কনটেন্ট মার্কেটিং কি । What is content marketing in Bangla

আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা কনটেন্ট মার্কেটিং কি (What is content marketing in Bangla) বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো।

কনটেন্ট মার্কেটিং বলতে কি বুঝায় ?

বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটের ভূমিকা এবং গুরুত্ব যেকোনো কাজের ক্ষেত্রেই অনেক বেশি।

এক্ষত্রে, ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রেও কিন্তু ইন্টারনেট এর ব্যবহার আজ সাংঘাতিক বৃদ্ধি পেয়েছে।

কেননা, আজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনেক তাড়াতাড়ি এবং সহজেই যেকোনো business বা product এর প্রচার (marketing) সম্ভব।

আর তাই, আজ প্রত্যেক ছোট-বড় এবং নতুন-পুরোনো ব্যবসা গুলো তাদের জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে নিজেকে বিখ্যাত করার জন্য ব্যবহার করে থাকেন “ডিজিটাল মার্কেটিং” এর।

ডিজিটাল মার্কেটিং হলো এমন এক প্রক্রিয়া যেখানে বিভিন্ন online platforms, online based digital technologies এবং internet এর ব্যবহার করে বিভিন্ন products, service, brands ইত্যাদির প্রচার করা হয়।

আর, কনটেন্ট মার্কেটিং হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি ভাগ।

তাই, কনটেন্ট মার্কেটিং হলো এমন এক মার্কেটিং কৌশল (marketing strategy), যেখানে দারুন, আকর্ষণীয় এবং ব্যবসার সাথে প্রাসঙ্গিক (relevant) বিষয়বস্তু (content) তৈরি করা হয় এবং সেগুলোকে অনলাইনে বিভিন্ন প্লাটফর্ম এর মধ্যে বিতরণ (distribute) করা হয়, যাতে অধিক শ্রোতাদের (audience) কাছে নিজের পণ্যের প্রচার করে তাদের আকর্ষিত (attract) করা যেতে পারে।

এর মূল উদ্দেশ্য হলো, কনটেন্ট এর মাধ্যমে লাভজনক গ্রাহকদের (customers) আকর্ষিত করা যাতে পারে।

যদি আপনি কনটেন্ট মার্কেটিং এর বিষয়ে সম্পূর্ণ তথ্য জেনেনিতে চাইছেন, তাহলে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে কনটেন্ট মার্কেটিং কাকে বলে এবিষয়ে জেনেনিতে পারবেন।

কনটেন্ট মার্কেটিং কি ? (What is content marketing)

কনটেন্ট মানে হলো এমন এক জিনিস যেটাকে বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত করা যেতে পারে ধরুন speech, writing, video, graphics ইত্যাদির মাধ্যমে।

কনটেন্ট মার্কেটিং হলো মার্কেটিং এর এমন এক প্রক্রিয়া যেখানে মূল্যবান কনটেন্ট গুলো তৈরি করা হয়।

তৈরি করা এই কনটেন্ট গুলোকে সেই প্রত্যেক ব্যবহারকারী দের সাথে শেয়ার করা হয় যারা কনটেন্ট এর সাথে জড়িত বিষয়বস্তুর মধ্যে রুচি রাখেন।

তৈরি করা কনটেন্ট গুলোকে লোকেদের সাথে শেয়ার করার ক্ষেত্রে, সোশ্যাল মিডিয়া, অনলাইন মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া ইত্যাদির ব্যবহার করা হয়।

কনটেন্ট মার্কেটিং এর মূল উদ্দেশ্য হলো, মূল্যবান এবং কাজের কনটেন্ট এর মাধ্যমে customer দের আকর্ষিত করা এবং তাদেরকে ক্রেতা (buyer) হিসেবে রূপান্তরিত করা।

এক্ষেত্রে আপনি যেই কনটেন্ট গুলোকে তৈরি করে শেয়ার করছেন সেগুলো আপনার ব্যবসা, পণ্য বা সেবার সাথে জড়িত থাকে।

Online content marketing এর ক্ষেত্রে মূলত blog article, eBooks, social media posts, graphics, videos, webinar, এই প্রক্রিয়া গুলো ব্যবহার করা হয়।

তাহলে আশা করছি, কনটেন্ট মার্কেটিং বলতে কি বুঝায় বিষয়টা বুঝতেই পেরেছেন।

Content marketing এর উদাহরণ

বর্তমান সময়ে কনটেন্ট মার্কেটিং করার নিয়ম বা প্রক্রিয়া প্রচুর আলাদা আলাদা রকমের রয়েছে।

তবে, প্রত্যেক প্রকারের বিষয়ে বলাটা সম্ভব না যদিও কিছু গুরুত্বপূর্ণ উদাহরণ গুলোর বিষয়ে নিচে বলে দিচ্ছি।

১. Infographics

ইনফোগ্রাফিক্স হলো এমন কিছু graphics / images যেগুলোর মধ্যে আলাদা করে text যোগ করা হয়।

এখানে, জরুরি statistics, charts, graphs ইত্যাদি যোগ করে detailed information প্রদান করার চেষ্টা করা হয়।

Infographics গুলোকে আবার graphic visual representations বলে বলা হয় যেখানে তথ্য ও ডাটা গুলোকে সঠিক এবং স্পষ্ট ভাবে বুঝিয়ে দেওয়া যেতে পারে।

তাই, মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে ইনফোগ্রাফিক্স কনটেন্ট প্রচুর লাভজনক প্রমাণিত হতে পারে যদি এগুলোকে সঠিক ভাবে তৈরি ও শেয়ার করা হয়।

Infographics আপনারা নিজেও তৈরি করতে পারবেন এবং এর জন্য ইন্টারনেটে প্রচুর tools রয়েছে।

২. Video

বর্তমান সময়ে ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করে যেকোনো ব্যবসা বা পণ্যের প্রচার করাটা অধিক লাভজনক হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

ভিডিওর মাধ্যমে text এবং image কনটেন্ট এর তুলনায় অধিক আকর্ষণীয় কনটেন্ট তৈরি করা যেতে পারে।

কারণ, ভিডিওর মাধ্যমে আমরা আমাদের শ্রোতা (audience) দের সাথে অনেক সহজে সংযুক্ত হতে পারি।

Video কনটেন্ট এর দ্বারা শ্রোতা বা গ্রাহকেরা অনেক স্পষ্ট ভাবে এবং আকর্ষিত হয়ে বিষয় গুলো ভিডিওর মাধ্যমে জেনেনিতে পারেন।

৩. Text / Articles

কনটেন্ট মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে text অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি ভাগ।

এই প্রক্রিয়াতে marketers প্রচুর ভালো ভালো, তথ্যবহুল এবং আকর্ষণীয় আর্টিকেল বা কনটেন্ট লিখেন এবং সেগুলোকে বিভিন্ন মাধ্যমে শেয়ার করেন।

এভাবেই, বই (books) লিখে মার্কেটিং এর এক সাধন হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

আবার বর্তমানে, প্রচুর marketers রয়েছেন যারা কনটেন্ট রাইটিং করে ইন্টারনেটে বিভিন্ন blogs এবং website গুলোতে text based articles গুলো publish করেন।

এতে, আর্টিকেলের মাধ্যমে ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকা গ্রাহক দের আকর্ষিত করা হয়।

৪. Podcasts

কনটেন্ট মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে বর্তমান সময়ে পডকাস্ট (podcast) এর ভূমিকা কিন্তু কম নয়।

এক্ষেত্রে, কথা রেকর্ড করে একটি spoken word digital audio files তৈরি করা হয় যেটাকে ডাউনলোড করে বা অনলাইনে স্ট্রিম করে শোনা যাবে।

এর মাধ্যমে আপনি আপনার কনটেন্ট ও তথ্য গুলোকে স্পষ্ট এবং সহজে প্রকাশিত করতে পারবেন।

ফলে, অধিক লোকেরা আপনার business, brand এবং product এর বিষয়ে সহজেই জেনেনিতে পারবেন।

৫. Webpages

ইন্টারনেটে থাকা সাধারণ একটি ওয়েব পেজ এবং মূলত কনটেন্ট মার্কেটিং এর জন্য তৈরি করা ওয়েব পেজ এর মধ্যে প্রচুর পার্থক্য রয়েছে।

কারণ, কনটেন্ট মার্কেটিং এর উদ্দেশ্যে তৈরি করা ওয়েব পেজ (web page) গুলোকে মূলত গ্রাহক আকর্ষণ করার উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়।

ইন্টারনেট সার্চ ইঞ্জিন গুলোর দ্বারা প্রচুর ভিসিটর্স দের নিয়ে এসে তাদেরকে গ্রাহক হিসেবে রূপান্তরিত করার উদ্দেশ্যে ওয়েব পেজ গুলোকে তৈরি করা হয়।

কনটেন্ট মার্কেটিং এর লাভ এবং সুবিধা গুলো কি ?

চলুন এখন আমরা content marketing এর কিছু লাভ এবং সুবিধের বিষয়ে জেনেনেই।

  • Content marketing এর সব থেকে বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ লাভ হলো এর দ্বারা প্রচুর conversions হয়ে থাকে। মানে, সাধারণ ভিসিটর্স / ইউসার দের গ্রাহকে পরিবর্তিত করা যায়।
  • সঠিক ভাবে কনটেন্ট মার্কেটিং করতে জানলে অনেক তাড়াতাড়ি নতুন business বা brand কে বিখ্যাত (famous) করা যেতে পারে।
  • দরকারি কনটেন্ট এর মাধ্যমে গুণমান এর সচেতনতা তৈরি করে লক্ষবস্তু গ্রাহক দের টার্গেট করা সম্ভব।
  • লক্ষ্যবস্তু শ্রোতাদের (Targeted audience) এর মধ্যে বিশ্বাস তৈরি করার ক্ষেত্রে কনটেন্ট মার্কেটিং এর ভূমিকা প্রচুর।
  • ভালো কনটেন্ট প্রকাশিত করে নিজের গ্রাহকের সাথে সরাসরি ভালো সম্পর্ক তৈরি করে রাখতে পারবেন।
  • মূল্যবান কনটেন্ট এর মাধ্যমে নিজের ব্র্যান্ড বা ব্যবসার বিশ্বাসযোগ্যতা তৈরি করা সম্ভব।
  • ভালো এবং উচ্চমানের কনটেন্ট এর মাধ্যমে নিজের business টিকে industry expert হিসেবে প্রকাশিত করতে পারবেন।
  • Web page এবং blog article content এর মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর্যন্ত traffic পেতেই থাকবেন। এতে, নিয়মিত customers পাওয়ার সম্ভাবনা প্রচুর থেকে যায়।
  • Content marketing দ্বারা তাড়াতাড়ি ব্যবসার প্রচার সম্ভব।
  • পুরোনো মার্কেটিং প্রক্রিয়া গুলোর তুলনায় কনটেন্ট মার্কেটিং দ্বারা সহজে conversions হওয়া দেখা গেছে এবং সেটাও প্রচুর কম খরচে।
  • ব্লগ কনটেন্ট পাবলিশ করে নিজের ব্যবসার জনপ্রিয়তা এবং অস্তিত্ব বজায় রাখা সম্ভব।
  • মূল্যবান কনটেন্ট এর মাধ্যমে নিজে নিজেই দীর্ঘদিন পর্যন্ত গ্রাহক পাওয়া সম্ভব।
  • এর মাধ্যমে নিজের ব্যবসার ক্ষেত্রে ফলোয়ার্স এর পরিমান বৃদ্ধি করতে পারবেন।

কনটেন্ট মার্কেটিং কেন জরুরি ?

ওপরে কনটেন্ট মার্কেটিং এর লাভ ও সুবিধে গুলো যদি ভালো করে দেখেছেন তাহলে অবশই অনেকটা হয়তো বুঝতেই পেরেছেন যে কেন এই ধরণের মার্কেটিং অনেক জরুরি।

  1. Awareness এর জন্য এই ধরণের মার্কেটিং অনেক জরুরি। কারণ, অনেক সময় customers দের সমস্যার যে একটি সমাধান রয়েছে সেটা তারা জানেনইনা। তবে, কনটেন্ট মার্কেটিং এর প্রক্রিয়া গুলোর ফলেই গ্রাহকেরা বিভিন্ন সমস্যার সমাধান গুলোর বিষয়ে জানতে পারেন।
  2. এবার, Research এর ক্ষেত্রেও এর ভূমিকা ও প্রয়োজনীয়তা অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, যখন একজন গ্রাহক জানতে পারেন যে তার সমস্যার একটি সমাধান রয়েছে, তখন তারা সেই সমাধান, পণ্য বা সেবার বিষয়ে অধিক গবেষণা (research) করে সেই বিষয়ে প্রচুর তথ্য সংগ্রহ করতে পারেন।
  3. এবার আসছে বিবেচনার (Consideration) ক্ষেত্রে কনটেন্ট মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয়তা। একজন গ্রাহক যেই প্রোডাক্ট কিনে নিতে চাইছেন সেটা কেনার আগে সে বিভিন্ন আলাদা আলাদা বিক্রেতা দের থেকে product price এবং quality যাচাই করে দেখবে। এক্ষেত্রেও ভালো কনটেন্ট এর সাহায্যে সম্পূর্ণ তথ্য গ্রাহকের জন্য প্রকাশিত করা হয়।
  4. শেষে customer যদি সন্তুষ্ট হয়ে থাকে তাহলে সে product কিনে থাকে।

তাহলে, যদি আমরা ওপরে বলা point গুলোর ওপরে নজর দিয়ে দেখি, তাহলে বুঝতে পারবো যে যেকোনো গ্রাহক product কেনার আগে ৩ টি মূল পর্যায় এর মধ্যে দিয়ে পার হয়ে আসছে যেখানে কনটেন্ট মার্কেটিং এর ভূমিকা প্রচুর।

কারণ, কনটেন্ট মার্কেটিং এর মাধ্যমে গ্রাহকদের জানানো যাচ্ছে যে তাদের সমস্যার একটি সমাধান রয়েছে।

এছাড়া, সমস্যার সমাধানের বিষয়ে সম্পূর্ণ তথ্য প্রদান করে তাদেরকে শিক্ষিত করার কাজ এই কনটেন্ট এর মাধ্যমেই করা হচ্ছে।

শেষে, একটি মূল্যমান এবং তথ্যবহুল কনটেন্ট এর মাধ্যমেই গ্রাহকেরা products এবং service গুলোকে কেনার আগে সেগুলোর বিষয়ে সম্পূর্ণটা জেনেনিতে পারছেন এবং কোন বিক্রেতার কাছে সে সঠিক দামে ভালো প্রোডাক্ট পাবে সেটাও সে জানতে পারছেন।

তাই, বলাই যেতে পারে যে বর্তমান সময়ে যেকোনো business, brand বা product এর ক্ষেত্রে content marketing করাটা অনেক জরুরি।

 

আজকে আমরা কি শিখলাম ?

তাহলে বন্ধুরা, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা শিখলাম যে “কনটেন্ট মার্কেটিং কি” (about content marketing) এবং কেন এই ধরণের মার্কেটিং প্রক্রিয়া অনেক জরুরি।

আশা করছি, আজকের এই আর্টিকেল আপনাদের অনেক ভালো লেগেছে এবং আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা অনেক কিছুই শিখতে পেরেছেন।

যদি আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশই আর্টিকেলটি শেয়ার করবেন।

এছাড়া, আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোনো ধরণের প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট করে অবশই জানাবেন।

 

6 thoughts on “কনটেন্ট মার্কেটিং কি । What is content marketing in Bangla”

    1. আমি একটা company distributor but আমিcompany নাম না বলে একটা add দিতে চাই যাতে গ্ৰাহক interest হয়ে আমার দেওয়া phone number call করবে ।তখন আমি company full information দেব।এই কাজটি আমি কি ভাবে করবো সেটা যদি জানতে সাহায্য করেন তাহলে আমি খুবই উপকৃত হবো।

  1. কনটেন্ট মার্কেটিং সম্পর্কে খুব ভালোভাবে বুঝিয়েছেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap