যদি, আপনারা একটি উইন্ডোজ ল্যাপটপ (windows laptop) বা উইন্ডোস কম্পিউটার ব্যবহার করছেন, তাহলে আপনার কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে যেসব প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার থাকা দরকার, সেগুলির ব্যাপারে জেনে রাখাটা আপনার অনেক অনেক জরুরি।

11 best and essential PC software list.

এমনিতে, বেশির ভাগ লোকেরা নিজেদের কম্পিউটারে উইন্ডোজ ৭, উইন্ডোজ ৮ বা উইন্ডোজ ১০ এর মধ্যে যেকোনো একটি ভার্সন operating system ব্যবহার করেন। এবং, এই কয়টি OS বা operating system এর সব থেকে বেশি পিসি সফটওয়্যার আপনারা ইন্টারনেটে ফ্রীতেই পেয়ে যাবেন।

তাহলে, যদি আমরা ফ্রীতেই অনেক হাজার হাজার পিসি সফটওয়্যার ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করেনিতে পারি, তাহলে যেগুলো পিসির জন্য অনেক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার বা যেগুলো সফটওয়্যার কম্পিউটারে থাকা দরকার, সেগুলি আপনারা কেন ব্যবহার করছেননা।

তাই চলুন, আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা কম্পিউটারের বা ল্যাপটপের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ এবং অনেক জরুরি উইন্ডোজ সফটওয়ারের (windows software) বেপারে জেনেনেই।

Also readকম্পিউটার সফটওয়্যার ডাউনলোড করার ৭ ফ্রি ওয়েবসাইট

কম্পিউটারের জন্য ১১ টি অনেক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার

নিচে আমি যেসব পিসির জন্য জরুরি সফটওয়্যারের বেপারে বলবো সেগুলো আপনারা ফ্রীতেই গুগলে সার্চ করে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এবং, তাছাড়া আমি কিছু সফটওয়্যার এর ডাউনলোড লিংক নিচে অবশই দিয়ে দিবো।

১. Avast antivirus – পিসি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার

আপনারা যদি কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, বা অন্যদের থেকে ফাইল, ভিডিও বা যেকোনো জিনিস নিজের কম্পিউটারে আনা নেয়া করেন, তাহলে একটি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার আপনার উইন্ডোজ সিস্টেমের জন্য অনেক অনকে জরুরি।

কারণ, এন্টিভাইরাস ছাড়া আপনার কম্পিউটারে বা ল্যাপটপে যেকোনো সময় যেকোনো মাধ্যমে ভাইরাস (virus) ঢুকতে পারে। বিশেষ করে যদি আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। এবং, সেটা আপনার এবং আপনার কম্পিউটারের জন্য অনেক ক্ষতিকারক প্রমাণিত হবে।

অবশই পড়ুনকম্পিউটার ভাইরাস কি ? এর লক্ষণ, প্রকার, কারণ এবং ক্ষতি

তাই, নিজের সিস্টেমে (system) একটি ফ্রি হলেও antivirus software ব্যবহার করবেন। এবং, যখন কথা আসে একটি ফ্রি computer antivirus software এর তখন Avast আমার নজরে সবথেকে বেস্ট এবং ভালো এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার।

কারণ ফ্রি হলেও, এই এন্টিভাইরাস আপনার কম্পিউটারকে সব দিক দিয়ে ভাইরাস মুক্ত রাখতে সাহায্য করবে এবং যেকোনো রকমে আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ভাইরাস ঢুকতে দিবেনা।

Avast free antivirus এর কিছু ফিচারস (features) হলো “Block viruses and other malware, Detect viruses, ransomware, and other threats in real-time. তাহলে দেরি করবেননা, এখনই এই ফ্রি আভাস্ট (avast) ফ্রি এন্টিভাইরাস ডাউনলোড করে নিন।

২. IDM ফাইল ডাউনলোড সফটওয়্যার

IDM বা “ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার” একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপে থাকা অনেক জরুরি, যদি আপনারা নিজের সিস্টেমে ইন্টারনেট থেকে movies, games, music বা যেকোনো ফাইল ডাউনলোড করতে ভালো পান। ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার (Internet download manager) এমন একটি সফটওয়্যার যে ফাইল ডাউনলোডিং স্পিড (downloading speed) বাড়িয়ে আপনার যেকোনো ফাইল ইন্টারনেট থেকে অনেক জলদি জলদি ডাউনলোড করে দেয়।

এবং, আপনি যদি অনেক কম সময়ে ইন্টারনেটের থেকে যেকোনো বড়ো ফাইল, সিনেমা বা গেম অনেক কম সময়ে ডাউনলোড করে নিতে চান, তাহলে এই সফটওয়্যার আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং লাভজনক প্রমাণিত হতে পারে।

এমনিতে IDM (Internet download manager) আপনারা কয়েকদিনের জন্য ফ্রীতেই ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্তু, কিছুদিনের ফ্রি ব্যবহারের পর আপনার তাকে কিনে নিতে হবে। এমনিতে, গুগলে আপনারা সার্চ করলে, ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার আজীবন ফ্রীতেই কিভাবে ব্যবহার করবেন তার নিয়ম অনেক পেয়েযাবেন।

৩. Ispring free cam – স্ক্রিন রেকর্ডার সফটওয়্যার

আপনি যদি একটি ইউটিউবার  বা ইউটিউবের চ্যানেল বানানোর কথা ভাবছেন, তাহলে মনে রাখবেন আপনার একটি স্ক্রিন রেকর্ডার সফটওয়্যার এর প্রয়োজন অবশই হবে। পিসির একটি স্ক্রিন রেকর্ডার সফটওয়্যার ব্যবহার কোরে আপনারা নিজের কম্পিউটার বা ল্যাপটপের স্ক্রিনের ভিডিও রেকর্ড করে অনেক রকমের টিউটোরিয়াল ভিডিও বানাতে পারবেন এবং তারপর সেই ভিডিও গুলি ইউটিউবে আপলোড করতে পারবেন। এই করেই অনেকেই ইউটিউবের থেকে অনেক টাকা আয় করে নিচ্ছেন।

iSpring Free cam সফটওয়্যার টি একটি ফ্রি পিসি স্ক্রিন রেকর্ডার সফটওয়্যার যে HD format এ ভিডিও রেকর্ড করার সাথে সাথে আপনাকে ভিডিও এডিট করার অপসন ও দেন। এই ফ্রি সফটওয়্যার আপনি কোনো ads, watermark বা time limit ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবেন। বিশ্বাস করুন, ইউটিউবার দেড় জন্য এ অনেক কাজের স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ডার হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

৪. CCcleaner – System cleaner and booster

আমাদের কম্পিউটার নতুন অবস্থায় যেমন ফাস্ট এবং দ্রুত থাকে, তেমন ফাস্ট বা দ্রুত কিন্তু কিছু সময় পর থাকেনা। এর কারণ হলো, আপনি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ যত ব্যবহার করবেন ততই তার মধ্যে ক্যাশে (cache) ফাইল, কুকিজ (cookies), temporary files এবং আরো অনেক ধরণের ফাইল জমা হতে থাকে যেগুলি আমাদের কোনো কাজে আসেনা এবং এগুলির ফলে আমাদের কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেম (operating system) স্লো হয়ে যায়।

তাই, যদি আপনি এমন অপ্রয়োজনীয় ফাইল কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থেকে ডিলিট করে নিজের সিস্টেম ফাস্ট এবং দ্রুত করে নিতে চান তাহলে CCcleaner software আপনার অনেক কাজে আসবে। এ আমাদের ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের জন্য অনেক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার হিসেবে আমি অবশই বলবো।

সিসি ক্লিনার (CCcleaner) আপনার কম্পিউটারে জমা হওয়া সব ধরণের অপ্রয়োজনীয় file, cache, cookies file রিমুভ করে এবং আপনার কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেম অনেক ফাস্ট এবং দ্রুত করে দেয়। এতে, আপনার কম্পিউটার নতুন অবস্থার মতোই কাজ করা শুরু করে।

৫. Share x – স্ক্রিন ক্যাপচার সফটওয়্যার

এমনিতে  কম্পিউটারে স্ক্রিন শট কিভাবে নিবেন, এর বেপারে আমি আপনাদের আমার আগের আর্টিকেল বলেছি। কিন্তু, Share x এমন একটি মজার সফটওয়্যার যার দ্বারা আপনারা উইন্ডোজ কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপে না কেবল স্ক্রিনশট নিতে পারবেন কিন্তু তার সাথেই সেই স্ক্রিন শট গুলি এডিট করতে পারবেন।

আপনি যদি একটি ব্লগার, তাহলে বিভিন্ন টিউটোরিয়াল আর্টিকেলের জন্য এই স্ক্রিন ক্যাপচার (screen capture) সফটওয়্যার ব্যবহার করে স্ক্রিনশট নিতে পারবেন এবং তার সাথে সেই স্ক্রিনশট গুলি একসাথেই সেখানে এডিট করে সবটাই করেনিতে পারবেন। ব্লগার দেড় জন্য share x অনেক কাজের সফটওয়্যার হিসেবে প্রমাণিত হবে।

Share x এর কিছু স্ক্রিন শট এডিটিং ফিচারস (editing features) হলো – annotating, adding effects, watermarking, uploading and printing আরো অনেক।

৬. Nero – Disc Image burner

আপনারা যদি নিজের কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থেকে যেকোনো ফাইল, ভিডিও, গেম বা সিনেমার CD বা DVD disc বানাতে চান তাহলে আপনার প্রয়োজন হবে একটি disc image burner সফটওয়্যার এর। এবং, সবচেয়ে বিশ্বাসী এবং বিখ্যাত ইমেজ বার্নার সফটওয়্যার হলো Nero . Nero র ব্যবহার করে আপনারা নিজের কম্পিউটার থেকে যেকোনো file এর CD বা DVD dic বানাতে পারবেন।

৭. AnyDesk – Remote desktop sharing tool

এই কম্পিউটার সফটওয়্যার হয়তো অনেকেরি কাজে নাও আসতে পারে। কিন্তু, সময়ে এবং যার দরকার তার জন্য anydesk অনেক অনেক কাজের। AnyDesk সফটওয়্যার, নিজের computer বা laptop এ ইনস্টল বা ব্যবহার করে, আপনারা যেকোনো কম্পিউটার থেকে অন্য যেকোনো কম্পিউটার দূরবর্তী অবস্থান থেকে (remotely) নিয়ন্ত্রণ (control) বা প্রবেশ (access) করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে, দুটো কম্পিউটার বা ল্যাপটপেই AnyDesk সফটওয়্যার ইনস্টল করা থাকতে হবে এবং দুটো কম্পিউটার ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত (connected) থাকতে হবে।

৮.  Winrar – File extractor and compressor

আপনারা যদি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে software বা games ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড কোরে ব্যবহার করার কথা ভাবছেন, তাহলে মনে রাখবেন winrar software আপনার কম্পিউটারের জন্য অনেক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার হিসেবে প্রমাণিত হবে।

কারণ, বেশিরভাগ ফ্রি সফটওয়্যার, কম্পিউটার গেমস এবং ফাইল যখন আমরা ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করি তখন সেগুলো কম্প্রেসড (compressed), রার (RAR) বা zipped ফরম্যাটে থাকে। এবং, সেই compressed বা zipped file ওপেন (open) করার জন্য আমাদের winrar software এর ব্যবহার করতে হয়।

আমি, ১০০% বলতে পারবো, যদি আপনার কম্পিউটারে উইনরার (winrar) নেই, তাহলে আপনি বেশিরভাগ সফটওয়্যার বা গেমস নিজের কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ডাউনলোড করার পর সেগুলি ইনস্টল করতেই পারবেননা।

অবশ্যই পড়ুন কম্পিউটারের গেমস ডাউনলোড করার সেরা ওয়েবসাইট

৯. Google Chrome – ইন্টারনেট ব্রাউসার

নিজের কম্পিউটার থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করার মজাই আলাদা। ইউটিউবে গিয়ে ভিডিও দেখা, ইউটিউবের থেকে ভিডিও ডাউনলোড করা, অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়াতে চ্যাটিং করা, অনলাইন সিনেমা দেখা বা পার্সোনাল কাজ করা। এইগুলো সব আমরা নিজের কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপে ইন্টারনেটের মাধ্যমে করতে পারি।

কিন্তু, আপনারা জানেন, কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য আমাদের একটি ওয়েব ব্রাউজারের (Web browser) প্রয়োজন হয়। একটি, web browser ব্যবহার করেই আমরা ইন্টারনেট এর ব্যবহার নিজের কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা মোবাইলে করতে পারি।

এবং, সব ধরণের ওয়েব ব্রাউসারের মধ্যে Google chrome সব থেকে সেরা, ফাস্ট, অ্যাডভান্সড (advanced) এবং নিরাপদ হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে। Chrome web store এর সাহায্যে, extensions বা plugins ইনস্টল করে আপনারা এর ক্ষমতা এবং কাজ আরো মজাদার (interesting) করে নিতে পারবেন। Google chrome গুগলের একটি product বা সার্ভিস। এবং তাই, এর গুন্ এবং চাহিদাও বেশি।

১০. Whatsapp web – PC version

এখন আপনারা নিজের ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ (whatsapp) সফটওয়্যার ডাউনলোড করে তারপর তাতে whatsapp ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার কেবল, সফটওয়্যারটি ডাউনলোড কোরে নিজের পিসিতে ইনস্টল করতে হবে। তারপর, আপনি নিজের whatsapp account কম্পিউটারের সাথে connect করে কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন।

১১. KMplayer- ভিডিও প্লেয়ার

একটি কম্পিউটারে বিভিন্ন রকমের ভিডিও দেখা বা সিনেমা দেখার মজাই আলাদা।এবং, কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ভিডিও দেখার জন্য আপনার একটি উন্নত এবং অ্যাডভান্সড video player software এর প্রয়োজন হবে। এই ক্ষেত্রে, KMplayer এ ভিডিও দেখে আপনারা অনেক আনন্দ পাবেন এবং এ প্রায় সব রকমের format এর ভিডিও চলিয়ে দিতে পারে। ভালো ভালো full HD ভিডিও আপনারা এর দ্বারা পিসিতে চালাতে পারবেন।

KM player সফটওয়্যার আপনারা গুগলে সার্চ করে অনেক সহজে এবং ফ্রীতেই ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, আপনারা যদি একটি নতুন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ কিনেছেন এবং নিজের পিসির জন্য কিছু প্রয়োজনীয় এবং দরকারি উইন্ডোজ সফটওয়্যারের ব্যাপারে জানতে চাচ্ছেন, তাহলে ওপরে দেয়া সবগুলি সফটওয়্যার আপনার পিসির জন্য অনেক জরুরি। আশা করি, আমি আপনাদের এই বেপারে সাহায্য করতে পারলাম।

আপনাদের যদি অন্য কোনো প্রশ্ন বা নতুন বিষয়ে আর্টিকেল চান, তাহলে কমেন্ট বা ইমেইল এর মাধ্যমে আমাকে জানান। আমি আপনাদের অবশই সাহায্য করবো। শেষে, আর্টিকেল ভালো লেগে থাকলে, শেয়ার অবশই করবেন। ধন্যবাদ।