কোন ল্যাপটপ কিনবো ? ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট্য – (Laptop buying guide)

এমনিতে যখন আমরা একটি ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবি, তখন মনের মধ্যে প্রচুর প্রশ্ন আসতে থাকে।

Which laptop should i buy ?

যেমন, কোন ল্যাপটপ কিনবো ? কোন ল্যাপটপ ভালো হবে ? কোন ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ ভালো এবং একটি ভালো ল্যাপটপ চেনার উপায় কি ? ইত্যাদি।

এবং একটি ল্যাপটপ কেনার সময় এই ধরণের প্রশ্ন আপনার মনে আসাটা অনেক জরুরি।

কেননা, যদি আপনার মনে এই ধরণের প্রশ্ন না আসে, তাহলে ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট্য ও গুন নিয়ে আপনি রিসার্চ কখনোই করবেননা।

ফলে, দোকানদার নিজের হিসেবে যেই ল্যাপটপটি আপনাকে বুঝিয়ে দিবে, আপনি সেটাই কিনবেন।

আর শেষে গিয়ে আপনি একটি সেরা ল্যাপটপ কিনতে অসফল হয়ে দাঁড়াবেন।

তাই, আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সম্পূর্ণ স্পষ্ট করে বলে দিবো যে,

“কোন ল্যাপটপ ভালো” এবং “ভালো ল্যাপটপ বলতে সেখানে কি কি থাকতে হবে”.

তাছাড়া, শেষে আমরা কম দামে কিছু ভালো ল্যাপটপের মডেল কিছুর বিষয়ে জেনেনিব।

যদি আপনি একজন প্রোগ্রামার, ব্লগার, ওয়েব ডিজাইনার বা সাধারণ student, তাহলে নিজের জন্য “কোন ল্যাপটপ কিনবো” এই প্রশ্নের সম্পূর্ণ উত্তর এখানে পেয়ে যাবেন।

কোন ল্যাপটপ কিনবো ? ভালো ল্যাপট কোনটি ?

বন্ধুরা, অনেকেই এমনিতে জিগেশ করেন যে, “কোন ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ ভালো” ?

কিন্তু মনে রাখবেন, বর্তমানে একটি ভালো ল্যাপটপ বলতে কেবল তার ব্র্যান্ড ছাড়াও আমাদের অনেক কিছুই দেখতে হয়।

Asus, MSI, Dell, Acer, Apple, HP, Lenovo ইত্যাদি প্রত্যেকটি ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ ভালো।

তবে, এই ল্যাপটপের ব্র্যান্ড গুলোর প্রত্যেকটি মডেলের specification এবং features আলাদা আলাদা।

আর তাই, যখন একটি নতুন ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন,

তখন laptop এর এই features এবং specifications গুলো অবশই দেখে নেওয়াটা জরুরি।

তাছাড়া, কোন ল্যাপটপ কিনবো বা আপনার জন্য কোন ল্যাপটপ ভালো হবে,

এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্য, নিচে দেওয়া বিষয় গুলো ভালো করে বুঝার চেষ্টা করুন।

#১. ল্যাপটপ কেনার উদ্দেশ্য কি ?

যখন আপনি একটি ভালো ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন, তখন আপনার সবচেয়ে আগেই দেখতে হবে যে, “আপনি ল্যাপটপটি কেন কিনতে চাইছেন”.

ল্যাপটপটি কোন কাজে ব্যবহার করবেন এবং কিরকম ধরণের performance সেই laptop থেকে আপনি চাইছেন।

কারণ, বাজারে ১০,০০০ থেকে ২ লক্ষ টাকার মধ্যেও ল্যাপটপ কিনতে পাওয়া যাবে।

এবং ল্যাপটপের দাম হিসেবে তাতে features, functions, quality এবং performance factors যোগ করা হয়।

তাই, আপনাকে সবচে আগেই এটা দেখতে হবে যে, “আপনি কি কি কাজ সেই ল্যাপটপে করতে চাচ্ছেন”.

এবং তারপর, আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন যে, “কোন ল্যাপটপ আপনার জন্য ভালো হবে”.

যদি আপনি একজন student,

তাহলে সাধারণ entertainment, internet browsing, HD movies, gaming, projects ইত্যাদির ক্ষেত্রে হয়তো আপনি ল্যাপটপ কিনার কথা ভাবছেন।

এই ক্ষেত্রে, ৪০ থেকে ৪৫ হাজারের মধ্যে একটি ভালো ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ কেনার পরামর্শ আমি দিবো।

যদি কেবল gaming এর উদ্দেশ্যে laptop কেনার কথা ভাবছেন,

তাহলে, ryzen 5 processor বা Intel i5 / i7 processor এবং তার সাথে কমেও 4GB graphic card থাকা একটি laptop কিনতে হবে।

এই ক্ষেত্রে, ৬০ থেকে ৯০ হাজারের মধ্যে একটি ল্যাপটপ কিনলে আপনি সেরা performance পাবেন।

তাছাড়া, যদি অফিসিয়াল কাজ, ব্লগিং বা প্রোগ্রামিং এর জন্য একটি ভালো ল্যাপটপ কিনে নিতে চাচ্ছেন,

তাহলে, প্রায় ৪৫ থেকে ৫০ হাজারের মধ্যে একটি ল্যাপটপ কিনলেই যথেষ্ট।

তাই, আপনি কোন কাজের জন্য ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন, সেটার ওপরেই সবটা নির্ভর করছে।

#২. Gaming laptop এর কাজ ও দাম সম্পূর্ণ আলাদা 

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন,যাদের ল্যাপটপ কেনার উদ্দেশ্যই হলো “gaming”.

আর তাই, যদি আপনারাও একটি গেমিং ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন এবং সেখানে প্রত্যেক আধুনিক ও নতুন গেম গুলো খেলার কথা ভাবছেন,

তাহলে আপনার কিনে নিতে হবে একটি “গেমিং ল্যাপটপ“।

মনে রাখবেন, বর্তমান সময়ে প্রত্যেকটি গেম (AAA title games) এর মধ্যে অধিক গ্রাফিক্স ব্যবহার করা হয়।

ফলে, এই আধুনিক গেম গুলো চলার জন্য এবং কোনো সমস্যা ছাড়া খেলার জন্য আপনার একটি অনেক শক্তিশালী কম্পিউটার ডিভাইস এর প্রয়োজন হয়ে থাকে।

আর তাই, যদি আপনি কেবল গেমিং এর উদ্দেশ্যে একটি ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন,

তাহলে, সেই ল্যাপটপ গুলো কিনুন যেগুলো কেবল high end gaming এর ওপর লক্ষ্য রেখে তৈরি করা হয়েছে।

যেমন,

  • Acer Nitro 5 AN515-54 58P0
  • MSI GF63 Thin 9SCX 
  • Acer Nitro 5 AN515
  • Asus Tuf FX505DT (Ryzen 5)
  • MSI PS42 8M (Core i7) 
  • Asus ROG Strix G G531G-DBQ086T
  • ASUS VivoBook X512FL (Core i5) 
  • Acer Nitro AN515-44 (Ryzen 7)

ইত্যাদি আরো অনেক সেরা গেমিং ল্যাপটপ আপনারা বাজারে পেয়ে যাবেন।

এই ধরণের গেমিং ল্যাপটপ গুলোতে অধিক শক্তিশালী ও আধুনিক processor, RAM, graphic card, motherboard ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়।

তাই, গেমিং ল্যাপটপ গুলোর processing এবং graphical power প্রচুর শক্তিশালী।

ফলে, high graphic gaming এর ক্ষেত্রে এই ল্যাপটপের মডেল গুলো সেরা।

তবে, গেমিং ল্যাপটপ গুলোর দাম অন্যান্য ল্যাপটপ গুলোর তুলনায় প্রচুর বেশি।

এবং যদি আপনি গেমিং করার উদ্দেশ্যে ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন, কেবল তাহলেই এই ধরণের গেমিং ল্যাপটপ কেনার পরামর্শ আমি দিবো।

কেননা, সাধারণ ও কম processing power, কম RAM এবং শক্তিশালী graphic card ছাড়া, আধুনিক ও AAA GAMING করা সম্ভব না।

#৩. ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট্য কি কি ? 

যখন একটি ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট নিয়ে নিয়ে কথা বলা হয়, তখন বিভিন্ন বিষয়ে আমাদের নজর দিতে হয়।

এক্ষেত্রে, একটি ল্যাপটপে কি কি features এবং functions রয়েছে সেটার ওপর নজর দিয়ে আপামর ল্যাপটপটিকে ভালো বা খারাপ হিসেবে বলতে পারি।

যেমন,

  1. ল্যাপটপে কমেও ৮ জিবি রেম থাকতে হবে। এনাহলে, আপনার ল্যাপটপ স্লো কাজ করবে।
  2. কমেও dual core processor হতে হবে এবং processor frequency 2.5 GHz এর অধিক থাকতে হবে। তবে, quad core processor থাকলে অধিক দ্রুত performance পাবেন।
  3. তাছাড়া, AMD ryzen বা Intel এর processor যেটাই ল্যাপটপে দেওয়া রয়েছে, সেটা কিন্তু latest generation এর হতে হবে। আধুনিক ও সর্বশেষ জেনারেশন এর প্রসেসর গুলোর কর্মক্ষমতা অধিক ভালো ও দ্রুত।
  4. ল্যাপটপের display হতে হবে full HD এবং display size 14 inch থেকে কম হলে চলবেনা।
  5. Screen resolution কমেও 1920 x 1080 হতে হবে। নাহলে, HD video দেখে বা game খেলে মজা পাবেননা।
  6. ল্যাপটপে আগের থেকে Windows 10 OS install থাকতে হবে। কিছু কিছু ল্যাপটপে, Linux OS দেওয়া থাকতে পারে। তাই, ভালো করে যাচাই করে নিবেন।
  7. Brand নিয়ে অবশই নজর দিতে হবে। একটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ হতে হবে। এতে, warranty এবং service center নিয়ে ভবিষ্যতে সমস্যা হবেনা।
  8. কমেও 3 টি USB 3.0 drive বা port থাকতে হবে।
  9. HD web cam (front camera) থাকতে হবে live video call বা chatting এর জন্য।
  10. Graphic card দেওয়া আছে কি না সেটা দেখুন। তবে, low budget এর laptop গুলোতে graphic card দেওয়া হয়না। কিন্তু যদি আপনি একটি gaming laptop কেনার কথা ভাবছেন, তাহলে কমেও 4GB graphic card থাকতেই হবে।
  11. Storage device কত টুকু দেওয়া রয়েছে সেটা দেখুন। কমেও  500 GB size এর SSD থাকতে হবে। মনে রাখবেন, পুরোনো hard drive (HDD) গুলোর তুলনায় আধুনিক solid state drive (SSD) গুলো ৩০০% দ্রুত কাজ করে।

একটি ল্যাপটপ কেনার সময় ওপরে বলা বিষয় গুলোর ওপরে অবশই নজর দিবেন।

এগুলোই হলো একটি ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট ও গুন।

#৪. ল্যাপটপের processor ও RAM অধিক গুরুত্বপূর্ণ

দেখুন, যখন একটি ভালো ল্যাপটপ কেনার কথা আসে, তখন ল্যাপটপের মধ্যে আপনার সবচেয়ে আগেই দেখতে হবে “Ram” এবং “processor“.

কারণ, একটি ল্যাপটপে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় দুটোই হলো তার “RAM” এবং “processor”.

RAM এবং processor এর কার্যক্ষমতা যতটাই বেশি থাকবে, ততটাই দ্রুত ভাবে কাজ করবে ল্যাপটপ।

RAM নিয়ে কি দেখবেন ?

সব সময় কমেও 8 GB DDR4 RAM থাকা ল্যাপটপ ব্যবহার করবেন।

তাছাড়া, RAM এর frequency নিয়েও অনেক কথা রয়েছে।

প্রত্যেকটি RAM এর আলাদা আলাদা frequency থাকে।

তাই, অবশই দেখবেন যাতে আপনার ল্যাপটপের RAM কমেও DDR4 এবং 2400MHz speed বা তার থেকে বেশি থাকে।

একটি RAM এর MHz speed যত বেশি থাকবে, ততটাই বেশি দ্রুত ভাবে কাজ করবে আপনার RAM.

তবে, অধিক দ্রুত MHz speed এর RAM ব্যবহার করার জন্য আপনার ল্যাপটপের motherboard উন্নত ও উচ্চমানের হতে হবে।

তাই, laptop কেনার আগেই সেখানে দেওয়া RAM এর পরিমান ও MHz speed অবশই দেখে নিবেন।

Processor নিয়ে কি কি দেখবেন ?

একটি processor / CPU কে কম্পিউটারের brain বলে বলা হয়।

এবং, processor / CPU নির্ধারিত করে যে আপনার computer বা laptop কতটা দ্রুত ভাবে information গুলোকে process করবে।

তাই, কম্পিউটারের দ্রুত processing এবং functioning এর জন্য একটি উন্নত ও আধুনিক processor থাকাটা অনেক জরুরি।

একটি ল্যাপটপকে কেবল তখন ভালো হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া যেতে পারে, যখন সেখানে একটি ভালো মানের processor লাগানো থাকবে।

একটি ভালো ল্যাপটপ প্রসেসর এর core speed কমেও 4 টি হলে ভালো।

Processor এর core যত বেশি থাকবে, তার কার্যক্ষমতা ততটাই ভালো ও দ্রুত হবে।

সোজা ভাবে বললে,

যদি আপনার কাছে দুটোর জায়গায় চারটি হাত থাকতো, ভাবুনতো একসাথে কত গুলো কাজ কতটা তাড়াতাড়ি করে নিতে পারতেন ?

Processor এর core তার হাত হিসেবেই বলা যেতে পারে।

তাই, সব সময় Intel Core i3, Intel Core i5, Intel Core i7, AMD Ryzen 3, AMD Ryzen 5, AMD Ryzen 7 এই ধরণের শক্তিশালী processor থাকা ল্যাপটপ ব্যবহার করবেন।

এগুলো, আধুনিক এবং উন্নতমানের processor.

তাছাড়া, যেকোনো processor এর frequency / clock speed এবং processor generation অবশই দেখতে হবে।

যা আমি ওপরেই বলেছি, অধিক বেশি processor frequency / clock speed থাকলে সেটা ভালো।

তাই, processor clock speed বা frequency কমেও 3 GHz বা তার থেকে বেশি থাকলে ভালো।

#৫. Compare অবশই করবেন  

যখন আপনি একটি ল্যাপটপ কিনতে যান, তখন অবশই বিভিন্ন ব্যান্ড নিয়ে চিন্তা করেন।

এবং এটা করা এমনিতে অনেক ভালো।

যদি আপনি ৩০ হাজার টাকা দামের একটি ল্যাপটপ সিলেক্ট করেছেন, তাহলে অবশই অন্যান্য ব্র্যান্ডের এই একি দামে কি কি মডেল রয়েছে সেটাও compare করে দেখুন।

কারণ, laptop brand সব গুলোই ভালো।

কিন্তু আলাদা আলাদা laptop brand এর আলাদা আলাদা বিভিন্ন model রয়েছে।

এবং, যখন আপনি model গুলোকে তুলনা (compare) করবেন, তখন সেই একি দামে আরো ভালো feature ও configuration থাকা ল্যাপটপ পেয়ে যাবেন।

#৬. Windows ১০ install করা আছে কি ?

এমনিতে অনেক ল্যাপটপ মডেল রয়েছে, যেগুলোর মধ্যে windows ১০ দেওয়া থাকেনা।

ল্যাপটপের দাম কম রাখার জন্য, সেখানে free Linux বা Ubuntu OS install করা থাকে।

এই ক্ষেত্রে, আপনি ল্যাপটপ অনেক কম দামে অবশই পেয়ে যাবেন তবে সেখানে Windows install দিতে আপনার সমস্যা হতে পারে।

তাই, ল্যাপটপ কেনার আগেই যাচাই করতে হবে যে, “সেখানে উইন্ডোজ ১০ ইনস্টল করা আছে তো”.

বিশেষ করে, যদি আপনি online e-commerce website থেকে laptop কেনার কথা ভাবছেন, তাহলে এই বিষয়টি মনে করে অবশই দেখে নিবেন।

#৭. কোন ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ সব থেকে ভালো ?

আমি আগেই বলেছি এবং আবার বলবো যে, বর্তমান বাজারে থাকা প্রত্যেকটি জনপ্রিয় laptop brand গুলোর প্রত্যেকটাই ভালো।

Brand বা company তখন ভালো বলা যেতে পারে যখন তাদের laptop এর build quality এবং after purchase service ভালো থাকবে।

এবং, Acer, asus, MSI, Dell, HP, apple, lenovo এই প্রত্যেক ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ গুলোর build quality প্রচুর ভালো।

তাছাড়া, ব্র্যান্ড গুলোর ক্ষেত্রে after purchase warranty service এর কোনো সমস্যা হওয়া দেখা যায়না।

তবে, যখন কথা আসছে laptop performance, processing speed এবং multitasking এর, তখন কিন্তু ল্যাপটপের ব্র্যান্ড নিয়ে কথা থাকছেনা।

Laptop এর ভালো performance এর ক্ষেত্রে সেখানে ভালো ও উন্নতমানের RAM, processor, graphics card ইত্যাদি থাকতেই হবে।

এবং, একটি ভালো configuration এর laptop যেকোনো ভালো brand এর তরফ থেকে পেয়ে যাবেন।

তাই যখন প্রশ্ন করা হয়, “কোন ব্রান্ডের ল্যাপটপ ভালো ?”

তখন এর উত্তরে আমি বলবো,

“যেকোনো জনপ্রিয় একটি ব্রান্ডের ল্যাপটপকেই ভালো বলা যেতে পারে, কেবল সেখানে ভালো মানের configuration থাকতে হবে”.

#৮. 2020 এর সেরা কিছু ল্যাপটপ 

যদি আপনারা ২০২০ এর কিছু ভালো ও সেরা laptop এর মডেলের বিষয়ে জেনেনিতে চাচ্ছেন, তাহলে নিচে দেখেনিতে পারবেন।

আমার হিসেবে নিচে দেওয়া ল্যাপটপের মডেল গুলো যেকোনো কাজের ক্ষেত্রেই সেরা।

Multitasking, blogging, video editing, programming বা entertainment যেকোনো ক্ষেত্রেই নিচে দেওয়া ল্যাপটপ গুলোর performance সেরা।

  1. Lenovo idea pad S145 Intel – (8th Generation Intel Core i3) (Dual cores) (8 GB RAM).
  2. Lenovo IdeaPad IP S340 – (8GB RAM/512GB SSD/Win 10 Home/Microsoft Office 2019 /8th Gen Intel core i5).
  3. Dell Inspiron 5447 laptop – (Intel Core-i5 4th Generation 4210U Processor, 6GB DDR3 RAM).
  4. Asus VivoBook S15 S510UQ – (i7 7th Gen With Full HD Graphics, NVIDIA GeForce 940MX 2GB GDDR5 VRAM, 8 GB DDR4 RAM).
  5. Lenovo IdeaPad S145 AMD – (AMD A4-9125, 2.3 GHz up to 2.6 GHz,2 Cores Processor, 4GB DDR4 RAM).
  6. Dell Inspiron 14-3480 – (Intel Celeron 4205U, 4GB DDR4 RAM, 500GB HDD)
  7. ASUS E203MAH N500 – (Intel Pentium N5000 Processor 1.10 GHz up to 2.70 GHz).
  8. Asus X543UA – (Intel Core i3-6006U Processor, 4GB DDR4 SDRAM, 1TB SATA HDD).
  9. Lenovo IdeaPad 130 – (Intel Core i3-7020U Processor, 4GB DDR4 2400MHz RAM, 1TB HDD).
  10. Asus D509DA AMD – (AMD Ryzen 3 3200U Processor, 4GB DDR4 2400MHz RAM, 1TB SATA HDD).
  11. Acer Aspire 3 A315 – (Intel Core i5-8265U Processor up to 3.90 GHz, 4GB DDR4 RAM).

এছাড়া, আরো অনেক ভালো ল্যাপটপের মডেল রয়েছে যেগুলো আপনারা কিনে নিতে পারবেন।

তবে, ভালো ল্যাপটপ বলতে সম্পূর্ণটা laptop এর configuration এর ওপর নির্ভর করছে।

এবং, ল্যাপটপের ভালো configuration মানেই হলো অধিক দামি ল্যাপটপ।

তাই, আপনার বাজেট এর ওপর নির্ভর করছে সবটা।

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, আপনারা হয়তো ভালো করেই বুঝতে পেরেছেন যে, কোন ল্যাপটপ ভালো বা কোন ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ ভালো হবে।

আমি নিজেই অনেক ব্যান্ডের ল্যাপটপ ব্যবহার করেছি।

এবং সত্যি বললে, ব্র্যান্ড নিয়ে তেমন কোনো কিছু চিন্তা করার আপনার দরকার নেই।

তবে হে, আপনি যেই ল্যাপটপ বেছে নিয়েছেন, সেই ল্যাপটপের ভেতরে কি কি configuration রয়েছে, সেটা হলো আসল ব্যাপার।

যতনা ভালো, উন্নত, high frequency এবং অধিক core থাকা processor আপনার ল্যাপটপে থাকবে, ততটাই ভালো ও দ্রুত performance আপনি পাবেন।

Processor এর সাথে সাথে, ল্যাপটপে কমেও 8GB বা তার থেকে অধিক বেশি RAM থাকলেই ভালো performance পাবেন।

শেষে, ল্যাপটপ কেনার সময় এই সাধারণ বিষয় গুলোর ওপর নজর দিলেই আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন যে,

“কোন ল্যাপটপটি কিনবো ?” 

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

2 thoughts on “কোন ল্যাপটপ কিনবো ? ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট্য – (Laptop buying guide)”

  1. দাদা খুব ভালো তথ্য দিয়েছেন,আপনার অন্যান্য পোস্টের জন্য তাকিয়ে আছি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error:
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap