ইউটিউবের নতুন নিয়ম কানুন, আইন এবং Monetization rules (২০১৯)

আপনি যদি, ইউটিউবের চ্যানেল বানিয়ে টাকা আয় করার কথা ভাবছেন, তাহলে সর্ব প্রথমে আপনার “ইউটিউবের নতুন নিয়ম কানুন“, নীতিমালা, “monetization rules“, “YouTube কপিরাইট আইন (copyright rules)” এবং তার পলিসির (policy) বেপারে সবটাই জেনে নিতে হবে। এ নাহলে, আপনার ইউটিউব চ্যানেল সম্পূর্ণ ভাবে ডিলিট হয়ে যেতে পারে। এবং, টাকা কমানোর সব সুযোগ চিরকালের জন্য হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা অনেক যদি আপনি ইউটিউবের আইন কানুন (video policy) মেনে না চলেন। (YouTube channel rules & policy guideline).

ইউটিউবে আইন এবং নিয়ম
New YouTube channel policy and rules !

যদি আপনার, ইউটিউব চ্যানেলের সাধারণ আইনের জ্ঞান না থাকে, তাহলে হয়তো আপনি আপনার চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার সুযোগ পাবেননা। কারণ, ইউটিউব কোনোদিন এমন চ্যানেল বা ভিডিও তার কাছে রাখেনা যে, তার ধরা বাঁধা নিয়ম বা আইন না মেনেই YouTube এর ব্যবহার করছেন।

তাই, YouTube channel বানানোর আগেই, আপনি ভালো করে, “YouTube copyright আইন”, “নতুন নিয়ম”, YouTube এর পলিসি এবং monetization আইন (rules) এর বেপারে সম্পূর্ণ রূপে জেনে নিতে হবে। চিন্তা করবেননা, আমি আপনাদের সম্পূর্ণ টাই নিচে ভালো করে বলে দেব।

এতে আপনারা নিজের চ্যানেলে “policy violation“, “ভিডিওতে কপিরাইট  strike” এবং “ভিডিও monetization” এর সাথে জড়িত সব রকমের সম্যসার থেকে চ্যানেলকে দূরে রাখতে পারবেন এবং কেবল নিজের কাজে মন দিতে পারবেন।

Also read

তাহলে চলুন, এখন বেশি কথা না বাড়িয়ে নিচে আমরা ইউটিউব চ্যানেলের সবধরণের আইন (policy & rules) এবং টাকা আয় করা শুরু করার জন্য “monetization আইনের (video monetization rules) গুলির বেপারে জেনে নেই।

ইউটিউবের নতুন ৫ টি নিয়ম কানুন এবং আইন (YouTube rules & policy)

channel policies and rules

আগে YouTube এ এতটা কড়া আইন কখনোই ছিলোনা। কিন্তু, দিনে দিনে বেড়েযাওয়া “কপিরাইট সমস্যার” জন্য এবং “লো কোয়ালিটি (low quality) ভিডিও” সম্যসার জন্য এই কড়া (strict) আইন বের করতে YouTube বাদ্ধ হয়েছে।

এবং, এই ইউটিউবের নিয়ম বা আইনের জন্যই, আজ YouTube এ ভালো ভালো এবং high quality ভিডিও আপলোড হচ্ছে। এতে, অনেক advertiser (বিজ্ঞাপন চালক) রা ইউটিউবে বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য তাকে টাকা দিচ্ছেন এবং এতে আমরাও ইউটিউবের থেকে টাকা আয় করার সুযোগ পাচ্ছি।

তাই, এই নিয়ম বা পলিসি রুলস গুলি আমাদের জন্য, ইউটিউবের জন্য এবং তার advertiser দেড় জন্য সবের জন্য অনেক জরুরি এবং লাভদায়ক।

 

১. অন্যদের ভিডিও, ছবি, গান (audio) ব্যবহার করবেননা (copyright rules)

ইউটিউব কপিরাইট নিয়ম
ইউটিউব কপিরাইট আইন

মন দিবেন, সব সময় নিজের বানানো অরিজিনাল ভিডিও ইউটিউবে আপলোড দিবেন। আপনি যদি, অন্য কারোর ভিডিও ইন্টারনেট থেকে নিয়ে নিজের চ্যানেলে আপলোড করেন, তাহলে আপনার চ্যানেলে copyright strike আসতে পারে। Copyright strike লাগাতার (পরে পরে) ৩ টি হলে আপনার সম্পূর্ণ চ্যানেল ইউটিউবের থেকে ডিলিট হয়ে যাবে। এর পর আপনি অন্য চ্যানেল বানাতে পারবেননা। একেই বলা হয় YouTube এর কপিরাইট পলিসি

Copyright পলিসিকে ভালো করে বুঝুন

হে, আপনারা চাইলে অন্যদের ভিডিও দেখে তার থেকে আইডিয়া (idea), ধারণা (concept) বা জ্ঞান নিয়ে নিজের একটি আলাদা ভিডিও বানাতে পারেন। এতে, আপনার copyright violation এর কোনো ভয় থাকবেনা।

কিন্তু, সোজাসোজি অন্য কারো বানানো ভিডিও, ক্লিপ (clip) বা ভিডিওর কোনো অংশ আপনি ব্যবহার করতে পারবেননা।

যদি ব্যবহার করেন, তাহলে এইটা মনে রাখবেন, আপনি যার (copyright owner এর) ভিডিও, ক্লিপ বা কোনো ভিডিওর অংশ ব্যবহার করছেন সে আপনার চ্যানেলের ওপরে copyright claim করতে পারে।

ফলে, আপনার কপি করা ভিডিও গুলিতে ইউটিউবের দ্বারা copyright strike আসতে পারে। এবং, আমি যা আগে বলেছি, পর পর ৩ টি copyright strike চ্যানেলে আসলে আপনার চ্যানেল চির কালের জন্য ডিলিট (delete) করে দেয়া হবে।

আবার, অনেক সময় হয়তো আপনার আইনগত শাস্তি বা জুরমানা (penalty) ভরতে লাগতে পারে।

তাই, যা ভিডিও বানাবেন, তাতে কেবল নিজের কনটেন্ট (content) ব্যবহার করবেন।

ইন্টারনেটে থাকা অন্য কারোর ভিডিও, images, গান, ভয়েস (voice clip) বা কিছুই ব্যবহার করবেননা। কেবল, নিজের unique কনটেন্ট দ্বারা ভিডিও বানানোই আপনার আসল অগ্রাধিকার (priority) থাকতে হবে।

Image copyright (Royalty ফ্রি ছবি)

ভিডিওতে কোনো ধরণের ছবি, যেমন “thumbnail images” ব্যবহার করলে সেগুলি ইন্টারনেটে থাকা “Royalty free images website” থেকে ব্যবহার করবেন।

Royalty free ছবি জেকেও নিজের ওয়েবসাইটে, ব্লগে বা ভিডিওতে কোনো ভয় ছাড়া ব্যবহার করতে পারে। কারণ সেই ছবির কোনো মালিকানা অধিকার থাকেনা। অন্য ভাবে বললে royalty ফ্রী ছবি মানে copyright free ছবি। তাই, জেকেও সেগুলি ব্যবহার করতে পারেন।

কিছু royalty free images ওয়েবসাইটের নাম হলো – Pixabay এবং pexels. এগুলি সাইট থেকে আপনি নিজের ব্লগ বা ইউটিউবের চ্যানেল বা ভিডিওর জন্য ছবি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি যদি, গুগল থেকে বা অন্য ওয়েবসাইট থেকে ছবি ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার ভিডিওতে copyright strike এসেযাবে। কারণ, সেই ছবিগুলোর আসল owner বা মালিক অন্য এবং আপনি তাদের ছবি এভাবে ব্যবহার করতে পারবেননা।

Copyright ফ্রী music বা audio

আমরা অনেক সময়, নিজের YouTube চ্যানেলের ভিডিও গুলিতে background music বা অডিও দিয়ে ভালো পাই।

কিন্তু, আপনি নিজের ভিডিওতে যেকোনো audio বা music ব্যবহার করতে পারবেননা। Royalty ফ্রি images এর মতোই আপনার Royalty free music নিজের ভিডিওতে ব্যবহার করতে হবে।

এতে, ভিডিওতে ব্যবহার করা audio গুলিতে কারো মালিকানা অধিকার থাকবেনা এবং তাই কেও আপনার ভিডিওতে copyright claim করার সুযোগ পাবেনা।

নিজের ইউটিউবের ভিডিও গুলির জন্য আপনারা Royalty free audio অনেক ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। কেবল Google এ “Royalty free music” লিখে সার্চ করলেই হলো।

এর বাইরেও আপনারা “YouTube এর audio library” থেকে music বা audio ডাউনলোড করে নিজের ভিডিওতে ব্যবহার করতে পারবেন।

২. ভিডিও অতিরিক্ত শেয়ার করবেননা

দেখা গেছে যে, আপনি যদি ইউটিউবের ভিডিও অনেক বেশি ভাবে শেয়ার করেন, তাহলে ইউটিউব আপনার ভিডিওতে monetization disable করেদিতে পারে। এতে, আপনার টাকা কমানোর রাস্তা বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

কারণ, ইউটিউব organic search traffic বেশি পছন্দ করে যেগুলি আমরা গুগল সার্চ বা ইউটিউবের ভিডিও সার্চ থেকে পায়।

এবং, ফেসবুক, টুইটার বা অন্য কোনো সোশ্যাল মিডিয়া সাইট থেকে আশা ভিউ বা ট্রাফিক ইউটিউব পছন্দ করেনা।

তাই, চেষ্টা করবেন যাতে আপনার ভিডিও গুলিতে সবচে বেশি ভিউ গুগল সার্চ বা ইউটিউবের সার্চ থেকে হোক।

নিজের ভিডিও, সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলিতে অল্প স্বল্প শেয়ার অবশই করবেন কিন্তু অতিরিক্ত শেয়ার আপনার চ্যানেলের জন্য অনেক ক্ষতিকারক হতে পারে।

৩. ভিডিও Nudity and sexual content policies

আপনার আপলোড করা ভিডিওতে কোনোরকমের NUDITY (অশ্লীলতা) থাকতে পারবেনা। অশ্লীল ভিডিও বা ছবি থাকলে সে ভিডিও ইউটুব কোনোদিন মেনে নিবেন এবং আপনার চ্যানেল BLOCK বা DELETE হয়ে যেতে পারে।

৪. Hacking (হ্যাকিং) এর সাথে জড়িত ভিডিও

হ্যাকিং বা এরকম ধরণের কোনো ভিডিও আপনি বানাতে পারবেননা যেখানে হ্যাকিং এর ব্যাপারে বলা হচ্ছে বা শিখানো হচ্ছে।

