আজকাল বাচ্ছাদের থেকে বুড়ো, সবাই কম্পিউটার বা ল্যাপটপে কাজ করতে হয়। এবং, যেকোনো অফিসে বেশির ভাগ কাজ অনলাইন এবং কম্পিউটারের দ্বারা করা হয়। এই ক্ষেত্রে, আপনার কম্পিউটারে টাইপিং স্পিড যদি ভালো না হয়, তবে হতে পারে আপনি কোনো ভালো চাকরি নাও পেতে পারেন। (Improve typing speed in computer).

Increase keyboard typing speed.

আপনি যতটা দ্রুত ভাবে কম্পিউটারে টাইপিং করতে পারবেন, ততটাই সহজে টাইপিং এর সাথে জড়িত যেকোনো চাকরি পাওয়ার সুযোগ আপনার কাছে থাকবে।

তাছাড়া, আজকাল ৭০% লোকেরা কম্পিউটারে সঠিকনিয়মে টাইপিং করেননা। এতে, কিবোর্ডে আপনার আঙ্গুল সঠিক ভাবে কাজ করেনা, আর ফলে আপনার দ্রুত ভাবে টাইপিং করার ক্ষমতা কমে যায়।

তাই, এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের এমন কিছু উপায় বলবো, যেগুলি ব্যবহার করলে কেবল ১ মাসের মধ্যে, কম্পিউটারে টাইপিং স্পিড অনেক বেড়ে যাবে।

সাধারণ লোকেদেড়, কম্পিউটারে টাইপিং করার ক্ষমতা 20 to 30 wpm থাকে যেটা অনেক বেশি কম।

কিন্তু, নিচে আমি আপনাদের বলা ৯ টি প্রক্রিয়া যদি আপনারা মন দিয়ে ভালো ভাবে অনুশীলন করেন, তাহলে 80 to 90 wpm অব্দি দ্রুত ভাবে টাইপ করতে পারবেন।

এখানে WPM মানে – “Words Per Minute“.

কম্পিউটারে দ্রুত টাইপিং করার উপায় এমনিতে অনেক রয়েছে।

এবং, এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের এমন কোনো চমৎকারিক উপায় বলবোনা যেগুলি করে কেবল রাতের মধ্যেই আপনার keyboard typing speed fast হয়ে যাবে।

এই আর্টিকেলে আমি কিছু ব্যবহারিক (practical) নিয়মের ব্যাপারে বলবো যেগুলির প্রত্যেকদিন অনুশীলন (practice) করলে, আপনার কম্পিউটার টাইপিং স্পিড ফাস্ট ও দ্রুত অবশই হবে।

তাছাড়া, কম্পিউটারের কীবোর্ডে সঠিক ভাবে টাইপিং করার নিয়ম গুলির ব্যাপারেও আমি আপনাদের এখানে বলবো।

কিভাবে কম্পিউটারে দ্রুত টাইপিং করা যাবে ? 

কম্পিউটারে দ্রুত ভাবে টাইপ করার দক্ষতা (skills) থাকলে, এই দক্ষতা আপনার জীবনে ও ক্যারিয়ারে পদে পদে কাজে আসবে।

যারা দ্রুত ভাবে টাইপ করতে পারেন ও কিবোর্ডে টাইপ করার সঠিক নিয়ম ব্যবহার করে টাইপ করেন, তারা যেকোনো corporate office, back office বা government job এর ক্ষেত্রে অন্যদের থেকে সব সময় আগে এগিয়ে থাকবে।

আপনি যদি একজন স্টুডেন্ট বা চাকরির জন্য খোঁজ করা শুরু করেছেন, তাহলে দেরি না করে, কীবোর্ড টাইপিং এর সঠিক নিয়ম এবং দ্রুত ভাবে টাইপিং কিভাবে করবেন এই ব্যাপার গুলি শিখে রাখুন।

তাহলে চলুন, আমরা এক এক করে নিচে ৯ টি এমন টিপস বা টেকনিক জেনেনেই, যেগুলি ব্যবহার করে আমরা আমাদের “typing speed improve” করতে পারি।

১. Keyboard home position ব্যবহার করুন  

কম্পিউটারের keyboardtyping speed দ্রুত করার জন্য সবচে প্রথম জিনিস যেটাতে আপনার নজর দিতে হবে সেটা হলো, “সঠিক নিয়ম ব্যবহার করে টাইপ করাটা“.

সবচে প্রথমে আপনার start position বা home position এর ব্যাপারে জেনে রাখতে হবে।

স্টার্ট position মানে, কিবোর্ডে সব সময় দান ও বাম হাথের প্রথম চারটি আঙুল (finger) তাদের নির্দিষ্ট বটনে (button) থাকতে হবে।

keyboard typing home position

বাম হাথে চারটি আঙুল (finger) হাথের শেষের আঙুল থেকে “A, S, D, F” বাটনে থাকতে হবে এবং দান দিকের হাথের প্রথম চারটি আঙুল হাথের শুরুর থেকে “J, K, L, ;” বাটনে থাকতে হবে।

কম্পিউটারের কিবোর্ডে টাইপ করার আগেই, এই স্টার্ট পসিশনে নিজের হাথের আঙুল গুলো রেখে টাইপিং শুরু করতে হবে।

এবং, আপনার টাইপিং হয়ে যাওয়ার পর আবার সেই home position এ হাথের আঙুল নিয়ে যেতে হবে।

মনে রাখবেন, keyboard এর home position থেকে পুরো কিবোর্ডের বাটন গুলি অনেক সহজেই খুঁজে পাওয়া যাবে।

তাই, keyboard এর start position থেকে টাইপিং করার চর্চা (practice) করাটা এখনই শুরু করুন। এতে, আপনার টাইপিং স্পিড অনেক দ্রুত হয়ে যাবে।

Home position ব্যবহার করার সাথে সাথে অবশই হাথের প্রত্যেক আংগুল (finger) ব্যবহার করবেন।

এতে, অনেক সহজেই বাটন গুলি খুঁজে পাবেন এবং টাইপিং স্পিড অবশই বেড়ে যাবে।

২. শর্টকাট ব্যবহার করুন 

কিবোর্ডে টাইপিং করার সময় যদি আপনার কিছু জরুরি কীবোর্ড শর্টকাট কোড (keyboard shortcut) জানা থাকে, তাহলে যেকোনো presentation তৈরি করার সময় আপনার অনেক সাহায্য হবে এবং, অনেক দ্রুত ভাবে আপনি নিজের লেখা লেখির কাজ করতে পারবেন।

যেমন, কিবোর্ডে Ctrl+C টাইপ করলে যেকোনো লেখা সহজে কপি (copy) হয়ে যাবে।

Ctrl + V টাইপ করে যেকোনো কপি করা ইমেজ বা টেক্সট সহজে পেস্ট (paste) করা যাবে।

এভাবেই অনেক ধরণের কীবোর্ড শর্টকাট রয়েছে, যেগুলি ভালো করে জেনে নিলেই, আপনি যেকোনো টাইপিং এর কাজ অনেক দ্রুত ভাবে করতে পারবেন।

৩. টাইপিং দ্রুত করার সফটওয়্যার 

ইন্টারনেটে এমন অনেক ফ্রি সফটওয়্যার ও অনলাইন টুল রয়েছে, যেগুলি ব্যবহার করে আপনি আপনার টাইপিং এর স্পিড দ্রুত করে নিতে পারবেন।

এই ধরণের সফটওয়্যার বা অনলাইন টুল বিভিন্ন রকমের টাইপিং এর কার্য, কাজ এবং test আপনাদের দিবে।

এবং, সেই typing work ও test গুলি regular ভালো ভাবে practice করলে, অনেক জলদি আপনার টাইপিং করার ক্ষমতা অনেক ভালো হয়ে দাঁড়াবে।

এই online typing practice tool বা website গুলির মধ্যে, “speedtypingonline.com” টুলটি সেরা।

এই টুল ব্যবহার করে আপনারা কিবোর্ডে টাইপিং এর সঠিক নিয়ম ব্যবহার করে টাইপিং practice করতে পারবেন।

তাছাড়া, আপনাকে time এর অপসন দেয়া হবে যার মাধ্যমে আপনি কতটা জলদি টাইপিং এর কাজটি সম্পূর্ণ করেছেন সেটা জেনেনিতে পারবেন।

Time এর সাথে সাথে accuracy র অপশনের মাধ্যমে, আপনাকে দেয়া শব্দগুলি কতটা সঠিক ভাবে টাইপ করেছেন, সেটাও আপনি দেখতে পারবেন।

তাই, সোজা ভাবে বললে, এই অনলাইন টুল ব্যবহার করলে আপনি আপনার typing speed improve করার জন্য জরুরি সব অপসন পাবেন।

কিছু অন্য অনলাইন টাইপিং practice tool হলো

  • www.keybr.com
  • Thetypingcat.com
  • Typingtest.com/trainer/
  • play.typeracer.com/
  • 10fastfingers.com/

৪. Regular typing practice with long words 

যদি আপনি সত্যি নিজের টাইপিং স্পিড ফাস্ট করতে চাচ্ছেন, তাহলে বড়ো বড়ো শব্দ (words) এবং বাক্য টাইপ করে practice করবেন।

লম্বা ও বড়ো words এবং sentence টাইপ করলে, কিবোর্ডে কোন জায়গায় কোন alphabet রয়েছে সেটার জ্ঞান আপনার হয়ে উঠবে।

ফলে, যেকোনো শব্দ (words) টাইপ করার জন্য কোন alphabet কোনখানে রয়েছে, সেটা আপনি অনেক সহজে ও জলদি খুঁজে পাবেন।

তাই, যতটা জলদি যেকোনো alphabet খুঁজে পাবেন ততটাই জলদি আপনি যেকোনো শব্দ কিবোর্ডে টাইপ করতে পারবেন।

তাই, যতটা সম্ভব ততটাই long words কিবোর্ডে টাইপিং করার প্র্যাক্টিস করুন।

এতে আপনি অনেক দ্রুত ভাবে কিবোর্ডে টাইপ করার কৌশল শিখে যাবেন।

৫. Use proper keystroke with proper finger 

কিবোর্ডে সঠিক এবং জলদি টাইপিং করার জন্য ৮০% টেকনিক (technique), ১০% স্পিড এবং ১০% সঠিকতা (accuracy) র প্রয়োজন।

তাই, দ্রুত টাইপিং করার জন্য জন জিনিষটার অধিক প্রয়োজন সেটা হলো, “টেকনিক“।

তাই, টাইপিং এর ক্ষেত্রে সবচে জরুরি টেকনিকটি হলো “সঠিক বটন এর জন্য সঠিক আংগুল ব্যবহার করাটা“.

হে, প্রথমে আপনার নিজের আংগুলের সাথে কিবোর্ডের বাটন গুলি মিলিয়ে টাইপিং করতে কষ্ট হতেই পারে।

তবে, আপনি এই টেকনিক সঠিক ভাবে প্র্যাক্টিস (practice) করলে, আপনি একেবারে সঠিক নিয়মে টাইপিং করতে পারবেন এবং আপনার টাইপিং স্পিড ৬০% বৃদ্ধি পাবে।

আমি নিচে একটি ছবি দিয়ে দিচ্ছি। এই ছবিতে দেখে আপনারা সহজে বুঝে যেতে পারবেন যে, কোন হাথের কোন আংগুল দিয়ে কিবোর্ডের কোন বাটন (button) press করবেন।

proper finger position for typing

আশা করি, আপনারা ওপরের ছবি দেখে সহজেই বুঝতে পেরেছেন যে, হাথের কোন আংগুল দিয়ে কিবোর্ডের কোন বাটন প্রেস করবেন।

৬. সঠিক (comfortable) কীবোর্ড ব্যবহার করুন 

এমনিতে, বাজারে অনেক ধরণের কীবোর্ড (keyboard) পাওয়া যাবে। তবে, মনে রাখবেন নিজের keyboard typing practice এর উদ্দেশ্যে, আপনার একটি ভালো এবং হাথে ভালো ভাবে আশা কীবোর্ড ব্যবহার করতে হবে।

Keyboard এর সাথে comfortable হলে, typing practice করাটা আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে দাঁড়াবে।

তাই, একটি বড়ো সাইজের কীবোর্ড কিনবেন এবং দেখবেন যাতে কিবোর্ডের বাটন (button) গুলি অনেক বড়ো হয়।

এতে, আপনার হাথের আংগুল সহজেই বাটন (button) গুলি খুঁজে পাবে।

৭. স্ক্রিনে দেখে টাইপিং করুন 

যখন আপনি কিবোর্ডে টাইপিং করেন, তখন আপনার নজর কিবোর্ডের দিকেই থাকে এবং যেটা স্বাভাবিক।

তবে, এই প্রক্রিয়া আপনার টাইপিং স্পিড অনেক স্লো করে দেয়।

তাই, নিজের কিবোর্ডে দ্রুত টাইপিং করার জন্য আপনি মনিটরের স্ক্রিনে তাকিয়ে কিবোর্ডে না দেখেই টাইপ করার অভ্যেস করুন।

প্রথম অবস্থায় এই প্রক্রিয়াতে আপনার অনেক ভুল হওয়াটা স্বাভাবিক।

কিন্তু, দৈনন্দিন এই প্রক্রিয়া ব্যবহার করে না দেখে কিবোর্ডে টাইপ করার অভ্যেস করতে থাকলে, আপনার টাইপিং স্পিড অবশই ভালো হয়ে আসবে।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, এই সহজ প্রক্রিয়া গুলি ব্যবহার করে আপনারা কম্পিউটারে দ্রুত টাইপিং করাটা অনেক জলদি শিখে যাবেন। তবে, প্রথম অবস্থায় আপনার অবশই ভুল হবে।

কিন্তু, হতাশ না হয়ে regular typing practice করতে থাকলেই, কেবল ১ মাসের মধ্যেই আপনার টাইপিং স্পিড অবশই ফাস্ট হয়ে যাবে।

কম্পিউটারে typing speed improve করার জন্য ওপরে দেয়া প্রক্রিয়া গুলি সেরা ও অনেক কাজের।