জীবন বীমা কি ? বীমা কত প্রকারের ও কি কি (Life insurance)

আজ, বিভিন্ন লোকেরা জীবন বীমা বা লাইফ ইন্সুরেন্স (life insurance) নিয়ে অনেক সজাগ এবং তারা এর ব্যাপারে সম্পূর্ণটাই জেনেনিতে চান। (What Is Life Insurance In Bangla).

জীবন বীমা কি
About life insurance in Bangla.

তাই, এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের বলবো “জীবন বীমা কি” এবং “বীমা কত প্রকারের ও কি কি“. এর সাথেই, বীমা করাটা কেন জরুরি এবং জীবন বীমার প্রয়োজনীয়তা গুলির ব্যাপারে আমি আপনাদের বলবো।

আজকের এই যুগে, ভবিষ্যতে যেকোনো সময় যেকোনো ধরণের দুর্ঘটনা অবশই হতে পারে।

এবং, সেই দুর্ঘটনা আপনার সাথে হতে পারে, আপনার মূল্যবান যেকোনো জিনিসের সাথে হতে পারে বা আপনার জীবন সম্পূর্ণ ভাবে আপনার হাত থেকে চলে যেতে পারে।

জীবনে কোন সময় কি হবে, সেটা কেও বলতে পারেনা।

তাই, এই দুর্ঘটনা যুক্ত জীবনে, নিজের এবং নিজের অন্য মূল্যবান জিনিস গুলির বীমা আগের থেকেই করিয়ে রাখলে, পরে খারাপ সময়ে, আপনার আর্থিক ভাবে (financially) অনেক লাভ বা সাহায্য পাওয়ার সুযোগ থাকবে।

জীবন বীমা নিয়ে সব থেকে লাভজনক বিষয়টি হলো, “এর মাধ্যমে, আপনি আপনার মৃত্যুর পরেও নিজের পরিবারের আর্থিক ভাবে সাহায্য করতে পারবেন “.

এবং তাই, আমি সব সময় বলবো “জীবন বীমা আজকের দিনে প্রত্যেকের করাটা অনেক জরুরি”.

মনে রাখবেন, বীমা তিন প্রকারের হয়।

  • জীবন বীমা (Life Insurance).
  • স্বাস্থ্য বীমা (Health Insurance).
  • সাধারণ বীমা (General Insurance).

এই দুটো প্রকারের বীমা রয়েছে, যেখানে আলাদা আলাদা বিষয় নিয়ে বীমা করা হয়।

তাহলে চলুন, নিচে আমরা ভালো করে জেনেনেই “জীবন বীমা কাকে বলে” (What Is Life Insurance In Bangla) এবং “জীবন বীমা কেন করবেন বা এর দরকার সমূহ কি কি“.

তারপর, “সাধারণ বীমা কি” (What Is General Insurance In Bangla), এই ব্যাপার নিয়েও কথা বলবো।

বীমা মানে কি (What Is Insurance) ?

আজ বীমা (insurance) নিয়ে অনেকের অনেক ধরণের ভুল ধারণা রয়েছে। অনেকেই ভাবেন যে ইন্সুরেন্স বা বীমা মানে এক ধরণের investment scheme যেখানে টাকা জমা রাখা হয়।

এবং, জমা করা টাকা ভবিষ্যতে সুদে -মুলে (interest) আমরা তুলে নিতে পারি। ঠিক সেরকম যেরকম, savings scheme, bank recurring, Fixed deposit বা mutual fund হয়।

কিন্তু, মনে রাখবেন যে, বীমা (insurance) এভাবে টাকা জমা রেখে ভবিষ্যতে সুদে -মুলে টাকা আয় করার সাধন বা মাধ্যম না।

এখানেই লোকেরা insurance এবং অন্য investment scheme মাঝে থাকা পার্থক্য বুঝতে ভুল করেন।

বীমা কখনোই আপনাকে direct profit আয় করতে সাহায্য করবেনা।

তবে মনে রাখবেন, বীমা বা ইন্সুরেন্স স্কিম, এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে হতে পাড়া বিভিন্ন ক্ষতির (loss) বিনিময়ে ভালো পরিমানে টাকা পেয়ে যেতে পারবেন।

তাই, বীমা স্কিম (insurance scheme) এর মাধ্যমে সরাসরি ভাবে কোনো আর্থিক লাভ না হলেও, ভবিষ্যতে আপনার জীবনে  ঘটতে পাড়া বিভিন্ন ক্ষতি বা সমস্যার বিনিময়ে আপনি ভালো পরিমানে টাকা, বীমা কোম্পানি (Insurance company) থেকে পেয়ে যেতে পারবেন।

উদাহরণ স্বরূপে,

ধরুন আপনি একটি “health insurance company” থেকে নিজের “স্বাস্থ্যের বীমা (health insurance)” করলেন। এবং, বীমা কোম্পানির চুক্তি হিসেবে প্রত্যেক বছর আপনার ৩ হাজার টাকা করে প্রিমিয়াম হিসেবে দিতে হবে।

এখন, হবে এটা যে আপনার প্রত্যেক বছরে দেয়া সেই ৩০০০ টাকার প্রিমিয়াম এর বদলে আপনাকে এক টাকাও দেয়া হবেনা।

তবে, যদি আপনার স্বাস্থর সাথে জড়িত কোনো সমস্যা ভবিষ্যতে দেখা দেয় এবং আপনাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়, তখন হাসপাতালের সেই সম্পূর্ণ খরচ বীমা কোম্পানি দিবে।

Note : মনে রাখবেন, যত বেশি প্রিমিয়াম আপনি বীমা কোম্পানিকে দিবেন ততটাই বেশি খরচ বীমা কোম্পানি যেকোনো ক্ষতির বিপরীতে আপনাকে দিবে।

আমি নিজে “health insurance” নিয়েছি, এবং ২০১৯ এ আমার খারাপ স্বাস্থ্যের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছিল।

তবে, health insurance থাকার জন্য, পুরো ১২০০০০ টাকার হাসপাতালের খরচ  insurance company র দ্বারা দেয়া হয়েছিল।

অবশই সেই সময় আমি ইন্সুরেন্স বা বীমার প্রয়োজনীয়তার গুরুত্ব বুঝতে পেরেছি।

এখন, সোজা ভাবে যদি বলা হয় “বীমা মানে কি“, তাহলে উত্তর হলো,

বীমা বা ইন্সুরেন্স মানে হলো এমন এক চুক্তি বা জামিন (guarantee), যেখানে একটি ছোট্ট প্রেমিয়াম (টাকা) দেয়ার বিপরীতে, ভবিষ্যতে হওয়া বিভিন্ন ক্ষতি যেমন, বাহনের ক্ষতি, স্বাস্থ্যের ক্ষতি, ঘরের ক্ষতি, জিনিসের ক্ষতি, চুরি (theft) বা মৃত্যু এবং আরো অনেক ধরণের ক্ষতি হওয়ার ফলে বীমা কোম্পানির থেকে ভালো পরিমানে ক্ষতিপূরণ (compensation) পাওয়া যাবে।

তাহলে বীমা কি, বেপারটা হয়তো এখন অবশই বুঝতে পেরেছেন।

বীমা কত প্রকারের ও কি কি ? (Types Of Insurance)

এমনিতে বীমা অনেক প্রকারের এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে আপনি একটি বীমা অবশই করে রাখতে পারবেন।

তবে, মূলভাবে বা বেশির ভাগ লোকেরা ৮ রকমের বীমা অধিক বেশি পরিমানে করা দেখা যায়। এবং, এই ৮ প্রকারের বীমা আমাদের সকলের জন্য অনেক বেশি জরুরি।

  • জীবন বীমা (Life Insurance) বা টার্ম বীমা (Term Insurance).
  • স্বাস্থ্য বীমা (Health insurance).
  • সাধারণ বীমা (General Insurance).
  • দুর্ঘটনা বীমা (Accidental Insurance).
  • ভ্রমণ বীমা (Travel Insurance).
  • ঘরের ইন্সুরেন্স (Building insurance).
  • অগ্নি বীমা (Fire Insurance).
  • সম্পত্তি বীমা (Property Insurance).

General Insurance কে Non-life Insurance বলেও বলা যেতে পারে।

মানে, যেকোনো ইন্সুরেন্স বা বীমা যেটা আপনার জীবনের সাথে জড়িত না বা যেটা জীবন বীমার সাথে জড়িত না, সে সব বীমা “সাধারণ বীমা (General Insurance)” এর মধ্যে পরে।

তাই, মূলত বীমা দুই প্রকারের। জীবন বীমা এবং সাধারণ বীমা। জীবন বীমার বাইরে যতগুলি বীমার প্রকার রয়েছে, সব গুলো সাধারণ বীমাতে আসে।

জীবন বীমা কি ? (What Is Life Insurance) 

লাইফ ইন্সুরেন্স বা জীবন বীমা হলো এক ধরণের বীমা যেখানে একজন ব্যাক্তি (person) একটি “insurance company” কে নিয়মিত ভাবে প্রিমিয়াম জমা দেন, ভবিষ্যতে একটি নির্ধারিত সময়ের পর বা সেই ব্যাক্তির মৃত্যুর পর একটি ভালো পরিমানের রাশি (টাকা) পাওয়ার উদ্দেশ্যে।

জীবন বীমার প্রয়োজনীয়তা ও কেন করবেন ?

আপনার যদি পরিবার আছে, এবং আপনার পরিবারে কেবল আপনি যদি আর্থিক ভাবে সহযোগিতা করছেন, তাহলে একটি  “term life insurance” করে রাখাটা আপনার জন্য অনেক জরুরি।

Term life insurance” এমন এক প্রকারের বীমা যেখানে, যার নামে ইন্সুরেন্স করা হয়েছে সেই ব্যক্তির যদি কোনো কারণে মৃত্যু হয়ে যায়, তাহলে তার মৃত্যুর পর একটি নির্ধারিত রাশি তার পরিবার বা মনোনীত ব্যক্তিকে (nominee) দেয়া হয়।

Insurance নেয়া ব্যক্তির মৃত্যুর পর পরিবারকে কত টাকা দেয়া হবে, সেটা বীমা নেয়ার আগেই বিবেচনা করতে হবে।

এবং, আপনার বেঁচে নেয়া রাশি, যাকে বলা হয় “Sum insured value” র ওপরেই আপনার প্রিমিয়াম এর পরিমান নির্ধারিত করা হবে।

যতটা বেশি আপনার sum insured value হবে, ততটাই বেশি দিতে হবে প্রিমিয়াম।

তাহলে জীবন বীমা কি এবং জীবন বীমা কেন প্রয়োজন, সেই ব্যাপারে হয়তো আপনি ভালো করেই বুঝে গেছেন।

স্বাস্থ্য বীমা কি ? (What Is Health Insurance)

হেলথ বীমা বা স্বাস্থ্য বীমার মানে অনেক সোজা। যেই বীমা ভবিষ্যতে হতে পারা কিছু বা সব ধরণের হাসপাতালের ব্যয় (hospital expenses) থেকে আপনাকে বাঁচিয়ে রাখবে, সেটাই হলো “health insurance“.

যার নাম স্বাস্থ্য বীমা করা হয়েছে, সেই ব্যক্তি যদি ভবিষ্যতে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় চিকিৎসার জন্য, তখন সেই হাসপাতালের খরচ গুলি “Health insurance company” র দ্বারা দিয়ে দেয়া হয় যেই কোম্পানিকে আপনি প্রিমিয়াম দিয়েছেন।

মনে রাখবেন, আপনি যত টাকার যাকে বলা হয় “sum insured value” র ইন্সুরেন্স করেছেন, কেবল ততটুকু টাকার ব্যয় বা খরচ কোম্পানি করবে।

তবে, এই ধরণের বীমা করার আগেই, প্রত্যেক নিয়ম কানুন গুলি মেনে এবং নিজে যাচাই করে বীমা করাটা অনেক জরুরি।

স্বাস্থ বীমার প্রয়োজনীয়তা ও কেন করবেন ?

স্বাস্থ্য বীমা আজকের দিনে অনেক বেশি জরুরি। কারণ, আজ ছোট থেকে ছোট কারণেও যদি হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়, তাও আপনার প্রচুর পরিমানে টাকা খরচ করতে হয়।

একবার যদি হাসপাতালে যেতে হয়, সে যেই রজার জন্যই কেননা হোক, জলের মতো টাকা আপনার হাত থেকে চলে যাওয়াটা নিশ্চিত।

তাই, এই ক্ষেত্রে আপনার যদি একটি স্বাস্থ্য বীমা করা থাকে, তাহলে সেই খারাপ সময়ে যখন আপনার টাকার প্রচুর প্রয়োজন হবে, তখন আপনার এক টাকাও নিজের থেকে দিতে হবেনা।

হাসপাতালের সম্পূর্ণ খরচ বা যতটুকু sum insured value আপনার রয়েছে সেই সম্পূর্ণ টাকার হাসপাতালের খরচ, বীমা কোম্পানির তরফ থেকে দিয়ে দেয়া হবে।

তাহলে, এখন আপনারা হয়তো নিজেই বুঝতে পারছেন যে কেন স্বাস্থ্য বীমা আজকের দিনে এতটা প্রয়োজন।

সাধারণ বীমা কি ? (What Is General Insurance)

সাধারণ বীমা বা general insurance এমন একটি বীমার প্রকার, যেখানে জীবন বীমা বা life insurance ছাড়া সব ধরণের বীমা রয়েছে। মানে, এমন সব ধরণের বীমা সাধারণ বীমা যেটা মানুষের জীবনের সাথে জড়িত না।

বা, এভাবেও বলা যেতে পারে যে, আপনার স্বাস্থ্য এবং জীবন ছাড়া অন্যান্য মূল্যবান জিনিস গুলির বীমা করা মানেই হলো সাধারণ বীমা।

সাধারণ বীমাতে, আপনার মূল্যবান জিনিস গুলির চুরি হওয়া, হারানো বা ক্ষতি হওয়ার ওপরে বীমা করা হয়।

যেমন, Accidental insurance, travel insurance, motor insurance, fire insurance, building insurance বা আরো অনেক।

বীমার প্রিমিয়াম (Premium) বলতে কি বোঝায় ? 

বীমার প্রিমিয়াম বা insurance premium এর মানে হলো, সেই টাকার রাশি বা পরিমান যেটা আপনি মাসে মাসে ব বাছরীক ভাবে (yearly) বীমা কোম্পানিকে দিবেন বীমা নেয়ার পর।

 

Conclusion,

তাহলে বন্ধুরা, বীমা এবং জীবন বীমা কি তার সাথে, বীমা কত প্রকারের ও কি কি, এই ব্যাপারে আপনার হয়তো এখন সম্পূর্ণ জ্ঞান হয়ে গেছে। তবে, Life insurance নিয়ে যদি আপনার মনে অন্য কোনো ধরণের প্রশ্ন মা সমস্যা রয়েছে, তাহলে আমাকে কমেন্টের মাধ্যমে জিগেশ করুন।

শেষে এতটুকু বলবো, জীবনে ২ তো বীমা অবশই করবেন। এক হলো, জীবন বীমা এবং আরো একটি হলো স্বাস্থ্য বীমা।

কারণ, মানুষের জীবনে কখন স্বাস্থ্য নিয়ে হাসপাতালে যেতে লাগতে পারে এবং মানুষের জীবনের শেষ দিন কখন এসে যেতে পারে, সেটা কেও বলতে পারেনা।

শুনতে অবশই খারাপ লাগছে, তবে আমি বাস্তব কথাটাই বলছি।

এই দুই ধরণের বীমা করা থাকলে, হাসপাতালে থাকা অবস্থায় বা মৃত্যুর পর দুটোই ক্ষেত্রে, পরিবারের লোকেদের আর্থিক ভাবে কোনো ধরণের কষ্ট হবেনা।

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap