ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার নতুন উপায় গুলো – (সেরা ৪টি)

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করাটা বর্তমানে এমন একটা কঠিন কাজ না। সাধারণ লম্বা লম্বা ইউটিউব ভিডিও গুলোর থেকে এই শর্ট ভিডিও গুলো সম্পূর্ণ আলাদা। তবে চিন্তা করবেননা, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা ইউটিউব শর্টস থেকে আয় করার উপায় গুলো বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো। (How to earn money from YouTube shorts).

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম
How to earn money from YouTube shorts ?

একটি সাধারণ ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার এমনিতে প্রচুর উপায় থাকে।  যেমন,

  • YouTube partner program,
  • Video এর জন্যে Monetization চালু করে,
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে,
  • Sponsorship, ইত্যাদি।

তবে, YouTube এর long videos গুলোর থেকে সরাসরি টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে সাধারণত ৪টি স্টেপ সম্পূর্ণ করতে হয়।

  1. YouTube partner program জয়েন করতে হয়,
  2. নিয়মিত লম্বা ভিডিও তৈরি করে পাবলিশ করা,
  3. Video এর জন্যে monetization চালু করা,
  4. শেষে, advertising revenue সংগ্রহ করুন।

তবে, YouTube Shorts (যেখানে ৬০ সেকেন্ড বা তার থেকে কম সময়ের ছোট ভিডিও বানানো হয়) এর কোনো সোজা বা Traditional Monetization Program নেই।

বর্তমান সময়ে, টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে নিজের আপনি YouTube short video গুলোতে সরাসরি বিজ্ঞাপন (ads) দেখাতে পারবেননা।

এর মানে হলো, যখন লোকেরা আপনার short videos গুলো দেখবে, তখন Google AdSense দ্বারা সেখানে কোনো ধরণের বিজ্ঞাপন দেখানো হবেনা।

তাহলে এখন আমাদের কাছে সব থেকে বড় প্রশ্নটি থেকে যাচ্ছে, সেটা হলো, “ইউটিউব শর্টস থেকে উপার্জন কিভাবে করা যাবে“?

বা এভাবেও বলা যেতে পারে যে, একজন ইউটিউব শর্টস ক্রিয়েটর হিসেবে কি কি মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যাবে ?

চলুন, তাহলে নিচে আমরা একে একে জেনেনেই কিভাবে ইউটিউবে শর্টস বানিয়ে টাকা ইনকাম করা যাবে

YouTube shorts কি ?

YouTube shorts থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় আমরা নিচে অবশই আলোচনা করবো, তবে আসলে এই শর্টস কি, সেটা আগে আমরা আলোচনা করে নেই।

ইউটিউব শর্টস হলো YouTube এর তরফ থেকে নিয়ে আনা একটি প্লাটফর্ম, যেখানে আপনি ছোট ছোট ভিডিও (short videos) গুলোকে তৈরি ও এডিট করতে পারবেন।

আপনি এখানে ৬০ সেকেন্ড বা তার থেকেও ছোট সময়ের ভিডিও বানাতে পারবেন। 

যেকোনো ড্যান্স ভিডিও, কোনো মেসেজ, টিউটোরিয়াল ইত্যাদি যেকোনো ধরণের ছোট ছোট ভিডিও বানাতে পারবেন।

আপনি কেবল মাত্র নিজের স্মার্টফোন (smartphone) দিয়েই ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

একটি ভিডিও তৈরি করার পর সেটাকে অধিক আকর্ষণীয় করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সেটিং, ফিল্টার, ক্যাপশন ইত্যাদি যোগ করতে পারবেন।

Music এবং audio-এর মাধ্যমে short video গুলো আরো দারুন করে নিতে পারবেন।

আপনারা YouTube library-এর থেকে free songs বা audio clips গুলো নিজেদের short video গুলোতে যোগ (add) করতে পারবেন।

ইউটিউবের মধ্যে শর্ট ভিডিও তৈরি করাটা অনেক সহজ।

তাহলে বুঝতে পেরেছেন তো, ইউটিউব শর্টস কি ?

ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায়

চলুন, এখন আমরা YouTube shorts থেকে online income করার কিছু উপায় গুলোর বিষয়ে জেনেনেই।

১. YouTube Shorts Fund

যদি আপনি ইউটিউবের শর্টস ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করার কথা ভাবছেন তাহলে এর দারুন একটি উপায় হলো, “$100 million Shorts Fund“.

এটা এমন একটি উপায় যেটাকে ইউটিউবের দ্বারা ২০২১ সালে লঞ্চ করা হয়েছিল।

এই platform দ্বারা creators দের পুরস্কার হিসেবে monthly “bonus” দেওয়ার বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়।

বোনাস এর পরিমান $100 থেকে $10,000 হতে পারে, তবে আপনাকে কত দেওয়া হবে সেটা আপনার বিগত মাসের শর্টস পারফরমেন্স এর ওপর নির্ভর করছে।

Bonus সংগ্রহ করার জন্যে, YouTube shorts এর থেকে ইনকাম করার প্রয়োজনীয়তা গুলো এখানে দেওয়া হলো,

  1. প্রত্যেক 180 দিনের মধ্যে একটি original YouTube Short পোস্ট করুন।
  2. আপনার বয়েস কমেও ১৩ বছর হতে হবে বা আপনাকে আপনার দেশের পরিপক্কতার বয়েস প্রাপ্ত করতে হবে।
  3. YouTube’s Community Guidelines এবং monetization policies অনুসরণ করতে হবে।

একবার যখন আপনার দ্বারা এই requirements গুলো প্রাপ্ত বা সম্পূর্ণ হয়ে যাবে, আপনিও এই শর্ট বোনাস প্রাপ্ত করার দৌড়ে যোগ হয়ে যাবেন।

যদি আপনাকে সিলেক্ট করা হয়, তাহলে YouTube এর দ্বারা আপনাকে মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে যোগাযোগ করা হবে।

আপনার কাছে বোনাস এর দাবি জানানোর জন্যে সেই একি মাসের ২৫ তারিখ পর্যন্ত সময় থাকবে।

এমনিতে, বোনাস গ্রহণ করার ক্ষেত্রে প্রচুর video views এর প্রয়োজন হয়ে থাকে।

এক্ষেত্রে hundreds of dollars ইনকাম করার ক্ষেত্রে আপনাকে ভাইরাল হতে হবে। এই ব্যাপারটা আবার অনেকেরি জন্যে কিছুটা হতাশাজনক।

তবে এখানেও একটি ভালো খবর আছে, বর্তমান সময়ে YouTube অধিক থেকে অধিক creators দের shorts bonus দিয়ে চলেছে।

অধিক সংখ্যায় ক্রিয়েটর্সরা $100 এর মধ্যে পেমেন্ট পাবেন এবং সর্বোচ্চ $10,000 এর পেমেন্ট প্রাপ্ত করবেন।

২. Sponsorship

হে আমরা জানি, ইউটিউব শর্টস বানিয়ে টাকা ইনকাম করাটা তেমন সোজা কাজ না। কেননা, monthly reward গ্রহণ করার ক্ষেত্রে আপনাকে হাজার হাজার creators দের সাথে প্রতিযোগিতায় শামিল হতে হয়।

চিন্তা নেই, আপনাকে শর্টস থেকে ইনকাম করার জন্যে এই প্রতিজোগিতায় শামিল হতে হবেনা।

আপনারা অন্যান্য বিভিন্ন মাধ্যমে YouTube shorts থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

আর এই বিভিন্ন উপায় বা মাধ্যম গুলোর মধ্যে একটি দারুন ও লাভজনক উপায় হলো “brand sponsorships”.

যখন একটি brand / company আপনাকে sponsor করে থাকে,

তখন তারা আপনাকে টাকা দিয়ে থাকে তাদের product বা service গুলোকে আপনার video গুলোর মাধ্যমে প্রচার করার ক্ষেত্রে।

তবে কোম্পানির product যেকোনো ধরণের হতে পারে, ল্যাপটপ, কোনো অনলাইন কোর্স, মোবাইল, মেকআপ বা বিউটি প্রোডাক্ট ইত্যাদি।

এই মাধ্যমে হাজার হাজার লোকেরা বিশ্বজুড়ে নিজের বানানো শর্ট ভিডিও গুলোর থেকে প্রচুর ইনকাম করছেন।

Brand sponsorship এবং deals পাওয়ার জন্যে আপনার কাছে লক্ষ লক্ষ subscribers এবং views থাকতে হবে বলে এমন কোনো প্রয়োজন নেই।

তবে, আপনার একটি targeted audience এবং strong YouTube resume থাকাটা অবশই জরুরি।

৩. Affiliate marketing

আমরা প্রত্যেকেই জানি এফিলিয়েট মার্কেটিং হলো অনলাইনে ঘরে বসে টাকা ইনকাম করার সব থেকে লাভজনক ও দারুন উপায়।

আপনারা short videos এর description এর মধ্যে এফিলিয়েট লিংক যোগ করে সেখান থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

আমরা আগেই এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং কিভাবে করতে হয়, এই বিষয়ে আলোচনা করেছি।

এক্ষেত্রে আপনাকে অন্যান্য কোম্পানি গুলোর products এবং services গুলোকে নিজের ভিডিও ডেসক্রিপশন এর মধ্যে affiliate link এর সাহায্যে প্রচার করতে হয়।

যদি কোনো ইউসার আপনার দিয়ে দেওয়া affiliate link এর মধ্যে click করে সেই product কিনেন,

তাহলে আপনাকে সেই বিক্রির জন্যে কোম্পানির তরফ থেকে কিছু কমিশন দিয়ে দেওয়া হয়।

৪. Advertising Revenue from YouTube Shorts

বর্তমান সময়ে YouTube এর monetization program এর মধ্যে shorts videos গুলোকে যুক্ত করা হয়নি।

আপনাকে লম্বা লম্বা ভিডিও বানিয়ে সেগুলো আপলোড করে 1,000 subscribers এবং 4,000 watch hours এর নিয়ম মেনে, তারপর আপনি YouTube partner program এর জন্যে apply করতে পারবেন।

একজন Shorts creator হিসেবে আপনি YouTube partner program এর সাথে যুক্ত হতে পারবেননা।

এছাড়া, short এবং vertical content এর সাহায্যে advertising revenue সংগ্রহ করারও কোনো অন্য উপায় নেই।

তবে YouTube এখন এর পুরোনো কিছু নিয়ম এর মধ্যে পরিবর্তন নিয়ে এসেছে।

২০২৩ এর শুরুতেই, যেসব creators দের ৯০ দিনের মধ্যে 1,000 subscribers এবং 10 million Shorts views হয়ে যাবে,

সেই creators-রা YouTube partner program এর জন্যে apply করতে পারবেন।

এভাবে আপনারা কেবল শর্ট ভিডিও বানিয়েও YouTube Monetization Program এর জন্যে apply করতে পারছেন।

YouTube এর অন্যান্য monetization tools গুলোও আপনারা পাবেন যেমন, ad revenue on long-form videos, Super Thanks, Super Chats, Channel Memberships ইত্যাদি।

YouTube এর অন্যান্য income করার মাধ্যম গুলোর মতোই Shorts অবশই revenue-sharing model হিসেবেই ইনকাম করার সুযোগ দিবে।

Creators দের তাদের কনটেন্ট দ্বারা উৎপন্ন হওয়া advertising revenue এর 45% দেওয়া হবে।

সাধারণত অন্যান্য লং কনটেন্ট এর ক্ষেত্রে 55% দেওয়া হয় যদিও কিছু না পাওয়ার থেকে 45% কিন্তু অনেক।

 

আমাদের শেষ কথা,,

তাহলে, ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার যদি সোজা ও সরাসরি উপায় গুলোর কথা বলা হয়, তাহলে সেগুলো হবে,

  • YouTube Shorts fund এর দ্বারা bonus প্রাপ্ত করা,
  • একটি brand deal বা sponsorship এর দ্বারা,
  • YouTube Shorts এর views থেকে ad revenue গ্রহণ করা। (২০২৩ থেকে চালু হচ্ছে).

আমার হিসেবে ইউটিউব শর্টস থেকে উপার্জন করার সব থেকে দারুন উপায় হলো শেষের উপায়টি।

কারণ, ad revenue এর মাধ্যমে বিগত অনেক বছর থেকেই long video তৈরি করা creators-রা নিয়মিত লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করেই চলেছেন।

এছাড়া, যদি আপনি বড় বড় ভিডিও তৈরি করতে এতটা পছন্দ করেননা,

তাহলে এই ছোট ছোট short এবং vertical videos গুলো বানিয়ে সেগুলোতে বিজ্ঞাপন এর মাধ্যমে আরামে ইনকাম করতে পারছেন।

তাহলে আশা করছি ইউটিউবে শর্ট ভিডিও বানিয়ে কিভাবে টাকা আয় করা যাবে, এই বিষয়ে সম্পূর্ণটা বুঝতেই পেরেছেন।

আপনাদের মতামত নিচে কমেন্ট করে কিন্তু অবশই জানাবেন।

অবশই পড়ুন:

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top