৫. Low quality ভিডিও বানাবেননা

ইউটিউব তার ইউসার দেড় ভালো এবং কামে আশা ভিডিও দেখাতে চায়। এবং তাই, যদি আপনার ভিডিওতে কোনো ধরনের কাজের জিনিস নেই বা সে low quality র তাহলে তাতে বিজ্ঞাপন দেখানো হবেনা। এতে, আপনার আয় করার সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যাবে।

তাই, সব সময় এমন ভিডিও বানাবেন যেগুলি লোকেরা দেখে ভালো পান , যেগুলিতে কাজের জিনিস থাকে এবং যেগুলির থেকে লোকেরা অনেক কিছু শিখতে পারে।

এমন ভিডিও, যেগুলিতে কাজের অনেক কিছু শিক্ষা যায় এবং লোকেরা দেখে ভালো পান, সেগুলিকে High quality ভিডিও বলে। এবং, এমন ভিডিও ইউটিউব অনেক ভালো পায়।

ইউটিউবের নতুন monetization আইন এবং নিয়ম

YouTube নতুন monetization rules

নিজের ইউটিউবের চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনার Channel monetization চালু করতে হবে।

কিন্তু দাঁড়ান,

YouTube চ্যানেলে টাকা আয় করা চালু করার জন্য আলাদা ভাবে কিছু নিয়ম কানুন মানতে হবে। এবং, এই আলাদা নিয়ম কানুন গুলিকে বলা হয়, “YouTube monetization rules”.

সব ধরনেক monetization এর আইন মানার পর, আপনার চ্যানেল ইউটিউবের কর্মচারীরা manually চেক করে দেখবেন।

এবং, তারপর আপনার চ্যানেলে যদি সব ঠিক থাকে, ইউটিউবের সব নিয়ম যদি আপনি মেনেছেন, তাহলে তারা আপনার চ্যানেলে monetization enable বা চালু করে দিবে।

তারপর, আপনি নিজের ভিডিওতে, Google এডসেন্স এর দ্বারা দেখানো বিজ্ঞাপন দ্বারা টাকা আয় করতে পারবেন।

ইউটিউব monetization rules ২০১৯

  • চ্যানেলে টাকা আয় করা শুরু করার জন্য, আপনার সর্ব প্রথমে লাগবে ৪০০০ ঘন্টার watch hours. ১২ মাসের ভেতরে আপনার সব ভিডিও মিলিয়ে লোকেরা যাতে মোট ৪০০০ ঘন্টা আপনার ভিডিও দেখেন। সেই, ৪০০০ ঘন্টা ভিউ আপনার একটি ভিডিওতে হতে পারে বা সব ভিডিও মিলিয়েও হতে পারে।
  • ১২ মাসের ভেতরে আপনার টোটাল ১০০০ সাবস্ক্রাইবার (subscriber) হয়ে যেতে হবে।

আমি ওপরে বলা শর্ত গুলি আপনি যাওয়া ১২ মাসের ভেতরে পুরা করলে, YouTube নিজেই আপনার চ্যানেল রিভিউ করবে।

এবং আপনি যদি ইউটিউবের সবধরণের policy, নিয়ম এবং আইন মেনেছেন, তাহলে আপনার চ্যানেলে monetization চালু করে দেয়া হবে।

 

আমাদের শেষ কথা,

তাহলে বন্ধুরা, আশা করি আপনি আপনাদের সব ধরণের ইউটিউবের আইন, নিয়ম এবং monetization rules বুঝিয়ে বলতে পেরেছি। এই, নিয়ম কানুন গুলি আপনারা ভালো করে মেনে চললে, আপনারা YouTube চ্যানেল দ্বারা অনেক টাকা আয় করতে পারবেন এবং আপনাদের কোনো রকমের সম্মস্যার সম্মুখীন হতে হবেনা।

Also read – 

0 Shares

A Blogger & Author ! Rahul Das is recognized as a technology Blogger who founded "BanglaTech" & "SidhaJawab". He is passionate about blogging. ❤️

120 thoughts on “ইউটিউবের নতুন নিয়ম কানুন, আইন এবং Monetization rules (২০১৯)”

  1. মো: রাশেদ

    1..ভাই , আমি যদি আমার 2টা কম্পিউটার থেকে ভিডিও দেখে আমার বন্দুর চ্যানেলের 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম করে দেই তাহলে কি সেটা কোন সমস্যা হবে?
    2..ভাই ভিডিও ‍যে কেউ দেখে 4000 ঘন্টা করে দিলে কি সময় হিসাব হবে।
    4/5 টা জিমেইল দিয়ে যদি 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম করা হয় তাহলে কি কোন সমস্যা হবে? এক্ষেত্রে সময় যোগ হওয়াতে তে কি কোন সমস্যা হবে। একটু বিস্তারিত করে জানালেল উপকৃত হতাম।

    1. আপনি যেগুলো বিষয় নিয়ে ভাবছেন, এগুলো কোনো কাজের না। এভাবে, watch time বা view কোনোমতেই বাড়বেনা। আপনার কম্পিউটারের IP address একটাই।

  2. আমার ভিডিওতে Copyright claim দেখাচ্ছে কিন্তু ডিটেইস এ গেলে (The Content ID claim on your video doesn’t affect your channel. This is not a copyright strike. )এবং (Visibility:Public- Everyone can see this video .)এই রকম দেখাচ্ছে এতে কি চ্যানেলের কোন সমস্যা হবে ?

    1. আপনার ভিডিওতে বর্তমানে কেও claim করেছে। তবে, গুগল সেটাকে এখনো verify করেনি। যদি আপনার video তে কোনো copyright content থাকে তাহলে অবশই strike পরবে। বর্তমানে কোনো সমস্যা নেই যদি আপনি কিছু কপি করে ভিডিওতে ব্যবহার করেননি।

  3. আসসালামুআলাইকুম । আমার একটা ইউটিউব চ্যানেল আছে..চ্যানেলটা ১৯ মে ২০১৭ তে খুলেছিলাম।প্রথম ভিডিও আপলোড করি ১ সেপ্টম্বর ২০১৮ তারপর চ্যানেল টি কন্টিনিউ করতে পারিনি।এখন আবার ১ মাস হলো আমি ভিডিও আপলোড দিচ্ছি।এখন আমি বুঝতে পারছি না আমার চ্যানেল টা মনিটাজেশন হবে কি না। প্লীজ আমাকে যদি একটু উপকার করতেন আমি বুঝতে পারতেছিনা আমার চ্যানেলটা কি ইউটিউব থেকে কন্টিনিউ করবে নাকি বন্ধ করে দিবে প্লীজ উত্তরটা দিবেন

    1. অবশই হবে monetization. তবে, আপনার চ্যানেলে টোটাল ৪০০০ ঘন্টার ওয়াচ টাইম এবং ১০ হাজার ভিউ হতে হবে তারপর।

  4. দুই বার কপি রাইট ক্লিম খাইলে কি এই একাউন্ট কোনো সময় মনিটাইজ হবে

    1. যতটুকু আমি জানি, ৩ বার ক্লেম খাওয়ার পর, আর হয়না।

  5. কোনো বলিউডমুভিতে নিজের তৈরি বাংলা সাবটাইটেল যোগ করে ইউটিউবে আপলোড দিলে কপিরাইট এর অন্তর্ভুjক্ত হবে কি?

    1. আমার হিসেবে এই ধরণের ভিডিওতে copyright strike আসবে।

  6. আমি ইংলিশ কার্টুন বাংলায় ডাবিং করতে চাই
    কোনো সমস্যা হবে কি

    1. কার্টুনঃ কোম্পানি আপনার ওপরে কপিরাইট ক্লেম করতে পারে।

    1. কোনো ধরনের কপি করা ভিডিও ব্যবহার করলেই সমস্যা হবে।

  7. Chandon kumer Roy

    dada jodi 4000 wach time na hoy but 1000 subscribe hoy….or 1000 subscribe na hoy but 4000 wach time hoy tahole ki monitizetion kra jabe

    1. না ভাই হবেনা। বর্তমান সময়ে ইউটিউব তাদের নিয়ম গুলো নিয়ে অনেক কঠোর।

  8. মোস্তাকীম

    দাদ আমি কি গেম রেকর্ড করে আপলোড দিতে পারব? আর গেম ওনারা কে ক্লেইম দিতে পারবে?

    1. অবশই পারবেন, বর্তমান সময়ে গেম রেকর্ড করে ইউটিউবে আপলোড করার চ্যানেল গুলোর জনপ্রিয়তা অধিক। চেষ্টা অবশই করে দেখুন।

      1. মোস্তাকীম

        ধন্যবাদ দাদা উত্তর দেওয়ার জন্য। আর একটা প্রশ্ন আমি যদি কাউন্টি বাংলাদেশ দেই তাহলে কি অন্য দেশের ভিজিটরদের সার্চ এ আমার ভিডিও শো করবে?

  9. দাদা, যে কোন মুভি বা ভিডিওর অংশ ইডিট করে ইউটিউবে ইউস করা যাবে কি? আর পারা গেলে কপিরাইট থেকে বাচতে কি কি করনীয়? Credit যদি ভিডিওর নিচে দিয়ে দেয় তাহলেও কি কপিরাইট এ পরার সমভাবনা আছে কি?

    1. আমি এই কাজ করার পরামর্শ দিবোনা। এতে, copyright strike আসবেই।

      1. ধন্যবাদ দাদা, তাহলে কি ধরনের বিষয় নিয়ে ভিডিও বানানো যেতে পারে? গেমিং ভিডিও তেও কি কপিরাইট হয়?

  10. রিয়াজ উদ্দিন

    ভাই,আপনার লেখা আমার অনেক পছন্দ হয়েছে।
    আপনাকে ধন্যবাদ।

  11. আমি কিভাবে ইউটিউব এ monetization চালু করবো বলবেন প্লিজ

    1. ভাই একবার আপনার চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টার ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইবার হয়ে গেলে, ইউটিউবে থাকা monetization enable করে এপলাই করতে পারবেন।

        1. YouTube এর monetization tab এর মধ্যে গিয়ে enable বাটনে ক্লিক করুন। সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া বুঝতে পারবেন।

    2. আমি যদি রোস্টিং ভিডিও বানানোর সময় বিভিন্ন ধরনের ফানি ২বা ৩সেকেন্ড এর ভিডিও ক্লিপ আমার ভিডিওতে সেট করি তাহলেকি কোনো সমস্যা হবে?

      1. না, সেটা অনেকেই করছেন তাই আপনিও পারবেন। তবে, অধিক বেশি সময় ক্লিপ ব্যবহার করবেননা।

        1. ast akther hossain shakil

          ভাই আমার চ্যানেলের বয়স ১ বছরের বেশি আমি যদি এখন আগামী ৩৬৫ দিন মানে এক বছরের ভিতরে ১০০০ সাবস্ক্রাইব ৪০০০ ঘন্টা ওয়াশ টাইম আনতে পারি তাহলে কী মনিটাইজেশন পাবো বা সেক্ষেত্রে আমার আগের ভিডিওর নতুন ভিউ বা ওয়াশটাইম এড হবে

          1. ১ বছরের ভেতরে মানে ৩৬৫ দিনের ভিডিও watch এবং subscriber ধরা হবে। সে যেকোনো ভিডিওতেই হতে পারে।

          2. দয়া করে আমাকে দুইটি প্রশ্মের উওর দিয়ে সাহায্যে করবেন।

            No.1
            top5, top 10,amazing , or country relevant video তৈরি করতে গেলে goolge or Wikipedia থেকে information, video ,image নিতে হবে। তখন তো copyright issues মধ্যে পরবে কিনা……?
            No.2
            আমি এই related YouTube channel create করতে চাই এবং channel কোন cetagory হবে….?

          3. ১. আপনি তথ্য নিতে পারবেন কোনো সমস্যা হবেনা। তবে তথ্য গুলো নিজের মতো করে ভিডিওতে প্রকাশ করবেন।
            ২. information category.

  12. দাদা আমি যদি অন্যের ভিডিও, যেমনঃ১০ টা অন্যের চ্যানেল এর ভিডিও কেটে কেটে নিজের চ্যানেলে, নিজে মিউজিক দিয়ে ইডিয়ট করে।আমার চ্যানেলে আপলোড করি তাহলেও কি কপিরাইট স্ট্রাইক আসবে?

    1. ভাই অন্যের তৈরি করা যেকোনো কনটেন্ট copyright strike এর কারণ হতে পারে।
      নিজে কনটেন্ট তৈরি করে আপলোড করার পরামর্শ রইলো।

  13. বিকাশ চন্দ

    ভাই আমি যদি অন্যের ভিডিও এডিট করে আপলোড করি তাহলে কি কোনো সমস্যা হবে। মানে একটি মুভির বা কাটুন, খেলা, জীব জন্তুর একশন সট গোল নিয়ে এডিট করে আপলোড করলে কি কোনো সমস্যা হবে আমার চ্যানেলে

    1. অন্যের ভিডিও নিজের চ্যানেলে আপলোড দিলে, সেটা google policy র বিপরীতে কাজ করা বোঝাই।
      এই ক্ষেত্রে, চ্যানেলে copyright strike আশার সুযোগ প্রচুর।

  14. Vaia Android Phone Akta Gmail Id dia Ki Akta Chanal Khola Jai? Akta Phone Ki Duita Chanal Khola Jai,Jodi Duita Gmail Account Thake?

  15. Princejaminur.com

    ভাই আমি নতুন ইউটুব চেনেল খুলেছি এখন পযর্ন্ত কোনো ভিডিও দেওয়া হয় নি সময় বুঝে দিমু। কোনো সমর্স্যা হবে না তো। হলে যানাবেন।

    1. যখন ভিসাও দেওয়া শুরু করবেন, তারপর রেগুলার ভিডিও আপলোড দিতে থাকবেন।

  16. ভাইয়া! আমার আপলোড করা ভিডিও যদি অন্য কেউ স্যোসাল মিডিয়াতে শেয়ার করে, তাহলে কি সমস্যা হবে?? প্লিজ জানাবেন।

    1. না, এতে কোনো সমস্যা হবেনা তবে আপনার লাভ হবে। আপনি ফ্রীতে সোশ্যাল মিডিয়া ট্রাফিক নিজের ভিডিওতে পেয়ে যাবেন।

  17. ভাইয়া আমি দেড় বছর আগে চ্যানেল খুলেছি,250 এর মত সাবস্ক্রাইবার হয়েছিল।এখন কি করবো ১২ মাসে তো আমি শর্ত পূরন করতে পারিনি।এখন যদি কোনো টিপ্স দেন তাহলে উপকৃত হবো।

    এখন অই চ্যানেলেই ভিডিও আপলোড করবো নাকি আরেকটা চ্যানেল খুলতে হবে?😕
    প্লিজ
    অগ্রিম ধন্যবাদ❤

    1. দেখুন, যদি বর্তমানে থাকা চ্যানেলটির বিষয় আপনার ভালো লাগছে, তাহলে সেটা নিয়েই কাজ করুন। বা, আপনি যদি ভাবছেন যে, একটি ভালো বিষয় বা niche নিয়ে আরেকটি চ্যানেল খুলবেন, তাহলে সেটাও করতে পারেন। তবে, চ্যানেল যেটাই হোক, ভিডিও রেগুলার আপলোড করতে হবে।

  18. ALOKNATH MAHATO

    দাদা আমি কি অন্য কারো ভিডিও ফুটেজ কে ছবি হিসেবে কিছু অংশে ব্যবহার করতে পারি?

    1. হে সেটা করা যেতে পারে, তো যদি information, knowledge, news বা tutorial এর ক্ষেত্রে ব্যবহার করছে, তাহলে পারবেন।

      1. Md akhirul islam

        ভাই আমি টিভি সিরিয়াল বা কার্টুন আপলোড দিতে সেটা কিভাবে আপলোড দিব ইউটিউব এ একটু বলে দিবেন please…

        1. চ্যানেল তৈরি করুন তারপর upload button এ ক্লিক করে।

  19. পিক্সেল বা পিক্সাবাই থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে সেগুলো আমার ইউটিউব ভিডিওতে ব্যবহার করলে কি কপিরাইট খাবে

    1. অবশই হবে। এই ধরণের কাজ করে সফল ইউটিউবার কখনোই হতে পারবেননা।

  20. টিকটক ভিডিও ইউটিউবে ছারলে কি কপিরাইট বা স্ট্রাইক খাবে?

    1. আপনি যদি অন্যের ভিডিও ছাড়ছেন, তাহলে অবশই হবে।

    1. ভিডিওর জন্য কীওয়ার্ড রিসার্চ করুন এবং তার পর সেই লাভজনক কীওয়ার্ড গুলি নিয়ে রেগুলার ভিডিও তৈরি করুন।

  21. ভাইয়া আমি যদি অন্য কাওকে আমার কন্ঠ দিয়ে ভিডিও বানিয়ে দি এবং আমার নিজের চেনেলেও আমার কন্ঠ দি তাহলে কি সমস্যা হবে।PLZ VAIA BOLBEN

      1. Hello brother…
        আমি আমার video তে বাংলা গান upload করেছি।আমি গানের সুরে সুরে প্রতিটা লাইন video তে প্রকাশ করেছি,video ছাড়ার আগে processing এর সময় youtube আমাকে নির্দেশ দেয় এ, আমি নাকি অন্য কারো music add করেছি। কিন্তু আমি বাদ দেই না। এখন আমার প্রশ্ন হলো, পরে কি আমি strike পেতে পারি? বা strike পড়া ছাড়া আমি কিভাবে আমার channel এ অন্যের গানের lyrics টা ছাড়তে পারবো?
        গানের কোনো অংশ বাদ দেওয়া ছাড়াই…

        1. এভাবে অন্যের গান বা গানের অংশ নিজের ভিডিওতে ব্যবহার করলে, strike পড়বেন এতে করার কিছু নেই।

  22. তাহলে যদি ভিডিও আপলোড করার পর একবার টুইটার এ লিঙ্ক সহ ছবি দিয়ে বুস্ট করতে থাকলে কোনো সমস্যা হবে কি

  23. দাদা আমি আমার কয়েকটা ভিডিও তে যেকোন ডাওনলোড করা Photo Thamlines ব্যবহার করছি
    এখন আমার চ্যানেল টা কি Copyright হবে।

    1. ছবির মালিক যদি অভিযোগ করেন, তাহলে অবশই সমস্যা হবে।

        1. ভাই চ্যানেলের বয়স যদি দুই বছর হয়ে গেছে, মন্টিজেশন হবে?

  24. Bangla Tech সত্যিই আপনার সহযোগিতামূলক মনোভাব দেখে আমি মুগ্ধ। ভাইজান, আমার চ্যানেলটি ভেরিফাইড হয়েছে। মানিটাইজেশন করার সময় United states দিয়ে মানিটাইজ করেছি। এডসেন্স সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এখন চতুর্থ ধাপ রিভিউ বাকী আছে। অন্যান্য শর্তাবলী পূরণ আছে। প্রশ্ন হলো– আমি চ্যানেলে বর্তমানে বাংলাদেশ কান্ট্রি দিয়ে রেখেছি। এতে কি রিভিউ সমস্যা হবে ?? আর যদি পুনরায় United states দেই তাহলে কী কোন সমস্যা হবে? দয়া করে জানাবেন প্লিজ।

    1. আপনি যে দেশ থেকে চ্যানেল ব্যবহার করছেন, সেই দেশের নাম দিতে হবে. নাহলে, সমস্যা অবশই হতেই পারে।

  25. 2d animation video তে কি youtube monitization দেয়? আমি animation video বানাতে পারি

  26. রাব্বি

    ভাই আমার একটি চ্যানেল আছে এবং সেটাতে কোনো ভিডিও নাই কিন্তু ১০০০ সাবস্ক্রাইব এবং ৪০০০ ঘন্টা watchtime রয়েছে তাহলে কি ইউটিউব আমার চ্যানেলটি মনিটাইজ করবে.???

  27. vai amr 1st youtube channel a monetization enable sob kichu complete korchi….amr nijer details abong addres diye..ami ekhon oi channel delete korchi..natun ekta channel khulchi…ekhon ki ami 2nd time amr details diye monetization enable korte parbo….ata ki somvob bro please answer dile happy hotam

    1. অবশই পারবেন তবে MONETIZATION ENABLE করার জন্য আবার সেই শর্ত গুলি পুরো করতে হবে।

  28. আমার ৪০০০ ঘন্টা নিয়ে একটা প্রশ্ন আছে ভাই । মনে করেন আমার চ্যানেল এ ৪০০০ ঘন্টা হতে ১৫/১৬ মাস সময় লাগলো তাহলে কি কোন সমস্যা হবে?? নাকি ১২ মাসের মধ্যে ই ৪০০০ ঘন্টা হতে হবে ?

  29. মামুন

    ভাই আমি ওয়াচ টাইম বাড়ানোর জন্য যদি আমার কিছু বন্ধু দিয়ে কয়েক ঘণ্টা করে ভিডিও দেখায় বা আমার কম্পিউটার থেকে অন্য জিমেইল লগইন করে ভিডিও দেখি তাতে কি সমস্যা হবে… আশা করি উত্তর টা জানাবেন???

    1. এভাবে ওয়াচ টাইম বাড়ালে আপনার চ্যানেলের জন্য অনেক খারাপ হবে। এই মাধ্যম ব্যবহার করবেননা।

  30. ইউটিউবে দেয়া হয়নি এমন কোনো ফোনে ধারণকৃত হলপ্রিন্ট মুভি থেকে নেয়া হলে কি কপিরাইট ধরা হবে… জানাবেন প্লিজ

    1. যেকোনো ভিডিও,সিনেমা, ছবি বা যেকোনো জিনিস যেটা আপনার নয় এবং অন্য কেওর তৈরি করা, সেই সব কনটেন্ট এর copyright holder তারা। এবং, সেই অন্যরা বানানো কনটেন্ট আপনি আপনার চ্যানেলে আপলোড দিতে পারবেননা।

  31. বেশ কিছু চ্যানেল (The box tube, Funny frog creative) দেখা যায় যে তারা বিভিন্ন ইংরেজি চ্যানেলের অংশ বিশেষ ব্যবহার করে থাকে। আমার প্রশ্ন- কি পদ্ধতি অবলম্বন করলে কপিরাইটে পড়বে না?

    1. হে,এরকম অনেক চ্যানেল রয়েছে যদিও, আজকে নাহয় কাল, তাদের monetization disable করে দেয়া হবে।

  32. উত্তর প্রদানের জন্য ধন্যবাদ ….আমি যে ভিডিও গুলি ইউটুবে আপ্লোড দেই সেইগুলি কপিরাইট ফ্রি রাখি …এখন যদি অন্য একটা id থেকে কোনোরকম পরিবর্তন না করে সব ভিডিও নতুন করে আপলোড দেয় তাহলে কি আমরা 2 জন্ মনেটিজেশন পাবো ..আর এতে চ্যানেল এর কুনো সমস্যা হবে কি ?

    1. কোনো সমস্যা হতে লাগেনা কারণ আপনি যতক্ষণ copyright strike দিবেননা ততক্ষন ইউটিউব এবেপারে কোনো action নিবেন। তবে, একই ভিডিও নিয়ে ২ তো চ্যানেল monetization পাবেননা।

  33. সাফা আলম

    আমার চ্যানেলের ভিডিও যদি অন্য কারো chhanle এ দেয়া হয় আর আমি যদি কপি রাইট ক্লেম না করি তাহলে কি ওই চ্যানেল কপিরাইট স্ট্রাইক খাবে …কপি রাইট ফ্রি ভিডিও যদি কুনো চ্যানেলে এ দিয়ে 4000 hour and 1000 sub hoy tahole ki মনিটিজেশন পাবে …যদি উত্তর দেন তাহলে কৃতজ্ঞ থাকবো

    1. আপনার চ্যানেলের ভিউ অন্য চ্যানেলে কিভাবে দিবেন ? বিষয়টা বুঝিয়ে বলুন। আর, আপনি copyright claim না করলে সেই চ্যানেলে স্ট্রাইক পড়বেনা। হে, copyright content দিয়ে সহজেই monetization পাওয়া যাবে।

  34. আমি পাচ থেকে ছয়বার কপিরাইট ক্লেইম খেয়েছি এখনো আমার একাউন্ট ভালো রয়েছে, আসলে আমি আগে কপিরাইট সম্পর্কে জানতামনা, এখন কি আমার একাউন্টে কোন সমস্যা হবে, বা পরবর্তীতে কি কোন সমস্যা হবে?

    1. আপনি বর্তমানে ভালো করে নিজের original content নিয়ে কাজ করতে থাকুন। সমস্যা হতে লাগেনা।

  35. ভাই টম এন্ড জেরি কার্টুন ডাউনলোড করে ইউটিউবে ছাড়ছি।এতে WBTV কপিরাইট ক্লেইম দিয়ে সমস্ত টাকা তারা নিয়ে নিবে।এমন অবস্থায় digitalworld4u man চ্যানেল কমেন্ট করছে আমি তাদের বিডিও এর ডাবিং ব্যবহার করছি এর জন্য কপিরাইট স্ট্রাইক দিবে।আমি বলতে চাই যেখানে WBTV অলরেডি ক্লেইম দিছে সেখানে digitalworld4u man কিভাবে স্টাইক দিবে?

    1. ইউটিউবে কখনো অন্যদের বানানো ভিডিও বা কনটেন্ট দিবেননা। এতে আপনি বিপদে পড়তে পারেন এবং, আপনার চ্যানেল monetization কখনো approve হবেনা।

  36. ভাই আমার আমার ২০০০+ সাবসক্রাইব হয়ে গেছে। এখন বাকি আছে শুধু ওয়াচ টাইম। সেটা হয়ে গেলে কি আমি মনেটাইজ করতে পারবো?

    1. আর হে, একটা কপি মুভি আপলোড দিয়েছিলাম তবে কোনো স্ট্রাইক হয় নি চ্যানেলে। এতে কি কোনো সমস্যা হবে?

      1. এখন যদি হয়নি তাহলে তৈরি থাকুন, অনেক জলদি হয়েযাবে।

    2. অবশই পারবেন। তবে, সবটাই কিন্তু ১২ মাসের ভেতরে হতে হবে।

  37. মোঃ নায়েব আলী

    ভাই, আমার মনিটাইজেশন প্রায শেষের দিকে অর্থাৎ adsense একাউন্ট খুলতে ৪ টি পয়েন্ট আছে এর ৩টিই ওকে হয়েছে।কিন্তু ৪ নংটি ওকে হচ্ছে না কেন?৪ এ আছে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম ও ১০০০ সাবস্ক্রাইব। আমার আছে ৯৮৭ ও ৭৭। এমতাবস্থায় কিভাবে একাউন্ট এফ্রুভেল হবে?বলবেন কি?

    1. ভাই, আপনার চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টার ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইবার ১২ মাসের ভেতরে হতে হবে. নাহলে আপনার চ্যানেল monetization review এর জন্য কখনোই যাবেনা।

    1. অবশই হবে। এবং নেয়ার কোনো প্রয়োজন ও নেই। আপনি pixlar বা pixabey বা canva ব্যবহার কোরে ফ্রি স্টক ইমেজ ব্যবহার করতেই পারবেন। গুগল সার্চ থেকে image কিন্তু নিবেননা।

  38. আমার একাউন্ট মুভ করে নাম পরিবর্তন ও ব্রান্ড একাউন্ট করেছি। এখন কি মনিটাইজেশন দেবে??
    জানাবেন দাদা।।
    ধন্যবাদ আপনা।

    1. নামের সাথে কোনো কথা নেই.কেবল, নিয়ম কানুন গুলি ভালো ভাবে মেনে কাজ করতে হবে।

  39. সাহিল

    আমি একটা বিভিন্ন ধরণের সিনেমার কিছু হাস্যকর ও আরও অনন্য যেমন একশন সিন এরকম কোনো সিনেমার কিছু অংশ নিয়ে সেই অংশে আমার নিজের মতো কিছু এডিট করে আমি youtube আপলোড করতে চাই তাহলে ও কি কপিরাইট স্ট্রাইক আসবে, যদি আসে তাহলে তো youtube আরও অনেক এরকম ভিডিও আছে তাহলে তাদের ও কি স্ট্রাইক হয়।
    দোয়া করে আমার এই প্রশ্নগুলির উত্তর আমার জিমেইল এ পাঠিয়ে দিবেন।
    আমার জিমেইল id-

    1. ইউটিউবে যদি সফলতা পেতে চান, তাহলে এসব নিয়ে সময় নষ্ট করবেননা। এতে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করাটা প্রায় নার সমান। তাই, ভালো ভালো টপিক নিয়ে নিজের ভিডিও বানান। লোকেরা পছন্দ করলে সফলতা সামনেই থাকবে। এবং, original content দ্বারা এডসেন্স বা ইউটিউব বিজ্ঞাপন লাগিয়ে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

    1. সেটা আপনার ওপর, আপনি একদিনে করুন বা ১ বছরের ভেতরে যেকোনো দিনে।

  40. মাসুদ

    “চার হাজার মিনিট”ও বলা হয়েছে “চার হাজার ঘন্টাও” বলা হয়েছে, কোনটা সঠিক?
    ধন্যবাদ লেখার জন্য অনেক কিছু জানলাম।

    1. comment করার জন্য ধন্যবাদ। ৪০০০ ঘন্টার watch time হতে হবে।

      1. ইউটুবের টাকা উঠানোর জন্য ডাচবাংলা ব্যাংকের ATM কার্ড দিয়ে ব্যবহার করা যায় কি?

        1. ATM card এর কোনো প্রয়োজন নেই। ব্যাংকার ডিটেলস দিলেই হবে।

  41. আব্দুল আলিম

    আমি যদি ইউটিউবে বিভিন্ন জনের ভিডিও দেখে জ্ঞান অর্জন করে সেই একই টপিকে নিজে পুরো ভিডিও+অডিও আমি আমার নিজের কম্পিউটার দিয়ে নিজের মত করে রেকর্ড করে আপলোড করি তাহলে কি কপিরাইট লঙ্ঘন হবে? যেমন কিভাবে মাক্রোসফট অফিস সেটাপ দিতে হয় সেটা দেখে নিজে স্কিন রের্কড করে নিজের ভয়েস দিয়ে তৈরি করব। একই ভিডিও একবার বাংলা আবার ইংরেজিতে করে আপলোড করব তাহলে কি প্রবলেম হবে?

    1. না, আপনি অবশই সেটা করতে পারবেন। আপনি অন্য ভিডিও থেকে idea বা জ্ঞান নিতে পারবেন কিন্তু তারপর সম্পূর্ণ নিজের মতো করে ভিডিও বানালে সেটাতে কোনো অসুবিধা হবেনা। অনেকেই করছেন।

  42. ৪০০০ ঘন্টা এবং ১০০০ সাস্ক্রাইবার যদি ১২ মাসের আগেই হয় তাহলে monetization এর জন্য এপ্লাই করতে পারবো না?

    1. ভাইয়া আমার ইউটিউব চ্যানেলটি ৪ ডিসেম্বর ২০১৭ তে খোলা হয়েছিলো…এমনি একটা ধারণকৃত ভিডিও আপলোড করে ছিলাম…
      কিন্তু ২০১৯ এর জানুয়ারী থেকে আমি regular ভিডিও দিচ্ছি…
      এ ক্ষেত্র কি হবে ১২ মাসের হিসাবটা ..চ্যানেলের বয়স তো ১২ মাস পার হয়ে গেছে…কিন্তু জানুয়রী থেকে যেগুলো ভিডিও দিচ্ছি সেক্ষেত্র. হিসাবটা কি হবে. ??

      1. আপনহার চ্যানেলে ১২ মাসের ভেতরে হওয়া ভিউর সংখ্যা ধরা হবে। ১২ মাসের ভেতরে টোটাল ৪০০০ মিনিট ভিউ হতে হবে।

    2. দাদা, কিছুদিন আগে এক গ্রুপে একটা পোস্ট দেখলাম যে, আমার চ্যানেলের ভিডিও লিংক যদি আমি কাউকে দি অথবা ফেসবুক instragram এ শেয়র দিই তবে সেক্ষেত্রে নাকি ঐ video এর watch time count হবেনা?,
      কথাটা কি সত্য?

      1. হে, ইউটিউবের নতুন নিয়ম হিসেবে আপনি আপনার ভিডিও শেয়ার করতে পারবেননা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap