অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন 200 টাকা ইনকামের ব্যবহারিক উপায়

বর্তমান সময়ে অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করাটা, ঘরে বসে কোনো বিনিয়োগ ছাড়া পার্ট-টাইম ইনকামের একটি জনপ্রিয় উপায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সঠিক প্লাটফর্ম এবং প্রক্রিয়া ব্যবহার করার মাধ্যমে, অনলাইনে কাজ করে দৈনিক ৪০০-৫০০ টাকা ইনকাম করাটাও অনেক সোজা।

প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম
How to earn 200 daily working online?

তবে বেশিরভাগ লোকেরা এই অনলাইন কাজ গুলিতে অধিক আগ্রহী হওয়ার মূল কারণটি হলো, এই কাজ গুলি ঘরে বসে খালি সময়ে করা যায়। তাই, অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে সারাদিন নিজের computer/laptop-এর পাশে বসে থাকতে হবেনা। যখনি খালি সময় পাবেন, এই অনলাইন কাজ গুলো করতে পারবেন।

আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটির মধ্যে, নানান অনলাইন কাজের মাধ্যমে প্রতিদিন কমেও 200 টাকা ইনকাম করার জন্য কি কি কার্যকর উপায় গুলো রয়েছে সেই বিষয়ে অনেক সাধারণ ভাবে বুঝিয়ে বলা হয়েছে।

প্রতিদিন ২০০ টাকা আয় করাটা এই মুহূর্তে অনেক সামান্য লাগছে যদিও, সময়ের সাথে সাথে নিজের ইনকাম অবশই বাড়িয়ে নেওয়া যাবে। নিচে, অনলাইনে ফ্রিতে টাকা ইনকাম করার যেই উপায় গুলি আমি বলেছি, সেগুলির বেশিরভাগ উপায় ব্যবহার করে দিনে হাজার হাজার টাকা পর্যন্ত লোকেরা ইনকাম করতে পারছেন।

তবে যা আমি আগেই বলেছি, এই উপায় গুলি ব্যবহার করে অনলাইনে ইনকাম করার ক্ষেত্রে সময়, পরিশ্রম এবং সঠিক প্রক্রিয়ার প্রয়োজন।

অবশই পড়ুন:

অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করার জন্য কিসের প্রয়োজন?

যখন আপনি অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন, তখন আপনাকে কোনো ধরণের ফ্যান্সি আইটেম কেনার বা বিশেষ কোনো প্রশিক্ষণের প্রয়োজন নেই।

তবে, সঠিক পদক্ষেপ, কিছুটা সৃজনশীলতা এবং নিয়মিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে আপনি আপনার এই প্রতিদিন ২০০ টাকা ইনকাম করার আপনার এই অনলাইন যাত্রা শুরু করতে পারেন।

অনলাইনে ইনকাম করার ক্ষেত্রে মূলত, সবচেয়ে আগেই আপনাকে নিজের কৌশল, ভালোলাগা বিষয় এবং আপনি কোন বিষয়ে আগ্রহী, এই বিষয় গুলি নিয়ে চিন্তা করা জরুরি। আর এই ভাবেই আপনি আপনার কাজের একটি “niche” বা “skill” খুঁজে পেতে পারবেন।

কাজের একটি নির্দিষ্ট skill বা niche, অনেক জরুরি একটি বিষয় এবং আপনার অনলাইন ইনকাম ক্যারিয়ারটি সম্পূর্ণভাবে এর ওপরেই নির্ভর করে থাকে।

আপনার কাজের skill বা niche এমন যেকোনো একটি কৌশল, টপিক, বিষয় বা প্লাটফর্ম হতে পারে, যেটিতে আপনি সত্যিই ভাল বা যে বিষয়ে আপনার অনেক জ্ঞান আছে।

উদাহরণ স্বরূপ: ধরুন আপনি লেখালেখি করতে পছন্দ করেন বা সুন্দর ভাবে গিটার বাজাতে জানেন, এক্ষেত্রে লেখালেখি এবং গিটার বাজানো দুটোই আপনার কৌশল এবং এই কৌশল দুটি কাজে লাগিয়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার নানান সুযোগ গুলো রয়েছে। এছাড়া, হতে পারে ফিটনেস এবং সুস্থ থাকা নিয়ে হয়তো আপনি অনেক জানেন, এক্ষেত্রে এটাকেও “niche” হিসেবে নিয়ে অনলাইনে কাজ করতে পারবেন।

একটি niche বা দক্ষতা নির্বাচন করার মানে হলো, আপনার বিশেষত্ব গুলিকে বাছাই করা। তাই, যখনি আপনি অনলাইনে কাজ খুজবেন, তখন নিজের এই niche বা skills গুলির উপরে ফোকাস রেখেই কাজ খুঁজতে হবে।

কেননা, যখন আপনি কেবল সেই কাজ গুলো করে থাকেন যেগুলোর বিষয়ে আপনি আগের থেকেই অনেক জানেন, তখন কাজ গুলি একেবারে সঠিক ভাবে এবং সহজেই করতে কোনো ধরণের সমস্যা আপনার হবেনা।

এতে, নিয়মিত কাজ পাওয়ার সুযোগ অনেক বেশি থাকবে আর তাই ইনকামের সুযোগও অধিক বাড়বে।

রিলেটেড: বর্তমানের সেরা ৯টি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ গুলো

ইন্টারনেট থেকে প্রতিদিন ১০০ থেকে ২০০ টাকা ইনকাম করাটা কতটা সহজ?

নিচে দিয়ে দেওয়া এই অনলাইন ইনকামের উপায় গুলোর বেশিরভাগ উপায় ব্যবহার করেই বিশ্বজুড়ে অসংখ্য লোকেরা ঘরে বসে নিয়মিত অর্থ উপার্জনের সুযোগ পেয়েছেন।

এখন, সঠিক প্লাটফর্ম গুলি ব্যবহার করে নিয়মিত সঠিক ভাবে কাজ করতে পারলে অনলাইনে আনলিমিটেড টাকা ইনকামের সুযোগ অবশই রয়েছে। তবে, টাকা ইনকাম করাটা কতটা সহজ বা সোজা সেটা কিন্তু সম্পূর্ণভাবে আপনার কৌশল এবং দক্ষতার উপর নির্ভর করছে।

যদি আপনি এমন একজন ব্যক্তি যে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেটের সাধারণ ব্যবহার ভালো করেই জানেন এবং অনলাইন ইনকামের ক্ষেত্রে যেই উপায় বা প্লাটফর্মটি বেছে নিয়েছেন সেই বিষয়েও জ্ঞান আছে, তাহলে টাকা ইনকাম করাটা আপনার জন্য তেমন কোনো কঠিন কাজ বলে মনে হবেনা।

উদাহরণ স্বরূপ, আপনি আমাকেই দেখতে পারেন। আমি ফুল-টাইম ব্লগিং করে অনেক সহজেই প্রতিদিন 200 থেকে ৫০০ টাকা ইনকাম করে নিতে পারছি।

তবে ব্লগিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করাটা আমার জন্য একটি অনেক সহজ ব্যাপার কেন জানেন? কারণ আগের থেকেই আমার মধ্যে প্রযুক্তি, ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট এবং লেখালেখি নিয়ে প্রচুর রুচি রয়েছে।

আর তাই, নিজের ব্লগ সাইটে নিয়মিত আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করতে আমার সন্তুষ্টির অনুভব হয়, তবে প্রচুর পরিশ্রম করতে হলেও সেটা পরিশ্রম বলে মনে হয়না।

তাই, অনলাইনে প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনি যেই কাজটি করছেন, সেই কাজের সাথে জড়িত বিষয় গুলি যদি আগের থেকেই আপনার জানা থাকে এবং কাজটি আনন্দ মনে সন্তুষ্টির সাথে করতে পারেন, তাহলে অনলাইনে টাকা ইনকাম করাটা আপনার ক্ষেত্রেও অনেক সহজ হয়ে দাঁড়াবে।

রিলেটেড: এড দেখে টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট (2023)

প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম করার জন্য এই অনলাইন কাজ গুলো করা যাবে:

এখন নিচে সরাসরি সেই প্রত্যেকটি কার্যকর উপায় বা প্লাটফর্ম গুলির বিষয়ে আমি আপনাদের বলবো যেগুলিকে কাজে লাগিয়ে অনলাইনে প্রতিদিন ১০০ থেকে ২০০ টাকা আরামে ইনকাম করার সুযোগ তৈরি করতে পারবেন।

  1. ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম
  2. আর্টিকেল রাইটিং
  3. কনটেন্ট ক্রিয়েশন
  4. অনলাইন সার্ভে ওয়েবসাইট
  5. মাইক্রোজব ওয়েবসাইট
  6. অনলাইন সেলিং মার্কেটপ্লেস
  7. PTC ওয়েবসাইট
  8. App/website refer program

চলুন, অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করার এই প্রত্যেকটি উপায়, মাধ্যম বা প্লাটফর্ম গুলির বিষয়ে নিচে বিস্তারিত জেনেনেই।

১. ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম

অনলাইনে কাজ করে নিয়মিত ১০০ থেকে ২০০ টাকা ইনকাম করার জন্য আপনি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম গুলি ব্যবহার করতে পারবেন।

Upwork, Fiverr, guru.com, Freelancer, ইত্যাদির মতো নানান জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট/ মার্কেটপ্লেস গুলি রয়েছে, যেগুলিতে নিজের একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরি করে নানান কাজ গুলি করার মাধ্যমে নিয়মিত ইনকাম করা যাবে।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার ক্ষেত্রে আপনার কোনো একটি নির্দিষ্ট দক্ষতা জানা থাকতে হবে। যেমন ধরুন, content writing, video editing, coding, web designing, graphics design ইত্যাদি।

আপনি যেই বিষয়ে দক্ষ সেই বিষয়ের সাথে জড়িত কাজ গুলো গ্রহণ করে বিশ্বজুড়ে নানান কোম্পানি এবং ব্যক্তিদের জন্য কাজ করে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৫০০ টাকা সহজেই ইনকাম করতে পারবেন।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে হয়, এই বিষয়ে কিছুটা জানা থাকলেই সরাসরি কাজটি শুরু করা যাবে।

কি কি করতে হবে? কিভাবে শুরু করবেন ফ্রিল্যান্সিং?

  • প্রথমে, আপনাকে নিজের একটি ফ্রিল্যান্সিং একাউন্ট তৈরি করতে হবে।
  • নিজের প্রোফাইলটিতে তথ্য এবং ছবি যুক্ত করে প্রোফাইলটি আকর্ষণীয় বানাতে হবে।
  • আপনি লোকেদের কি পরিষেবা দিতে চান, সেটা লিখে পাবলিশ করুন।
  • আপনাকে দিয়ে কেও কাজ করাতে ইচ্ছুক থাকলে, সে আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।
  • সময় মতো সঠিক ভাবে কাজ করে জমা দিন এবং কাজের বিনিময়ে টাকা নিয়ে নিন।

মনে রাখবেন, এক্ষেত্রে আপনি যত ভালো ভাবে কাজ করবেন, অন্যদের কাছে আপনার প্রোফাইলটি ততটাই আকর্ষণীয় এবং বিশ্বস্ত দেখাবে। এতে প্রচুর কাজ পাওয়ার সম্ভাবনাও বাড়বে।

অবশই পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং এ কোন কাজের চাহিদা অনেক বেশি?

২. আর্টিকেল রাইটিং

অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন ২০০ টাকা আয় করার ক্ষেত্রে আমার সব থেকে প্রিয় ও কার্যকর উপায়টি হলো, “কনটেন্ট রাইটিং জব”।

এক্ষেত্রে শুরুতে আপনাকে কিছু জনপ্রিয় website/blog মালিকদের সাথে যোগাযোগ করে তাদের ওয়েবসাইটের জন্য আর্টিকেল লিখার কথা বলতে হবে। এবার, কিছু ওয়েবসাইটের অ্যাডমিন বা মালিক হয়তো আপনার ইমেইল এর রিপ্লাই নাও দিতে পারে।

তবে, ১০ জনের মধ্যে অন্তত ২ জন হলেও আপনাকে রিপ্লাই করবেন। এভাবেই যদি আপনি প্রতিদিন ২-৩ টি ওয়েবসাইটেও আর্টিকেল লেখার কাজ পেয়ে থাকেন, তাহলে দিনে ২০০ থেকে ৫০০ টাকা আরামে ইনকাম করে নিতে পারবেন।

তবে মনে রাখবেন, এই কাজের ক্ষেত্রে লেখালেখি নিয়ে আপনার সাধারণ অভিজ্ঞতা থাকা জরুরি। এছাড়া, কিভাবে একটি সেরা আর্টিকেল লিখতে হয়, সেটা নিয়েও জ্ঞান থাকা দরকার।

এই মাধ্যমে ওয়েবসাইট গুলির জন্য ইংলিশ বা বাংলা আর্টিকেল লিখে নিয়মিত ইনকাম অবশই করা যাবে।

এই বিষয়ে ধ্যান রাখতে হবে:

  • এক্ষেত্রে, SEO optimized আর্টিকেল লিখতে জানলে ভালো।
  • বাংলা আর্টিকেল গুলি লিখেও প্রচুর ইনকাম করা যায়।
  • আর্টিকেল লিখার বদলে PPW (Pay Per Word) হিসেবে চার্জ করতে পারবেন।

৩. কনটেন্ট ক্রিয়েশন

YouTube, Blogging, Podcast, TikTok, ইত্যাদির মতো নানান online content creation platform গুলি আছে যেগুলিতে নিয়মিত কনটেন্ট পাবলিশ করেও ভালো মানের ইনকাম সম্ভব। এক্ষেত্রে আপনার পছন্দ, রুচি এবং কৌশল গুলো প্রচুর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

কেননা, যেই ব্যক্তি একটি সেরা ব্লগ আর্টিকেল লিখতে পারবেন সে হয়তো একটি সেরা ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করতে পারবেননা। আবার, যেই ব্যক্তি পডকাস্ট রেকর্ড করতে দক্ষ সে হয়তো আবার টিকটক-এ শর্ট ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে নাও পারতে পারেন।

তাই, অনলাইনে নানান কনটেন্ট তৈরির প্লাটফর্ম গুলি ব্যবহার করে প্রতিদিন টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনাকে একটি সঠিক এবং আপনার রুচি আছে এমন প্লাটফর্ম সিলেক্ট করতে হবে।

একবার এই অনলাইন কনটেন্ট পাবলিশ প্লাটফর্ম গুলিতে আপনার প্রচুর followers, views, subscribers হয়ে গেলে, তারপর নিজের কনটেন্ট গুলিতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৩০০ টাকা আরামে ইনকাম করতে পারবেন।

এমনিতে, টিকটক থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এবং কিভাবে ইউটিউব থেকে ইনকাম করবেন, সেই বিষয়ে আলাদা ভাবে আর্টিকেল লিখে বুঝিয়ে দিয়েছি।

সেরা কয়েকটি অনলাইন কনটেন্ট তৈরির প্লাটফর্ম:

  • YouTube.com – ভিডিও তৈরি করে ইনকাম।
  • Blogger.com – ফ্রীতে ব্লগ সাইট তৈরি করে আর্টিকেল পাবলিশ করে ইনকাম।
  • TikTok – শর্ট ভিডিও বানিয়ে ইনকাম।

৪. অনলাইন সার্ভে ওয়েবসাইট

যদি আপনার কাছে কমেও ১ থেকে ২ ঘন্টা খালি সময় আছে, তাহলে অনেক সহজেই কেবল নিজের মতামত গুলো শেয়ার করে দিনে ১০০-২০০ টাকা ইনকাম করে নিতে পারবেন। তবে, এর জন্য আপনাকে ব্যবহার করতে হবে নানান survey website গুলো।

অনলাইনে পেইড সার্ভে করে ইনকাম করার বিষয়টি বর্তমানে প্রচুর জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। চলুন, বিষয়টা একটু খোলাখুলি ভাবে জেনেনেই।

ইন্টারনেটে এমন প্রচুর paid survey platform গুলো রয়েছে যেগুলিতে গিয়ে একজন ইউজার হিসেবে রেজিস্টার করে নানান সমীক্ষা (survey) গুলো সম্পূর্ণ করার মাধ্যমে টাকা ইনকামের সুযোগ পাবেন।

এই সমীক্ষা গুলো নানান brand, company, product বা service গুলির সাথে জড়িত থাকতে পারে। এগুলির সাথে জড়িত আপনার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা, মতামত এবং পরামর্শ গুলি, সমীক্ষাতে প্রশ্ন হিসেবে জিজ্ঞাসা করা যেতে পারে।

মনে রাখবেন, প্রতিটি সার্ভে সম্পূর্ণ করতে প্রায় ২ মিনিট থেকে ৩০ মিনিটের সময় লাগতে পারে। তবে, কোনো সমীক্ষা সম্পূর্ণ করতে যত বেশি সময় লাগবে, সেটা সম্পূর্ণ করে ততটাই অধিক রিওয়ার্ড আয় করার সুযোগ পাবেন।

সমীক্ষা (survey) করে টাকা ইনকামের ওয়েবসাইট:

  • Swagbucks
  • Survey Junkie
  • InboxDollars
  • Toluna
  • ySense

৫. মাইক্রোজব ওয়েবসাইট

যখন কথা হচ্ছে, ইন্টারনেট থেকে প্রতিদিন কমেও ৫০ থেকে 200 টাকা ইনকাম করার, তখন এক্ষত্রে আমরা ব্যবহার করতে পারি নানান GPT (Get Paid To) ওয়েবসাইট গুলো।

এই ধরণের টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট গুলোতে আমরা নানান ছোট ছোট কাজ গুলো সম্পূর্ণ করে অনলাইন ইনকামের সুযোগ পাই। যেমন ধরুন, অনলাইনে গেম খেলে, সার্ভে সম্পূর্ণ করে, নতুন নতুন ওয়েবসাইট বা অ্যাপ গুলো ব্যবহার ও ইনস্টল করে ইত্যাদি।

এছাড়া, এই ধরণের বেশিরভাগ ওয়েবসাইট গুলোতেই একটি রেফারেল প্রোগ্রাম থাকে। তাই, ওয়েবসাইট গুলি অন্যান্য ব্যক্তিদের রেফার করেও অতিরিক্ত ইনকাম করা সম্ভব।

তবে মনে রাখা দরকার যে, ওয়েবসাইট গুলিতে কাজ করে প্রতিদিন টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনাকে একাধিক সাইট গুলিতে কাজ করতে হবে। কারণ, কেবল একটি ওয়েবসাইট থেকে প্রতিদিন ইনকাম করার মতো এতো বেশি কাজ আপনারা পাবেননা।

অবশই পড়ুন: টাকা আয় করার রিয়েল বিদেশি ইনকাম সাইট

কয়েকটি সেরা GPT ওয়েবসাইট:

  • Freecash.com
  • GptPlanet
  • Swagbucks
  • Prizerebel
  • ySense

৬. অনলাইন সেলিং মার্কেটপ্লেস

Facebook marketplace, Etsy, Amazon, ইত্যাদি এমন প্রচুর অনলাইন মার্কেটপ্লেস গুলো রয়েছে যেগুলোতে গিয়ে আপনি আপনার নিজের প্রডাক্ট গুলো বিক্রি করতে পারবেন।

যদি আপনার কাছে এমন একটি পণ্য রয়েছে যেটির চাহিদা বর্তমানে অনেক, তাহলে সরাসরি Facebook Marketplace-এর মধ্যে গিয়ে সেই পণ্যের তথ্য এবং ছবি সহ সেটিকে আপলোড করে দিন।

এবার, যদি কোনো ব্যক্তি আপনার পণ্যটি কিনে নিতে চাইবেন, সে ফেসবুকেই আপনার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করে নিতে পারবেন।

প্রতিদিন ২০০ থেকে ৩০০ টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে এমন একটি পণ্যের নির্বাচন করা দরকার যেটিকে কম দামে বিক্রি করা যাবে তবে প্রতি বিক্রির থেকে ৫০ থেকে ৬০ টাকা লাভ রাখা যাবে।

Facebook marketplace-এর দ্বারা বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার ব্যক্তিরা নানান পণ্য গুলি অনলাইনে বিক্রি করে নিয়মিত টাকা ইনকামের সুযোগ ও সুবিধা পাচ্ছেন। যেমন ধরুন, মেয়েদের কাপড়, ছেলেদের শার্ট, গেঞ্জি, গ্যাজেট, ইলেকট্রনিক্স ইত্যাদি।

সোজা ভাবে বললে, Facebook marketplace-এর মাধ্যমে আপনি নিজের একটি অনলাইন ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। এমনিতে, ফেসবুকে অনলাইন ব্যবসা কিভাবে শুরু করবেন, এই বিষয়ে আলাদা ভাবে বিস্তারিত আর্টিকেল আমাদের ব্লগে রয়েছে।

অবশই পড়ুন: কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায় ?

৭. PTC ওয়েবসাইট

PTC website, মানে মূলত Paid-to-click sites যেগুলির মাধ্যমে একজন ইউজার হিসেবে নানান বিজ্ঞাপন গুলো দেখে এবং বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে অনলাইন ইনকামের সুযোগ গুলো পাবেন।

অনলাইনে কাজ করে ইনকাম করার এই ওয়েবসাইট গুলির দ্বারা খুব সামান্য পরিমানে ইনকাম করা সম্ভব। তবে দিনে ২০০ টাকা ইনকাম করা যাবে কি না, সেটা ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করার পর বোঝা যাবে।

অনলাইনে বিজ্ঞাপদ দেখে ইনকাম করার এই ওয়েবসাইট গুলিতে কাজ করার জন্য কোনো ধরণের যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই।

এই ধরনের সাইট গুলিতে বিজ্ঞাপন দেখে হয়তো বেশি টাকা ইনকাম করা যাবেনা, তবে সাইট গুলির রেফারেল প্রোগ্রামে যুক্ত হয়ে প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

কিছু জনপ্রিয় PTC ওয়েবসাইট গুলো:

  • ySense
  • InboxDollar
  • Neobux
  • PaidVerts
  • GptPlanet

৮. App/website refer program

আপনি কি জানেন, ইন্টারনেট থেকে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার আরেকটি দারুন উপায় হিসেবে আপনি ব্যবহার করতে পারবেন এমন কিছু apps/website যেগুলিতে রয়েছে একটি referral program।

বর্তমান সময়ে, বেশিরভাগ apps এবং website গুলির একটি রেফারেল প্রোগ্রাম থেকে থাকে। আপনাকে মূলত এই ধরণের প্রোগ্রাম রয়েছে, এমন অ্যাপস বা ওয়েবসাইট গুলিকে অন্যান্য ব্যক্তিদের কাছে রেফার করতে হয়।

যখনই কোনো ইউজার আপনার শেয়ার করা লিংক/কোড ব্যবহার করে সেই অ্যাপটি ডাউনলোড করেন বা ওয়েবসাইটে রেজিস্টার করেন, তখন আপনাকে কিছু টাকা রেফারেল ইনকাম হিসেবে দিয়ে দেওয়া হয়।

এমন প্রচুর টাকা ইনকাম করার অ্যাপস গুলি রয়েছে, যেগুলিতে নানান ছোট ছোট টাস্ক গুলি সম্পূর্ণ করার পাশাপাশি অ্যাপটি অন্যান্য ব্যক্তিদের কাছে রেফার করেও রেফারেল ইনকাম আয় করার সুযোগ দেওয়া হয়।

রেফার করে ঝটপট টাকা ইনকাম করার সেরা ৮টি অ্যাপ সম্পর্কে আমি আগেই আপনাদের আলাদা আর্টিকেলের মধ্যে বলেছি। সেই আর্টিকেলটি অবশই পড়ুন।

এই apps গুলি রেফার করে দিনে ২০০ টাকা আরামে ইনকাম করা যাবে। তবে, app refer করার ক্ষেত্রে আপনার কাছে একটি শক্তিশালী ফলোয়ার বেস থাকা দরকার।

তাই, এক্ষেত্রে আপনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট, ইউটিউব চ্যানেল, ব্লগ ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারবেন।

রেফার করে ইনকাম করার কিছু অ্যাপস:

  • Google Pay
  • TaskBucks
  • ySense
  • Yeapp

FAQ: প্রতিদিন 200 টাকা ইনকাম:

প্রশ্ন: অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন টাকা ইনকাম করাটা কি সম্ভব?

যদি আপনি অনলাইন ইনকামের এমন একটি প্লাটফর্ম বা উপায় ব্যবহার করছেন যেটা বিশ্বস্ত এবং প্রমাণিত এবং যেটি ব্যবহার করে বর্তমানেও প্রচুর লোকেরা ইনকামের সুযোগ পাচ্ছেন, তাহলে আপনিও সেই উপায় গুলি কাজে লাগিয়ে অনলাইনে নিয়মিত ইনকাম করতে পারবেন।

প্রশ্ন: প্রতিদিন ২০০ টাকা আয় করার সেরা উপায় কি?

অনলাইনে কাজ করে প্রতিদিন অন্তত ২০০ থেকে ৫০০ টাকা ইনকাম করার জন্য আমার হিসেবে blogging, YouTube channel, অনলাইনে ছবি বিক্রি করা, ফ্রিল্যান্সিং ইত্যাদি এই ধরণের উপায় গুলি বিশ্বস্ত এবং সেরা।

প্রশ্ন: অনলাইনে কাজ করে ইনকাম করার জন্য কিসের প্রয়োজন?

যদি আপনি নিজের খালি সময়ে অনলাইনে কাজ করে নিয়মিত পার্ট-টাইম ইনকাম করার কথা ভাবছেন, তাহলে আপনার মধ্যে কিছু নির্দিষ্ট কাজের অভিজ্ঞতা, কৌশল, বেসিক ইন্টারনেট এবং কম্পিউটারের জ্ঞান থাকা দরকার।

আমার পরামর্শ:

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার যেকোনো উপায় বা ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করার আগে সেগুলির বিষয়ে খানিকটা যাচাই অবশই করবেন। ইন্টারনেটে থাকা নানান রিভিউ এবং আর্টিকেল গুলি পড়ার মাধ্যমে সেই ওয়েবসাইট এবং প্লাটফর্ম গুলির সত্যতা ভালো করে বুঝে নিতে পারবেন।

কেননা, ইন্টারনেটের এই দুনিয়াতে ভালোর সাথে সাথে প্রচুর খারাপ ওয়েবসাইট গুলিও রয়েছে যেগুলি ব্যবহার করে নানান মাধ্যমে আপনার ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। তাই, সতর্কতা বজায় রেখে এবং ভালো করে যাচাই করেই, অনলাইনে কাজ করে ইনকাম করার প্লাটফর্ম ও ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করা দরকার।

তবে, অনলাইন ইনকাম করার এমন প্রচুর বাস্তবসম্মত উপায় অবশই রয়েছে যেগুলির দ্বারা লোকেরা প্রিতিদিন 200 থেকে 1000 টাকা আরামে ইনকাম করে নিচ্ছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top