কম্পিউটারের ROM কি ? এর প্রকার এবং কাজ

Rom কাকে বলে : হ্যালো বন্ধুরা, আজকের এই ছোট আর্টিকেলে আমরা কম্পিউটার রম (ROM) এর ব্যাপারে জানবো।

ROM মানে কি ?

কম্পিউটারের রম কি, Rom কত প্রকারের, এবং এর কাজ ও ব্যবহার কি, এই বিষয়গুলি নিয়ে আপনারা আজকের এই আর্টিকেলে জানতে পারবে.

এমনিতে, আমার আগের আর্টিকেলে আমি আপনাদের, কম্পিউটারের র্যাম (ram) কি, এই বিষয়ে বলেছিলাম।

তাই, আপনারা চাইলে computer ram এর বিষয়েও জেনেনিতে পারবেন।

এখন কথা বলি ROM নিয়ে।

রম হলো, আপনার কম্পিউটারের একটি storage memory device, যেখানে বিভিন্ন ধরণের programming software রাখা হয়।

এখানে রাখা এই ধরণের সফটওয়্যার গুলি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, কম্পিউটার কে নির্দেশ দেওয়ার জন্য ব্যবহার হয়।

ROM এ যেকোনো firmware software গুলিকে pre-install করে রাখা হয়।

কম্পিউটারের ক্ষেত্রে, যখন motherboard তৈরি করা হয়, তখনি এই ধরণের সফটওয়্যার গুলি রম মেমরিতে ইনস্টল করে দেয়া হয়।

তাই, কম্পিউটারের বিভিন্ন bios এবং firmware software গুলি এই ROM memory তেই রাখা হয়।

এবং, স্থায়ী ভাবে কিছু জরুরি সিস্টেম সফটওয়্যার ও ফার্মওয়্যার সফটওয়্যার গুলিকে চিরকালের জন্য, স্টোর করে রাখাই হলো “ROM এর কাজ”।

ROM, আপনার কম্পিউটারের motherboard এ একটি ছোট chip হিসেবে লাগানো থাকে।

নিচে আমরা আরো অল্প বিস্তারিত ভাবে জেনেনিব যে আসলে “কম্পিউটার রম কি” (What Is a Rom in Bangla).

কম্পিউটারে Rom কি ?

 ROM এর পূর্ণরূপ বা সম্পূর্ণ নাম হল “রিড অনলি মেমোরি“। ইংরেজিতে, “Read Only Memory“.

মানে, কম্পিউটারের এই ধরনের মেমোরিতে থাকা information ও data কেবল read করা যেতে পারে।

 তাছাড়া, নতুন করে কোন ডাটা বা ইনফরমেশন এই মেমোরিতে স্টোর বা জমা করতে পারবেনা। 

 কম্পিউটার manufacture করার সময় এই ধরনের মেমোরিতে, জরুরী ইনফরমেশন বা ড়াটা গুলি write করে দেওয়া হয়। 

 রম মেমোরিতে, কম্পিউটারের bios এবং framework এর সাথে জড়িত কিছু কম্পিউটার ফাংশন এর নির্দেশ জমা থাকে।

এবং, কম্পিউটার চালু হওয়ার সাথে সাথেই এই নির্দেশ গুলি সিস্টেম এর দ্বারা ব্যবহার হতেই থাকে।

 তাছাড়া আপনারা হয়তো জানেননা যে, একটি ROM মেমোরি বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ডিভাইস গুলিতেও ব্যবহার করা হয়.

যেমন একটি ওয়াশিং মেশিন, স্মার্ট টিভি, ফ্রিজ, মাইক্রোওয়েভ ইত্যাদি।

এই বিভিন্ন ইলেকট্রনিক উপকরণ গুলিকেও রম (ROM) এর মাধ্যমে প্রোগ্রাম করা হয়। 

 ROM কে, non-volatile memory বলেও বলা হয়। 

 কারণ এখানে থাকা তথ্য এবং ডাটা গুলি, বিদ্যুৎ (power) সরবরাহ (supply) ছাড়াও চিরকালের জন্য স্টোর হয়ে থাকে। 

যেভাবে, কম্পিউটারের রেম মেমরিতে (RAM MEMORY) থাকা ইনফরমেশন গুলি, কম্পিউটার অফ হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে মুছে যায় বা ডিলিট হয়ে যায়।

সেভাবে, রম মেমোরিতে থাকা ডাটা এবং ইনফরমেশন গুলি উপকরণের বা কম্পিউটার এর সুইচ অফ হওয়ার পরেও থেকে যায়।

উদাহরণ স্বরূপে,

আপনি কম্পিউটার ফরম্যাট করে উইন্ডোজ ইন্সটল করার আগে bios settings এ অবশই হয়তো গেছেন।

আর, মনে রাখবেন কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভ না থাকা অবস্থাতেও এই BIOS function টি অবশ্যই আমরা ব্যবহার বা এক্সেস করতে পারি।

এখন কথা হল,  কম্পিউটারে যদি কোন storage device না থাকে, তাহলে এই bios সফটওয়্যার টি কিভাবে কাজ করছে।

এর উত্তর হলো, ROM memory র মাধ্যমে।

Bios সফটওয়্যারটি ROM memory তে স্টোর করে রাখা হয়েছে।

এবং তাই, কম্পিউটারে HARD DRIVE না থাকতেও এই bios এবং framework টি কাজ করবে।

ROM কত প্রকারের ? ( প্রকারভেদ )

মূলত ROM তিনটি প্রকারের হতে পারে।

  1. প্রথম হলো PROM.
  2. দ্বিতীয়  EPROM.
  3. তৃতীয় EEPROM.

PROM : এর পূর্ণ নাম বা ফুল ফর্ম হলো “Programmable read only memory“.

এটা এমন এক ধরনের মেমোরি যেখানে, সফটওয়্যার এর সাহায্য নিয়ে ডাটা এবং ইনফরমেশন গুলিকে স্টোর করা হয়। 

এবং এরপর, এই ধরনের মেমোরি থেকে তথ্যগুলি কোন সময় মুছে দেওয়া বা ডিলিট করা যাবে না। 

 PROM কেবল একবারের জন্য প্রোগ্রাম করতে পারা যাবে।

উদাহরণস্বরূপ,  বায়োস বা ফার্মওয়্যার সফটওয়্যার গুলিকে একবার এই PROM গুলিতে ইনস্টল করার পর, সেগুলিকে ভবিষ্যতে ডিলিট বা প্রোগ্রাম করা যাবেনা। 

EPROM : এর মানে হলো, “erasable programmable read only memory“.

এই ধরনের রম গুলিকে কিছু বিশেষ প্রোগ্রামের সাহায্যে  মুছা ও ডিলিট করতে পারা যায়।

রম গুলিকে মুছার (erase) জন্য ultraviolet rays ব্যবহার করা হয়। 

EEPROM : এর পূর্ণরূপ বা সম্পূর্ণ নাম হলো, “Electrical erasable programmable read only memory“.

এই ধরনের মেমোরি গুলিকে মুছার জন্য এবং প্রোগ্রাম করার জন্য, একে সার্কিট বোর্ড থেকে সরানোর কোন ধরনের প্রয়োজন হয় না। 

কিছু বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার করে, এই মেয়েটিকে আপডেট করে দেওয়া হয়।

এতে install থাকা firmware গুলিকেও আপগ্রেড করা যেতে পারে। 

এই ধরনের রম মেমোরি প্রচুর আধুনিক এবং উন্নত।

 তাই অনেক সহজে এগুলিকে আপগ্রেড করতে করা যায়।

 বর্তমানে আধুনিক কম্পিউটার গুলিতে এই ধরনের রম মেমোরি ব্যবহার করা হয়

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, “ROM কি” (What Is ROM Memory in Bangla) বা  “কাকে বলে” এবং “ROM এর কাজ কি“, এই বিষয়ে আমরা ভালো করে জেনে নিয়েছি।

তাছাড়া, ROM এর প্রকার গুলির ব্যাপারেও আমি আপনাদের বললাম। 

ROM হলো কম্পিউটারের এমন একটি primary memory, যেখানে data এবং information গুলিকে স্থায়ী ভাবে স্টোর করে রাখা হয়। 

Related Contents:

BanglaTech

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top