ফ্রিতে ডলার ইনকাম করার জনপ্রিয় ৫টি অনলাইন উপায়

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা অনলাইনে ফ্রিতে টাকা ইনকাম করার নানান উপায় গুলি খুজেঁ থাকেন। এক্ষেত্রে উপায় তো অনেক রয়েছে তবে কোন উপায়টি আপনি ব্যবহার করবেন সেটার ওপরেই নির্ভর করছে ডলার ইনকাম করার বিষয়টা।

কেননা, এমন অনেক ওয়েবসাইট বা প্লাটফর্ম গুলো রয়েছে যেগুলোও ওপরে কাজ করে আপনি নিজের লোকাল মুদ্রায় টাকা ইনকাম করার সুযোগ পাবেন। আবার, এমন নানান ডলার ইনকাম করার সাইট বা প্লাটফর্ম গুলো পাবেন যেগুলো নিয়ে কাজ করলে ডলারে ইনকাম করা সম্ভব।

এবার ফ্রিতে ডলার ইনকাম করার এই উপায় গুলোকে আমি প্রমাণিত উপায় কেন বললাম এটাও আপনার জানা দরকার।

দেখুন, অনলাইনে ডলার ইনকাম করার এই ফ্রি উপায় গুলো ব্যবহার করে সারা বিশ্বে হাজার লক্ষ লোকেরা অনলাইনে নিয়মিত রোজগারের সুযোগ পেয়েছেন। Blogging, affiliate marketing এবং freelancing-এর মতো কার্যকর এবং অনলাইন ইনকামের প্রমাণিত উপায় গুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আজ প্রচুর লোকেরাই আর্থিক ভাবে স্বাধীন হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

বিশ্বাস করুন, ইন্টারনেটে কোনো টাকা বিনিয়োগ না করে সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডলারে টাকা ইনকাম করার এমনও উপায় কিছু আছে যেগুলোর দ্বারা প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করা যাবে।

আমার কথা বিশ্বাস না হলে, খানিকটা ইন্টারনেট ঘেটে এই বিষয়ে অধিক জেনেনিতে পারবেন। এছাড়া, অনলাইনে কিভাবে দ্রুত টাকা উপার্জন করা যায়, এর ১০টি উপায় নিয়েও আমি আলাদা ভাবে আর্টিকেল লিখেছি।

অবশই পড়ুন: অনলাইন টাকা ইনকাম করার সেরা সাইট গুলো

কিভাবে ফ্রিতে ডলার ইনকাম করা যায়?

কিভাবে ফ্রিতে ডলার ইনকাম করা যায়?
Best online method to earn dollar as reward.

দেখুন, আপনি ইন্টারনেট থেকে কি হিসেবে কতটা ডলার ইনকাম করার কথা ভাবছেন সেটা আমি ঠিক জানিনা।

তবে জানিয়ে রাখছি যে, অনলাইনে ডলারে ইনকাম করার প্রচুর সাইট এবং প্লাটফর্ম গুলো আছে যেগুলো আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়া, এই প্লাটফর্ম গুলোর ওপর নির্ভর করছে আপনি কতটা পরিমানে ডলার উপার্জন করতে পারবেন।

এখন, যদি আপনি Google Play Store-এ গিয়ে “ডলার ইনকাম করার অ্যাপস” লিখে সার্চ দিয়ে দেখেন, দেখবেন আপনাকে এমন প্রচুর ফ্রিতে টাকা ইনকাম করার অ্যাপস গুলো দেখিয়ে দেওয়া হবে যেগুলির দ্বারা ও ডলার আয় করা যাবে।

এই ধরণের ইনকাম অ্যাপস গুলোর কাজে লাগিয়ে আপনি দুচার ডলার ইনকাম করার সুযোগ পেতে পারেন।

তবে ইনকাম হবেই বলে তারও কোনো গ্যারান্টি দেওয়া যাবেনা। এক্ষেত্রে আপনি কি করবেন? সহজে ডলার ইনকাম করার লোভে ইনকামের কোনো গ্যারান্টি নেই এমন কিছু অ্যাপস বা সাইট গুলো ব্যবহার করবেন নাকি ফ্রিতে ডলার ইনকাম করার প্রমাণিত উপায় গুলো ব্যবহার করবেন?

নিচে বলে দেওয়া ডলার ইনকামের এই প্রমাণিত উপায় গুলো ব্যবহার করে লোকেরা প্রতিমাসে হাজার হাজার ডলার পর্যন্ত ইনকাম করে নিচ্ছেন।

আপনি যদি কাজের সঠিক নিয়ম ও উপায় গুলো বুঝে নিয়ে প্রয়োজনীয় সময়টুকু দিয়ে নিয়মিত কাজ করে থাকেন, তাহলে অন্তত ২০০ থেকে ৩০০ ডলার তো ইনকাম করতেই পারবেন। খুব কম হলেও ১০০ ডলার তো ইনকাম করাই যাবে। কি পারবেন তো?

অবশই পড়ুন: ৭টি মাধ্যমে গুগল থেকে টাকা ইনকাম করুন

ফ্রি মাধ্যমে ডলার ইনকাম করার ৫টি অনলাইন উপায়:

ডলার ইনকামের উপায়:ন্যূনতম আয়ের সম্ভাবনা:আমার পরামর্শ:
১. Blogging এবং AdSense$50-$400এসইও (SEO) অপ্টিমাইজড আর্টিকেল লিখুন।
২. YouTube এবং AdSense$50-$200চাহিদা থাকা ট্রেন্ডিং ভিডিও তৈরি করুন।
৩. Get Paid To (GPT) Websites$1-$50ছোট ছোট কাজ গুলো সঠিক ভাবে সম্পূর্ণ করুন।
৪. Online paid survey$1-$50দিয়ে দেওয়া সার্ভে গুলো সম্পূর্ণ করুন।
৫. Freelance platform-এর দ্বারা$5-$250প্রজেক্ট গুলো সময় মতো সম্পূর্ণ করুন।

চলুন, ডলার ইনকামের এই প্রমাণিত ও কার্যকর মাধ্যম গুলোর বিষয়ে নিচে বিস্তারিত জেনেনেই।

অবশই পড়ুন: টাকা আয় করার রিয়েল বিদেশি ইনকাম সাইট

১. Blogging এবং AdSense

Blogging হতে পারে ডলারে টাকা ইনকাম করার একটি অনেক লাভজনক ও চমৎকার উপায় যেখানে আপনাকে শুরুতে কোনো ধরণের বিনিয়োগ (investment) করতে হবেনা। এই প্রক্রিয়াতে আপনাকে নিজের একটি blog website তৈরি করে সেটিতে নিয়মিত কাজ করতে হয়।

দর্শকদের আগ্রহ আকর্ষণ করার মতো কিছু নির্দিষ্ট বিষয় গুলোর ওপর নিয়মিত মূল্যবান কনটেন্ট গুলো নিজের ব্লগে পাবলিশ করতে হবে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই একটি ব্লগ সাইটে টেক্সট এবং ইমেজ ভিত্তিক বিষয়বস্তু গুলো প্রকাশ করা হয়।

যেমন ধরুন আমাদের এই আর্টিকেলটি, যেটিকে ছবি এবং টেক্সট সহ একটি ব্লগ পোস্ট আর্টিকেল হিসেবে তৈরি করে প্রকাশ করা হয়েছে।

ধীরে ধীরে যখন আপনার ব্লগ সাইটটি নানান মাধ্যমে ট্রাফিক এবং দর্শকদের আকর্ষণ গ্রহণ করতে শুরু করে তখন আপনি বিভিন্ন মাধ্যমে নিজের ব্লগ থেকে ডলারে ইনকাম করার সুযোগ গুলো পাবেন। যেমন ধরুন, ডিসপ্লে বিজ্ঞাপন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, স্পনসর করা পোস্ট ইত্যাদি।

Google AdSense-এর মতো বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক গুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে, আপনার ব্লগের কনটেন্ট এবং ব্লগে প্রবেশ করা ইউসার দের ইন্টারেস্ট এর ওপর ভিত্তি করে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করানো হবে। এবার যখনই ব্লগের দর্শকরা সেই বিজ্ঞাপনগুলিতে ক্লিক করবে, আপনি ইনকাম করবেন ডলার।

AdSense থেকে ক্লিকপ্রতি কত ডলার ইনকাম করা যাবে সেটা নানান বিষয় গুলির ওপর নির্ভর করে থাকে। তবে একটি এভারেজ হিসেবে বলতে হলে প্রতি এড ক্লিক এর জন্যে প্রায় $0.01 থেকে $15 ইনকাম করা যায়। তবে ক্লিকপ্রতি এর থেকেও অধিক বা কম ইনকাম হতেই পারে।

২. YouTube এবং AdSense

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার ট্রেন্ড বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করা যায় এবং এর জন্যে আপনাকে কি কি করতে হবে এই সাধারণ বিষয়গুলি আজ বাচ্চা থেকে বুড়ো প্রত্যেকেই জানেন। YouTube, অনলাইনে টাকা বা ডলার হিসেবে টাকা ইনকাম করার একটি অনেক সহজ, কার্যকর ও ফ্রি মাধ্যম যখন আপনি YouTube-এর সাথে AdSense ব্যবহার করে থাকেন।

চলুন, YouTube-থেকে ডলার ইনকাম করার ধাপ গুলো একে একে জেনেনেই।

ইউটিউব কন্টেন্ট তৈরি করা:

ইউটিউব, একটি অনেক জনপ্রিয় ও বিখ্যাত video-sharing platform যেখানে যেকোনো ব্যক্তি বা ক্রিয়েটর প্রায় যেকোনো বিষয়েই ভিডিও কনটেন্ট পাবলিশ করার সুযোগ পায়। তাই ইউটিউবের থেকে টাকা ইনকাম করা শুরু করার জন্যে সবচে আগে আপনাকে নিজের একটি YouTube channel তৈরি করতে হবে।

এবার চ্যানেল তৈরি করার পর, এমন আকর্ষক এবং চাহিদা থাকা ভিডিও কনটেন্ট গুলো তৈরি করতে হবে যেগুলি দর্শকদের আকর্ষণ লাভ করতে পারে। এতে, আপনার চ্যানেলের মোট দর্শকদের সংখ্যাও ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাবে।

AdSense এর সাথে ইনকাম করুন:

একবার যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি নির্দিষ্ট কিছু যোগ্যতার মানদণ্ড পূরণ করতে সক্ষম হবে, তারপর আপনি YouTube Partner Program (YPP) এর জন্যে এপ্লাই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে, আপনার চ্যানেলে গত ১ বছরের মধ্যে ১০০০ মোট সাবস্ক্রাইবার এবং ৪০০০ হাজার ঘন্টার ওয়াচ আওয়ার্স অবশই হতে হবে।

এই YPP এর প্রোগ্রামে যদি আপনার চ্যানেলটি গৃহীত করা হয়ে থাকে তাহলে Google AdSense দ্বারা নিজের ভিডিও কনটেন্ট গুলিকে মনেটাইজ করার ক্ষেত্রে আপনি যোগ্যতা লাভ করবেন। Google AdSense হলো Google-এর একটি অনেক জনপ্রিয় advertising platform যার দ্বারা আপনার ইউটিউব চ্যানেলে থাকা ভিডিও কনটেন্ট গুলিতে বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

আপনার ভিডিও দেখার সময় যখনি দর্শকরা এই বিজ্ঞাপন গুলো দেখবেন বা সেগুলিতে ক্লিক করবেন, আপনি টাকা ইনকাম করবেন। মনে রাখবেন, এক্ষেত্রেও কিন্তু সম্পূর্ণ ফ্রিতে এবং ডলারেই ইনকাম হবে।

অবশই পড়ুন: এই ৭টি মাধ্যমে গুগল থেকে টাকা ইনকাম করুন

৩. Get Paid To (GPT) Websites

Get Paid To (GPT) website গুলো মূলত কিছু অনলাইন প্লাটফর্ম যেখানে ইউসারদের বিভিন্ন কাজ বা কার্যক্রম গুলো অফার করা হয়।

এই বিভিন্ন কাজ বা কার্যক্রম গুলো যখন কোনো ইউসার দ্বারা সম্পূর্ণ করা হয়, তখন কাজ সম্পূর্ণ করার বিপরীতে কিছু টাকা বা রিওয়ার্ড দিয়ে দেওয়া হয়। আর এই ধরণের বেশিরভাগ ওয়েবসাইট গুলোতেই রিওয়ার্ড হিসেবে মূলত ডলারে টাকা ইনকাম করার সুযোগ দেওয়া হয়।

GPT websites গুলোর দ্বারা users-রা নানান ছোট ছোট কাজ গুলো করতে পারেন। যেমন, survey সম্পূর্ণ করা, videos দেখা, ads click করা, নানান অফার এর জন্যে signup করা, গেম খেলা ইত্যাদি। আর এভাবে ইউসাররা অনলাইনে অর্থ উপার্জনের একটি দারুন সুযোগ পেয়ে থাকেন।

এছাড়া, কিছু কিছু GPT websites গুলোর একটি Referral Program থেকে থাকে। তাই, ওয়েবসাইটটি রেফার করে টাকা ইনকাম করার সুযোগও এখানে রয়েছে।

মানে, GPT website-টির বিষয়ে নিজের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে হবে। যদি আপনার বন্ধুরা বা জেকেও আপনার রেফার করা লিংক (referral link/code) ব্যবহার করে তাদের একটি একাউন্ট তৈরি করে থাকেন, তাহলে রেফারেল ইনকাম হিসেবে অতিরিক্ত ডলার আয় করতে পারবেন।

ফ্রিতে ডলার ইনকাম করার সেরা কিছু Get Paid To (GPT) websites:

এই ওয়েবসাইট গুলো অনলাইনে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে প্রচুর জনপ্রিয়তা লাভ করেছে যদিও, সাইট গুলো ব্যবহার করার আগে সবসময় নিজের তরফ থেকে রিসার্চ করে নিবেন। অনলাইনে থাকা ওয়েবসাইট সম্পর্কিত রিভিউ গুলো পড়তে ভুলবেননা এবং শেষে সাইট গুলো কি সত্যি টাকা দিয়ে থাকে, সেই বিষয়ে যাচাই করে দেখবেন। YouTube এবং Google-এর মতো platform গুলোতে, ইনকাম করার এই ধরণের ওয়েবসাইট সম্পর্কিত পেমেন্ট প্রুফ এবং রিভিউ গুলো অবশই দেখবেন।

  • Swagbucks
  • ySense
  • PrizeRebel
  • Toluna
  • MyPoints

৪. Online paid survey

অনলাইনে পেইড সার্ভে সম্পূর্ণ করে টাকা আয় করার বিষয়টা আপনি হয়তো আগের থেকেই জানেন।

Online paid survey গুলো সম্পূর্ণ করার মাধ্যমে অনেক সহজেই কিছু সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ ফ্রিতে কয়েক ডলার ইনকাম করে নেওয়া সম্ভব। এক্ষেত্রে আপনাকে বিভিন্ন পণ্য, পরিষেবা বা বিষয় গুলোর ওপর নিজের মতামত এবং প্রতিক্রিয়া গুলো শেয়ার করতে হবে।

মূল্যবান গ্রাহক বা ভোক্তাদের অন্তর্দৃষ্টি সংগ্রহ করার উদ্দেশ্যে নানান কোম্পানি এবং বাজার গবেষণা সংস্থাগুলির দ্বারা এই সার্ভে গুলো পরিচালনা করা হয়। এক্ষেত্রে কোম্পানি গুলি, অনেক বড় সংখ্যায়, শ্রোতাদের কাছে পৌঁছনোর ক্ষেত্রে নানান online survey website গুলির সাথে একসাথে কাজ করে থাকেন বা অংশীদারিত্ব করে থাকেন।

অনলাইনে এমন প্রচুর সার্ভে ওয়েবসাইট গুলো আছে যেগুলি সার্ভে পরিচালনাকারী এবং সার্ভে গ্রহণকারীদের মধ্যে মধ্যস্থতাকারী হিসাবে কাজ করে থাকে। এই ওয়েবসাইট গুলো মূলত একটি প্লাটফর্ম তৈরি করে থাকে যেখানে ব্যবহারকারীরা (users) একটি একাউন্ট তৈরির প্রক্রিয়া থেকে শুরু করে, নিজের প্রোফাইল বানানো এবং রিলেটেড সার্ভে গুলো ম্যাচ খুঁজে পাওয়ার জন্য জরুরি অন্যান্য তথ্য গুলো দিতে পারেন।

ইউসার দ্বারা একাউন্ট তৈরি করার পর এবার নানান মাধ্যমে তাকে সার্ভে গুলো প্রেরণ করা যেতে পারে। যেমন ধরুন, ইমেইল এর মাধ্যমে, নোটিফিকেশন, ওয়েবসাইটের ড্যাশবোর্ড দ্বারা ইত্যাদি।

এবার সার্ভে গুলিকে সফলভাবে সমাপ্ত করতে পারলে, অংশগ্রহণকারীরা পুরষ্কার বা রিওয়ার্ড অর্জন করে থাকেন যেটা আবার সার্ভের জটিলতা এবং দৈর্ঘ্যের উপর ভিত্তি করে কমবেশি হতে পারে। এক্ষেত্রে, রিওয়ার্ড বা পুরস্কার গুলিকে cash, gift cards, points ইত্যাদি নানান মাধ্যমে দেওয়া যেতে পারে।

সার্ভে সম্পূর্ণ করে ফ্রিতে টাকা ইনকাম করার সেরা সাইট গুলো:

  • Swagbucks
  • Survey Junkie
  • Toluna
  • Branded Surveys
  • LifePoints
  • InboxDollars

মনে রাখবেন, উল্লিখিত ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করার আগে নিজের তরফ থেকে খানিকটা রিসার্চ অবশই করে নিবেন। অনলাইনে থাকা রিভিউ গুলো পড়লেই বুঝতে পারবেন যে কোন ওয়েবসাইট গুলোর থেকে সার্ভে সম্পূর্ণ করার মাধ্যমে সত্যি রিওয়ার্ড ইনকাম করা যাবে।

রিলেটেড: পার্ট-টাইম অনলাইন জব যেগুলো সহজেই করা যাবে

৫. Freelance platform-এর দ্বারা

কিভাবে ফ্রিতে ডলার ইনকাম করা যায়? যখন এই প্রশ্নটি করা হয় তখন freelancing platform গুলির কথা না বললে কিভাবে চলে বলুন।

Freelancing platforms গুলো মূলত এমন অনলাইন মার্কেটপ্লেস, যার দ্বারা যেকোনো ব্যক্তি একটি ব্যবসার বা কোম্পানির সাথে সরাসরি সংযোগ স্থাপন করার সুবিধা পেয়ে থাকে। এক্ষত্রে ব্যক্তিরা এমন ব্যবসা বা কোম্পানি গুলির সাথে সংযুক্ত হওয়ার সুযোগ পায়, যারা কিছু নির্দিষ্ট কাজ গুলো করানোর উদ্দেশ্যে দক্ষ ফ্রিল্যান্সারদের অনুসন্ধান করেন।

এই প্লাটফর্ম গুলিতে আপনারা নানান ধরণের কাজ গুলো পাবেন। যেমন ধরুন, graphic design, article writing, web development, digital marketing, app development ইত্যাদি। এক্ষেত্রে যদি আপনি কোনো আন্তর্জাতিক ক্লায়েন্ট বা কোম্পানির জন্যে কাজ করে থাকেন, তাহলে কাজের বিপরীতে ডলারে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কাজ করার জন্য আপনাকে কোনো ধরণের টাকা দিতে হবেনা। তাই, অনলাইনে ফ্রীতে টাকা আয় করার এটাও একটি কার্যকর ও প্রমাণিত উপায় গুলোর মধ্যে একটি। তবে, এক্ষত্রে আপনার মধ্যে কোনো বিশেষ কাজের অভিজ্ঞতা, দক্ষতা এবং জ্ঞান অবশই থাকতে হবে।

অনলাইন আয়ের একটি দারুন উৎস হিসেবে, এই freelancing platform গুলি প্রত্তেকজন ব্যক্তিকেই আলাদা আলাদা প্রজেক্ট গুলো সম্পূর্ণ করার মাধ্যমে ইনকামের ভালো সুযোগ প্রদান করে থাকে।

তাই, যদি আপনার মধ্যেও এমন কোনো বিশেষ দক্ষতা রয়েছে যেটাকে কাজে লাগিয়ে নানান কোম্পানি বা ব্যবসা গুলোর ছোট-বড় কাজ গুলো করে দেওয়া যাবে, তাহলে আজকেই এই freelancing platform গুলোতে গিয়ে একবার বিষয়টা বুঝতে চেষ্টা করুন।

তবে, যদি আপনি ভাবছেন যে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখবো এবং শুরু করবো? তাহলে এই বিষয়েও আমি আগেই আপনাদের বলেছি।

কিছু জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মের মধ্যে রয়েছে:

  • Upwork
  • Freelancer
  • Fiverr
  • Guru
  • Toptal
  • PeoplePerHour
  • 99designs

অবশই পড়ুন: Fiverr কি ? কিভাবে ফাইভার থেকে টাকা আয় করবেন

শেষ কথা,,

কোনো টাকা ইনভেস্ট ছাড়া সম্পূর্ণ ফ্রি মাধ্যমে ডলার ইনকাম করার অন্যান্য প্রচুর অনলাইন উপায় গুলো রয়েছে। যেমন ধরুন, affiliate marketing, ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করা, অধিক ফলোয়ার থাকা আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজকে কাজে লাগিয়েও আপনি ডলারে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে, একাধিক উপায় গুলো নিয়ে ঘাটাঘাটি করলে, কোনটা ছেড়ে কোনটা করবো, এনিয়েই আপনার সময় নষ্ট হতে থাকবে। তাই, অনলাইনে ডলার ইনকাম করার উপায় গুলো নিয়ে লিখা আজকের এই আর্টিকেলে আমি কেবল সেরা ৫টি উপায় আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি।

ফ্রিতে ডলার ইনকাম করার উপায় গুলো নিয়ে লিখা আমাদের আজকের আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকলে, আর্টিকেলটি সোশ্যাল মিডিয়াতে অবশই শেয়ার করবেন।

অবশই পড়ুন:

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top