বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করাটা কতোটা সম্ভব ? (My experience)

একজন বাংলা ব্লগার হিসেবে, আমি অনেক ব্যক্তিদের বাংলাতে ব্লগিং করার পরামর্শ দিতেই থাকি।

Is blogging in Bengali profitable
Is blogging in Bengali profitable ?

তবে, তাদের মধ্যে অনেকের সব থেকে প্রথম প্রশ্ন এটাই থাকে যে “বাংলাতে ব্লগিং করে টাকা আয় করাটা কি সম্ভব ?”.

এছাড়া, তারা এটাও জিগেশ করেন যে, বাংলা ব্লগ তৈরি করে কত টাকা আয় করা যেতে পারে।

তাই আজকের এই আর্টিকেলে, বাংলা ভাষায় ব্লগিং (bangla blogging) নিয়ে আপনার মনে থাকা সব প্রশ্নের উত্তর আমি দিবো।

মনে রাখবেন, আমি প্রায় ৬ বছর থেকেই ব্লগিং করছি।

তবে, আমার বাংলা ব্লগ “banglatech.info” টি আমি প্রায় ২ থেকে ২.৫ বছর থেকেই লাইভ (live) চালিয়ে এসেছি।

এর মধ্যেই, বাংলা ভাষাতে ব্লগিং করে কতটা টাকা আয় করা সম্ভব ? কোন কোন মাধ্যমে আপনি আপনার বাংলা ব্লগ থেকে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন, সেই সব বিষয়ে আমার ভালো রকমের জ্ঞান হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তাছাড়া, আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের আমার ব্লগ থেকে হওয়া আগের মাসের Google adsense income এর statement দেখিয়ে দিবো।

এতে, আপনি সহজেই বুঝে যেতে পারবেন যে, একটি ব্লগে বাংলাতে আর্টিকেল লিখে কত টাকা আয় করার সুযোগ রয়েছে।

অবশই পড়ুন:

তাহলে চলুন, নিচে আমরা জেনেনি যে, বাংলাতে ব্লগ তৈরি করাটা কি লাভজনক হবে ?

বাংলাতে ব্লগিং করে টাকা আয় করা সম্ভব ?

সহজ এবং সত্যি কথা বললে, অবশই বাংলাতে একটি ব্লগ তৈরি করে তাতে বাংলা ভাষাতে আর্টিকেল লিখে আপনারা টাকা আয় করতে নিশ্চই পারবেন।

এর প্রমান আমি নিজেই।

বিগত ২ বছর থেকেই আমি আয় করে চলেছি।

তবে, একটি গোপন (secret) কথা আপনাদের বলে দি।

আসলে, নিজের bangla ভাষার blog থেকে আপনারা English ব্লগের তুলনায় অধিক সহজে ইনকাম করতে পারবেন।

কারণ, বর্তমানে ইন্টারনেটে বাংলা ভাষাতে তেমন ভালো ভালো কনটেন্ট খুব কম পরিমানে রয়েছে।

কিন্তু, বাংলা কনটেন্ট এর চাহিদা প্রচুর।

এর বিপরীতে, English ব্লগ এর চাহিদা অনেক বেশি থাকলেও, ইন্টারনেটে যেকোনো বিষয়ে হাজার হাজার English আর্টিকেল রয়েছে।

তাই, একটি ইংলিশ ব্লগের তুলনায় বাংলা ব্লগে অধিক সহজেই সফলতা পাওয়া যেতে পারে।

যেকোনো অন্য ভাষায় লেখা ব্লগ যেমন, English বা Hindi র মতোই Bengali ভাষার ব্লগেও আপনারা ভালো পরিমানে traffic বা visitors পেতে পারবেন।

এবং, ব্লগে traffic বা visitors আশা মানেই হলো “টাকা আয়ের সুযোগ“.

Google adsense ব্যবহার করে আপনার অনেক সহজেই কিছু দিনের মধ্যেই ইনকাম শুরু হয়ে যাবে।

এমনিতে এডসেন্স ছাড়াও, অন্য অনেক মাধ্যমেই আপনি আপনার ব্লগ থেকে টাকা আয় করতেই পারবেন।

নিচে চলুন জেনেনেই, কেন বাংলা ব্লগ তৈরি করে আয় করাটা সহজ এবং লাভজনক।

কেন বাংলায় ব্লগিং করাটা অধিক লাভজনক এবং সহজ ?

দেখুন, বাংলা ব্লগাররা সহজেই সফলতা পাওয়ার কিছু বিশেষ কারণ রয়েছে।

এবং, সেই কারণ গুলি আমি নিজেই অনুভব করেছি।

আর তাই, আপনাদের সাথে সেগুলি শেয়ার করছি।

আমি মন থেকে ভাবি, বাংলায় ব্লগিং করাটা প্রত্যেকের জন্য লাভজনক, যদি আপনি সঠিক SEO techniques ব্যবহার করে কনটেন্ট লিখছেন।

এমনিতে কিছু SEO techniques আমি আপনাদের আগেই বলেছি।

যেমন,

ওপরে দেওয়া লিংক গুলিতে গিয়ে আপনারা সঠিক SEO optimization techniques গুলি জিন নিতে পারবেন।

চলুন, কেন বাংলাতে আর্টিকেল লিখে ব্লগিং করাটা অধিক লাভজনক তার কিছু কারণ জেনেনেই।

#১. Low competition & increased traffic 

Google search traffic history for 28 days.

ওপরে ছবিতে দেখুন, আমি আমার বাংলা ব্লগ সাইটে ২৮ দিনের মধ্যে প্রায় ৬০ হাজার unique visitors গুগল সার্চ থেকে পেয়েছি।

তাহলে, কে বলবেন যে বাংলা ব্লগে গুগল থেকে ট্রাফিক পাওয়া যায়না ?

একটি বাংলা ব্লগ তৈরি করে, আপনি অনেক সহজেই google search engine থেকে প্রচুর traffic ও visitors পেয়ে যেতে পারবেন।

আমি আগেই বলেছি, যখন আপনি একটি English blog তৈরি করার কথা ভাববেন, তখন আপনার প্রচুর প্রতিযোগিতার (competition) এর মুখোমুখি হতে হবে।

কারণ, English blog এর ক্ষেত্রে যেকোনো বিষয়ে হাজার হাজার article গুগল সার্চে আগের থেকেই রয়েছে।

তাই, আগের থেকে top search result পেজে rank করা আর্টিকেল গুলিকে সরিয়ে, নিজের আর্টিকেলটিকে rank করানোটা কিন্তু সহজ কথা নয়।

তাছাড়া, English blog গুলির DA (domain authority) এবং PA (page authority) অনেক বেশি থাকে।

ফলে, সেই ওয়েবসাইট গুলির কনটেন্ট অবশই গুগলের প্রথম পাতায় দেখানো হয়।

এবং, খুব সহজেই আপনি সেগুলির তুলনায় নিজের ব্লগের ইংলিশ আর্টিকেল গুলিকে, গুগলের সেরা ১০ টি রেজাল্টে দেখাতে পারবেননা।

এতে, গুগল সার্চ থেকে আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক খুব কম আসবে এবং কেবল কিছু দিনেই আপনি হতাশ হয়ে দাঁড়াবেন।

এই ক্ষেত্রে, একটি বাংলা ব্লগের সুবিধে অনেক রয়েছে।

ইন্টারনেটে বাংলা কনটেন্ট এর চাহিদা প্রচুর।

তবে, তেমন ভালো ভালো কনটেন্ট বাংলাতে কিন্তু গুগলে নেই বলেই বলা যেতে পারে।

তাই, বাংলা কনটেন্ট এর ক্ষেত্রে গুগল সার্চে প্রতিযোগিতাও (competition) অনেক কম।

এই কারণেই, Google search engine এ যেকোনো বাংলা বিষয়ে বা বাংলা কীওয়ার্ড নিয়ে, সেরা ১০ রেজাল্টে রাংক করাটা অনেক সহজ হয়ে দাঁড়ায়।

এতে, Google search engine থেকে অনেক সহজেই নিজের বাংলা ব্লগে প্রচুর ট্রাফিক ও ভিসিটর্স পেয়ে যেতে পারবেন।

আর আমরা সবাই জানি, “ওয়েবসাইটে যত বেশি ট্রাফিক ও ভিসিটর্স আসছে, ততটাই বেশি ইনকামের সুযোগ থাকবে“.

#২. Google adsense approves Bengali blogs 

adsense supported languages
Google adsense supported languages

কিছু বছর আগে বাংলা ব্লগ থেকে টাকা আয় করার তেমন কোনো উপায় ছিলোনা।

তবে, বর্তমানে আমরা গুগল এডসেন্স (Google adsense) ব্যবহার করে অনেক সহজেই অধিক পরিমানে টাকা আয় করে নিতে পারি।

Google adsense গুগলের একটি সেবা যার ব্যবহার করে আমরা আমাদের ব্লগে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টাকা আয় করতে পারি।

মনে রাখবেন, এডসেন্স হলো সব থেকে বিস্বাসী এবং বিজ্ঞাপনের বিপরীতে অধিক টাকা প্রদান করা একটি advertisement network.

আপনার যদি একটি বাংলা ওয়েবসাইট রয়েছে, তাহলে অবশই Google adsense এর জন্য এপলাই করতে পারবেন।

আগে যদিও Google adsense বাংলা ব্লগ গুলি approve করতোনা, কিন্তু বর্তমানে approval পেয়ে যাবেন।

এবং, যদি এডসেন্স আপনার বাংলা ব্লগটি approve করে দেয়, তাহলে টাকা আয় করাটা আপনার জন্য অনেক সহজ কাজ হয়ে দাঁড়াবে।

ওপরে দেওয়া লিংক গুলিতে গিয়ে আপনারা গুগল এডসেন্সের বিষয়ে অধিক জেনে নিতে পারবেন।

মনে রাখবেন, আমি বিগত ২ বছর থেকে কেবল Google adsense এর মাধ্যমেই আমার bangla blog থেকে টাকা আয় করছি।

এবং সেই ইনকামের পরিমান বেশ অনেক ভালো।

#৩. Good CPC and CTR in adsense ads 

google adsense average cpc

ওপরে দেওয়া ছবিতে, এডসেন্সের মাধ্যমে ব্লগে পাওয়া CPC এবং CTR rate দেখে নিতে পারবেন।

অনেকেই বলেন যে, বাংলাতে ব্লগিং করলে নাকি Google adsense থেকে ভালো পরিমানে CPC এবং CTR পাওয়া যায়না।

তবে, ব্লগ তৈরি করার সময় অব্দি আমিও সেটাই ভাবতাম।

কিন্তু, এডসেন্সের এপ্রুভাল পাওয়ার পর, যখন আমার ব্লগে বিজ্ঞাপন দেখানো হলো, তখন আমার একটি বিশেষ বিষয়ে নজর পড়লো।

সেটা হলো, adsense বিজ্ঞাপনের CPC এবং CTR.

আপনারা যদি না জেনে থাকেন যে, Adsense CPC এবং CTR কাকে বলে, তাহলে জেনে নিন।

Adsense CPC মানে কি ?

CPC মানে হলো “cost per click“. সংক্ষেপে বলা হয় “CPC”.

যখন আপনার ওয়েবসাইটে, গুগল এডসেন্সের দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপন গুলিতে লোকেরা ক্লিক করেন, তখন আপনার এডসেন্সের একাউন্টে কিছু টাকা সেই ক্লিক (click) এর জন্য দেওয়া হয়।

এবং, এই প্রত্যেক ক্লিক গুলিতে দেওয়া টাকার পরিমান টিকেই বলা হয় “CPC”.

Adsense CTR মানে কি ?

CTR মানে হলো “click through rate” যাকে সংক্ষেপে বলা হয় CTR.

আপনার ওয়েবসাইটে এডসেন্সের দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপন গুলি কত বার লোকেরা দেখেছেন, তার তুলনায় কতবার লোকেরা বিজ্ঞাপন গুলি ক্লিক করেছেন, সেই পরিমান টিকেই বলা হয় CTR.

এখন, হতে পারে আপনার ওয়েবসাইটে আশা মোট ১০০০ জন আপনার ব্লগে বিজ্ঞাপন দেখেছেন।

তবে, সম্পূর্ণ ১০০০ জনের মধ্যে সবাই কিন্তু বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবেননা।

হতে পারে, ১০০ জন বা ২০০ বা ২৫০ জন বা অন্য যেকোনো সংখ্যার লোকেরা হতে পারে বিজ্ঞাপন গুলি ক্লিক করেছেন।

এবং, বিজ্ঞাপন দেখার তুলনায় কত জনেরা বিজ্ঞাপন ক্লিক করেছেন, সেটার পরিমান বোঝাই CTR.

একটি সুস্থ এবং ভালো CTR percentage ৯% থেকে ১৫% এর ভেতরে হতে পারে।

তবে এই রেট প্রত্যেক ব্লগের ক্ষেত্রে আলাদা আলাদা হতে পারে।

এখন জেনেনিন মূল বিষয়

এডসেন্সের দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপনে যত বেশি পরিমানের CPC এবং CTR পাওয়া যাবে, আপনার ইনকাম ততটাই বেশি হবে।

ভুল ধারণা :

এই ক্ষেত্রে, অনেকেই বলেন যে, বাংলা কনটেন্টে এডসেন্সের দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপন গুলিতে CPC এবং CTR অনেক কম পরিমানে পাওয়া যায়।

যার জন্য ইনকাম ও প্রচুর কম হয়।

আমার অভিজ্ঞতা :

আমি প্রায় ২ বছর থেকে আমার বাংলা ব্লগে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা আয় করছি।

এবং আমার উপলব্ধি হিসেবে, আপনি প্রায় ৯% থেকে ১২% এর ভেতরে CTR পাবেন এবং ০.০৫ থেকে ০.১০ এর ভেতরে CPC পেতে পারবেন।

আমি বেশির ভাগ ক্ষেত্রে, ওপরে দেওয়া সংখ্যা হিসেবে CPC এবং CTR পেয়ে চলেছি।

এবং, একটি Hindi ব্লগের তুলনায় কিন্তু এই সংখ্যা অনেক ভালো।

যদি আপনার মনেই এই ধরণের প্রশ্ন রয়েছে যে, “বাংলাতে ব্লগ তৈরি করলে কি এডসেন্স থেকে কম টাকা ইনকাম হবে ?“.

তাহলে সেটা সম্পূর্ণ অবাস্তব।

আপনি গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে একটি বাংলা ভাষায় লেখা ব্লগ এর মাধ্যমে ভালো পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন।

#৪. Use affiliate marketing to earn more 

হে, নিজের ব্লগ থেকে টাকা আয় করার আপনার কাছে আরো একটি সেরা মাধ্যম থাকবে।

সেটা হলো, affiliate marketing.

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি, এই বিষয়ে আমি আপনাদের আগেই বুঝিয়ে বলেছি।

এটা হলো এমন একটি প্রক্রিয়া, যেখানে আপনি অন্যান্য কিছু কোম্পানির পণ্য এবং সেবা গুলি নিজের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করিয়ে একটি কমিশন আয় (commission income) করে নিতে পারবেন।

এই মাধ্যমে অনেকেই প্রচুর টাকা আয় করে নিচ্ছেন।

এবং, যদি আপনার ব্লগে প্রচুর ট্রাফিক ও ভিসিটর্স আসছে, তাহলে affiliate marketing এর মাধ্যমে, products promotesell করিয়ে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে, যদি আপনার ব্লগে গুগল থেকে প্রচুর ট্রাফিক আসছে, তাহলে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে ভালো পরিমানের ইনকাম হয়েই যাবে।

টাকা আয় করার অন্য কোনো মাধ্যম এর বিষয়ে আপনার ভাবতেই হবেনা।

ওপরের লিংকে গিয়ে, ব্লগ থেকে আয় করার ৫ টি লাভজনক উপায় কিছু জেনে নিতে পারবেন।

#৫. Increased organic traffic means high adsense income 

যদি আপনি নিজের বাংলা ব্লগে গুগল এডসেন্স ব্যবহার করছেন, তাহলে আপনার ব্লগে আশা ট্রাফিক এর পরিমান যতটা বেশি হবে, টাকা ইনকামের সুযোগ ততটাই বৃদ্ধি পাবে।

মনে রাখবেন, গুগল এডসেন্সের ক্ষেত্রে গুগল সার্চের থেকে আশা organic traffic অধিক  গুরুত্বপূর্ণ।

তাই, যতটা সম্ভব ভালো ভালো বাংলা আর্টিকেল লিখে ব্লগে পাবলিশ করুন।

এবং আমি আগেই যা বলেছি, বাংলা কনটেন্ট গুলির চাহিদা প্রচুর, তবে ইন্টারনেটে অধিক পরিমানে বাংলা কনটেন্ট নেই।

তাই, যতটা বেশি আর্টিকেল পাবলিশ করবেন, ততটাই তাড়াতাড়ি গুগল সার্চ থেকে ব্লগে organic traffic পাবেন।

ফলে, অধিক ট্রাফিক ও ভিসিটর্স এর কারণে, ব্লগে দেখানো এডসেন্সের বিজ্ঞাপন গুলি অধিক পরিমানে লোকেরা দেখবেন ও সেগুলি ক্লিক করবেন।

মনে রাখবেন, যত বেশি organic google traffic ততোটাই বেশি adsense ইনকাম।

#৬. How much you can earn from a Bengali blog ?

এখন আমাদের আজকের বিষয়ের সব থেকে জরুরি প্রশ্ন, “একটি বাংলা ব্লগ থেকে কত টাকা আয় করা যেতে পারে ?”.

দেখুন, এমনিতে আপনি আপনার ব্লগ থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে, সত্যি বললে, বাংলা ভাষার ব্লগ থেকে অনলাইন ইনকাম করার জন্য “Google adsense” এর বাইরে অন্য কোনো ভালো উপায় নেই।

তাই, গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে নিজের বাংলা ব্লগ থেকে কত টাকা আয় করা যেতে পারে, সেটার বিষয়ে বলে দিচ্ছি।

দেখুন,

যদি আপনি প্রত্যেকদিন ১০০০ টি unique views পাচ্ছেন এবং ব্লগের বিজ্ঞাপনে ১০০ টি ক্লিক হচ্ছে, তাহলে কত টাকা আয় করতে পারবেন।

এই ক্ষেত্রে, আপনার বিজ্ঞাপনের CPC (cost per click) কত পাচ্ছেন, সেটাও জানাটা দরকার।

তাই ধরুন, CPC অনেক কমেও ০.০৫ করে আমরা পাচ্ছি।

তাহলে, ১০০ (click) * ০.০৫ (cpc) = ৫ ডলার। 

মানে প্রত্যেক দিন আপনি অনেক কমেও ৫ ডলার (প্রায় ৪০০ টাকা) আয় করতে পারবেন।

তাহলে মাসে কমেও, ৪০০*৩০ = ১২,০০০ থেকে ১৫,০০০ টাকা আয় করাটা অনেক সহজ হয়ে দাঁড়াবে।

আমি কেবল একটি উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছি।

তবে, যদি আপনার ব্লগে আরো বেশি unique visitors আসছে, তাহলে অবশই বিজ্ঞাপনে ক্লিক (clicks) ও বেশি পাবেন।

ধরুন, যদি আপনার ব্লগের বিজ্ঞাপনে প্রত্যেক দিন ৩০০ করে ক্লিক হয়েছে এবং CPC পাচ্ছেন ০.০৫ করেই।

তাহলে মাসে কত আয় করতে পারবেন ?

প্রত্যেক দিন আয় হবে, ৩০০*০.০৫ = ১৫ ডলার, মানে ১,১২৫ টাকা।

তাহলে মাসে হচ্ছে, ১১২৫*৩০ = ৩৩,৭৫০ টাকা। (CPC অধিক হলে ইনকাম দুগুণ হতে থাকবে).

এভাবেই, আপনার ব্লগে যত বেশি ট্রাফিক গুগল থেকে আসতে থাকবে, আপনার ব্লগে দেখানো এডসেন্স বিজ্ঞাপনে ক্লিক ও অধিক বাড়তে থাকবে।

আর, আমি কেবল ০.০৫ cpc নিয়ে উদাহরণ দিয়েছি।

CPC অধিক হলে অনেক কম clicks পেয়েও অধিক ইনকাম করতে পারবেন।

তাই, শেষে এতটুকু বলবো যে, যদি আপনি আপনার বাংলা ব্লগে এডসেন্সের মাধ্যমে monetize করছেন, তাহলে income কখনোই সীমিত থাকবেনা।

অধিক গুগল traffic = অধিক বিজ্ঞাপনে clicks = অধিক income.

#7. My last month adsense earning from bangla blog

শেষে আপনারা এখন হয়তো জেনে নিতে চাচ্ছেন যে, আমি বিগত মাসে এডসেন্স থেকে কত টাকা আয় করেছি।

এমনিতে, বর্তমানে করোনা ভাইরা (corona virus) এর ফলে গুগল এডসেন্সের CPC অনেক কমে গেছে।

তাও, আমি আমার বাংলা ব্লগ থেকে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে মাসে প্রায় এতো টাকা আয় করেছি, যেটা দিয়ে একটি “Sony PS4 1TB version” এবং “Realme 5 Pro” মোবাইল আরামে কিনে নিতে পারবো।

Google এর policy হিসেবে, আমি আমার ইনকাম সরাসরি আপনাদের জানিয়ে দিতে পারবোনা।

তাই, সম্পূর্ণ স্পষ্ট করে বলতে পারলামনা।

কিন্তু, আমি যতটুকু একজন বাংলা ব্লগার হিসেবে কমিয়ে নিচ্ছি, সেটার বাইরে অন্য চাকরি করার প্রয়োজন হচ্ছেনা।

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, একটি বাংলা ব্লগ তৈরি করা নিয়ে আপনাদের মনে যা যা প্রশ্ন এবং ভয় ছিল, হয়তো আমি সেগুলি আপনাদের মন থেকে সরিয়ে দিতে পেরেছি।

তাছাড়া, যদি আপনাদের মনে ব্লগিং নিয়ে অন্য কোনো প্রশ বা সমস্যা রয়েছে, তাহলে আমাকে কমেন্টের মাধ্যমে অবশই জিগেশ করুন।

আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে আমি সত্যি অনেক খুশি হবো।

মনে রাখবেন, বাংলা ভাষাতে ব্লগিং করাটা বর্তমানে অধিক লাভজনক হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

এটা, আমি আমার নিজের উপলব্ধির থেকেই বলছি।

অবশই পড়ুন :

Related Contents:

11 thoughts on “বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করাটা কতোটা সম্ভব ? (My experience)”

    1. ধন্যবাদ। আমি digitalocean থেকে hosting ব্যবহার করছি।

  1. আকাশ গোলদার

    অসম্বব রকম সুন্দর হয়েছে আজকের আর্টিকেল ব্রাদার 😍😍😍

    1. ধন্যবাদ ভাই, এভাবেই ব্লগের সাথে থাকবেন।

      1. Banglatech.info ওয়েবসাইট থেকে আমার ওয়েবসাইট এর জন্য অনেক প্রয়োজনীয় টিপস এবং টিউটোরিয়াল পেয়ে থাকি। ধন্যবাদ BanglaTech.

    2. বিংগিংহাব

      সত্যি, আপনার আর্টিক্যাল যত পড়তেছি আমি ততই মুগ্ধ হয়ে যাচ্ছি… আমাদের জন্য চালিয়ে যান দাদা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top