ওয়েব রেডিও কি ? অনলাইনে এফএম রেডিও শোনার সেরা ৮ টি ওয়েবসাইট

যদি আপনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনলাইন রেডিও শুনতে চাইছেন তাহলে জেনেনিন সেরা কিছু অনলাইন এফএম রেডিও ওয়েবসাইট গুলোর তালিকা। (Online radio website list in Bangla).

Online radio listening websites list

মিডিয়ার যতই অগ্রগতি হোক না কেন, রেডিওর ঐতিহ্য ও চাহিদা এখনও অমলিন রয়েছে বললে আমি ভুল হবোনা। ২০১৮ সালের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যে সারা বিশ্বে প্রায় ৩০০ কোটি মানুষ সাপ্তাহিক ভিত্তিতে এফএম রেডিও শুনে থাকেন। 

যুগ পরিবর্তনের সাথে সাথে শ্রোতাদের রেডিও প্রোগ্রাম শোনার ধারা পাল্টে গেলেও, রেডিওর প্রতি তাদের ভালোবাসা বিন্দুমাত্র ম্লান হয়নি।

আসুন, আমরা প্রথমে জেনেনেই , ঠিক কি কি কারণে রেডিও আজও এই ডিজিটাল দুনিয়ায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে

কেন রেডিও এতটা জনপ্রিয়তা লাভ করেছে ?

প্রথমত, বেতারযন্ত্র আকারে ছোট এবং সহজেই বহনযোগ্য। এছাড়াও, এখনকার স্মার্টফোনে, গাড়িতে কিংবা অন্যান্য যন্ত্রের সাথে এমনিতেই রেডিও নামের এই বেতারযন্ত্র দেওয়া থাকে।

আর আমরা বেশিরভাগ সময়ই আমাদের যাত্রাপথে বেতারে গান বা খবর শুনতে শুনতে যাই।

যেহেতু এ শুধুমাত্র শ্রুতি মাধ্যম, তাই কোনো বাধা ছাড়া নিজের কাজ করতে করতে রেডিও প্রোগ্রাম শোনা যায়।

দ্বিতীয়ত, বিজ্ঞাপন-দ্বারা পরিচালিত হওয়ায় শ্রোতাদের আলাদা করে রেডিও শুনতে গেলে কোনোরকম অর্থমূল্য দিতে হয় না। ফলে, যেকোনো আর্থিক অবস্থার মানুষ বিনামূল্যেই রেডিও পরিষেবা গ্রহণ করতে পারেন।

তৃতীয়ত, বেতারের সবথেকে বড় সুবিধা হল যে যেকোনো যন্ত্র, যেমন কম্পিউটার, ল্যাপটপ, স্মার্ট স্পীকার অথবা ফোন থেকেও আপনি রেডিও প্রোগ্রাম শুনতে পারেন।

আজকালকার যুগে খুব কম মানুষই রয়ে গেছেন যাঁরা পুরোনো মডেলের ফিলিপ্স বা মরফির রেডিও যন্ত্র ব্যবহার করেন।

প্রযুক্তির অকল্পনীয় উন্নতির ছোঁয়ায় এই ডিজিটাল যুগে বেতারও অনেকটা পাল্টে হয়েছে আজকের অনলাইন ওয়েব রেডিও।

ভবিষ্যতে, এই ডিজিটাল অডিও ব্রোডকাস্টিং বা ইন্টারনেট রেডিও চ্যানেল গুলো প্রায় 38.১% শ্রোতা অর্জন করতে পারে।

আজকের এই আর্টিকেলে আপনি জানতে চলেছেন, রেডিও শোনার জন্য সেরা ৮টি অনলাইন ওয়েবসাইটের তালিকা সম্বন্ধে। 

তবে, তার আগে আমাদের রেডিওর বিষয়ে কিছুটা জেনে নেওয়াটা জরুরি। 

আসলে ওয়েব রেডিও কি?

এখন আর রেডিও মানে, সেই পুরোনো এন্টেনাওয়ালা ব্যাটারীচালিত যন্ত্রগুলো নয়। বরং, এখনের রেডিও মানে আপনি আপনার ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে সেই রেডিও চ্যানেলগুলো শুনতে পারেন- সেগুলোই হল ইন্টারনেট, ওয়েব বা অনলাইন রেডিও। 

নাম শুনেই আপনি অনুমান করতে পারছেন যে এই ধরণের বেতার মাধ্যম শোনার জন্যে আপনার একটি ব্রডব্যান্ড সংযোগের প্রয়োজন হয়। 

এই ওয়েব রেডিওর বিশেষত্ব হল এই যে, এই মাধ্যম সাধারণ রেডিওর মত AM বা FM তরঙ্গের মাধ্যমে প্রেরিত হয় না। 

বরং, এই মাধ্যমটি সম্পূর্ণভাবে ইন্টারনেট মাধ্যমের উপর নির্ভরশীল।

অর্থাৎ, ইন্টারনেট সংযোগ না থাকলে আপনি কোনোভাবেই এই ওয়েব রেডিও চালাতে পারবেন না।

আপনি আপনার ডিভাইসে ওয়াই-ফাই বা মোবাইল ডেটা ব্যবহার করলে তবেই শুনতে পাবেন এই অনলাইন এফএম রেডিও স্টেশন গুলো। 

শুধু ইন্টারনেট থাকলেই, এই আধুনিক ধারার রেডিওতে আপনি অজস্র-সহস্র ডিজিটাল রেডিও স্টেশনের লাইভ স্ট্রিমিং করতে পারেন, পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে বসে। 

এই ওয়েব রেডিওর মজা উপভোগ করতে শুধুমাত্র দরকার একটি ইন্টারনেট ব্যবস্থাযুক্ত ফোন বা সমসাময়িক যন্ত্রের।

এখানে, ভাষার কোনো গন্ডি নেই, আপনি আপনার মন পছন্দের সারা পৃথিবীর যেকোনো ভাষার অডিও প্রোগ্রাম উপভোগ করতে পারবেন। 

ইংলিশ, হিন্দি, বাংলা ছাড়াও যদি অন্য ভাষার রেডিও প্রোগ্রাম শুনতে চান – 

তাহলে ঘুরে আসতে পারেন, এই লিংকে: http://radio.garden/

এই একটি অনলাইন এফএম রেডিও ওয়েবসাইট থেকে বাংলাদেশ, ভারত এবং অন্যান্য প্রচুর দেশ বিদেশের radio station গুলো শুনতে পারবেন। 

ইন্টারনেটে কত গুলো অনলাইন রেডিও স্টেশন রয়েছে?

২০২০ সালের অনুসন্ধান বলছে, সমস্ত বিশ্বে প্রায় ১৯৭টি দেশের, ২২টি ভাষার প্রায় ১০০,০০০ টিরও বেশি internet রেডিও স্টেশন গুলো রয়েছে। 

ওয়েব রেডিওর সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

মার্কোনি রেডিও-এর জনক হলেও, এই DAB রেডিও পরিষেবার অবতারণা করেন কার্ল মালমুড।

১৯৯৩ সাল থেকে কম্পিউটার বিশেযজ্ঞদের নিয়ে তিনি “ইন্টারনেট টক্ রেডিও” নামে একটি সাপ্তাহিক সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠান করতেন। 

এরপর রেডিও উমাং-কে (Umang) ভারত তথা এশিয়ার প্রথম ইন্টারনেট রেডিও হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

এছাড়াও, পৃথিবীর নানান দেশে একে একে প্রচার ও প্রসার শুরু হয় স্থানীয় web রেডিও স্টেশন গুলোর।  

ওয়েব রেডিওর সুবিধা কি?

১. বেশিরভাগ মানুষের জন্য, এই অনলাইন এর মাধ্যমে উপলব্ধ থাকা রেডিও স্টেশন হল অ্যানালগ রেডিওর থেকে সুবিধাজনক এবং সহজে ব্যবহারযোগ্য। 

যখনই আপনি আপনার মোবাইলে ইন্টারনেট রেডিও চালান, তখনই এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে উপলব্ধ স্টেশন গুলি খুঁজে আপনার প্লেলিস্টে যুক্ত করে।

অন্যদিকে, সাধারণ রেডিও ব্যবহার করলে আপনাকে নব ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে চ্যানেল পাল্টাতে হয়।

২. ইন্টারনেট রেডিও আপনাকে যে ধরণের পরিষেবা গুলি দেয় সেগুলি হল –

সংবাদ, খেলাধুলা, ডিবেট, সঙ্গীত এবং অন্যান্য।

যা আপনি ট্রাডিশনাল ব্রডকাস্ট রেডিও স্টেশনে পেয়ে থাকেন সবটাই আপনারা ইন্টারনেট বা ওয়েব রেডিওতে পাচ্ছেন। 

কিভাবে ইন্টারনেটে খুঁজে বের করা যায় ইন্টারনেট রেডিও?

বর্তমান যুগে, ইন্টারনেট পরিষেবা এতটাই সহজলভ্য যে, বেশিরভাগ ডিজিটাল অডিও ব্রডকাস্টিং (DAB) রেডিওতে “মোড” বোতাম থাকে।

এই রেডিও “মোড” নির্বাচন করলে আপনি সহজেই আপনার পছন্দের স্টেশন গুলি চট করেই খুঁজে পাবেন। 

কোনো কোনো ক্ষেত্রে আপনি নাম, ধরণ (জেনার), বা এমনকি দেশ অনুযায়ীও রেডিও চ্যানেল বের করে নিতে পারবেন।

এছাড়া, আপনি যেকোনো ওয়েব ব্রাউসার থেকে ওয়েব রেডিও বা ইন্টারনেট রেডিও সার্চ করে খুঁজলেই অসংখ্য রেডিও স্টেশনের খোঁজ চোখের নিমেষে পেয়ে যাবেন।

এমনকি, আপনি আপনার পছন্দের FM রেডিও স্টেশন গুলোও অনলাইন পেয়ে যাবেন। 

এখন, আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে, যে তাহলে অনলাইনে কি FM রেডিও চ্যানেল গুলোও শোনা যায় ? 

উত্তর হল, কেন নয়! সারা দুনিয়ার জনপ্রিয় কমার্শিয়াল রেডিও চ্যানেল গুলোর মতো ভারত ও বাংলাদেশের বহু বিখ্যাত FM রেডিও স্টেশন গুলোও জনগণের সুবিধার জন্যে অনলাইন FM হিসেবে উপলব্ধ করা হয়েছে। 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারতের Radio Mirchi, AIR FM Gold, Radio City এবং বাংলাদেশের Radio Dhoni, DhakaFM এবং People’s Radio ইন্টারনেটে তাদের FM চ্যানেলের লাইভ স্ট্রিমিং দিয়ে থাকে।

অনলাইন রেডিও শোনার জন্য ওয়েবসাইট গুলোর তালিকা

এই আর্টিকেলে আপনাদের সুবিধার জন্যে বেশ কত গুলি ওয়েবসাইটের তালিকা দিয়ে দেওয়া হচ্ছে যেগুলোর মাধ্যমে রেডিও অনলাইনে ইন্টারনেটের মাধ্যমে শুনতে পারবেন।

১. Bongonet.net

কলকাতার এই ওয়েবসাইটটি হল পরবর্তী প্রজন্মের রেডিও নেটওয়ার্ক যেখানে বিশ্বজুড়ে ৫০-লাখেরও বেশি বাঙালিরা সংযুক্ত রয়েছে। বাংলার বৈচিত্র্যময় সঙ্গীত জগৎকে সারা বিশ্বের বাঙালিদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ১২টি আলাদা জেনার-এর অনলাইন স্ট্রিমিং-এর সম্প্রচার করে থাকে এরা।

যেকোনো প্লাটফর্ম যেমন, ওয়েব, আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড, ব্ল্যাকবেরি, উইন্ডোজ, ট্যাবলেট, স্মার্ট টিভি, স্মার্ট স্পিকার, সংযুক্ত গাড়ি, গেমিং কনসোল, ই-রিডার, সব জায়গা থেকে এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করা যায়।

২. Radioindia.in/

আমাদের নির্বাচিত এই ওয়েবসাইটিতে প্রায় ১০০০টিরও বেশি UK ও ইন্ডিয়ার রেডিও স্টেশন এবং হাজার হাজার পডকাস্ট রয়েছে যেগুলোকে বিনামূল্যে শুনতে পাবেন।

এছাড়া আপনি আপনার পছন্দ মতো জেনার বেছে নিয়ে যে কোন সময় এবং যে কোন জায়গায় সেরা রেডিও স্টেশন এবং পডকাস্ট শুনতে পারবেন। 

যেকোনো ব্রাউজার, আইওএস বা অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ব্যবহার করে এই ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে রেডিও জগতে প্রবেশ করতে পারেন।

এই সাইটটির সবথেকে ভালো সুবিধা হল, এখানে আপনার মিউসিক শোনার ধরণ (genre) অনুযায়ী রেডিও স্টেশন নির্বাচনের স্বাধীনতা রয়েছে।

এখানে প্রায় সবকটি বাংলার জনপ্রিয় এফ.এম রেডিও চ্যানেলের লাইভ স্ট্রিমিং-এর ব্যবস্থা আছে।

৩. Onlineradios.in

বাংলা ছাড়া ভারতের বিভিন্ন ভাষার এফ.এম রেডিও চ্যানেল আপনি এই ওয়েবসাইটটিতে সারাক্ষণ শুনতে পারবেন।

তাছাড়া, এখানে পাবেন বিশ্ব মিউজিক, ইন্ডিয়ান মিউজিক, বলিউড, তামিল মিউজিক এবং নানা রেডিও টক্ শো-এর জেনার।

আপনি চাইলে এখানে ইংরেজি ভাষার এফএম রেডিও স্টেশনও শুনতে পারেন।

৪. Radio.net

এটি একটি ব্রিটেনের ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটিতে পেতে পারেন ১৪টি অনলাইন বাংলা রেডিও স্টেশন।

বিশেষত, এই সাইটটি ভারত এবং বাংলাদেশের বিখ্যাত রেডিও স্টেশনের লাইভ স্ট্রিমিং করতে দেয়।

এগুলো বাদ দিলেও, এখানে আপনি ৪০,০০০-এরও বেশি রেডিও স্টেশন এবং ২,১০০,০০০টি পডকাস্ট পেয়ে যাবেন। 

৫. Streema.com

এই ওয়েবসাইটটির মজা হল, এখানে আপনি দেশভিত্তিক, জেনার-ভিত্তিক নানান দেশের রেডিও শুনতে পাবেন।

এছাড়াও, টিভি প্রোগ্রামও দেখতে পাবেন।

তবে, সর্বমোট আপনি ২৩টি বাংলা রেডিও স্টেশন এখানে পেয়ে যাবেন।

ভারত ও বাংলাদেশ মিলিয়ে বেশ অনেকগুলি নিউস, এন্টারটেইনমেন্ট ভিত্তিক অডিও চ্যানেল এই ওয়েবসাইট-এ পাওয়া সম্ভব।

৬. Onlineradiofm.in

এই রেডিও পোর্টালটি হল একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম যেখানে বিনামূল্যে ভারতীয় রেডিও স্টেশন অনলাইন শোনা সম্ভব। আপনি এখানে তামিল, হিন্দি, বাংলা এবং অন্যান্য ভাষায় ৬৫০টিরও বেশি রেডিও স্টেশনের সংগ্রহ পাবেন। 

এই ওয়েবসাইটটি সমস্ত স্টেশন গুলোকে ঘরানার (জেনার) এবং শহর এবং রাজ্যের ভিত্তিতে শ্রেণিবদ্ধ করেছে।

খুব সহজেই আপনি সার্চ বার ব্যবহার করে নিজের প্রিয় চ্যানেলটিকে খুঁজে নিতে পারেন।

৭. Onlinebanglaradio.com

এই ওয়েবসাইট-এ আপনি ভারত তথা বাংলাদেশের বেশিরভাগ অনলাইন বাংলা রেডিও অডিও স্টেশনগুলো পেয়ে যাবেন।

এছাড়াও, আপনি এখান থেকে নানা ধরণের বাংলা অডিও স্টোরি এবং পডকাস্টও শুনতে পারবেন।

এই লাইভ রেডিও স্টেশন আর্কাইভটি আপনি যেকোনো স্মার্টফোনে থেকে ব্যবহার করতে পারবেন।

৮.Tunein.com

বাংলাদেশের আঞ্চলিক বাংলা ভাষায় অনেক রেডিও স্টেশন খুঁজে পেয়ে যাবেন, এই ওয়েবসাইট থেকে।

যেমন, ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী,আর চিটাগঙের বিভিন্ন অনলাইন বাংলা রেডিও প্রোগাম আপনি লাইভ শুনতেও পারবেন।

ইন্টারনেটের এই যুগে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্যে যে বদল একান্তই প্রয়োজন, তার শ্রেষ্ঠ নিদর্শন হল তদানীন্তন রেডিও-এর ডিজিটাল মাধ্যমে পরিবর্তন।

সর্বোপরি বলা যায়, রেডিও মাধ্যমের বিলুপ্তির থেকে অনলাইন মাধ্যমে পরিবর্তিত হওয়া অনেক বেশি যুক্তিসঙ্গত। 

 

আমাদের শেষ কথা,,

তাহলে বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা সেরা কিছু অনলাইন রেডিও শোনার ওয়েবসাইট (online radio websites list) গুলোর বিষয়ে জানতে পারলাম।

যদি আমাদের আজকের আর্টিকেল আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে আর্টিকেলটি অবশই শেয়ার করবেন।

এছাড়া আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো ধরণের প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে নিচে কমেন্ট করে অবশই জানিয়ে দিবেন।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap