আজকাল স্কুলের স্টুডেন্ট হোক কি কলেজ স্টুডেন্ট বা আমাদের মতো চাকরি করা ছেলে মেয়েরা, সবাই আজ একটি বিশেষ android app মোবাইলে ব্যবহার করেন। এবং, সেটা হলো টিক টক মোবাই এপ। TikTok android app অনেক জলদি লোকেদের মাঝে অনেক প্রচলিত (famous) হয়ে দাঁড়িয়েছে। এবং Google play store এ এই মজার এপ্লিকেশন আজ অব্দি ৯৫,৭৬০৯৩ লক্ষ লোকেরা মোবাইলে ডাউনলোড করেছেন। তাহলে ভাবুনতো দেখি, কি হিসেবে এই app লোকেদের মাঝে প্রচলিত।

টিক টক কি ? কিভাবে চালাবেন
What is TikTok app ? How to use TikTok ?

যদি আপনিও এই টিক টক এপ ব্যবহার করতে চান এবং এই application এর বেপারে জানতে চান , তাহলে আমি আপনাদের সবটাই বুঝিয়ে বলবো। আমরা আজ জানবো, টিকটক app কি ? কিভাবে টিক টক চলাবেন বা ব্যবহার করবেন ? টিকটকে একাউন্ট কিভাবে বানাবেন ? এবং শেষে, টিকটকে ভিডিও কিভাবে বানাবেন আমরা আজ জানবো।

অবশই পড়ুন

আসলে আজকাল, সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক রকমের ছোট ছোট ভিডিও (short video) লোকেরা আপলোড করেন। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জেকেও নিজের মনের কথা ছোট ভিডিওর মাধ্যমে অন্য লোকেদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এবং আপনি যেকোনো রকমের ভালো ভালো ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারবেন।

এখন, TikTok এন্ড্রয়েড app এমন একটি social media app যেখানে আপনি ছোট ছোট ফানি টিক টক ভিডিও বানিয়ে আপলোড করে সেই ভিডিও গুলি অন্য লোকেদের সাথে শেয়ার করতে পারবেন। আপনি যদি ভিডিও বানাতে চাননা তাহলেও কোনো কথা নেই। টিক টকের হাজার হাজার লোকেরা আগের থেকে বানানো ফানি ভিডিও, কমেডি ভিডিও, entertainment videos দেখেই আপনার সময় কেটে যাবে।

যেমন, Facebook বা twitter এ লোকেরা নিজের মনের কথা স্টেটাস এবং ছবির মাধ্যমে লোকেদের সাথে শেয়ার করেন, ঠিক সেভাবেই Tiktok app এর মাধ্যমে লোকেরা নিজের মনের কথা, নিজের ভিতরের আর্টিস্ট (artist) বা মনের ভাব বিভিন্ন রকমের ভিডিওর মাধ্যমে লোকেদের সাথে শেয়ার করেন।

কেবল সাধারণ ভিডিও নয়। আপনি টিক টকের অনেক ভালো ভালো features ব্যবহার করে আকর্ষণীয় ভিডিও বানাতে পারবেন। এখানে বিশেষভাবে, entertainment videos, funny video, comedy video এবং এক্টিং ভিডিও (acting video) বানিয়ে লোকেরা আপলোড করেন বা সেগুলি দেখেন।

টিকটকে লোকেরা ভিডিও বানিয়ে বানিয়ে নিজেকে অনেক বিখ্যাত (famous) বানিয়ে নিচ্ছেন। আজ অনেক টিক টক আর্টিস্ট (artist) রয়েছেন যাদের অনেকেই চিনে। তাই, নিজেকে ভিডিওর মাধ্যমে বিখ্যাত এবং জনপ্রিয় বানানোর tiktok অনেক ভালো মাধ্যম।

এবং, আপনারা এইটা জেনে অবাক হবেন যে, এখন টিকটকে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন। হে, এইটা সত্যি এবং অনেকেই টিক টক ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করছেন। কিন্তু, এই ক্ষেত্রে আপনার হতে হবে অনেক ক্রিয়েটিভ (creative).

টিকটক এপ্লিকেশন (tiktok app) কি ?

টিক টক (tiktok) একটি সোশ্যাল মিডিয়া (social media) app যার দ্বারা আমরা অনলাইন short videos বানিয়ে শেয়ার করতে পারি এবং অন্যদের বানানো ভিডিও দেখতে পারি। কিছুটা, ইউটিউবের মতোই কিন্তু আবার ইউটিউবের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।

এই app অনেক কম সময়ে অনেক লোকেদের মধ্যে বিখ্যাত হয়ে পড়েছে। TikTok app সবচে আগে ২০১৬ তে চীন (china) দেশে সেপ্টেম্বর মাসে launch হয়েছিল। কিন্তু তখন তার নাম “douying” হিসেবে রাখা হয়েছিল। তারপর ১ বছর পর tiktok নাম দিয়ে মার্কেটে এই app প্রচার করা হলো।

TikTok সবচে বেশি বিখ্যাত, প্রচলিত এবং সেরা short video platform হিসেবে আজ মার্কেটে দাঁড়িয়ে রয়েছে। October ২০১৮ সালে U.S এর সবথেকে বেশি ডাউনলোড হওয়া app হিসেবে tiktok কে দেখা গেছে।

এই এপ্লিকেশন ব্যবহার করে আপনারা ৩ থেকে ১৫ সেকেন্ড এবং ৩ থেকে ৬০ সেকেন্ড এর ভেতরের শর্ট ভিডিও (short video) বানিয়ে প্রচার বা শেয়ার করতে পারবেন।

আজ নিজেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে লোকেদের মধ্যে বিখ্যাত (famous) বানানোর এবং প্রচার করার একটাই মাধ্যম রয়েছে। সেটা হলো, social media তে নিজের ভিডিওর মাধ্যমে। এবং, টিকটক এমন একটি মজার ভিডিও এপ, যেখানে আপনি নিজেকে লক্ষ লক্ষ দর্শক দেড় মাঝে বিখ্যাত বানিয়ে নিতে পারবেন।

টিক টক এপ্লিকেশন কিভাবে ডাউনলোড করবো ?

আপনি যদি android mobile ব্যবহার করছেন, তাহলে টিকটক এপ আপনি google play store থেকে ফ্রীতেই ডাউনলোড করতে পারবেন। যদি আপনার মোবাইলে প্লে স্টোর চলছেনা, তাহলে Google এ TikTok app সার্চ করে যেকোনো অন্য ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারেন।

কিভাবে টিক টক ব্যবহার করবেন ও চালাবেন ?

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন যারা TikTok কিভাবে চলায় বা ব্যবহার করে তার নিয়ম  জানতে চান। তবে হে, টিক টক কিন্তু যেকোনো অন্য এন্ড্রয়েড এপস এর মতোই যাকে ব্যবহার করা অনেক সহজ।

টিকটক কিভাবে ব্যবহার করবেন ?

স্টেপ ১.

এমনিতে টিকটক ব্যবহারের নিয়ম অনেক সোজা। যা আমি আগেই বললাম, আপনার প্রথমেই Google play store থেকে টিক টক এপ্লিকেশন ডাউনলোড এবং মোবাইলে ইনস্টল করতে হবে।

টিকটক ডাউনলোড করুন

এর পর সবটাইসহজ এবং যেভাবে আপনি অন্য এপস মোবাইলে ব্যবহার করেন ঠিক সেভাবেই টিক টক ভিডিও এপ আপনি চালাতে পারবেন।

স্টেপ ২.

এখন টিক টক ভিডিও এপ নিজেও মোবাইল ওপেন করতে হবে। TikTok android App ওপেন করার পর এখন আপনার একটি একাউন্ট রেজিস্টার করে নিতে হবে।

টিকটক একাউন্ট বানানোর নিয়ম

টিকটক একাউন্ট বানানোর জন্য আপনার ডানদিকে নিচে থাকা শেষ “profile icon” এ ক্লিক করতে হবে। ভালো করে বোঝার জন্য ওপরে ছবিটি দেখুন।

স্টেপ ৩.

এখন “profile icon” এ ক্লিক করার পর আপনি একাউন্ট খোলার কিছু অপসন দেখবেন। যেমন, Facebook, Google বা twitter একাউন্ট ব্যবহার করে একাউন্ট খোলা বা নিজের ইমেইল আইডি এবং মোবাইল নম্বর বেবহার করে একটি টিক টক একাউন্ট খোলা।

কিভাবে টিক টক একাউন্ট বানাবো ?

আপনি ওপরে ছবি দেখলে ভালো করে বুঝে যাবেন। তবে হে, যদি আপনার একটা গুগল বা জিমেইল একাউন্ট খোলা আছে, তাহলে সেটা বেবহার করে একাউন্ট তৈরি করাটা অনেক সহজ হবে।

তবে, আপনার যদি গুগল একাউন্ট, ফেসবুক একাউন্ট বা টুইটার একাউন্ট নেই, তাহলে সোজা ওপরে থাকা “Signup with phone or email” অপশনে ক্লিক করে, একটি ইমেইল আইডি বা মোবাইল নম্বর দিতে একাউন্ট বানাতে পারবেন। আপনি নিজের মতো করে টিক টক একাউন্ট খোলার মাধ্যম বেঁচে নিতে পারবেন। স

স্টেপ ৪.

এখন টিকটক একাউন্ট (tiktok acount) বানানোর পর আপনি অনেক সহজে নিজের একাউন্টে নিজের বানানো ভিডিও আপলোড করতে পারবেন। এখন আপনি, entertainment video বা funny video বা নিজের creativity ব্যবহার করে অনেক রকমের শর্ট ভিডিও (short video) ডাইরেক্ট TikTok একাউন্ট থেকে রেকর্ড করতে পারবেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবেন
কিভাবে টিকটক ভিডিও বানানোর ?

এখন হয়তো আপনাদের মনে একটাই প্রশ্ন ঘুরছে। সেটা হলো, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো ?বা ভিডিও বানানোর নিয়ম কি। তাই তো ?

তাহলে জেনেনিন, আপনি TikTok app এর নিচে থাকা “+” (যোগ ) আইকনে ক্লিক কোরে লাইভ ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

ভিডিও রেকর্ড করার সময় আপনি অনেক রকমের options এবং features পেয়েযাবেন। যেমন, ভিডিওর সাথে গান (music) যোগ করা, ভিডিও স্লো বা ফাস্ট করা এবং ভিডিও বানানোর সময় অনেক রকমের ভিডিও ইফেক্ট (effect) বেবহার করা।

কয়দিন বেবহার করলেই আপনি এর ভিডিও বানানোর সব নিয়ম না প্রক্রিয়ার বেপারে জেনেযাবেন।

স্টেপ ৫.

আপনি এখানে অন্যদের বানানো মজার ভিডিও দেখেই সময় কাটাতে পারবেন। আপনি সোজা app এ গিয়ে search option এ যান। এবং তারপর, অনেক রকমের ভিডিও সার্চ করে অন্যদের তৈরি করা ভিডিওর মজা নিন।

Search icon এ ক্লিক করার পরেই আপনাকে কিছু ট্রেন্ডিং (trending) এবং TikTok এর সবচে জনপ্রয় কিছু short video দেখিয়ে দেয়া হয়। আপনি সোজা সেগুলি দেখেই সময় কাটাতে পারবেন।

মজার টিকটক ভিডিও
Trending TikTok videos .

আপনিও অন্যদের মতোই কিছু ক্রিয়েটিভ ভিডিও বানিয়ে টিকটকে আপলোড করতে পারবেন এবং নিজের followers এবং fans বাড়িয়ে নিজেকে ভিডিওর মাধ্যমে জনপ্রিয় এবং বিখ্যাত বানিয়ে ফেলতে পারবেন।

টিকটক থেকে টাকা আয় করা সম্ভব ?

আমরা অনেক মুখেই এবং ইন্টারনেটে শুনেছি যে টিকটকে ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করা যাবে। হে এইটা সত্যি।

আপনি ভিডিও বানিয়ে তাতে লোকেদের দ্বারা দেয়া coins এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। আমি নিজেও এখনো সেরকম কোনো আয় বা ইনকাম টিক টক থেকে করিনাই। এবং তাই এবেপারে আমিও ঠিক ভালো করে জানিনা।

কিন্তু, এতটুকু জানি যে, যখন আপনার ভিডিও লোকেদের ভালো লাগে তখন তারা আপনাকে কিছু coins দিতে পারে। এবং, আপনি নিজের একাউন্টে পাওয়া সেই coins গুলিকে পরে টাকাতে কনভার্ট করতে পারবেন।

কিন্তু, ভিডিও বানিয়ে টাকা আয় করার এই মাধ্যম আমার মতে লাভ জনক না। হে, আপনি যদি নিজেকে famous বানাতে চান , ভিডিওর মাধ্যমে নিজের creativity বা acting লোকেদের দেখতে চান বা অন্যদের বানানো ভিডিও দেখে সময় কাটাতে চান, তাহলে TikTok আপনার অনেক অনেক ভালো লাগবে।

টাকা আয় করার জন্য টিকটক আমার মোতে বর্তমান লাভজনক না। আপনি যদি ভিডিও বানিয়ে অনলাইন টাকা আয় করতে চান তাহলে ইউটিউবে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয় করার বিষয়ে শিখুন। এই মাধ্যম আপনাকে সত্যি সীমাছাড়া অনলাইন ইনকাম করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, আশাকরি টিকটক কি, কিভাবে বেবহার করবেন এবং টিক টক ভিডিও কিভাবে বানাবেন এই বেপারে আমি আপনাদের ভালো করে বুঝিয়ে বলতে পারলাম। আপনাদের যদি কোনো প্রশ্ন বা সমাধান আমাদের জন্য থাকে, তাহলে নিচে কমেন্ট অবশই করবেন। ধন্যবাদ।

Related Contents: