মোবাইল দিয়ে অনলাইন টাকা আয় কিভাবে করা যায় ? ( ১০০% real উপায় )

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় কিভাবে করবেন ? মোবাইলে অনলাইনে আয় করার উপায় গুলো কি, এই বিষয়ে আজকে আমরা এই আর্টিকেলে আলোচনা করতে চলেছি। ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায় এমনিই প্রচুর রয়েছে যেগুলোর বিষয়ে আজকে আমরা আলোচনা করবো।

Earn money online from Mobile !

আপনি কি অনলাইন পার্ট-টাইম বা ফুল-টাইম টাকা ইনকাম করতে চান ? যদি হে, তাহলে আপনার ওই Android mobile আপনাকে মাসে মিনিমাম ১০ হাজার থেকে ৩০ হাজার আয় করে দিতে পারবে।

হে, এটা একদম সত্যি।

আজ টেকনোলজি এতো ফাস্ট এবং অ্যাডভান্সড হতে চলেছে যে, এন্ড্রোইড মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা এখন একটা ট্রেডিশন বা ফ্যাশন হয়ে উঠেছে।

মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম করার এমনিতে অনেক উপায় আছে।

কিন্তু আমি আপনাকে মোবাইলে অনলাইনে আয় করার কেবল ওই ৫ টি সহজ উপায় গুলো বলবো যেগুলি আপনাকে সত্যি মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার সুযোগ দিয়ে থাকবে।

আর্টিকেল শুরু করার আগে আমি আপনাকে একটা কথা ভালো করে বলেদিতে চাই।

Android মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার যেগুলি অনলাইন উপায় আমি বলবো সেগুলি আজ অনেকেই ব্যবহার করে আনলিমিটেড ইনকাম করছেন।

আর সেটা আপনিও করতে পারবেন।

কিন্তু, একটা কথা অবশ্যই মনে রাখুন যে, কোনো কষ্ট আর কাম না করে জীবনে কিছুই পাওয়া যায়না।

আর, তার জন্যই আপনাকেও অনলাইন মোবাইল থেকে টাকা কমানোর জন্য অল্প পরিশ্রম করতেই হবে।

আমি, নিচে মোবাইল দিয়ে ইনকামের যা ৫ টি উপায় বলবো সেগুলি trusted এবং অনেকেই ব্যবহার করে income করছেন।

আমিতো আপনাদের নিচে উপায় গুলো বলে দিবো, কিন্তু উপায় গুলি ব্যবহার করে আপনি কতটা টাকা আয় করবেন সেটা আপনার কাজ আর পরিশ্রমের ওপরে।

বাকি এতটুকু জেনেরাখুন, নিচে দেওয়া মোবাইল থেকে টাকা আয় করার উপায় গুলি দিয়ে লোকেরা হাজার কেন লক্ষ লক্ষ টাকা প্রত্যেক মাসে আয় করছেন।

চলুন, আর সময় নষ্ট না করে আমরা মোবাইল থেকে আয় করার ৫ টি সহজ পদ্ধতি জেনে নেই।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ৮ টি সহজ উপায়

যা আমি ওপরে আপনাদের বললাম, যদি আপনার কাছে একটি এন্ড্রোইড স্মার্টফোনে আছে তাহলে অবশই আপ্নে অনলাইন পার্ট-টাইম এবং ফুল-টাইম টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর, তারজন্য জরুরি ৫টি উপায় আমি আপনাদের নিচে অতি সহজে বুঝিয়ে দিয়েছি।

১. ব্লগিং এবং ওয়েবসাইটের দ্বারা ইনকাম

আপনি কি জানেন, মোবাইল থেকে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়ে অনলাইন আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করতে পারবেন ? যদি না, তাহলে ভালো করে বিষয়টা জেনে রাখুন।

আপনি অবশই Google এর blogger.com ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি ফ্রি ব্লগ এবং ওয়েবসাইট বানিয়ে নিতে পারবেন।

আর তারপর, যখন আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট ভিসিটর্স বা ট্রাফিক আসা আরম্ভ হবে তখন আপনি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন।

আপনার হয়তো এই ভাব হচ্ছে যে, মোবাইল থেকে ব্লগ বানিয়ে income করা অনেক কঠিন বা ঝামেলার কথা।

কিন্তু, তা একদম নই।

মোবাইল থেকে আপনার ব্লগ বানাতে মাত্র ১০ মিনিট লাগবে।

আর, তার পর নিজের ব্লগে ভালো ভালো আর্টিকেল লিখে ব্লগে ভিসিটর্স বা ট্রাফিক আনতে পারবেন।

ব্লগে ভিসিটর্স আশা আরম্ভ হলে, Google AdSense এ নিজের ব্লগটি register করে টাকা আয় করা স্টার্ট করতে পারেন।

Google AdSense গুগলের একটি service যে আমাদের নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে text , link , video এবং image advertisements দেখিয়ে তার বিনিময়ে online income এর সুযোগ দেয়।

আজ, “ব্লগ এবং গুগল এডসেন্স” এই দুটো সার্ভিস ব্যবহার করে লোকেরা online এতো টাকা আয় করছেন যে আপ্নে ভাবতেও পারবেননা।

আর, আপনিও যদি ব্লগ এবং এডসেন্স এর দ্বারা income করতে চান তাহলে কোনো কম্পিউটার বা ল্যাপটপের দরকার আপনার নেই।

নিজের স্মার্টফোনেই একটি ব্লগ বানিয়ে তাতে আর্টিকেল লিখে Google AdSense এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন।

২. YouTube channel বানিয়ে অনলাইন ইনকাম

ব্লগিং এর মতো মোবাইল থেকে অনলাইন টাকা কমানোর জন্য YouTube channel বানানোর আইডিয়া টি বেশ অনেকটাই লাভজনক।

আজ, অনেক লোকেরা ইউটুবে গিয়ে নিজের চ্যানেল বানিয়ে মাসে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে।

ইউটুবে চ্যানেল বানানোর জন্য আপনার YouTube এর Website এ যেতেহবে।

YouTube.com এ গিয়ে আপনার Gmail একাউন্টের প্রয়োজন হবে।

কারণ, আমি আগেই বলেছি, “YouTube Google এর product ” আর তাই ইউটুবে লগইন করতে Gmail account ID আর password এর প্রয়োজন হবে।

নিজের Gmail account দিয়ে ইউটুবে লগইন করার পর আপনি ইউটুবে directly বা একটি আলাদা channel বানিয়ে তাতে video আপলোড করুন।

ইউটুবে চ্যানেলে ভিডিও upload করেই আপনি টাকা আয় করার সুযোগ পাবেন।

এইটা মনে রাখবেন, যা যা video নিজের YouTube চ্যানেলে upload করবেন সেটা যাতে নিজের বানানো অরিজিনাল ভিডিও হয়।

যদি অন্য কারো ভিডিও নিজের চ্যানেলে আপলোড করেন তাহলে সেটা copyright ভিডিও হিসাবে ধরা হবে।

আর তাই সেই অন্যর কপি করা ভিডিও থেকে ইনকাম করার কোনো option পাবেননা।

তাই, অনেক সহজে নিজের মোবাইল দিয়ে একটি YouTube channel তৈরি করে, মোবাইল দিয়েই ভিডিও তৈরি এবং এডিট করে টাকা আয় করতে পারবেন।

ইউটুবে কেমন ভিডিও আপলোড করতে পারবেন ?

নিজের ইউটুবে চ্যানেলে যেকোনো রকমের ভিডিওস আপলোড করতে পারেন।

যেমন, Tutorial videos, comedy videos, kono story, মোবাইল রিভিউ বা যেকোনো জিনিসের ওপরে।

অনেক তাড়াতাড়ি success পাওয়ার জন্য আপনি নিজের মোবাইল থেকেই টিউটোরিয়াল ভিডিওস বানিয়ে চ্যানেলে আপলোড করুন।

কিন্তু মনে রাখবেন, “যা বানাবেন নিজে বানাবেন” আর ভিডিওর কোনো অংশতে যাতে অন্য কোনো ভিডিওর কোনোরকম কপি করা পার্ট বা অংশ না থাকে সেটা মনে রাখবেন।

এরকম করে original নিজে বানানো video ইউটুবে আপলোড করতে থাকলে অনেক তাড়াতাড়ি টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন।

এখন আপনি ইউটিউবে চ্যানেল বানালেন এবং ভিডিও আপলোড ও করলেন।

কিন্তু, টাকাটা কিভাবে কমাবেন ? আপলোড করা ভিডিও থেকে টাকা কিভাবে পাওয়াযাবে ? সেটাইতো আপ্নে এখন ভাবছেন ? তাই না। .?

ইউটুবে থেকে টাকা কিভাবে আয় করবে ?

আসলে, যখন আপনি ভিডিও ইউটুবে চ্যানেলে আপলোড করেন, তার পর আপনার ভিডিও ইউটুবের ওয়েবসাইটে আশা হাজার হাজার লোকেরা অনলাইন ভিউ করে বা দেখে।

আর তখন আপনার ভিডিও থেকে টাকা কমানোর সুযোগটা এসেপড়ে।

ইউটিউবে “monetization” বলে একটা অপসন রয়েছে।

এই monetization অপশন এর মাধ্যমে যখন apply করে অপশনটি enable করবেন (চালু করবেন) তখন Google AdSense এর তরফথেকে কিছু advertisements আপনার ভিডিওগুলিতে দেখানো হবে।

আর, লোকেরা আপনার ভিডিও দেখার আগে যখন ওই advertisement গুলি দেখবেন, তখন আপনি টাকা ইনকাম করবেন।

এটাই ইউটিউব থেকে অনলাইন ইনকামের উপায়।

বিশ্বাস করেন, যখন ৫০ টি ভিডিও আপলোড করে ফেলবেন আর আপনার প্রত্যেক ভিডিওতে ডেইলি ৩০ করে ভিউ হবে তখন ৫০*৩০= ১৫০০ টোটাল ভিডিও ভিউ আপনি ডেইলি পাবেন।

আর, ডেইলি যদি আপনার ভিডিও গুলি ১৫০০ বার লোকেরা দেখেন তাহলে কমেও ০.২ ডলার করে প্রতি ad view তে পেলেও ০.২*১৫০০= ৩০০ ডলার।

আপ্নে ঠিক ভাবছেন এইটা অনেকটাই ইনকাম।

যদি এক ডলার = ৬০ টাকা হয় তাহলে ৩০০ ডলার *৬০= ১৮,০০০ টাকা।

আজ অনেকেই ইউটুবে থেকে এরথেকে অনেক বেশি টাকা প্রতিদিন কামাই করছেন।

আর এগুলো সব কেবল নিজের মোবাইল থেকেই করতে পারবেন যদি আপনার কাছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ নেই।

কিন্তু, এইটা মনে রাখবেন, এক দিনে কিছুই হয়না।

আপনার অনেক পরিশ্রম করতে হবে, মনদিয়ে এবং interest রেখে কাজ করতে হবে।

আর তখন গিয়ে আপনি এই YouTube business এ success হবেন।

৩. Android apps থেকে পয়সা কামান

হে আপনি ঠিক শুনেছেন, এখন মোবাইলে বিভিন্ন এন্ড্রয়েড অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কিন্তু, নিজের মোবাইল থেকে টাকা আয় করার এই মাদ্ধমে আপনার খুবেক্টা বেশি ইনকাম হবেনা।

যদি আপনি একজন student, housewife বা retired person তাহলে extra কিছু ইনকাম করার জন্য এই উপায় ব্যবহার করতে পারেন।

Google play store এ গিয়ে “earning apps”, “online income app” বা “free recharge app” বলে সার্চ করলেই অনেক এমন apps পেয়ে যাবেন যেগুলো আপনাকে বিভিন্ন কাজের জন্য real টাকা দিয়ে থাকে।

এমন টাকা কমানোর কিছু সেরা অ্যাপ কিছু হলো “Truebalance” , “MCent“, “Amulyam“, “Pocket Money“, “TaskBucks” ইত্যাদি আরো অনেক রয়েছে।

এই apps গুলো google play store থেকে ফ্রীতে download করে মোবাইল থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

তবে, টাকা কমানোর এই apps গুলো আপনাকে এমনেই পয়সা দিয়ে থাকেনা।

App ডাউনলোড করার পর আপনার অনেক রকমের কাজ গুলো করতে হবে।

যেমন – apps downloading, app রেফার করা, video দেখা ইত্যাদি।

আর, এই কাজ গুলির বিনিময়ে আপনাকে কিছু টাকা app এর তরফথেকে দেওয়া হয়।

ইনকাম করা টাকা আপনি অনেক রকমেই তুলতে পারবেন।

যেমন – paytm cash হিসেবে, ফ্রি মোবাইল রিচার্জ, ফ্রি ডিশ টিভি রিচার্জ, bank account transfer ইত্যাদি মাধ্যমে।

৪. OLX এবং QUIKR এ পুরোনো জিনিস sell করুন

যদি আপনি মোবাইল থেকে extra income করার উপায় খুঁজছেন, তাহলে OLX এবং Quikr এর মতো ওয়েবসাইট আপনার হাহায্য করতে পারবে।

OLX বা Quikr আসলে এমন ওয়েবসাইট যেখানে পুরাণ যেকোনো জিনিস বা পণ্য বিক্রি করা যায়।

সেটা যেকোনো জিনিস হতে পারে যেমন, bike, মোবাইল, টিভি, Car, computer, ল্যাপটপ বা যেকোনো জিনিস।

আপনি এই দুটি ওয়েবসাইটে গিয়ে পুরোনো জিনিস বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনার ঘরে যদি বিক্রি করার মতো পুরোনো জিনিস আছে তবে সেটা আপনি অবশই বিক্রি করতে পারবেন।

এছাড়া, যদি কোনো পুরোনো bike বা car বিক্ৰী করার দোকানের মালিকের সাথে আপনার চেনা পরিচিত থেকে থাকে তাহলে আপনি কম দামে তার থেকে জিনিস কিনে আবার বেশি দামে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

আর, এই সম্পূর্ণ কাজ আপনি নিজের মোবাইল থেকেই করতে পারবেন।

আপনি যা বিক্রি করতে চান, সেটার ফটো উঠিয়ে OLX বা QUIKR ওয়েবসাইট আপলোড করে জিনিস বা যা বিক্রি করতে চান তার বিষয়ে কিছুটা লিখে দাম সহ পোস্ট করে দিন।

বাস, তারপর কিছু সময়ের মধ্যে জিনিস টি কেনার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কাস্টোমাররা আপনার সাথে যোগাযোগ করতে শুরু করবেন।

এভাবেই মোবাইল থেকে পুরোনো জিনিস SELL করে আপনি পয়সা আয় করতে পারবেন।

৫. Short link website থেকে অনলাইন ইনকাম

আপনি কি short link ওয়েবসাইটের কথা জানেন ? যদি না, তাহলে জেনেরাখুন, নিজের মোবাইল থেকে অনলাইন ইনকাম করার এইটা অনেক সোজা এবং ১০০% সত্যির উপায়।

আপনার বেশি কিছু করার দরকার নেই।

আপনার প্রথমে কিছু short link ওয়েবসাইটে গিয়ে account রেজিস্টার করতে হবে।

কিছু trusted এবং ভালো short link ওয়েবসাইটের নাম হলো – Shorte.st, adf.ly, AL.LY, Blv.me, Linkshrink.Net ইত্যাদি।

আপনি এগুলোর যেকোনো একটা বা প্রত্তেকটাতেই account বানাতে পারেন।

এখন, এই short link ওয়েবসাইট গুলির মাদ্ধমে টাকা কিভাবে আয় করবেন সেটা নিয়ে হয়তো আপনি ভাবছেন, তাই তো ?

আসলে, এই ওয়েবসাইট গুলোকে link shortener website বলা হয়।

এখানে, আপনাকে একটা box দেয়া হয় যেখানে যেকোনো ওয়েবসাইটের URL address link টি past করে তাকে ছোট (short) করতে পারেন।

ইন্টারনেট থেকে যেকোনো আর্টিকেল, ভিডিও, গান বা যেকোনো ওয়েবসাইটের URL address কপি করে তাকে এই URL shortener ওয়েবসাইট গুলির মাদ্ধমে ছোট করে দিতে পারেন।

যেমন, আপনি যদি আমার ব্লগের কোনো একটি আর্টিকেলের URL link ছোট করেন, তাহলে সেটা দেখতে আসল URL থেকে সম্পূর্ণ আলাদা দেখাবে এবং অনেক ছোট হয়ে যাবে।

কিন্তু কথা হলো, এই URL shortener ওয়েবসাইট থেকে টাকা কিভাবে ইনকাম করা যাবে ? তাই তো ভাবছেন ?

আসলে, যখন কোনো ওয়েবসাইট বা ব্লগের বা ভিডিওর URL Address এই URL shortener ওয়েবসাইটে গিয়ে ছোট করবেন, তখন লিংক এড্রেস টি ছোট হওয়ার সাথে সাথে ওখানে কিছু advertisement ও লাগিয়ে দেবা হয়।

আর এর ফলে, যখন কেউ আপনার short করা (ছোট করা) URL address এ ক্লিক করবেন তখন original ওয়েবসাইটে যাবার আগে কিছু advertisement দেখানো হবে।

এখন, এর ফলে আপনাকে প্রতি valid ad view এর ওপর টাকা দেবা হবে।

কোনো কোনো Link shortener ওয়েবসাইট আপনাকে ১০০০ ভিউ তে ৫ থেকে ১৫ ডলার দেবে বা কেউ কেউ ৫ থেকে ১০ ডলার।

কিন্তু ইনকাম আপনার ভালোই হবে।

আপনি সবটা নিজের মোবাইল দিয়েই করতে পারবেন।

আপনার খালি, ইন্টারেস্টিঙ আর ভালো ভালো ভিডিও, আর্টিকেল বা ওয়েবসাইট url address গুলো এই link shortener ওয়েবসাইট গিয়ে ছোট করতে হবে আর যতোটা সম্ভব Facebook group , WhatsApp group বা অন্য সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে শেয়ার করতে হবে।

তারপর, যতোটা ভিসিটর্স আপনার লিংকে ক্লিক করে আপনার দেওয়া URL address এ যাবে তারা advertisement দেখবে আর আপনি টাকা আয় করবেন।

৬. ফেসবুক গ্রুপ বানিয়ে ইনকাম

যদি আপনি ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা উপায় গুলো খুঁজছেন, তাহলে একটি ফেসবুক গ্রুপ বানিয়েও ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।

আজকাল একটি জনপ্রিয় এবং অধিক members থাকা Facebook group এর দ্বারা বিভিন্ন মাধ্যমে টাকা আয় করা সম্ভব।

এবং, যদি আপনার কাছে একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল আছে তাহলে গ্রুপ বানানোর থেকে টাকা ইনকাম করা, সবটাই মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন।

তবে, প্রথমে নিজের ফেসবুক গ্রুপ বানিয়ে সেটাকে জনপ্রিয় করার চেষ্টা করতে হবে।

এক বার আপনার গ্রুপে কমেও ১০ হাজার মেম্বার যোগ হয়ে গেলে তারপর আপনি বিভিন্ন উপায় গুলো ব্যবহার করে নিজের গ্রুপ থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

৭. Ysense দিয়ে টাকা আয় করুন

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার এটা অনেক সোজা এবং সহজ উপায়।

Ysense হলো একটি অনলাইন ওয়েবসাইট যেটা মূলত একটি paid survey website যেখানে বিভিন্ন সার্ভে গুলো করে টাকা ইনকাম করা যায়।

সরাসরি নিজের মোবাইল দিয়েই Ysense এর website এর মধ্যে গিয়ে একটি free account তৈরি করে নিতে পারবেন।

এবার, একাউন্ট তৈরি করার পর আপনারা নিজের dashboard দেখতে পাবেন এবং Surveys এর ভাগে আপনারা ভিন্ন paid survey গুলো দেখতে পাবেন।

এখন, এক এক করে survey গুলো join করুন এবং সেগুলোর উত্তর দিয়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে থাকুন।

প্রত্যেকটি সার্ভে সফলভাবে সম্পূর্ণ করতে পারলে প্রায় ৩ থেকে ১০ ডলারের মধ্যে আপনার ইনকাম হয়ে যাবে।

অধিক জানার জন্য আমাদের এই আর্টিকেল পড়ুন – Ysense দ্বারা কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ? 

৮. ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করুন

যদি আপনার কাছে একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল রয়েছে, তাহলে অবশই নিজের একটি Instagram account বানিয়ে সেটাকে জনপ্রিয় করে তারপর সেখান থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আজকাল প্রত্যেকটি brand, services, product ইত্যাদি Instagram profile গুলোর দ্বারা প্রচার করা হয়।

এবং, ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট এর মাধ্যমে পণ্যের প্রচার করার ফলে কোম্পানি গুলোর থেকে আপনি প্রচুর টাকা আদায় করতে পারবেন।

আজকাল এরকম প্রচুর social media influencer রয়েছেন যারা নিজের Instagram account এর মধ্যে বিভিন্ন কোম্পানি গুলোর product এবং services গুলোকে প্রচার করে প্রচুর টাকা অনলাইনে আয় করে থাকেন।

Instagram account তৈরি করার পর আপনাকে সেখানে মজার, আকর্ষণীয় এবং কাজের তথ্য, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি নিয়মিত ভাবে পোস্ট করতে হবে।

চিন্তা করবেননা, প্রত্যেকটি কাজ আপনি নিজের মোবাইল থেকেই করতে পারবেন।

একবার আপনার Instagram profile এর মধ্যে প্রচুর followers যোগ হয়ে গেলে তারপর আপনি বিভিন্ন আলাদা আলাদা মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন।

 

Final words on topic,

তো বনধুরা, আজ আমি আপনাদের ৫টি সহজ এবং ১০০% রিয়েল উপায় জানলাম যার দ্বারা অনলাইন নিজের মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যাবে।

এর মধ্যে এমন কিছু উপায় বলেছি যেগুলো আমি নিজে এতটা করে দেখিনাই জিন্টু অনেকের মুখেই শুনেছি যে তারা এগুলির মাদ্ধমে টাকা কামিয়েছে।

আর এমনও কিছু উপায়ও বলেছি যেমন, “Blogging” এবং “YouTube channel“, যার মাদ্ধমে প্রচুর এবং সীমাহীন income করতে পারবেন।

কিভাবে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায় (How to earn money from mobile phone) এই বিষয়ে লিখা আর্টিকেলটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে অবশই আর্টিকেলটি শেয়ার করবেন।

এছাড়া, আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো ধরণের প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে, নিচে কমেন্ট করে অবশই জানিয়ে দিবেন।

 

141 thoughts on “মোবাইল দিয়ে অনলাইন টাকা আয় কিভাবে করা যায় ? ( ১০০% real উপায় )”

    1. তাদের number mobile এর মধ্যে সেভ করুন এবং whatsapp এর মধ্যে গিয়ে নাম সার্চ করুন। আলাদা ভাবে যোগ করার প্রয়োজন হয়না।

  1. খুব ভালো পোস্ট, অসাধারণ, ইনকাম করার জন্য, অনেক কিছু জানতে এবং শিখতে পারলাম এই লেখাটি পড়ে।

  2. MD : Biplob hossain

    Thankyou for your valuable post. I think it is very important post for many student and other peopl.

  3. ব্লগিং ওয়েবসাইট খুলেছি ।
    এখানে কিছু পোস্ট করতাছি ।
    মূল কথা হলো, কিভাবে ওয়েবসাইটের প্রচার হবে ।
    আর কত দিন লাগবে ভিউ আসতে ।

    আর এখানে ইনকাম হলে বুঝব কি করে ?
    প্লিজ ভাই একটু জানাবেন ?

    1. Congratulations……
      ব্লগের প্রচার social media দ্বারা করতে পারবেন। তবে, ব্লগে ফ্রি ট্রাফিক ও ভিজিটর পাওয়ার জন্যে ব্লগটি গুগল সার্চে জমা করুন।
      রেগুলার আর্টিকেল পাবলিশ করলে ৩ থেকে ৪ মাসের ভেতরে ভালো পরিমানে ভিউ আসবে। তবে, সেটা আপনার লেখা আর্টিকেলের কনটেন্ট কোয়ালিটির ওপর নির্ভর করছে।
      আগে traffic আসতে দিন, ইনকাম নিয়ে পরে ভাবলেও হবে। আমাকে পরে জিগেশ করবেন।

    2. ধন্যবাদ সুন্দর একটা আর্টিকেল শেয়ার করার জন্য।

  4. এতো সুন্দর করে আগে কেউ বুঝাই নি, খুবই উপকৃত হলাম। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  5. অনেক ধন্যবাদ ভাই। অনেক সুন্দর ভাবে প্রকাশ করেছেন।

    1. অবশই পারবেন। তবে মোবাইল থেকে ইনকাম করার তেমন একটি ভালো মাধ্যম নেই।

  6. অসাধারণ হয়েছে…এই পোস্টের আকারের চেয়ে আরো তিন গুন বড় কমেন্ট করে ও এই পোস্টের গুন প্রকাশ করা সম্ভব হবে না। আপনার প্রতিনিয়ত পোস্টের মান দেখে আমি সত্যিই আশ্চর্য হয়ে যাই।

    আপনি সত্যিই একজন জিনিয়াস 🙂 এরকম একটি ব্লগের নিয়মিত পাঠক হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

  7. আমি Google ছবি রাখতে চাই।
    সেটা কি apps লাগবে আমাকে জানবেন

    1. Google drive বা google photos app ব্যবহার করে, খুব সহজেই রাখতে পারবেন।

    1. আপনি BLOGGING বা YOUTUBE channel থেকে শুরু করতে পারবেন।

  8. Mehedi Islam Noman

    ভাই মোবাইল দিয়ে কিভাবে ফ্রী একটি ব্লগ সাইট বানাবো ?? প্লিজ সেই বিষয়ে একটু বলেন?

      1. এভাবে নিজের ইনকাম বলে দেওয়াটা ঠিক না। তবে, আপনি জিগেশ করছেন তাই বললাম, আমি এই মুহূর্তে কেবল Google adsense থেকে আয় করছি। এবং আমি প্রত্যেক মাসে প্রায় ভালো পরিমানে আয় করে নিতে পারি।

  9. প্লিজ একটি টিউটোরিয়াল দেন।কিভাবে অনলাইন ইনকাম করা যায় 3000 ডলার প্রতি মাসে ঘরে বসে।

    1. এই বিষয়ে আপনারা অনেক আর্টিকেল আমার ব্লগে পাবেন।

  10. অসাধারণ একটি পোস্ট করেছেন ভাই। পোষ্টটি পড়ে উপকৃত হলাম এবং আশা করি সামনের দিনে এমন ভালো পোস্ট পাব।

  11. ভাই Hi App দিয়ে কিভাবে ইনকাম করা যায় ? প্লিজ একটি টিউটোরিয়াল দেন।

    1. Advertisement মানে বিজ্ঞাপন। বিজ্ঞাপন নিজের ওয়েবসাইট বা ভিডিও গুলিতে লাগিয়ে টাকা আয় করা সম্ভব।

  12. অনেক সুন্দর ভাবে গুছিয়ে লিখেছেন এবং আপনার আর্টিকেল অনেক হেল্প ফুল আর আপনার লেখা দেখেই বোঝা যায় যথেষ্ট পরিশ্রম করেছেন।

  13. তিমন দে

    অনেক সুন্দর লেখা!বাংলা টেক আমি প্রায়শই ভিজিট করি।এর প্রধান কারন এর থেকে আমি অনেক কিছু জানতে পারছি।ভবিশ্যতেও এরকম অনেক কিছু জানতে চাই।অনলাই ইনকাম মুলত পেশার চাইতে বর্তামানে নেশাটাই বেশি তাই অনেকই এর দিকে ঝোক দিচ্ছে।তবে সঠিক গাইড না পেলে আয় করা টা কষ্ট সাধ্য।আমি গত কয়েকমাস জাবত brave browser থেকে মোটা মুটি ভাল পরিমান টাকা আয় করেছি।এটি ১০০% রিয়েল প্রজেক্ট এবং শুধু ইনভাইট করেই আয় করা সম্ভব।

  14. জিল্লুর রহমান

    vai mobile theke ki blog id kola jabe,and ami poketmony apps ar kaj krtace, ki ki kaj krle payment pabo,please vai aktu blben??

    1. apps গুলিতে কাজ করে সময় নষ্ট করবেননা। টাকা আয় করার জন্য ব্লগিং বা ইউটিউবের চ্যানেল তৈরি করুন। না, মোবাইল থেকে ব্লগ তৈরি করা যেতে পারে যদিও এভাবে ব্লগিং সম্ভব না।

  15. ভাই ব্লগ সাইটে ভিজিটর্স বাড়ানোর উপায়টা একটু বলবেন? প্লিজ। আর পেইড ওয়েবসাইট তৈরির জন্য কোন ডোমেইনটা ভালো হবে? দাম কত পরবে?

    1. আপনি ব্লগে ভিসিটর্স বাড়ানোর জন্য আমার এই আর্টিকেল পড়ুন – https://banglatech.info/ব্লগে-ফ্রি-ট্রাফিক-ভিসিট/
      premium domain হিসেবে। com, .info, .net, .org এগুলি সেরা।
      প্রথম বছর এর জন্য এই ডোমেইন গুলি প্রায় ২০০ থেকে ৫০০ ভেতরে পেয়ে যাবেন।

  16. ভাই আমি ব্যবসায় গুরুপের ছাএ,ভাই আমার অনেক সপ্ন আমি অনলাইনে ব্যবসা করবো, এখন যদি আপনি আমাকে একটু হেল্প করতেন, কিছু পরামশ দিতেন

    1. আপনি কিরকম এবং কি বিষয় নিয়ে ব্যবসা করতে চাচ্ছেন ?

    1. করা যায়না সেটা বলবোনা। করা যাবে, কিন্তু সেই APP আপনাকে টাকা দিবে কি দিবেনা, সেবেপারে ইন্টারনেটে ভালো করে রিসার্চ অবশই করে নিবেন। তবে, এরকম apps ব্যবহার করে আপনারা তেমন কোনো বেশি আয় করতে পারবেননা।

      1. মিরাজুল ইসলাম

        ভাই পকেট মানি অ্যাপস থেকে টাকা তুলব কিভাবে

        1. সেখানে Redeem amount বলে একটি অপসন থাকবে। সেটা ব্যবহার করুন।

  17. আমার মতে অ্যাপে ক্লিক এর কাজ করে সময় নষ্ট না করে কাজ সেই সময় দিয়ে একটা ফ্রি/ পেইড ব্লগ সাইট খুলে ধীরে ধীরে লেখা লেখি শুরু করা যেতে পারে। আর ইউটিউবে এমন ইনকামের নিশ্চয়তা নেই। বিষয়টি সবার কাছে ক্লিয়ার না। ইউটিউব নিয়ে একটা লেখা লিখে এখানে লিঙ্ক দিয়ে দিন যাতে। ভিজিটরদের বিষয়টি আরও ক্লিয়ার হয়।

    1. এই ক্ষেত্রে আপনি আমার এই আর্টিকেল পড়ুন – https://banglatech.info/ইউটিউব-থেকে-টাকা-আয়/

      ভালো ভালো ভিডিও বানানোর চেষ্টা করুন, নিজের অরিজিনাল ভিডিও বানান এবং প্রথম অবস্থায় টাকা আয় করার কথা না ভেবে নিজের কাজে মন দিন। ইউটিউবের ব্যাপারে নতুন নতুন জিনিস শিখুন। আপনি সফল অবশই হবেন।

  18. স্যার আমি মোবাই স্যার স্যার আমি ফোনে ইউটিউব খোলার চেষ্টা করছি কিন্তু হচ্ছে না একটু সাহায্য করেন প্লিজ

    1. মোবাইল থেকে চ্যানেল খোলার একটি টিউটোরিয়াল আমি অনেক জলদি আপনাদের জন্য আনবো। তবে, কম্পিউটার বা ল্যাপটপ দিয়ে চ্যানেল বানানোর এই প্রক্রিয়া এখানে জেনেনিন https://banglatech.info/ইউটিউব-চ্যানেল-খোলা-নিয়ম/

    2. ভাই আপনার লেখা অনেক ভাল লাগছে কিন্তু আমি ব্লগ এ লেখালেখি করব কিভাবে এর জন্য আমাকে কি account খুলতে হবে যদি হয় তাহলে কিভাবে খুলব জানাবেন প্লিজ।

  19. ভাই বিশ্বাস হচ্ছে না
    আমি অনেক apps কাজ করেছি তার শেষে পেমেন্ট দেয় না

    1. হে এরকম অনেক এপস রয়েছে যারা শেষে পেমেন্ট দেয়না। কিন্তু,আমি ওপরে দেয়া এপস গুলি ইন্টারনেটে রিভিউ দেখেই এখানে দিয়েছি। এবং অনেক রিভিউর ওপরে নির্ভর কোরে সবগুলোই পেমেন্ট দেয় বলে আমি বলতে পারবো।

  20. ভাই এখন বর্তমানে আপনি মাসে কত টাকা ইনকাম করেন গুগল আর ইউটিউব এর মাধ্যমে?

  21. ভাইয়া, অপনার কনটাক্ট নাম্বারটা যদি দিতেন তাহলে সরাসরি আপনার কাছ থেকে হেল্প নিতে পারতাম। আসলে এই সম্পর্কে আমার কোনো ধারনাই নাই তাই বললাম। দেয়ে যাবে কি আপনার কনটাক্ট নাম্বার প্লিজ?

    1. এভাবে কন্টাক্ট নম্বর তো দেয়া যাবেনা , কিন্তু আপনি চাইলে আমাদের টুইটার (twitter) একাউন্টে আপনার সমস্যার সমাধান চাইতে পারেন।

  22. Sanjoy Kumar Das.

    ইউটিউব থেকে উপার্জিত টাকা আমি নিতে গেলে আমার কি মাস্টার কাড লাগবে? নাকি অন্য কোন উপায়ে নিতে পারবো?

    1. আপনার কেবল একটি ব্যাঙ্ক একাউন্টের প্রয়োজন হবে।

    1. আমার বাকি আর্টিকেল কিন্তু অবশই পড়বেন।

  23. Via thank you so much ato good akta suggestion dayer jonno. Assa class 9 -10 ar akta student ki blog make korte parba plz Ans to me. Ar blog a ad theke ki taka income hoi taka tolar system ta akto bolben

    1. Yes, you can make a blog and earn money even if you are a school student. But, you should first complete your board exams and after that focus on blogging. blogging needs time and patients. So, first complete your education. yes, part time blogging will be a good idea if you can manage both.

  24. ভাইয়া আপনি ব্লগটি অনেক সুন্দর ভাবে পোস্ট করেছেন আমার অনেক ভালো লেগেছে . আমি অনেক দিন ধরে অনলাইনে ইনকাম পথ খুঁজেছি কিন্তু এখন ও ভালো কোন আরনিং এ্যাপস্ পাইনি. ভাইয়া যদি রিয়াল এ্যাপস্ পাওয়া যায় আমাকে ইমেইল করে পাঠাবেন? ALIF

    1. অবশই ভাই , কিন্তু এপ্স ব্যবহার করে টাকা আয় করার কথা ভাবাটা কিন্তু সময় নষ্ট করাই হবে। আপনি যদি REAL ভাবে অনলাইন টাকা আয় করতে চান তাহলে ইউটিউব বা ব্লগিং শিখুন এবং তাতে মন দিতে পারেন। অনেকেই এই মাধ্যমে আয় করছে। ধন্যবাদ

  25. আমি জীবনে প্রথম ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করতে চাই কিন্ত কিভে

        1. আমি তো দিতে পারবোনা। তবে, blogging বা YouTube channel তৈরি করে আয় করতে পারবেন।

    1. আপনি আমাকে ইমেইল করে যোগাযোগ করতে পারেন । আমার contact us পেজে গিয়ে মাইল আইডি জেনেনিন ।

  26. মোবাইল থেকে কি টাকা ইনকাম করা সম্ভব। ভাই আপনার gmai id ta bolben

    1. সত্যি কথা বললে, আপনি কিছু apps বা আমি ওপরে বলা মাধ্যম ব্যবহার করে কিছু ছোট সংখ্যায় আয় করতে পারবেন। কিন্তু যদি আপনি ইন্টারনেট থেকে ভালো amount এ টাকা আয় করতে চাচ্ছেন, তাহলে ব্লগ এবং seo র ব্যাপারে শিখুন। ব্লগ বানিয়ে আপনি ইন্টারনেট থেকে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

  27. লিংক কিভাবে short করে? যেমন: আপনারটা যদি করি banglatech(dot)info কে “online এ আয়”
    কি লিখা যাবে??
    যদি যায় এরপর কি করবো।
    আসলে আমি কিছুই জানিনা।help করুন please.

    1. আপনি যেকোনো link shortner site এ গিয়ে যেকোনো লিংক কপি করে তাতে থাকা short link বক্সে দিয়ে লিংকটি শর্ট করতে পারবেন। লিংক শর্ট করার পর আপনি সেই শর্ট করা লিংক সোশ্যাল মিডিয়া বা ব্লগ বা যেকোনো ওয়েবসাইট শেয়ার করতে পারেন।

    1. আপনি যেই link shortener ওয়েবসাইট ব্যবহার করে লিংক শর্ট করবেন, সেই ওয়েবসাইট আপনার শর্ট করা প্রত্যেক লিংকে বিজ্ঞাপন অ্যাড করবে। এইটা তাদের অটোমেটিক প্রক্রিয়া।

    1. নীল, আমি বুঝতে পারছি আপনার মনের কথা। কিন্তু আমি আপনাকে বলবো, আপনি যদি অনলাইন টাকা আয় করতে চান , তাহলে ব্লোগ্গিং (blogging) শিখুন। ইন্টারনেট থেকে unlimited আয়ের মাধ্যম আমি একমাত্র ব্লগ বানিয়েই করতে পারবেন বলে ভাবি। আমার সাহায্য লাগলে আমাদের google plus বা twitter একাউন্টে জয়েন করুন।

  28. Excited Dipongkor

    আপ্নার Online Income এর ঊপায় তা বেশ ঊপকারি আর কিছু থাকলে Share করবেন

    1. ধন্যবাদ, বর্তমানে আমি কেবল গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে অনলাইন টাকা আয় করছি। অন্য উপায় হলে অবশই জানাবো।

    1. অবশই করতে পারবেন। আপনি আমার Google plus বা twitter একাউন্টে মেসেজ দিতে পারেন।

    1. অবশই যাবে কিন্তু ভালো service এর জন্য Google pay ব্যবহার করুন।

  29. কিন্তু সবকিছু করার পর এরা আমাকে টাকা দিবে কিভাবে বা procedure সম্পর্কে আমার idea নায় এই সম্পর্কে বললে ভালো হতো….

    1. দেখেন আমি জাজা উপায় বললাম, সেগুলি করলে আপনাদের অনেক রকমে টাকা দেয়ার ব্যবস্থা আছে। অনেকে আপনাকে bank neft দ্বারা টাকা দেবে , কেও Paytm wallet বা অন্য কোনো wallet app দ্বারা আপনাকে টাকা দেবে।
      Youtube, blogging ও ওয়েবসাইট বানালে আপনি adsense দ্বারা bank account এ টাকা পেয়ে যাবেন।

    2. Dr. Md. AbdusSamadSikder

      বিষয়গুলো জানবারজন্য আকুলিবিকুলি করছিলাম। আপনারলেখা পাঠকরে কিছু জানলাম। এখন থেকেই চেষ্টা কর। সমস্যা হলে ইমেইল করবো। আশা করি সহসয়তা পাবো। আন্তরিকধন্যবাদ। অনেকঅনেকশুভেচ্ছাওশুভকামনারই। প্রাপ্তি সংবাদ ইমেইলে অবহিত করার জন্য অনুরোধজানালাম।

      1. আমি অবশই আপনার সাহায্য করবো। তবে,মোবাইল দিয়ে আয় করার মাধ্যম গুলি আজ আর লাভজনক হয়ে থাকলোনা। তাই, অনলাইন ইনকাম করার জন্য ব্লগিং বা ইউটিউবের চ্যানেল সব থেকে সেরা ও লাভজনক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

  30. আপনা আইড অনেক ভাল লাগল। আপরা তথ্যগুলো অনেক সুন্দর এবং উপকারি। এই ধরনের তথ্য সাধারন ঘরের ছেলে মেয়েদের জন্য অনেক উপকারের। মোবাইল দিয়েও যে ইনকাম করে নিজের খরচ চালানো যায় তা বিস্তারিত আপনার পোষ্ট পড়েই ভালভাবে বুঝতে পারলাম। খুব ভাল লাগল।

    1. ধন্যবাদ, আশাকরি আপনার আমার আর্টিকেল অনেক ভালো লেগেছে। আমার অন্য আর্টিকেল অবশই পড়বেন।

      1. তাহলে সবচে ভালো হবে আপনি blog বা ইউটিউবের চ্যানেল বানিয়ে আয় করার চেষ্টা করুন।

        1. অনলাইনে ইনকামের অনেক পথ থাকলেও আপনি যদি কোনোকালেই প্রফেশনাল না হন তাহলে আপনার পক্ষে ইউটিউবিং এবং ব্লগিং হতে পারে সবচেয়ে ভালো উপায়।

        1. ভাই আমার ইউটিউবের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন অথবা টুইটার পেজ। তাতে মেসেজ করুন। বা ডাইরেক্ট ইমেইল করুন – [email protected]

    2. মেহেদীহাসান

      ভাই আমি কিভাবে অনলাইনে কাজ করব একটু বলবেন কি আপনার মোবাইল নাম্বারটা একটু আমাকে দিন

      1. অনলাইন টাকা আয় করার সেরা উপায় হলো ব্লগিং এবং ইউটিউবের চ্যানেল। আপনি আমায় ইমেইল করতে পারবেন। [email protected]

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap