এর চাহিদা এবং জনপ্রিয়তা রয়েছে। এবং সত্যি বলতে, গেমিং কনটেন্ট থেকেও নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকামের সুযোগ আপনি পেতে পারবেন। তবে, যেকোনো ধরণের ইউটিউব চ্যানেল থেকে অধিক ইনকাম করার জন্য আপনার চ্যানেলে অধিক সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউস থাকা জরুরি। এছাড়া, কি ধরণের কনটেন্ট তৈরি করছেন, লোকেরা আপনার কনটেন্ট পছন্দ করছেন কি না এবং বিজ্ঞাপনে কতটা CPM/CPC পাচ্ছেন, এই সমস্ত বিষয় গুলির উপরেও আপনার ইনকাম নির্ভর করছে।

৩. নিজের এন্ড্রয়েড গেম বানিয়ে কিভাবে ইনকাম করা যায়?

আপনি চাইলে, নিজেই নিজের মোবাইল গেম বানিয়ে সেই গেম থেকে রেগুলার টাকা আয় করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে, Unity বা unreal engine-এর মতো একটি game development software-এর ব্যবহার করতে হবে। এবং, তৈরি করা android mobile game-টি Google Play Store-এর মধ্যে আপলোড/পাবলিশ করে রেগুলার নতুন নতুন ইউসার পেতে পারবেন। এবার, প্লে স্টোরের মধ্যে কয়েক হাজার ডাউনলোড হয়ে গেলে, বিজ্ঞাপন, in-app purchase, subscription, ইত্যাদির মাধ্যমে তৈরি করা নিজের মোবাইল গেম দ্বারা ইনকাম করতে পারবেন।

অবশই পড়ুন:

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top