HUAWEI কোন দেশের কোম্পানি এবং এই কোম্পানীর মালিক কে

HUAWEI কোন দেশের কোম্পানি ? এই কোম্পানীর মালিক কে ও আরও কিছু তথ্য আমরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানতে চলেছি। 

Huawei কোন দেশের কোম্পানি
Huawei কোম্পানির মালিক এবং প্রতিষ্ঠাতা কে ?

HUAWEI TECHNOLOGIES CO.LTD. হল একটি চীনা বহুজাতিক প্রযুক্তি কর্পোরেশন যার সদর দপ্তর Shenzhen, Guangdong, China এ অবস্থিত।

এটি টেলিকমিউনিকেশনের সরঞ্জাম, কনসিউমার ইলেকট্রনিক্স এবং বিভিন্ন স্মার্ট ডিভাইস ডিজাইন, ডেভেলপ, উত্পাদন এবং বিক্রি করে।

চীনের বাইরে Huawei এক নম্বর স্মার্টফোন ব্র্যান্ড তাতে কোনো সন্দেহ নেই ।

HUAWEI  নতুন উদ্যমে বাজারে এগিয়ে গেছে এবং ইউরোপকে লক্ষ্য করেই তাদের অগ্রগতি এতটাই হয়েছে যে এই কোম্পানি  মহাদেশের  অ্যান্ড্রয়েড ফোনএর বাজারে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে। 

HUAWEI কোম্পানির মালিক কে ? (Owner / CEO)

REN ZHENGFEI হলেন একজন চীনা উদ্যোক্তা এবং ইঞ্জিনিয়ার যিনি HUAWEI Technologies-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সি ই ও (CEO)

HUAWEI হলো বিশ্বের বৃহত্তম টেলিকমিউনিকেশন সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক এবং স্মার্টফোনের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎপাদনকারী সংস্থা।

HUAWEI কোম্পানী DAVID LI কে ভারতের নতুন CEO নিযুক্ত করেছে

ইনি JAY CHEN-এর জায়গায় এসেছেন।

CHEN এখন HUAWEI-এর এশিয়া প্যাসিফিক (Asia Pacific) অঞ্চলের দায়িত্ব পেয়েছেন।

Chen ২০১৫ সালে স্থানীয় বাজারের সি ই ও হওয়ার আগে অন্যন্য কোম্পানীর হয়ে ভারতীয় বাজারে বিভিন্ন ভূমিকা পালন করেছিলেন।

এখন তার জায়গায় David, HUAWEI টেলিকমিউনিকেশনস ইন্ডিয়ার স্ট্র্যাটেজি, নির্দেশনা এবং দেশে অপারেশনের সমস্ত দিক তদারকি করার জন্য দায়ীত্বে থাকবেন।

Huawei কোন দেশের কোম্পানি ?

Huawei মূলত চীন দেশের কোম্পানি একথা আগেই বলা হয়েছে।

HUAWEI ১৭০ টিরও বেশি দেশ ও এলাকায় তার পণ্য ও পরিষেবা প্রদান করে

এটি ২০১২ সালে বিশ্বের বৃহত্তম টেলিকমিউনিকেশন সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক হিসাবে এরিকসনকে ছাড়িয়ে যায়

২০১৮ সালে অ্যাপলকে পিছনে ফেলে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স এর পরই স্থান পায় HUAWEI

২০১৮ সালে, HUAWEI US$১০৮.৫ বিলিয়ন বার্ষিক আয় করেছিল বলে জানা গেছে

জুলাই ২০২০ সালে, প্রথমবার বিশ্বব্যাপী অন্যান্য দেশে ফোন বিক্রির সংখ্যায় HUAWEI এতটাই এগিয়ে যায় যে Samsung এবং Apple পেছনে পড়ে থাকে

HUAWEI চীন এবং ইউরোপ, এশিয়া এবং আফ্রিকার অনেক দেশে সবচেয়ে বেশি বিক্রির স্মার্টফোন।

বিশ্বের জনসংখ্যার ৩ বিলিয়নেরও বেশি মানুষ কল করতে, বার্তা পাঠাতে বা ইন্টারনেট সার্ফ করতে HUAWEI এর বিভিন্ন স্মার্টফোন ব্যবহার করে। 

History

কর্পোরেশনটি ১৯৮৭ সালে পিপলস লিবারেশন আর্মির প্রাক্তন ডেপুটি রেজিমেন্টাল হেড রেন ঝেংফেই দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

প্রাথমিকভাবে এরা ফোন সুইচ তৈরি করত

প্রথম কয়েক বছর ধরে কোম্পানিটি হংকং থেকে আমদানি করা PBX সুইচ পুনরায় অন্যত্র বিক্রি করছিল।

পরবর্তীকালে কোম্পানিটি নিজস্ব প্রযুক্তি তৈরির জন্য গবেষণা ও উন্নয়ন শুরু করে।

১৯৯০ সালে কোম্পানির প্রায় ৬০০ জন R&D কর্মী ছিল। 

হোটেল এবং ছোট উদ্যোক্তাদের এই কোম্পানি PBX সুইচ বিক্রি করে ও এইভাবে কোম্পানিটি  নিজস্ব স্বাধীন বাণিজ্যিকীকরণ শুরু করে।

পরে HUAWEI তার ব্যবসা বাড়ায় এবং টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক তৈরি করা, চীনের ভিতরে এবং বাইরে কিছু উদ্যোক্তাকে অপারেশনাল পরামর্শ ও অন্যান্য পরিষেবা দেওয়া,

বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম সরবরাহ করা এবং কনসিউমার বাজারের জন্য যোগাযোগ তৈরি করা এসব বিভিন্ন কাজ করতে শুরু করে।

পরবর্তী কালে HUAWEI, পিপলস লিবারেশন আর্মির জন্য প্রথম জাতীয় টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক তৈরির একটি চুক্তি সই করে।

সামগ্রিক ব্যবসার দিক থেকে এই পদক্ষেপ ছোট হলেও, সম্পর্ক গড়ে তোলার দিক থেকে এটি অনেক বড়, একথা সবাই স্বীকার করেন

ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত HUAWEI তে কর্মচারীর সংখ্যা ছিল ১৯,৪০০০জন।

HUAWEI ২০০৩ সালে মোবাইল ফোন ব্যবসায় প্রবেশ করে এবং ২০০৪ সালে তার প্রথম ফোন, HUAWEI C300 বিদেশের বাজারে নিয়ে আসে।

কোম্পানির মোবাইল ফোন বিভাগটিই প্রথম গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে।

২০১২ সালে, এর প্রথম অ্যান্ড্রয়েড-ভিত্তিক স্মার্টফোন, HUAWEI U8220, বার্ষিক মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস প্রযুক্তি ইভেন্টে প্রদর্শন করা হয়েছিল।

২০১৮ সালের মধ্যে, HUAWEI ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বিক্রি করে।

তারা রিপোর্ট করেছে যে প্রিমিয়াম রেঞ্জের স্মার্ট ফোনের জন্য সাংঘাতিক চাহিদা কোম্পানির বিক্রি  ২০১৮ সালে $৫২ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যায়।

HUAWEI ২০১৮ সালে বিশ্বব্যাপী $১০৫.১ বিলিয়ন আয় করেছে বলে ঘোষণা করে

এই কোম্পানী ২০১৯ সালে, ১২২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়ের কথা জানিয়েছে।

২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যে HUAWEI বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন বিক্রেতা হয়ে ওঠে।

প্রথমবারের মতো HUAWEI এর বিক্রি স্যামসাংএর বিক্রিকে ছাড়িয়ে যায়।

Best products

২০২২-এ মার্কেটে সবচেয়ে ভালো কিছু HUAWEI  ফোনের নাম নিচে দেওয়া হলো :

HUAWEI P50 PRO: 

এই মডেলটটিতে আপনি পাবেন:

  • চিত্তাকর্ষক ডিজাইন,
  • দুর্দান্ত ক্যামেরা,
  • খুব ভাল পারফরমেন্স। 

HUAWEI P50 POCKET: ভাঁজ করা যায় এমন ফোনগুলির মধ্যে সেরা।

এতে রয়েছে :

  • চোখজুড়ানো ফোল্ডিং ডিজাইন।
  • বেশ ভালো ক্যামেরা।
  • যথেষ্ট ভালো ব্যাটারী লাইফ।

HUAWEI P30 PRO: 

এতে আপনি পাবেন :

  • আকর্ষণীয় ডিজাইন।
  • দুর্দান্ত ক্যামেরা।
  • GMS-কে সাপোর্ট করে।

HUAWEI P30: আপনার সাধ্যের মধ্যে প্রিমিয়াম ফোন।

এর স্পেসিফিকেশনস হলো :

  • খুব পাতলা ওপর হালকা ওজনের ফোন,
  • ভীষণ ভালো ক্যামেরা,
  • এটিও GMS কে সাপোর্টে করে।

HUAWEI MATE X2: productivity বা উৎপাদনশীলতা খুবই ভালো।

এর স্পেসিফিকেশনস:

  • উচ্চ মানের পারফরম্যান্স।
  • একেবারে মনের মত ডিসপ্লে।
  • খুবই ভালো ক্যামেরা।

HUAWEI P40 PRO: ছবি তোলার জন্যে সবোত্তম ফোন।

এর যা স্পেসিফিকেশনস রয়েছে:

  • দারুন পারফরম্যান্স।
  • অনেক লম্বা ব্যাটারী লাইফ।
  • ভীষণ ভালো ক্যামেরা।

HUAWEI MATE 40 PRO: videography বা ভিডিও তোলার জন্যে সেরা মডেল।

এর স্পেসিফিকেশনস:

  • ছিপছিপে পাতলা বা sleek ডিজাইন ।
  • দুর্দান্ত পারফম্যান্স।
  • Superb বা সর্বোত্তম ক্যামেরা।

HUAWEI  নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে আসার জন্যে ও তাদের ফিচারসকে আরো উন্নত করার জন্য কিছু অত্যন্ত উচ্চ-প্রোফাইল কোম্পানির সঙ্গে একসঙ্গে (partnership) কাজ করা শুরু করেছে।

P9 এর ডুয়েল লেন্সের ঠিক পাশেই “Leica” শব্দটি লেখা আছে, যা হলো এক বিশিষ্ট জার্মান ফটোগ্রাফি কোম্পানির নাম।

HUAWEI, Google-এর Nexus 6P মোডেলটিও ও তৈরি করেছে এবং বর্তমানে মহিলাদের জন্য একটি ফ্যাশনেবল স্মার্টওয়াচ ডিজাইন করার জন্যে Swarovski-এর সাথে কাজ করছে।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top