গ্রাফিক্স ডিজাইন কি? এর প্রকার, চাহিদা এবং চাকরির সুযোগ

Last updated on May 9th, 2024 at 04:06 pm

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি (What Is Graphics Design In Bangla): ১২ ক্লাসের পর, আমাদের কাছে অনেক রকমের আলাদা আলাদা ক্যারিয়ার অপসন রয়েছে। সেই, ক্যারিয়ার অপসন গুলির মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন আজ অনেক প্রচলিত এবং এই প্রফেশনাল (professional) কোর্স করার পর চাকরির সুযোগ অনেক বেশি।

আজ বিভিন্ন রকমের organization বা কোম্পানি যেমন, ওয়েব ডিজাইনিং কোম্পানি, এডভার্টাইসিং এবং মার্কেটিং কোম্পানি, Game development কোম্পানি, application development এবং এরকমি অনেক  national এবং multinational কোম্পানি রয়েছে, যেগুলিতে গ্রাফিক্স ডিজাইনার দেড় প্রয়োজন হয়।

কিন্তু, এর চাহিদার তুলনায় অনেক কম লোকেরা বা ছাত্ররা গ্রাফিক্স ডিজানিং এর কোর্স কোরে ক্যারিয়ার বানানোর কথা ভাবেন। এতে, এই ক্ষেত্রে কাজ করা লোকেদের চাহিদা অনেক বেড়েযাচ্ছে এবং এই লাইনে পাওয়া চাকরিতে (job) মাইনে বা স্যালারি অধিক পরিমানে দেয়া হয়।

তাই, আপনি যদি এমন একটি প্রফেশনাল কোর্স (professional course) কোরে নিতে চান, জেটাতে ক্যারিয়ার বানিয়ে ভবিষ্যতে ভালো মাইনে (salary) থাকা একটি চাকরি পাওয়া যাবে, তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স বা ডিগ্রি (degree) করার পরামর্শ আমি দেব।

অবশই পড়ুন :


তাহলে চলুন, বেশি সময় না নিয়ে আমরা নিচে “graphics design কি” বা “গ্রাফিক্স ডিজাইন বলতে কি বুঝায়” এবং এর সাথে জড়িত অন্য অনেক প্রশ্নের উত্তর জেনেনেই।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি বা কাকে বলে? (Meaning Of Graphics Design)

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি
What is graphics design in Bangla?

সোজা ভাবে বললে, গ্রাফিক ডিজাইন হলো এমন একটি প্রক্রিয়া, যেখানে আমরা নিজের ধারণা, শিল্প (art) এবং দক্ষতা (skills) ব্যবহার কোরে ছবি (pictures), শব্দ (words), পাঠ (text) এবং ধারণার মিশ্রণ (combine) কোরে একটি আলাদা এবং নতুন ছবি (picture) তৈরি করি।

Text, pictures এবং ধারণার মিশ্রনের দ্বারা তৈরি হওয়া এই নতুন ছবি বা গ্রাফিক বিভিন্ন advertisements, magazine, books, website বা logo সাজানোর জন্য বা ডিজাইন এবং তৈরি করার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর মাধ্যমে আমরা অনেক রকমের visual concepts তৈরি করতে পারি। আসলে এর মাধ্যমে বিভিন্ন রকমের আইডিয়া এবং জ্ঞান আমরা ছবির মাধ্যমে প্রকাশ করি।

এই Graphics design এর কাজ আমরা, নিজের হাত দিয়েও করতে পারি বা বিভিন্ন কম্পিউটার সফটওয়্যার (computer software) বা এপ্লিকেশন (application) এর মাধ্যমেও করে নিতে পারি।

কিন্তু, অ্যাডভান্সড (advanced) এবং প্রফেশনাল ভাবে ডিজাইন তৈরি করার জন্য, আমাদের একটি গ্রাফিক্স ডিজাইন সফটওয়্যার ব্যবহার করাটা জরুরি।

এখন এক কথায় বললে, গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে, আমরা বিভিন্ন ধরণে চাক্ষুষ ধারণার (visual concept) তৈরি বা ডিজাইন করতে পারি, এই বিষয়ে থাকা নিজের দক্ষতা এবং জ্ঞানের মাধ্যমে। পুরোটাই, আপনার হাথের শিল্প, জ্ঞান এবং ধারণার ওপরে নির্ভর।

তাহলে, গ্রাফিক্স ডিজাইন কি বা কাকে বলে, সেটা হয়তো আপনারা ভালো করেই বুঝে গেছেন। এখন নিচে, আমরা এর বিষয়ে আরো কিছু জেনেনেই চলুন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে কত দিন লাগে ?

আপনি যদি কোনো কলেজ থেকে graphic designing এর bachelor degree course করছেন, তাহলে ৩ থেকে ৪ বছর সময় লাগবে। এবং, সঠিক এবং ভালো ভাবে এই কোর্স শেখার জন্য bachelor degree করাটাই লাভজনক হবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর ওপরে যখন আপনার ৪ বছরের একটি degree certificate থাকবে, তখন যেকোনো কোম্পানিতে চাকরি পাওয়ার সুযোগ অনেকটাই বেড়ে যাবে।

আপনি চাইলে, bachelor degree করার পর, এই বিষয়ে মাস্টার ডিগ্রী (master degree) কোরে, নিজেকে আরো বেশি expert এবং professional বানিয়ে নিতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে, masters in graphics design এর কোর্স করার জন্য আপনাদের আরো ২ বছর সময় লেগে যাবে।

তাছাড়া, যদি আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন এর ডিপ্লোমা কোর্স (diploma course) করার কথা ভাবছেন, তাহলে এতে আপনার ৬ থেকে ৮ মাস সময় লেগে যাবে।

আসলে, অনেক রকমের institute বা education center রয়েছে যেখানে আপনারা এই বিষয়ে একটি ডিপ্লোমা কোর্স করতে পারবেন। এবং, আলাদা আলাদা institute এর শেখানোর স্থিতিকাল (duration) আলাদা আলাদা।

তবে, এই বিষয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রী (bachelor degree) করলে ৩ থেকে ৪ বছর, ব্যাচেলর ডিগ্রী কোরে মাস্টার ডিগ্রী করার জন্য আরো ২ বছর সময় লাগবে। এবং ডিপ্লোমা কোর্স করলে প্রায় ১ বছর সময় আপনার দিতে হবে।

এর পর, গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার স্থিতিকাল নির্ভর করবে আপনার শেখার ইচ্ছা, অনুশীলন (practice) এবং কতটা জলদি আপনি বিষয়টি ধরে নিতে পারছেন সেগুলির ওপরে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে কি কি লাগে ? 

what is graphics design in bengali

এমনিতে, একটি graphic design diploma course জেকেও করতে পারেন। কিন্তু, এই বিষয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রী (bachelor degree) করার জন্য, আপনার আগেই কিছু সাধারণ শিক্ষার প্রয়োজন হতে পারে।

১. প্রথম প্রয়োজনীয়তা: গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এ ক্যারিয়ার বানানোর জন্য, আপনার সবচে প্রথমেই ১২ ক্লাস উত্তীর্ণ করতে হবে। কারণ, যেকোনো কলেজে এই বিষয়ে ডিগ্রী কোর্স করার জন্য, ১২ ক্লাসের সার্টিফিকেট (certificate) জমা দিতে হবে। তবে হে, আপনি ১২ ক্লাস যেকোনো বিষয় নিয়ে উত্তীর্ণ করলেও চলবে (arts, commerce, science).

২. সাধারণ জ্ঞান: এই বিষয়ে ক্যারিয়ার বানানোর জন্য এবং ভবিষ্যতে আরো বেশি শিক্ষা ফারহান করার জন্য, আপনার communication skills, creativity এবং drawing এর জ্ঞান থাকতে হবে।

অনেক বিখ্যাত কলেজ বা institutes রয়েছে, যেখানে admission নেয়ার আগেই আপনাকে প্রবেশিকা পরীক্ষা (entrance exam) দিতে লাগতে পারে। এবং, সেই পরীক্ষাতে আপনাকে অঙ্কন (drawing) এবং অন্যান্য দক্ষতার এবং জ্ঞানের বেপারে প্রশ্ন করা হবে।

আপনি যখন graphic designing এ ক্যারিয়ার বানানোর কথা ভাবছেন, তখন এই ধরণের সাধারণ দক্ষতা থাকাটা অনেক লাভজনক এবং জরুরি।

Graphic design ক্যারিয়ারে চাকরির সুযোগ:

এই বিষয় নিয়ে ডিগ্রী (degree) করার পর এবং সব ধরণের দক্ষতা এবং জ্ঞান নিয়ে নেয়ার পর, আপনার জন্য প্রায় অনেক ক্ষেত্রে চাকরির সিযোগ এগিয়ে আসে।

সেগুলির মধ্যে কিছু হলো,

  • Logo designer হিসেবে।
  • বিভিন্ন advertisement company তে।
  • Web designer হিসেবে।
  • Digital marketing agency তে।
  • Magazine এবং news paper কোম্পানির থেকে।
  • Application and game development কোম্পানি।
  • Media publishing কোম্পানি।
  • Brand identity designer.
  • Animation designer.

এবং, আরো অনেক কোম্পানি এবং ভাগ রয়েছে যেগুলিতে আপনারা একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে পারবেন।

কি কি কাজে গ্রাফিক্স ডিজাইন ব্যবহার করা হয় ?

বর্তমানে বিভিন্ন এবং প্রায় অনেক কাজেই গ্রাফিক্স ডিজাইন ব্যবহার করা হয়। সেই, কাজ গুলির কিছু আমি নিচে আপনাদের বলে দিচ্ছি।

  • কোম্পানির ব্র্যান্ড (brand) পরিচয় বা লোগো (logo) তৈরি।
  • প্রিন্টেড করা জিনিসে (বই, নিউস পেপার, ম্যাগাজিনে) .
  • অ্যালবাম কভার (album cover) তৈরি।
  • ব্যানার বিজ্ঞাপন (banner advertisement) তৈরি।
  • Digital advertisement তৈরি করার সময়।
  • বিভিন্ন blog এবং website এ এর ব্যবহার হচ্ছে।
  • জলের বোতলে থাকা ওই ডিজাইন থেকে শুরু করে বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য (consumer products) তে থাকা ডিজাইন।
  • অনলাইন এবং টিভি (TV) তে ব্যবহার করা গ্রাফিক্স (GRAPHICS) এবং টাইটেল (TITLE) .
  • বিভিন্ন GREETINGS CARDS এ।
  • বিয়ের invitation cards এ।
  • T-shirts এবং জামা কাপড় ডিজাইন করার সময়।
  • অ্যানিমেশন (animation) বানানোর সময়।
  • Business ও visiting cards বানানোর সময়।

এ ছাড়া আরো অনেক অনেক কাজ রয়েছে, যেখানে গ্রাফিক ডিজাইনিং এর কাজের প্রয়োজন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা যেতে পারে ?

যদি আপনি graphics designing শিখে এই লাইনে চাকরি করার কথা ভাবছেন, তাহলে প্রথম অবস্থায় মাইনে বা বেতনের পরিমান তেমন কোনো খারাপ না।

চাকরির মাধ্যমে আয় 

ভারতে (India), এই ক্যারিয়ার নিয়ে চাকরি করা লোকেরা প্রথমেই ২৫,০০০ থেকে ৩০,০০০ এর ভেতরে মাইনে (salary) পেয়ে যাচ্ছে।

তাছাড়া, আপনার কাজের অভিজ্ঞতা (experience) এবং knowledge যত বেশি বাড়বে ততটাই বেশি মাইনে বা স্যালারি আপনার বৃদ্ধি পাবে। অভিজ্ঞতা এবং প্রফেশনাল দক্ষতা থাকা লোকেরা গ্রাফিক্স ডিজাইন ক্যারিয়ারে ৫০,০০০ থেকে ১ লক্ষ টাকা অব্দি মাইনে ভারতে পাচ্ছেন।

তাই, অধিক মাইনে বা স্যালারি চাকরির মাধ্যমে পাওয়ার জন্য, গ্রাফিক ডিজাইনের ডিগ্রী এবং তার সাথে কিছু বছরের অভিজ্ঞতা থাকাটা জরুরি।

অবশই, প্রথমেই একজন নতুন (fresher) হিসেবে ২০ থেকে ৩০,০০০ টাকা বেতনে কাজ করে নিজের অভিজ্ঞতা বাড়াতে থাকতেই পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয় 

ফ্রিল্যান্সিং কি, এবেপারে আমি আপনাদের আগেই বলেছি। এ হলো এমন এক মাধ্যম, যেখানে জেকেও নিজের অভিজ্ঞতা, দক্ষতা এবং জানা কাজের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরণের কাজ অন্যদের জন্য করেন এবং সেই কাজের বিনিময়ে আপনাকে টাকা দেয়া হয়।

Freelancing আপনি পার্ট-টাইম বা ফুল-টাইম যেরকম খুশি সেরকম করতে পারবেন। আপনি, অনলাইন বিভিন্ন freelancing websites বা social media র মাধ্যমে গ্রাফিক ডিজাইন এর সাথে জড়িত কাজ যেমন, logo design, web design, poster design, infographic বা আরো অনেক ধরণের কাজ করে টাকা আয় করতে পারবেন।

এই মাধ্যমে কাজ করলে আপনার টাকা আয়ের সংখ্যা নির্ভর করবে আপনার করা কাজের ওপরে। আপনি যত বেশি কাজ পাবেন এবং সেগুলি যত জলদি করবেন, ততটাই বেশি এবং জলদি টাকা আয় করতে পারবেন।

অবশই পড়ুন :

গ্রাফিক ডিজাইনার দেড় বর্তমান চাহিদা:

আমি শুরুতেই আপনাদের বলেছি, আমরা বেশিরভাগ ছাত্ররা commerce, Arts, Science এবং কিছু ক্ষেত্রে engineering ছাড়া অন্য কোনো ডিগ্রী করার কথা ভাবিনা।

তাই, অন্য অন্য বিষয় গুলি, যেগুলির মধ্যে গ্রাফিক ডিজাইনিং ও রয়েছে, অনেক কম পরিমানের ছাত্ররা করছেন।

এতে, এই বিষয়ে দক্ষতা, জ্ঞান বা নলেজ থাকা লোকেদের চাহিদা অনেক পরিমানেই বেড়ে গেছে। বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে, যেখানে product marketing, promotion, product design বা অন্যান্য অনেক ক্ষেত্রে একজন graphic designer এর প্রয়োজন।

কিন্তু, এই বিষয়ে ডিগ্রি, যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতা অনেক কম লোকের থাকার জন্যে, কোম্পানিরা অধিক বেতন (salary) দিয়ে কর্মচারী দেড় রাখছেন।

আজ, গাড়ির কোম্পানি থেকে আরম্ভ করে website agency, advertising company, digital marketing agency এবং প্রায় সব ধরণের ছোট বড়ো কোম্পানিতে একজন গ্রাফগিন ডিজাইনার এর প্রয়োজন।

তাই, যখন কথা আসছে, গ্রাফিক্স ডিজাইন এর চাহিদার, তখন আমি বলবো, “এই শিল্প (art) শিখে আপনি এক উজ্জ্বল ভবিষৎ বানিয়ে নিতে পারবেন।

কিন্তু হে, আপনার সফলতা আপনার হাতে। আপনি কত রুচি রেখে ডিজাইনিং (designing) শিখবেন, কতটা ইন্টারেস্ট আপনার রয়েছে এবং কাজ শেখার ইচ্ছা আপনার রয়েছে কি না, সবটার ওপরে নির্ভর আপনার সফলতা পাওয়া।

ঘরে বসে অনলাইন graphic design কিভাবে শিখবো ?

এখন আপনারা যদি ঘরে বসেই ফ্রীতেই গ্রাফিক ডিজাইনিং এর কাজ শিখতে চান, তাহলে সেটার দুটো মাধ্যম রয়েছে।

  • YouTube ভিডিও দেখে। 
  • বিভিন্ন tutorial websites এ গিয়ে।
  • Udemy র মাধ্যমে কোর্স। 

ঘরে বসে graphic design শেখার জন্য প্রথমেই আপনারা Photoshop, CorelDraw, Adobe Illustration এগুলির মতো সফটওয়্যার বা গ্রাফিক্স টুল ব্যবহার করা শিখুন।

এই ধরণের গ্রাফিক্স টুলের ব্যবহার শিখলে আপনারা logo, businessvisiting cards, nameplate design এর মতো অনেক ডিজাইন বানিয়ে নিতে পারবেন।

তারপর, আস্তে আস্তে এই বিষয়ে আরো অ্যাডভান্সড ভাবে শেখা শুরু করতে পারবেন।

YouTube এর দ্বারা শিখুন :

YouTube এর মাধ্যমে আপনারা অনেক সহজেই অনেক গ্রাফিক ডিজাইন টিউটোরিয়ালের ভিডিও পেয়ে যাবেন। ভিডিও গুলি এক এক করে দেখে, নিজের দক্ষতা, জ্ঞান এবং নলেজ আপনারা বাড়িয়ে নিতে পারবেন। ভিডিও দেখে যেকোনো জিনিস শিখাটা কিন্তু অনেক সহজ এবং সোজা।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শিখুন :

ইন্টারনেটে বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে, যেগুলিতে গিয়ে আপনারা ফ্রীতে graphics design course শিখতে ও করতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে, আপনারা Google এ গিয়ে সার্চ করলেই এরকম বিভিন্ন টিউটোরিয়াল ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন।

 Udemy র মাধ্যমে অনলাইন কোর্স 

Udemy এমন একটি অনলাইন learning ও teaching ওয়েবসাইট বা মার্কেটপ্লেস যেখানে বিভিন্ন শিক্ষকরা ভিডিওর মাধ্যমে আপনাকে যেকোনো জিনিসের বিষয়ে শিখান। এখানে বিভিন্ন বিষয়ে ১০০০০০ থেকেও বেশি অনলাইন ভিডিও কোর্স পাবেন। হে, আপনারা গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার জন্য পুরো কোর্স পেয়ে যাবেন। সবটাই ভিডিওর মাধ্যমে দেখে শিখতে পারবেন।

কিন্তু হে, এখানে থাকা কোর্স গুলি আপনাকে ফ্রীতে দেয়া হয়না। প্রায়, ৪০০ থেকে ১০০০ টাকার ভেতরে আপনারা যেকোনো বিষয় বা সাবজেক্টে কোর্স পাবেন। কোর্স কেনার আগেই আপনারা রিভিউ (review) পোড়ে কোর্সটি কতটা ভালো বা কাজের সেটা জেনেনিতে পারবেন।

তবে, এখানে অনেক ফ্রি কোর্স রয়েছে যেগুলি আপনারা শিখতে পারবেন। যদি আপনারা গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এ নিজের দক্ষতা (skills), ইন্টারেস্ট (interest) এবং নলেজ বাড়িয়ে নিতে চান, তাহলে Udemy তে গিয়ে একটি ভালো কোর্স অবশই নিন। মাত্র ৪০০ টাকায় আপনারা অনেক কিছুই শিখতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ গুলো কি কি?

Graphics design কি, এই বিষয়ে ভালো করে জানার পর দ্বিতীয় সব থেকে জরুরি বিষয় যেটা আপনার জানা অবশই দরকার সেটা হলো, গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ গুলো কি কি সেই বিষয়টি। একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার এমনিতে নানান ধরণের কাজ গুলি করে থাকে।

আবার এমন অনেক গ্রাফিক্স ডিজাইনার ও রয়েছেন, যারা মূলত একটি বিশেষ ধরণের গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ গুলি করেন। কিছু জনপ্রিয় ও চাহিদা থাকা গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর কাজ গুলি নিচে উল্লেখ করা হলো।

১. Brand design:

এখানে একজন graphics designer একটি brand/company-র হয়ে তাদের লোগো ডিজাইন, লেটারহেড ডিজাইন, ফন্ট এবং টাইপোগ্রাফি নির্দেশিকা নির্বাচন করা এবং পণ্যের প্যাকেজিং ডিজাইন করার মতো কাজ গুলি করেন।

২. Marketing design:

এক্ষেত্রে, একজন graphics designer একটি কোম্পানি, পণ্য বা ব্যান্ড এর হয়ে তাদের মার্কেটিং এর জন্য প্রয়োজন নানান বিপণন সামগ্রী গুলি ডিজাইন করে থাকেন। এখানে মূলত, মার্কেটিং এর জন্য নানান visual design গুলি করা হয়। যেমন,

  • emails,
  • newsletters,
  • billboards,
  • posters,
  • print ads,
  • website assets,

৩. Web design:

প্রচুর গ্রাফিক্স আর্টিস্টরা নানান ভিজ্যুয়াল এলিমেন্ট গুলির উপরে কাজ করে থাকেন যেগুলি মূলত একটি ওয়েবসাইটে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তবে মনে রাখা দরকার যে, একজন ওয়েব ডিজাইনার এবং একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার সম্পূর্ণভাবে আলাদা।

৪. Infographic design:

বর্তমান সময়ে একটি Infographic নানান জায়গাতেই ব্যবহার করা হয়। যেমন ধরুন, একটি ওয়েবসাইটে, ম্যাগাজিনে, চার্টস এবং বই ইত্যাদিতে। এক্ষেত্রে একটি আকর্ষণীয় ইনফোগ্রাফিক তৈরি করার ক্ষেত্রেও কিন্তু গ্রাফিক্স ডিজাইনারের প্রয়োজন।

৫. Textile/surface design:

Textile graphic designers-রা নানান বড় বড় প্রজেক্টস এর ক্ষেত্রে কাজ করে থাকেন। যেমন ধরুন, ফেব্রিক ডিজাইনিং, ওয়ালপেপার ডিজাইন, কার্পেট এবং ফার্নিচার ডিজাইন করা ইত্যাদি।

৬. Editorial design:

নানান প্রকাশনা (publications) গুলির নানান উপাদান গুলি ডিজাইন করার ক্ষেত্রেও একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের ভূমিকা প্রচুর রয়েছে। যেমন ধরুন, বই, ম্যাগাজিন, ইমেইল, খবরের কাগজ, ডিজিটাল প্রকাশনা ইত্যাদির ক্ষেত্রে একজন এডিটোরিয়াল গ্রাফিক ডিজাইনার প্রকাশনার টোন সেট করতে সাহায্য করে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কত প্রকার ও কি কি?

গ্রাফিক ডিজাইন একটি বৈচিত্র্যময় এবং ক্রিয়েটিভ ক্ষেত্র যেখানে আইডিয়া গুলির সাথে যোগাযোগ করার ক্ষেত্রে ভিজ্যুয়াল মাধ্যম গুলি ব্যবহার করে কাজ করা হয়। গ্রাফিক্স ডিজাইন এর প্রকার বলতে সে আলাদা আলাদা বিভাগের ক্ষেত্রে আলাদা আলাদা হতে পারে।

  1. Web Design,
  2. UI and Interactive Design,
  3. Advertising and Marketing Design,
  4. Motion Graphics and Animation,
  5. Packaging Design,
  6. Game Design,
  7. Illustration,
  8. Publication and Typographic Design.

FAQ: Graphics design কি?

১. গ্রাফিক্স ডিজাইন কত প্রকার?

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর প্রকার বলতে সে আলাদা কাজের ক্ষেত্রে আলাদা আলাদা হতে পারে। তবে গ্রাফিক্স ডিজাইনের মূল প্রকার গুলি হলো, ওয়েব ডিজাইন, টাইপোগ্রাফি ডিজাইন, ভিজ্যুয়াল আইডেন্টিটি ডিজাইন, মার্কেটিং এবং বিজ্ঞাপন গ্রাফিক ডিজাইন, প্রকাশনা গ্রাফিক ডিজাইন, শিল্প এবং চিত্রণ, প্যাকেজিং ডিজাইন ইত্যাদি।

২. কোন ধরনের গ্রাফিক্স ডিজাইন কাজ সবচেয়ে জনপ্রিয়?

মূলত, ওয়েব ডিজাইনিং, প্যাকেজিং ডিজাইন, বিজ্ঞাপন, গ্রাফ, চার্ট, লোগো ডিজাইন, ইত্যাদি এই ধরণের গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর কাজ গুলি বর্তমানে অধিক জনপ্রিয়তা লাভ করা দেখা গেছে।

৩. Graphics design শিখে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যাবে?

আপনি সরাসরি কোনো কোম্পানিতে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে নানান কাজের ভূমিকা গুলি পালন করতে পারেন। এছাড়া, বর্তমান সময়ে freelancing করেও হাজার হাজার graphics designer-রা ঘরে বসে অনলাইনে প্রচুর টাকা ইনকাম করে নিচ্ছেন।

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে, গ্রাফিক্স ডিজাইন কি বা কাকে বলে, এর চাহিদা কত এবং চাকরির সুযোগ রয়েছে কি না, এ বেপারে হয়তো আপনারা ভালো করেই বুঝে গেছেন।

একজন ভালো শিল্প (artist) হওয়ার জন্য আপনার রেগুলার নতুন নতুন দক্ষতা এবং জিনিস শিখতে থাকতেই হবে। শেষে, আপনার শেখা কাজ এবং অভিজ্ঞতা আপনাকে সফলতার রাস্তায় নিয়ে যাবে।

আর্টিকেল যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে, তাহলে অবশই আপনার বন্ধু এবং পরিবারের সদস্যের সাথে শেয়ার করবেন।

11 thoughts on “গ্রাফিক্স ডিজাইন কি? এর প্রকার, চাহিদা এবং চাকরির সুযোগ”

  1. Avatar

    অনেক ধন্যবাদ। তবে আমার ২ টা প্রশ্ন রয়েছে৷ ১/ আমি এই ডিজাইন শিখে কি বিভিন্ন দেশে কাজ করতে পারব?? ২/ এক জন প্রোফোসনাল ডিজাইনার কি udmey তে কি আমাকে গাইড করবে?? তা হলে কোন কোর্স টি করলে বেশি ভালো হবে??? উওরের অপেক্ষায় রইলাম

    1. Avatar

      ১. অবশই পারবেন, freelancing marketplace গুলোর সাহায্যে সহজে কাজ পেতে পারবেন।
      ২. Udemy তে প্রচুর প্রফেশনাল কোর্স পাবেন যেখানে আপনাকে গাইড করা হয়।
      ৩. আপনার রুচি এবং ইন্টারেস্ট হিসেবে কোর্স করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top